• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬

আজ তারা, কাল হয়তো আমি কিংবা তুমি

আজ তারা, কাল হয়তো আমি কিংবা তুমি

অতিথি লেখক২৯ মার্চ ২০১৯, ০৪:২৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

চারদিকে আগুনের লেলিহান শিখা। আকাশ ঢেকে গেছে কালো ধোঁয়ায়। বাতাসে শুধু পোড়া লাশের গন্ধ। মর্গে জমা হচ্ছে সারি সারি লাশ। একের পর এক লাশ এসে শামিল হচ্ছে মৃত্যুর মিছিলে।

কেউ কেউ ছবি তুলছেন মৃত্যুপুরীর। বাঁচাও বাঁচাও আর্তনাদে প্রকম্পিত হয়ে ওঠছে আকাশ-বাতাস। কেউ কেউ নির্বাক শ্রোতা হয়ে সেই আহাজারি শুনছে। শত শত গণমাধ্যমকর্মীরা সেই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী করতে ব্যস্ত।

দমকল কর্মীদের অক্লান্ত চেষ্টার ফলে একসময় সেই ধ্বংসলীলার ইতি ঘটে। আর দিন শেষে খবরের শিরোনাম হয় ‘অবশেষে আগুন নিয়ন্ত্রণে’।

ওপরের দৃশ্যপট কোনো সিনেমার নয়। এটা বাস্তব। বাংলাদেশে রোজকার ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে আগুন লাগার ঘটনা। ঘটনা যখন ঘটে তখন সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে সাংবাদিক আর প্রশাসন সবাই ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে দোষারোপ করতে থাকি। সরকার ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি ও পরিবারকে কিছু টাকা ক্ষতিপূরণ দেবার আশ্বাস দেন। এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হবার একটি আনুষ্ঠানিকতার প্রতিশ্রুতি দেন। যে প্রতিশ্রুতি অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কেবল সম্মান রক্ষার্থে করা হয়। সংবাদ সংগ্রহ করতে করতে দিন শেষে সাংবাদিকরাও ক্লান্ত হয়ে পড়েন। ধীরে ধীরে ঘটনার রেশ কেটে যায়। আর এ নিয়ে কারো মাথা ব্যাথাও থাকে না।

তবে এসব নিয়ে কিন্তু অনেক তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। কমিটি প্রতিবেদন জমা দেয়, সুবিধা মতো দোষারোপ করে এবং সমস্যা প্রতিরোধে এক বিশাল লম্বা সুপারিশমালা তুলে ধরে। তবে সেই সুপারিশ ওই প্রতিবেদনের পাতায়ই আটকে থাকে। বাস্তবায়নের কোনো চেষ্টাও দেখা যায় না। কিছু দিন পত্রপত্রিকার শিরোনাম হবার পর সাংবাদিকরাও বিরক্ত হয়ে পড়েন। ফলে অবস্থা দাঁড়ায় এমন যে, ‘যেই লাউ সেই কদু’।

কিছুদিন পর আবারো সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। সেই কান্না, সেই আহাজারি, সেই লাশের মিছিল। আবারো সেই তদন্ত কমিটি, পারস্পরিক দোষারোপ আর প্রতিশ্রুতির সংস্কৃতি।

অথচ আমরা কখনো এটা ভাবতে পারি না যে, আজ হয়ত এই হতভাগা মানুষগুলোর মৃত্যু হয়েছে, কাল তো আপনার কিংবা আমার একই পরিণতি হতে পারে? তবে কেন আমরা এই দোষারোপ আর প্রতিশ্রুতির ন্যাক্কারজনক সংস্কৃতি থেকে বের হতে পারি না? আমাদের সমস্যাটা কোথায়? আমাদের কি এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি প্রতিরোধ করার সামর্থ্য নেই? না কি আমাদের একটু সদিচ্ছা আর মানুষের প্রতি ভালোবাসার অভাব আছে? তা না হলে কেন আমরা প্রতিনিয়ত একের পর এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সম্মুখীন হচ্ছি? আমাদের গলদ কোথায়?

পুরান ঢাকার নিমতলীর অগ্নিকাণ্ডের কথা তো সবারই মনে আছে? আর ২০ ফেব্রুয়ারি পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। যা প্রায় ৮০ জনেরও বেশি নিরীহ মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে। এর মাত্র কয়েকদিন আগে চট্টগ্রামে আরেকটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নয় জন মারা যায়।

চুড়িহাট্টা ট্রাজেডির রেশ কাটতে না কাটতেই আবার সেই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। ২৮ মার্চ বনানীর ২২ তলা ভবন এফআর টাওয়ারে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ২৫ জন মারা যায় এবং অর্ধশতাধিক মানুষ গুরুতর আহত হয়। ক্যামেরার সামনে জীবন্ত মানুষগুলো পুড়ে যাওয়ার সেই দৃশ্য আর বেঁচে থাকার আকুতি দেখলে গা শিউরে ওঠে।

অথচ দুঃখজনক হলেও সত্য আধুনিক বহুতল ভবনটিতেও ছিল সেই অব্যবস্থাপনা। একটি আধুনিক বহুতল ভবন হওয়া সত্ত্বেও সেখানে পর্যাপ্ত অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল না বলে অভিযোগ ওঠেছে। যে সামান্য ব্যবস্থাটুকু ছিল তাও কার্যকর ছিল না বলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা জানিয়েছেন। তাছাড়া ভবন নির্মাণেও নীতিমালা অনুসরণ করা হয়নি।

কিন্তু প্রশ্ন হলো- এখন কেন আমরা এরকম দোষারোপ করছি? এতে কি যারা হারিয়ে গেছে তাদের ফিরে পাওয়া যাবে? তা না হলে এতদিন এই বিষয়গুলো খতিয়ে দেখা হলো না কেন? একটি অভিজাত এলাকায় এরকম একটি আধুনিক ভবন নির্মাণে নীতিমালা মানা হয়নি, অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা  নেই- এই বিষয়গুলো কীভাবে প্রশাসন থেকে আড়াল থাকে? এর দায়ভার কি কোনো ভাবে প্রশাসন এড়াতে পারবে?

না, প্রশাসন কোনো ভাবেই এই দায়ভার এড়াতে পারে না? তাই এখনই সময়, আমি, আমরা, প্রশাসন সবাইকেই একসঙ্গে এগিয়ে আসতে হবে। এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধ করতে হবে। এবং এটা আমাদের স্বার্থেই। অন্যথায়, আজ হয়ত এই হতভাগা লোকগুলোর জীবন গেছে। কাল তো হতে পারে আমি কিংবা তুমি?

 

 

লেখক: এনামুক হক, সাংবাদিক

২২ ঘণ্টার পর সিলেট-ঢাকা রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

২২ ঘণ্টার পর সিলেট-ঢাকা রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সেতুটি ভেঙে আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার ২২ ঘণ্টা পর সিলেটের সঙ্গে সারদেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপবনের দুর্ঘটনা কবলিত পাঁচটি বগি উদ্ধার করে লাইন মেরামত শেষ হলে ট্রেন চলাচল শুরু হয়। বরমচাল স্টেশনের সহকারী মাস্টার রুম্মান আহমেদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

‘ফখরুলের আসন’ বিএনপির দখলেই রইল   

‘ফখরুলের আসন’ বিএনপির দখলেই রইল  

বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে জয় পেয়েছেন বিএনপির প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। ফলে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ না নেয়ায় শূন্য হওয়া এই আসনটি বিএনপির দখলেই রইল।

মগবাজারে ‘ক্যাফে ডি তাজ’ হোটেলে আগুন

মগবাজারে ‘ক্যাফে ডি তাজ’ হোটেলে আগুন

রাজধানীর মগবাজারের চার রাস্তার মোড়ে একটি খাবার হোটেলে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাতে ক্যাফে ডি তাজ নামের ওই হোটেলটিতে আগুন লাগে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের অপারেটর বাবুল।

জাতীয়

কুলাউড়া ট্রেন দুর্ঘটনা তদন্তে দুই কমিটি, ৩ দিনে প্রতিবেদন

কুলাউড়া ট্রেন দুর্ঘটনা তদন্তে দুই কমিটি, ৩ দিনে প্রতিবেদন

সিলেট থেকে ছেড়া আসা ঢাকাগামী ট্রেন উপবন এক্সপ্রেসের মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় দুর্ঘটনার কবলে কারণ জানতে সোমবার পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। আর এই দুই কমিটিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করতে হবে।

জাতীয়

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত, নিখোঁজ তিন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত, নিখোঁজ তিন

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাখের আলী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে দুই বাংলাদেশি রাখাল নিহত হয়েছেন। রোববার দিনগত রাতে সীমান্তপথে তারা গরু আনতে ভারতে যান। গরু নিয়ে ফেরার পথে রাত পৌনে ২টার দিকে বিএসএফ বাংলাদেশি রাখালদের ওপর গুলিবর্ষণ করলে তারা ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

জাতীয়

‘ভৌগলিক কারণে বাংলাদেশ মাদক সমস্যায় পড়েছে’

‘ভৌগলিক কারণে বাংলাদেশ মাদক সমস্যায় পড়েছে’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ভৌগোলিক কারণেই বাংলাদেশকে মাদক নিয়ে সমস্যা পোহাতে হচ্ছে। বাংলাদেশ মাদক উৎপাদনকারী দেশ না হয়েও ভৌগোলিক কারণে মাদক সমস্যায় পড়েছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত ও মিয়ানমার থেকে আমাদের দেশে অবৈধ মাদক প্রবেশ করে।

জাতীয়

রাজশাহীতে শ্বশুরবাড়ির ‘সম্মান’ না পেয়ে জামাতার আত্মহত্যা!

রাজশাহীতে শ্বশুরবাড়ির ‘সম্মান’ না পেয়ে জামাতার আত্মহত্যা!

শ্বশুরবাড়ির লোকজন অন্য জামাতাদের মতো উপযুক্ত সম্মান দিয়ে দাওয়াত না দেয়ায় বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছেন এক ব্যক্তি। রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় রোববার সন্ধ্যার এ ঘটনায় সোমবার একটা অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

বিনোদন

কণ্ঠশিল্পী মিলাকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা

কণ্ঠশিল্পী মিলাকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা

জনপ্রিয় পপশিল্পী মিলার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। রোববার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৯ এই পরোয়ানা জারি করেন। ২০১৭ সালে মিলা তার সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলা করেন। মামলাটির চার্জ গঠন হয় ২০১৮ সালে।

বিনোদন

নতুন ঘোষণা শাকিবের

নতুন ঘোষণা শাকিবের

চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়ক সুপারস্টার শাকিব খান। গেলো ঈদে মুক্তি পেয়েছে তার দুইটি সিনেমা। মালেক আফসারী পরিচালিত ‘পাসওয়ার্ড’ ও সাকিব সনেট পরিচালিত ‘নোলক’। ছবি দুটো এরই মধ্যে প্রেক্ষাগৃহে দারুণ সাড়া ফেলেছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার কিং খান শুরু করতে যাচ্ছেন আরো চারটি সিনেমার কাজ।