ইমরুলের ‘জিনিস’টা আনবেন তো হাথুরু?

0
14

সংবাদ সম্মেলন শেষ ভেবে ইমরুল কায়েস প্রায় উঠেই যাচ্ছিলেন। দলের মিডিয়া ম্যানেজার ইশারা করলেন, আরও একটি প্রশ্ন আছে। প্রশ্নটা আর কিছু নয়। গত কদিনে এই প্রশ্নটি বাংলাদেশ দলের প্রায় সব খেলোয়াড়কেই করা হয়েছে। ইমরুলও বাদ পড়বেন কেন! কোচ চণ্ডিকা হাথুরুসিংহের পদত্যাগে প্রতিক্রিয়া কী?

এ প্রশ্নে খেলোয়াড়দের কেউ কূটনৈতিক উত্তর দিয়েছেন, কেউ বা হাথুরুকে মিস করার কথা বলেছেন। কিন্তু ইমরুল যে উত্তর দিলেন, সেটি যেমন ব্যতিক্রম, তেমনি সরস, ‘আমি তো কোচকে একটা জিনিস আনার কথা বলেছিলাম। আমি এ কারণে হতাশ, আমার জিনিসটা আসবে কি না…।’
জবাবটা দেওয়ার সময় ইমরুলের মুখের স্মিত হাসি সংক্রমিত হয় পুরো সংবাদ সম্মেলন কক্ষে। তা হাথুরুকে কী আনতে বলেছিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বাঁহাতি এ ওপেনার? ইমরুলের হাসি যেন শেষই হতে চায় না, ‘ক্রিকেটের একটা “জিনিস” আনার জন্য বলছিলাম। উনি যদি না আসেন (বাংলাদেশে), আমার জিনিস তো মিস হয়ে যাবে! দেখি ওনাকে বার্তা পাঠাব।’
সংবাদ সম্মেলন শেষে ড্রেসিংরুমে ফেরার পথে ইমরুল জানালেন, হাথুরুকে আসলে ‘থাই প্যাড’ আনতে বলেছিলেন। বাংলাদেশ দলের পদত্যাগী শ্রীলঙ্কান কোচ সপরিবারে থাকেন সিডনিতে। তবে এই মুহূর্তে তিনি নাকি কলম্বোয়। পদত্যাগের বিষয়ে চূড়ান্ত কথা বলতে দু-এক দিনের মধ্যে ঢাকায় আসার কথা হাথুরুর।
আজ ইমরুলের হাসিখুশি চেহারাটা যেন পুরো দলেরই প্রতিচ্ছবি। গতবার যে কুমিল্লা নিজেদের প্রথম জয় পেয়েছিল ষষ্ঠ ম্যাচে গিয়ে। এবার তারাই চার ম্যাচের টানা তিনটিতেই জিতেছে। টুর্নামেন্টের শুরু থেকে দেখা যাচ্ছে অন্য কুমিল্লাকে। দলের এই টানা সাফল্যের কিছু কারণ বললেন চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ৪৫ রান করা ইমরুল, ‘গতবার দলে অনেক সমস্যা ছিল। সমন্বয়ের সমস্যা ছিল। কাকে খেলাবে, কাকে খেলাবে না, সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হচ্ছিল। ঠিক জায়গায় ঠিক খেলোয়াড় খেলাতে পারিনি আমরা। এবার এ সমস্যাটা নেই। জানেন নিশ্চয়ই, আমাদের বোলিং আক্রমণ অনেক শক্তিশালী, ব্যাটিংটাও ভালো হচ্ছে। এ বছর আমাদের ভাবনাটা ভিন্ন। এ কারণে হয়তো ফলটা ভালো হচ্ছে।’
ইমরুল যে ‘ভিন্ন ভাবনা’র কথা বললেন, তাতে পরিষ্কার, শিরোপা জয়ের প্রতিজ্ঞা নিয়েই এগোচ্ছে কুমিল্লা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here