• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

এক নজরে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ

এক নজরে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ

স্পোর্টস ডেস্ক০১ জুন ২০১৯, ০৫:৫৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে শুরু হয়েছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯। এতে অংশ নিয়েছে সেরা ১০টি দল। আর সেনাপতির মতো সামনে থেকে দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন অধিনায়কেরাও। অন্যান্য যেকোনো খেলার চেয়ে ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ক্রিকেটের অধিনায়কেরা দলকে বেশি প্রভাবিত করতে পারেন।

আসুন সংক্ষেপে জেনে নিই অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক অ্যারন জেমস ফিঞ্চের কথা।

অ্যারন জেমস ফিঞ্চকে অ্যারন ফিঞ্চ নামেই সবাই চিনে। ১৭ নভেম্বর ১৯৮৬ সালে তিনি অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া প্রদেশের কোল্যাকে জন্মগ্রহণ করেন।

অস্ট্রেলীয় জাতীয় দল ছাড়াও তিনি বর্তমানে ভিক্টোরিয়া ও মেলবোর্ন রেনেগ্যাডস ক্লাবে খেলছেন।

খেলোয়াড়ি জীবন: ডানহাতি ব্যাটসম্যান ফিঞ্চ সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে।

তারপর ২০০৯/১০ সালে নিজ রাজ্যদল ভিক্টোরিয়ার পক্ষে খেলার সুযোগ পান তিনি। এই ম্যাচে তাসমানিয়ার বিপক্ষে  ১০২ রান করে প্রথম সেঞ্চুরি করেন।

২০১১ সালেন ১৪ জুন মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক খেলায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরস্কার লাভ করেন।

এরপর ২০১৩ সালের ২৯ আগস্ট সাউদাম্পটনের রোজ বোল মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ৬৩ বলে ১৫৬ রান করে টোয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে নতুন রেকর্ড গড়ে ক্রিকেট বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেন ফিঞ্চ । ইনিংসটিতে ১৪টি ছক্কার মার ছিল যা একটি রেকর্ড ও ১১টি চার ছিল।

তার এই বিধ্বংসী খেলার ফলে নিউজিল্যান্ডের ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের ১২৩ রানের পূর্বেকার রেকর্ডটি ম্লান হয়ে যায়।

ক্রিকেট বিশ্বকাপে অভিষেক: ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ ১১ জানুয়ারি ১৫-সদস্যের যে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে। সেখানে অন্যতম সদস্য হিসেবে ফিঞ্চ এর নাম ছিল।

এছাড়াও ২০১৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি গ্রুপপর্বে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম খেলায় অংশগ্রহণ করে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে শূন্য রানে বেঁচে যান ফিঞ্চ। পরবর্তীতে তিনি ১২৮ বলে ১৩৫ রান তোলে নিজস্ব ষষ্ঠ ওডিআই সেঞ্চুয়ান বনে যান।

 

টাইমস/এএইচ/জেডটি

রূপপুর বালিশকাণ্ড: মাসুদুল আলমসহ ১৩ প্রকৌশলী গ্রেপ্তার

রূপপুর বালিশকাণ্ড: মাসুদুল আলমসহ ১৩ প্রকৌশলী গ্রেপ্তার

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বালিশ ও আসবাবপত্র কেনাকাটায় দুর্নীতির

‘এক কেজি পেঁয়াজের বিমান ভাড়া ১৫০ টাকা’

‘এক কেজি পেঁয়াজের বিমান ভাড়া ১৫০ টাকা’

জরুরি ভিত্তিতে ঘাটতি মেটাতে বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানি করতে গিয়ে

খুলনায় অনশনে অসুস্থ হয়ে পাটকল শ্রমিকের মৃত্যু

খুলনায় অনশনে অসুস্থ হয়ে পাটকল শ্রমিকের মৃত্যু

খুলনায় আমরণ অনশনে অসুস্থ হয়ে প্লাটিনাম জুট মিলের এক শ্রমিক

জাতীয়

কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

ঢাকার কেরানীগঞ্জের একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জন হয়েছে। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ জনের মৃত্যু হয়। এর আগে ঘটনাস্থল থেকে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জাতীয়

রাজশাহীতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত   

রাজশাহীতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  

রাজশাহীতে বাসের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন।

জাতীয়

বেনাপোলে নারীর কাছে মিলল ২০ হাজার মার্কিন ডলার

বেনাপোলে নারীর কাছে মিলল ২০ হাজার মার্কিন ডলার

ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় ২০ হাজার মার্কিন ডলার ও দুটি মোবাইল ফোনসহ এক নারীকে আটক করেছে বেনাপোল কাস্টমস শুল্ক গোয়েন্দা সদস্যরা।

জাতীয়

নোয়াখালীতে মাতাল অবস্থায় চার সহযোগীসহ জেলা পরিষদ সদস্য আটক

নোয়াখালীতে মাতাল অবস্থায় চার সহযোগীসহ জেলা পরিষদ সদস্য আটক

মদ্যপান করে মাতলামি করার সময় চার সহযোগী সহ নোয়াখালী জেলা পরিষদ সদস্য কামাল উদ্দিন প্রকাশকে (সিএনজি কামাল) ’আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

জাতীয়

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের লাশ

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের লাশ

মাগুরায় একই ওড়নার দুইপ্রান্তে ঝুলন্ত অবস্থায় এক গৃহবধূ ও এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে সদর উপজেলার বাটাজোড় গ্রাম থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছে পুলিশ।

স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের বীজ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের বীজ

জাম এমন একটি ফল, যা বাংলাদেশে খুবই পরিচিত। আপনি একটু লক্ষ্য করলেই হয়ত আপনার বাড়ির আঙ্গিনা বা পাড়াতে জাম গাছ পেয়ে যাবেন। জামের মৌসুমে পথে ঘাটে, বাজারে, ট্রেন-বাসে বিক্রি হয় অত্যন্ত জনপ্রিয় জাম মাখা। জাম ফল শুধু খেতেই সুস্বাদু তাই নয়, বরং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্যও এটি সমান পরিচিত।