• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬
“নিজের বোকামি বুঝতে পারার পর কারও দুঃখ হয়, কারও হাসি পায়”

“নিজের বোকামি বুঝতে পারার পর কারও দুঃখ হয়, কারও হাসি পায়”

বিখ্যাত ভারতীয় বাঙালি ঔপন্যাসিক সমরেশ মজুমদার। তিনি ১০ মার্চ ১৯৪২, বাংলা ২৬ ফাল্গুন ১৩৪৮ সালে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বিখ্যাত কয়েকটি সাহিত্যকর্ম হচ্ছে- উত্তরাধিকার, কালবেলা, কালপুরুষ, গর্ভধারিণী, সাতকাহন, কালাপাহাড়।

বিস্তারিত
“এই পৃথিবীতে প্রায় সবাই, তার থেকে বিপরীত স্বভাবের মানুষের সঙ্গে প্রেমে পড়ে”

“এই পৃথিবীতে প্রায় সবাই, তার থেকে বিপরীত স্বভাবের মানুষের সঙ্গে প্রেমে পড়ে”

বিখ্যাত ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, নাট্যকার, গীতিকার ও চলচ্চিত্র নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ। তিনি ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। সত্তর দশক থেকে শুরু করে মৃত্যু অবধি তিনি ছিলেন বাংলা গল্প-উপন্যাসের অপ্রতিদ্বন্দ্বী কারিগর। তার সৃষ্ট হিমু, মিসির আলি ও শুভ্র চরিত্রগুলি বাংলাদেশের যুবক শ্রেণীকে গভীরভাবে উদ্বেলিত করেছে।

বিস্তারিত
“গুণময় হইলেই মানে সব ঠাঁই, গুণহীনে সমাদর কোনোখানে নাই’’

“গুণময় হইলেই মানে সব ঠাঁই, গুণহীনে সমাদর কোনোখানে নাই’’

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর ১৮২০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ সেপ্টেম্বর বর্তমান পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বীরসিংহ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার প্রকৃত নাম ঈশ্বরচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। সংস্কৃত ভাষা ও সাহিত্যে অগাধ পাণ্ডিত্যের জন্য তিনি বিদ্যাসাগর উপাধি লাভ করেন। বাংলা গদ্যের প্রথম সার্থক রূপকার তিনি। জনপ্রিয় শিশুপাঠ্য বর্ণপরিচয়সহ একাধিক পাঠ্যপুস্তক, সংস্কৃত ব্যাকরণ গ্রন্থ রচনা করেছেন তিনি। সংস্কৃত, হিন্দি ও ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করেছেন সাহিত্য ও জ্ঞান-বিজ্ঞান সংক্রান্ত বহু রচনা।

বিস্তারিত
“অতীত ও ভবিষ্যতের মাঝে দাঁড়িয়ে যে সংগ্রাম হয়, তার নাম বিপ্লব”

“অতীত ও ভবিষ্যতের মাঝে দাঁড়িয়ে যে সংগ্রাম হয়, তার নাম বিপ্লব”

কিউবার রাজনৈতিক নেতা ও সমাজতন্ত্রী বিপ্লবী ফিদেল আলেসান্দ্রো কাস্ত্রো রুজ। তিনি ১৯২৬ সালের ১৩ আগস্ট তৎকালীন পূর্ব কিউবার ওরিয়েন্ট প্রদেশে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ফিদেল কাস্ত্রো বা শুধুই কাস্ত্রো নামে বেশি পরিচিত।  কিউবা বিপ্লবের প্রধান নেতা ফিদেল কাস্ত্রো ফেব্রুয়ারি ১৯৫৯ থেকে ডিসেম্বর ১৯৭৬ পর্যন্ত কিউবার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

বিস্তারিত
“বিয়ের অনেক জ্বালা, কিন্তু চিরকৌমার্যে কোন সুখ নেই”

“বিয়ের অনেক জ্বালা, কিন্তু চিরকৌমার্যে কোন সুখ নেই”

ইংরেজি ভাষার বিখ্যাত কবি, সমালোচক, প্রাবন্ধিক ও অভিধান প্রণেতা ড. স্যামুয়েল জনসন। তিনি ১৭০৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের লিচফিল্ডে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৭৫৫ সালে ইংরেজি ভাষার প্রথম অভিধান ‘অ্যা ডিকশনারি অব দ্য ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ’ প্রকাশ করেন। তার স্মরণে প্রতি বছর প্রদান করা হয় স্যামুয়েল জনসন পুরস্কার।

বিস্তারিত
উদর যখন শূন্য থাকে...

উদর যখন শূন্য থাকে...

সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান ভ্লাদিমির ইলিচ উলিয়ানভ ওরফে লেনিন ১৮৭০ সালের ২২শে এপ্রিল রাশিয়ার মহানদী ভলগার তীরে সিমবির্স্ক (বর্তমানে উলিয়ানভস্ক) শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন মার্কসবাদী রুশ বিপ্লবী এবং কমিউনিস্ট রাজনীতিবিদ। লেনিনকে বিংশ শতকের অন্যতম প্রধান ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচনা করা হয়। মার্ক্সবাদ-লেনিনবাদ তত্ত্বের প্রবক্তা হিসেবেও তিনি বিশ্বের রাজনৈতিক ইতিহাসে পরিচিত। লেনিন আন্তর্জাতিক সাম্যবাদী আন্দোলনের অন্যতম প্রধান ব্যক্তিত্ব।

বিস্তারিত
"নম্রতা ও ভদ্রতা- এই গুণ দুটি মানুষের জীবনের পুরনো ঐশ্বর্য”

"নম্রতা ও ভদ্রতা- এই গুণ দুটি মানুষের জীবনের পুরনো ঐশ্বর্য”

জন স্টুয়ার্ট মিল ১৮০৬ সালের ২০ মে ইংল্যান্ডের লন্ডন শহরের কাছে পেন্টনভিল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ঊনবিংশ শতকের সবচেয়ে প্রভাব বিস্তারকারী ইংরেজ দার্শনিক। নারী–পুরুষের সমানাধিকারের ব্যাপারে তিনি ছিলেন সোচ্চার। তিনিই প্রথম পার্লামেন্টে নারীর ভোটাধিকারের প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন।

বিস্তারিত
"বয়স বাড়ার সাথে সাথে স্বামী-স্ত্রী হয় আরও কাছে চলে আসে, না হয় দূরে সরে যায়”

"বয়স বাড়ার সাথে সাথে স্বামী-স্ত্রী হয় আরও কাছে চলে আসে, না হয় দূরে সরে যায়”

মণিশংকর মুখোপাধ্যায় ১৯৩৩ সালের ৭ ডিসেম্বর ভারতের বনগাঁতে জন্মগ্রহণ করেন। এই ভারতীয় বাঙালি লেখক শংকর ছদ্দনাম ব্যবহার করেন। তার প্রথম বই প্রকাশিত হয় ১৯৫৫ সালে। তাঁর রচিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হল চৌরঙ্গী, সীমাবদ্ধ এবং জন অরণ্য। এই তিনটি বই নিয়ে চলচ্চিত্রও নির্মিত হয়েছে। এছাড়াও তিনি রসবতী, বঙ্গ বসুন্ধরা, চরণ ছুঁয়ে যাই, মনজঙ্গল, রূপতাপস, মরুভূমি, আশা-আকাঙ্খা, তীরন্দাজ, পটভূমি, কামনা বাসনা, অনেক দূর, সুখ সাগরসহ অনেক বই রচনা করেন।

বিস্তারিত
“যুদ্ধের নির্ধারক উপাদান অস্ত্র নয়, মানুষ”

“যুদ্ধের নির্ধারক উপাদান অস্ত্র নয়, মানুষ”

মাও সে তুং ১৮৯৩ সালের ২৬ ডিসেম্বর চীনের হুনান প্রদেশের শাং তান জেলার শাউ শাং চুং গ্রামের কৃষক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন চীনা বিপ্লবী মার্কসবাদী তাত্ত্বিক ও রাজনৈতিক নেতা। গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের প্রতিষ্ঠাতাও তিনি। ১৯৪৯ সালে সমাজতন্ত্রী চীনের প্রতিষ্ঠার পর থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি চীন শাসন করেন। মার্কসবাদ-লেনিনবাদে তার তাত্ত্বিক অবদান, সমর কৌশল এবং তার কমিউনিজমের নীতি এখন একত্রে মাওবাদ নামে পরিচিত।

বিস্তারিত
“বিনয় উন্নতির পথে প্রধান সোপান”

“বিনয় উন্নতির পথে প্রধান সোপান”

আবু মুহাম্মদ মোশাররফ উদ্দিন বিন মোসলেহ উদ্দিন আবদুল্লাহ সাদি সিরাজি ওরফে শেখ সাদি ১২১০ খ্রিষ্টাব্দে ইরানের সুপ্রসিদ্ধ ‘সিরাজ’ নগরীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন মধ্যযুগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ফার্সি কবি।

বিস্তারিত