• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬

যুদ্ধাপরাধ: কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল

যুদ্ধাপরাধ: কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল

নিজস্ব প্রতিবেদক১৪ জানুয়ারি ২০২০, ১২:৪৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

একাত্তরে যুদ্ধাপরাধের অপরাধের দায়ে জাতীয় পার্টির সাবেক নেতা ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এই রায় ঘোষণা করেন। বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন- বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান।

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে কায়সারকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে কায়সার সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আপিল করেছিলেন।

কায়সারের আপিলের ওপর শুনানি শেষে গত ৩ ডিসেম্বর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ রায়ের জন্য ১৪ জানুয়ারি তারিখ ধার্য করেছিলেন। ধার্য তারিখে মঙ্গলবার রায় ঘোষণা করলেন আপিল বিভাগ। রায়ে কায়সারের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

তার বিরুদ্ধে আনীত ১৪ অভিযোগের সাতটিতে মৃত্যুদণ্ড, পাঁচটিতে যাবজ্জীবন, একটিতে ১০ বছর ও আরেকটি পাঁচ বছর কারাদণ্ড দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। মঙ্গলবার আপিল বিভাগ মৃত্যুদণ্ড পাওয়া সাত অভিযোগের মধ্যে তিনটিতে মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন, বাকি চারটিতে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন।

আদালতে কায়সারের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এস এম শাহজাহান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আসা এটি নবম মামলা। মঙ্গলবার রায়ের মাধ্যমে এর চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হলো।

২০১৩ সালের ১৫ মে ট্রাইব্যুনাল কায়সারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলে সেই রাতেই গ্রেপ্তার করা হয় মুসলিম লীগের এই সাবেক নেতাকে। বয়স ও স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতি বিবেচনায় ট্রাইব্যুনালে তাকে শর্তসাপেক্ষে জামিন দেয়।

যুদ্ধাপরাধের ১৬টি ঘটনায় অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে পরের বছর ২ ফেব্রুয়ারি সৈয়দ কায়সারের বিচার শুরু করে ট্রাইব্যুনাল। সেই বিচার শেষে ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর তৎকালীন ট্রাইব্যুনাল-২ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল কায়সারের মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় নিজের নামে ‘কায়সার বাহিনী’ গঠন করে অপরাধ সংঘটিত করেন হবিগঞ্জ মহকুমার রাজাকার কমান্ডার ও শান্তি কমিটির সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার।

২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর তাকে সর্বোচ্চ সাজাসহ ২২ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। তার বিরুদ্ধে একাত্তরে ১৫২ জনকে হত্যা-গণহত্যা, দুই নারীকে ধর্ষণ, পাঁচজনকে আটক, অপহরণ, নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায় এবং দুই শতাধিক বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ, লুণ্ঠন ও ষড়যন্ত্রের ১৬টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। এসব অভিযোগের মধ্যে ১৪টিই প্রমাণিত হয়।

মানবতাবিরোধী অপরাধীদের মধ্যে প্রথমবারের মতো অন্য অপরাধের পাশাপাশি ধর্ষণের দায়ে ফাঁসির দণ্ড পান কায়সার। সাঁওতাল নারী হীরামনি ও অপর নারী মাজেদাকে ধর্ষণের অপরাধ দুটি প্রমাণিত হয়।

 

টাইমস/এইচইউ

আগুনে ভস্মিভুত চলন্তিকায় বই পেন্সিলের খোঁজে শিশুরা

আগুনে ভস্মিভুত চলন্তিকায় বই পেন্সিলের খোঁজে শিশুরা

আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। রাত কাটবে

রেডিও প্রেরণ কৌশল উদ্ভাবনের ভিত্তি গড়েছিলেন বিজ্ঞানী হার্টজ

রেডিও প্রেরণ কৌশল উদ্ভাবনের ভিত্তি গড়েছিলেন বিজ্ঞানী হার্টজ

রেডিও হল তার ব্যতীত যোগাযোগের একটি শক্তিশালী মাধ্যম। এতে তড়িৎ

মাটির পাত্রে রান্না স্বাস্থ্যের জন্য ইতিবাচক

মাটির পাত্রে রান্না স্বাস্থ্যের জন্য ইতিবাচক

এক সময় রান্না, খাওয়াসহ অন্যান্য কাজে মাটির পাত্রই ছিল একমাত্র

স্বাস্থ্য

মানে-গুণে অনন্য সূর্যমুখী বীজ

মানে-গুণে অনন্য সূর্যমুখী বীজ

সূর্যমুখী অতিপরিচিত একটি ফুল। যা আমাদের সবারই চেনা। হলুদ রঙের এই ফুল দেখতে অনেক সুন্দর। সূর্যমুখীর বীজ যন্ত্রে মাড়াই করে তেল বের করা হয়, যা মানে-গুণে অনন্য। সারাবিশ্বেই এই তেলের ব্যাপক চাহিদা থাকায় এদেশেও বাণিজ্যিকভারে সূর্যমুখীর চাষ শুরু হয় ষাটের দশকে। বর্তমানে রাজশাহী, যশোর, কুষ্টিয়া, নাটোর, পাবনা, দিনাজপুর, গাজীপুর, টাঙ্গাইলসহ বিভিন্ন জেলাগুলোতে এর ব্যাপক চাষ হচ্ছে।

জাতীয়

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঞ্জলি

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঞ্জলি

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেছেন। আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ এবং উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

রাজনীতি

পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে : তাপস

পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে : তাপস

পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী সব স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন পরিকল্পিত ভাবে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন মেয়র প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস। শুক্রবার আওয়ামী লীগ মনোনীত এই মেয়র প্রার্থী রাজধানীর নারিন্দা এলাকায় গণসংযোগকালে একথা বলেন।

আন্তর্জাতিক

চীন জুড়ে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক : ২৬ জনের প্রাণহানি

চীন জুড়ে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক : ২৬ জনের প্রাণহানি

চীন জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক। দেশটির উহান প্রদেশ ও মধ্যাঞ্চলের কয়েকটি শহরকে এরই মধ্যে এক প্রকার একঘরে ফেলা হয়েছে। এসব শহরের সব ধরণের বাস সার্ভিস, বিমান চলাচল ও ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তারপরও থামছেনা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। এরই মধ্যে চীনে এই ভাইরাসে অন্তত ২৬ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৮০০ জনেরও বেশি।

আন্তর্জাতিক

বিশ্বে ইরান সবচেয়ে বেশি ইহুদি বিদ্বেষী : নেতানিয়াহু

বিশ্বে ইরান সবচেয়ে বেশি ইহুদি বিদ্বেষী : নেতানিয়াহু

এই বিশ্বে ইরানকে সবচেয়ে বেশি ইহুদি বিদ্বেষী বলে ঘোষণা দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। ইসরাইলে আশউইটজ কন্সেন্ট্রেশন ক্যাম্পের মুক্তির ৭৫তম বার্ষিকীতে এই কথা বলেন। এসময় অনুষ্ঠানে বিশ্ব নেতাদের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

বিনোদন

ভাবনার  ‘গোপন প্রেম’ প্রকাশ্যে আনলেন অভিনেত্রী নিজেই

ভাবনার ‘গোপন প্রেম’ প্রকাশ্যে আনলেন অভিনেত্রী নিজেই

অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। বেশ কিছুদিন ধরে আকাশে-বাতাসে উড়ছিল তার প্রেমের গুঞ্জন। জৈনক বাংলাদেশের এক পরিচালকের সঙ্গে গোপন প্রেম করছিলেন তিনি। এই নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে মুখরোচক খবরও প্রকাশিত হয়।