• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬

‘এক-দুই সন্তান নীতি’ প্রত্যাশা ও প্রভাব

‘এক-দুই সন্তান নীতি’ প্রত্যাশা ও প্রভাব

সাঈদা জাহান২২ জানুয়ারি ২০২০, ১০:৫০এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

চীনের one-child policy (এক সন্তান নীতি) সম্পর্কে আমরা মোটামুটি সবাই জানি। জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে চীনে ১৯৭৯ সালে এই নীতি চালু হয়। এই নীতি পৃথিবীর বৃহৎ জনসংখ্যার দেশ চীনকে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে ‘লিঙ্গ ভারসাম্যহীনতা’ উপহার দিয়েছে! যার ফলে ২০১৫ সালে সেই নিয়ম ভেঙে দেয় চীনা সরকার।

এই ‘এক সন্তান নীতি’ ৪-২-১ সমস্যারও জনক। ৪-২-১ সমস্যা হচ্ছে- একজন বাচ্চা তার বয়স্ক দুই বাবা-মা (এখানে বাবা-মা এক সন্তান নীতির ফলে উনারা তাদের বাবা মার একমাত্র বাচ্চা) এবং চার গ্র্যান্ড পেরেন্টস (নানা-নানী ও দাদা-দাদী) সবাইকে দেখে রাখার একমাত্র অবলম্বন। যেহেতু তার অন্য কোনো ভাইবোন নেই এই বয়স্ক মানুষদের দেখভাল করতে।

আমাদের দেশে যদিও এ রকম কোনো নীতি নেই, তারপরও সবার মাঝে ছেলেমেয়ে যাইহোক- দুটো বাচ্চা নেয়ার একটি সুপ্ত চাপ বিদ্যমান। যেমন ধরা যাক, চাকুরীজীবী মায়েদের জন্য মাত্র দুইটি মাতৃত্বকালীন ছুটি বরাদ্দ দেয়া। আর বাবাদের তো তাও নেই।

অথচ ছোট বাচ্চা বড় করাতো চাট্টিখানি কথা নয়- তাই উচ্চশিক্ষা শেষে ক্যারিয়ারের চাপ সামলানো ক্লান্ত মায়েদের আর বেশি বাচ্চা নেয়ার এনার্জিও থাকে না।

এতে করে যে সমস্যা হচ্ছে, তা নিয়ে নিজের একটা উদাহরণ দেই- পরে সবাই যার যার জীবনের সঙ্গে মিলিয়ে নিতে পারবেন।

আমার দাদী-নানী কেউই চাকুরী করতেন না এবং খুবই অল্প বয়সে (দাদীর ১২ বছর বয়সে) উনাদের বিয়ে হয়েছিল। আলহামদুলিল্লাহ্‌ আমার মামা, খালা, চাচা থাকলেও কোনো ফুফু নেই। এরপর আসলো আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম। আমার মেয়ের কোনো ফুফু কিংবা খালা নেই।

এবার যদি আমরা ভবিষ্যতের দিকে তাকাই তাহলে দেখবো, এই ‘এক-দুই সন্তান নীতি’ প্রত্যাশার জাঁতাকলে আমাদের নাতি-নাতনিদের প্রজন্মের বেশির ভাগের কপালেই মামা কিংবা চাচা কিংবা খালা কিংবা ফুফু না থাকার সম্ভাবনাই বেশি। তবে, সমাজের বেশির ভাগ মানুষের জন্য এই দশা হওয়া দুঃখজনক।

আমাদের তিন ভাইবোনের নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে বেড়ে উঠার পিছনে আমাদের মামা-খালাদের বিরাট অবদান রয়েছে। যেটা আমাদের বাচ্চাদের পাওয়ার আর সুযোগ নেই।

অভিভাবক বিশেষজ্ঞদের মতে, একটা বাচ্চার মানসিক বিকাশের জন্য প্রসবকালীন ও পৈতৃক মামা কিংবা চাচা থাকার গুরুত্ব অপরিসীম।

ছহীহ আবু দাউদের এক হাদিসের বর্ণনা অনুযায়ী “খালা মায়ের মতো একই মর্যাদার।”

বর্তমানে আমরা দেখতে পাচ্ছি, বিশ্বব্যাপী পারিবারিক বন্ধনের ভালোবাসার অভাবে তরুণ প্রজন্ম একাকী বেড়ে উঠছে। যার ফলে তারা শারীরিক ও মানসিক বিকাশে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। এর পেছনে আমাদের ‘এক-দুই সন্তান নীতি’ প্রত্যাশার প্রভাব কোনো অংশেই কিন্তু কম নয়।

লেখক: সাঈদা জাহান তানিয়া, গবেষণা সহযোগী, সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

 

টাইমস/জিএস

রাজধানীতে চলাফেরায় নতুন যে নির্দেশনা দিল পুলিশ

রাজধানীতে চলাফেরায় নতুন যে নির্দেশনা দিল পুলিশ

জনসাধারনের অবাধ চলাচলে পুলিশের অতিরিক্ত কঠোর আচরণের সমালোচনার কারণেই নতুন

আক্রান্ত ৬ লাখ : মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়াল

আক্রান্ত ৬ লাখ : মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়াল

মহামারী করোনাভাইরাস। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের উন্মাদ থাবায় প্রতিদিন ঝরে পড়ছে

এলাকাবাসীর বিক্ষোভে করোনা হাসপাতালের নির্মাণকাজ বন্ধ

এলাকাবাসীর বিক্ষোভে করোনা হাসপাতালের নির্মাণকাজ বন্ধ

করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় রাজধানী ঢাকার তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে আকিজ গ্রুপের

জাতীয়

যে পাঁচ পেশাজীবীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন মাশরাফি

যে পাঁচ পেশাজীবীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন মাশরাফি

মাশরাফির দৃষ্টিতে এই নাজুক পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকি নিয়ে মানুষের জন কাজ করছেন- চিকিৎসক, নার্স, আইনশৃংখলাবাহিনী, সেচ্ছাসেবক ও গণমাধ্যমকর্মীরা। আর তাই এই পাঁচ শ্রেণির পেশাজীবীদের তিনি হ্যাড খোলা (টুপি) কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

জাতীয়

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনায় আক্রান্ত

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনায় আক্রান্ত

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুই নারী যুক্তরাষ্ট্র ফেরত দুই প্রবাসীর সংস্পর্শে ছিলেন বলে জানা গেছে। এঘটনার পরে সাদুল্যাপুরে ১৫টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

জাতীয়

সিরাজগঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপ: কারাগারে স্বামী

সিরাজগঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপ: কারাগারে স্বামী

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপের মামলায় স্বামীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গুরুতর দগ্ধ গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার এ ঘটনা ঘটে।

জাতীয়

মনিরামপুরের সেই এসি ল্যান্ডকে প্রত্যাহার

মনিরামপুরের সেই এসি ল্যান্ডকে প্রত্যাহার

মাস্ক না পড়ায় বৃদ্ধদের কান ধরে ওঠবস করানো যশোরের মনিরামপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

জাতীয়

সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে প্রাণ গেল পাঁচজনের

সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে প্রাণ গেল পাঁচজনের

গণপরিবহন না থাকায় সিমেন্টবোঝাই ট্রাকে করে বাড়ি ফিরতে গিয়ে প্রাণ গেছে পাঁচজনের। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১১ জন। শনিবার সকাল ছয়টার দিকে টাঙ্গাইল শহরের বাইপাস সড়কে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে বস্তার নিচে চাপা পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। হাইওয়ে পুলিশের এলেঙ্গা ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. কামাল হোসেন দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন

বিনোদন

করোনার ভয়ে যেভাবে কাটছে সজলের সময়

করোনার ভয়ে যেভাবে কাটছে সজলের সময়

ছোট ও বড় পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা আব্দুন নূর সজল। হোম কোয়ারেন্টাইনে কাটছে তার সময়। করোনার ভয়ে বাসা থেকে বেরই হচ্ছেন না তিনি।