• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

উক্তি প্রতিদিন

“যারা সত্য কথা বলেন, তারা সবার চক্ষুশূল”

“যারা সত্য কথা বলেন, তারা সবার চক্ষুশূল”

বিশ্ববিখ্যাত গ্রিক দার্শনিক প্লেটো। ৪২৭ খ্রিস্টপূর্বাব্দে গ্রিসের এথেন্সে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। প্লেটো ছিলেন দার্শনিক সক্রেটিসের ছাত্র এবং দার্শনিক এরিস্টটলের শিক্ষক। প্লেটো একাধারে গণিতজ্ঞ এবং দার্শনিক ভাষ্যের রচয়িতা হিসেবে খ্যাত। তিনিই পশ্চিমা বিশ্বে উচ্চ শিক্ষার প্রথম প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এটি ছিল এথেন্সের আকাদেমি। প্লেটো বহু গ্রন্থ রচনা করে গেছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হচ্ছে- দি রিপাবলিক, এপোলজি, ক্রিটো, ইউথ্রিফ্রন, লাইসিস, সোফিস্ট ইত্যাদি। এই মহান

“কর্মতৎপর লোকের দ্বারে ক্ষুধা ঠুকতে সাহস পায় না”

“কর্মতৎপর লোকের দ্বারে ক্ষুধা ঠুকতে সাহস পায় না”

আমেরিকার প্রতিষ্ঠাতা জনকদের একজন বেঞ্জামিন ফ্রাঙ্কলিন। তিনি ১৭০৬ সালের ৬ জানুয়ারি ম্যাসাচুসেটসের বোস্টনে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে লেখক, চিত্রশিল্পী, রাজনীতিবিদ, রাজনৈতিক, বিজ্ঞানী, সঙ্গীতজ্ঞ, উদ্ভাবক, রাষ্ট্রপ্রধান, কৌতুকবিদ, গণআন্দোলনকারী ও কূটনীতিক ছিলেন।

“চন্দ্রের যা কলঙ্ক সেটা কেবল মুখের উপরে, তার জ্যোৎস্নায় কোনো দাগ পড়ে না”

“চন্দ্রের যা কলঙ্ক সেটা কেবল মুখের উপরে, তার জ্যোৎস্নায় কোনো দাগ পড়ে না”

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৭ মে ১৮৬১ সালে ভারতের কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। একাধারে তিনি ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক। তাঁকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়।

“মানুষ-জাতি তাদের কল্পনার দ্বারা শাসিত হয়ে থাকে"

“মানুষ-জাতি তাদের কল্পনার দ্বারা শাসিত হয়ে থাকে"

নেপোলিয়ান বোনাপোর্ট ছিলেন ফ্রান্সের বিখ্যাত সেনাপতি ও সম্রাট। ইউরোপীয় ইতিহাসের সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের একজন। তার রাজত্বকালেই ফ্রান্স ইউরোপের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়। তাকে বলা হয় ‌‘ফরাসি বিপ্লবের শিশু’। নেপোলিয়ান ১৭৬৯ সালের ১৫ আগস্ট ইতালির কর্সিকা দ্বীপে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ফ্রান্সে সামরিক প্রশিক্ষণ নেন এবং প্রথম ফ্রান্স প্রজাতন্ত্রে বেড়ে ওঠেন।

‍“যে অলস, অলব্ধ-লাভ তার হয় না”

‍“যে অলস, অলব্ধ-লাভ তার হয় না”

ইতিহাসে যে কজন প্রাচীন পণ্ডিত অমর হয়ে আছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন চাণক্য (খ্রিস্টপূর্ব ৩৭০-২৮৩ অব্দ)। এই উপমহাদেশ তো বটেই সারা বিশ্বে তাকে অন্যতম প্রাচীন ও বাস্তববাদী পণ্ডিত মনে করা হয়। তাকে কৌটিল্য বা বিষ্ণুগুপ্ত নামেও অভিহিত করা হয়। চাণক্যের জন্ম নিয়ে রয়েছে মতান্তর। কারো মতে, তার জন্ম পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের তক্ষশীলায়। আবার কারো মতে, তিনি চনক নামে একটি গ্রামের ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

‍“চাকরিতে যশ অর্থ সত্য, কিন্তু অপমান-লাঞ্ছনাও কম নয়”

‍“চাকরিতে যশ অর্থ সত্য, কিন্তু অপমান-লাঞ্ছনাও কম নয়”

ফার্সি সাহিত্যে একটি প্রবাদ আছে- ‘সাতজন কবির সাহিত্যকর্ম রেখে যদি বাকি সাহিত্য দুনিয়া থেকে মুছে ফেলা হয়, তবু ফার্সি সাহিত্য টিকে থাকবে। এই সাতজন কবির অন্যতম শেখ সাদি।’ ফার্সি গদ্যের জনক মহাকবি শেখ সাদি দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাভাষী পাঠকের কাছে অতি প্রিয় কবি। শুধু বাঙালিই নয় বিশ্বজুড়ে তিনি অত্যন্ত সমাদৃত।