• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬

'প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস'-প্রকৃতির প্রতিশোধ

'প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস'-প্রকৃতির প্রতিশোধ

ফিচার ডেস্ক০২ মে ২০১৯, ০৬:৩৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আমরা নিত্য-নতুন প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি হচ্ছি। জেনে কিংবা না জেনে উদ্ভিদের ক্ষতি সাধন করছি। যার প্রত্যক্ষ প্রভাব পড়ছে আবহাওয়া-প্রকৃতিতে। আর পরোক্ষভাবে মানব স্বাস্থ্য শিকার হচ্ছে মারাত্মক ক্ষতির। বিজ্ঞানীরা এ অবস্থার নাম দিয়েছেন 'প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস'। মূলত প্লান্ট ব্লাইন্ডনেস বলতে আমাদের চারপাশে যেসব উদ্ভিদ রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে আমাদের যে অবমূল্যায়ন প্রবণতা রয়েছে তাকে বুঝায়। এই ব্লাইন্ডনেস বা অন্ধত্ব পরিবেশ ও মানব স্বাস্থ্যের জন্য ধ্বংসাত্মক হতে পারে।

আপনি সর্বশেষ কোন প্রাণীটি দেখেছিলেন? আপনার কি ঐ প্রাণীটির রং, আকার-আকৃতি মনে আছে? আপনি কি অন্য প্রাণী থেকে সেটিকে আলাদা করতে পারবেন? 

অথবা যদি বলা হয় আপনার দেখা সর্বশেষ গাছ কোনটি?

প্রাণীর ক্ষেত্রে আপনার মানসিক চিত্রটি যদি গাছের তুলনায় তীক্ষ্ণ হয়, তবে এমন আপনি একা নন। গাছের জীবন আছে - এটি বুঝতে পারার আগেই শিশুরা প্রাণীর জীবন আছে - তা বুঝতে পারে। স্মৃতি পরীক্ষায় দেখা গেছে যে গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা গাছের ছবির চেয়ে প্রাণীর ছবি ভালভাবে মনে রাখতে পারে। যেমন - 'এটেনশনাল ব্লিঙ্ক' নামক যুক্তরাষ্ট্রের একটি পরীক্ষায় গাছপালা, প্রাণী ও অসম্পর্কিত বস্তু ব্যবহার করা হয়েছে যা দ্বারা অল্প সময়ের মধ্যে দেখানো দুইটি ছবি পৃথকভাবে দেখতে পারার ক্ষমতাকে বুঝায়। এই গবেষণায় দেখা গেছে অংশগ্রহণকারীরা গাছের চেয়ে প্রাণীর ছবি ভালভাবে চিনতে পেরেছেন। 

এই প্রবণতা এতই বেশি যে ১৯৯৮ সালে দুইজন আমেরিকান উদ্ভিদবিদ ও জীববিজ্ঞান শিক্ষক এলিজাবেথ শুসলার এবং জেমস্ ওয়ান্ডারসি একটি নতুন নাম উদ্ভাবন করেন - 'প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস'। তারা এটিকে বলেছেন- ‘প্রকৃতিতে কারো গাছপালা দেখতে পাবার অক্ষমতা’। 

প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস স্বাভাবিকভাবেই উদ্ভিদের অবমূল্যায়ন ঘটায় এবং উদ্ভিদ সংরক্ষণের প্রতি আমাদের উদাসীন করে তোলে। উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিষয়ক পাঠদান দুনিয়াজুড়ে উদ্বেগজনকভাবে কমছে এবং উদ্ভিদ বিজ্ঞানের জন্য সরকারী অনুদানও কমছে। প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেসের মাত্রা এবং সময়ের সাথে এর পরিবর্তনের উপর গবেষণা না করার দরুণ অধিক নগরায়ণ ও যন্ত্রের সাথে সময় কাটানোর কারণে প্রকৃতি থেকে বিচ্ছিন্নতা ব্যাধি বাড়ছে। সেই সাথে উদ্ভিদের প্রতি কম মনোযোগ দেওয়ায় প্ল্যান্ট ব্লাইন্ডনেস বাড়ছে। শুসলারের মতে, ‘মানুষ যা আগে থেকে জানে, শুধুমাত্র সেটাই চিনতে পারে।’ 

এটি গোলমেলে। উদ্ভিদ সংরক্ষণ পরিবেশের স্বাস্থ্যের জন্য যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি মানব স্বাস্থ্যের জন্যেও গুরুত্বপূর্ণ। 

উন্নত জাতের খাদ্যশস্য থেকে অধিক কার্যকর ঔষধ, উদ্ভিদ গবেষণা বহু যুগান্তকারী বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের অংশ। ২৮,০০০ এরও অধিক উদ্ভিদ ঔষধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় যার মধ্যে আছে উদ্ভিদজাত ক্যান্সার প্রতিষেধক ঔষধ ও রক্ত মৃদুকারক। 

উদ্ভিদের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে যে,উদ্ভিদের পরীক্ষাগুলি পশু পরীক্ষার কিছু প্রকারের উপর একটি নৈতিক প্রভাব ফেলে। জিনোম সম্পাদনার মত এলাকার বহুমুখী কৌশল উদ্ভিদের সাহায্যে পরিমার্জিত করা যেতে পারে যা প্রজনন ও নিয়ন্ত্রণে সহজ এবং সস্তা। উদাহরণস্বরূপ, জীববিজ্ঞানের গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ ফুলিং উদ্ভিদ, আরিবিডোপিসের জিনোম ক্রমসেনসিং শুধুমাত্র উদ্ভিদ জেনেটিক্স নয়, তবে সাধারণভাবে জিনোমের ক্রমানুসারে এটি একটি ল্যান্ডমার্ক ছিল।

প্রকৃতপক্ষে, উইলিয়ামের গবেষণায় দেখানো হয়েছে যে, মানুষের মধ্যে যে স্বাভাবিক বৈশিষ্ট্যগুলো রয়েছে সেগুলোর জন্যও উদ্ভিদের বিভিন্ন প্রজাতির সংরক্ষণ জরুরি। কেননা উদ্ভিদের সংরক্ষণ মানেই প্রাণীর সংরক্ষণ। এ গবেষক আশা করেন উদ্ভিদের প্রতি মানুষের সমর্মিতা বাড়বে। তার মতে, ‘ এটা মোটেও অসম্ভব নয়’।

বিশ্বব্যা্পী জনসংখ্যা বৃদ্ধি, মিঠা পানির সংকট, কৃষি ভূমি হ্রাস, এবং জলবায়ু পরিবর্তনের মতো বিষয়গুলোর কারণে বিশ্বের খাদ্য সরবরাহ আগের চেয়ে বেশি প্রতিকূলতার মুখোমুখি। জৈব জ্বালানি গবেষণার মাধ্যমে, উদ্ভিদ নবায়নযোগ্য শক্তির সম্ভাব্য উৎস হিসাবে গুরুত্বপূর্ণ। তার মানে হলো,আমাদের সবুজ বান্ধব হতে হবে। আমাদের ভবিষ্যতের জন্যই নতুন নতুন উদ্ভাবন শিখতে হবে। যাতে সবুজের সুরক্ষা হয়।

 

ইন্টারনেট অবলম্বনে লিখেছেন: সওগাত আশরাফ খান।

 

টাইমস/এমএস

 

জাবির প্রক্টর ও অন্তরের অডিওতে যা আছে...

জাবির প্রক্টর ও অন্তরের অডিওতে যা আছে...

সদ্য ফাঁস হওয়া অডিও বার্তায় জাবির প্রক্টর ফিরোজ-উল-আলম ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হামজা রহমান অন্তরের কথোপকথন রয়েছে। হামজা নিজেই এই ফোনালাপ ফাঁস করেন। এ ব্যাপারে আগে থেকে জানিয়েছিলেনও তিনি। ফলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে কৌতূহলের সৃষ্টি হয়।

ঢাবি সিনেট থেকে অব্যাহতি চেয়ে শোভনের চিঠি

ঢাবি সিনেট থেকে অব্যাহতি চেয়ে শোভনের চিঠি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) সিনেটের ছাত্র প্রতিনিধি থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার চেয়ে উপাচার্য বরাবর চিঠি দিয়েছেন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

জাবির সেই চাঁদার টাকা হয় হরিলুট, অন্তরের খোলা চিঠি

জাবির সেই চাঁদার টাকা হয় হরিলুট, অন্তরের খোলা চিঠি

কথপোকথনের এক পর্যায়ে হামজা রহমান অন্তরকে বলতে শোনা যায়, ক্যাম্পাসের ৪৪-৪৫ ব্যাচ পর্যন্ত টাকা পাইছে, আমি এটা গোপন রাখার কী আছে স্যার?....স্যার আপনি যদি চান, আমি আপনাকে প্রমাণ দেখাতে পারবো, ৪৪-৪৫ ব্যাচও টাকা পাইছে।

জাতীয়

প্রাথমিকে শিক্ষকপদে উত্তীর্ণদের যা করতে হবে

প্রাথমিকে শিক্ষকপদে উত্তীর্ণদের যা করতে হবে

উত্তীর্ণ প্রার্থীগণকে অনলাইনে আবেদনের আপলোডকৃত ছবি, আবেদনের কপি,লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র,নাগরিকত্ব সনদ এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রসহ মুক্তিযোদ্ধা সনদ,মুক্তিযোদ্ধার সাথে সম্পর্ক সনদ,প্রযোজ্য ক্ষেত্রে এতিম সংক্রান্ত সনদ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কমপক্ষে ৯ম গ্রেডের গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর-২০১৯ অফিস চলাকালে নিজ নিজ জেলায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে জমা দিয়ে স্বীকারপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

রাজনীতি

ক্ষমা চেয়ে ফেসবুকে গোলাম রাব্বানীর স্ট্যাটাস   

ক্ষমা চেয়ে ফেসবুকে গোলাম রাব্বানীর স্ট্যাটাস  

চাঁদাবাজিসহ নানা অনিয়মের দায়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে বরখাস্ত হওয়া গোলাম রাব্বানী নিজের কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত হয়ে কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। সোমবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেয়া স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কাছে ক্ষমা চান রাব্বানী। পোস্টে নিজের ভুলত্রুটির জন্য অনুতপ্ত বলে উল্লেখ করেছেন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

খেলাধুলা

সৌম্যসহ চারজন বাদ, ফিরেছেন রুবেল-শফিউল

সৌম্যসহ চারজন বাদ, ফিরেছেন রুবেল-শফিউল

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচের জন্য দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। তাতে সৌম্য সরকারসহ চারজন দল থেকে বাদ পড়েছেন। আর নতুন করে দল অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন পাঁচজন। বাদ পড়াদের মধ্যে সৌম্য সরকার ছাড়াও রয়েছেন মেহেদী হাসান, ইয়াসিন মিশু ও আবু হায়দার রনি।

জাতীয়

ডেঙ্গু জ্বরে খুলনা মেডিকেলে আট মাসের শিশুর মৃত্যু

ডেঙ্গু জ্বরে খুলনা মেডিকেলে আট মাসের শিশুর মৃত্যু

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে রাফিত নামে আট মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাত ১২টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা যায়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

এফআরবিস শনাক্ত: সত্যিই কি ভিনগ্রহীরা সংকেত পাঠাচ্ছে?

এফআরবিস শনাক্ত: সত্যিই কি ভিনগ্রহীরা সংকেত পাঠাচ্ছে?

হলিউড সিনেমা বা সাইন্সফিকশন গল্পে প্রায়ই এলিয়েনের দেখা মেলে। তবে পৃথিবীর বাইরে সত্যিই প্রাণের অস্তিত্ব আছে কিনা, সে এক অজানা রহস্য। এই রহস্য সমাধানে বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

স্বাস্থ্য

মনোযোগ বৃদ্ধি করে যেসব খাবার

মনোযোগ বৃদ্ধি করে যেসব খাবার

অস্বীকার করার উপায় নেই যে আমরা যখন বৃদ্ধ হয়ে যাই, সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দেহও বার্ধক্যে উপনীত হয়। তবে, আনন্দের খবর হলো একটু হিসেব করে দৈনন্দিন জীবনের খাদ্যাভাস নির্বাচন করলে আমরা নিজেদের মস্তিষ্ক সুস্থ রাখতে পারি।