• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭

গ্রেপ্তার নিয়ে আইন যা বলে, বাস্তবে যা হয়

গ্রেপ্তার নিয়ে আইন যা বলে, বাস্তবে যা হয়

সেন্ট্রাল ডেস্ক২৫ জুলাই ২০২০, ০৮:৪৪এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

কোনো ব্যক্তি গ্রেফতার হলে তার কিছু অধিকারের নিশ্চয়তা বাংলাদেশের সংবিধান ও আইনে দেয়া হয়েছে। কোন কোন পরিস্থিতিতে একজন ব্যক্তি গ্রেফতার হতে পারেন বা গ্রেফতারের আগে ও পরে তার কী কী অধিকার রয়েছে সে সম্পর্কেও আইনে বিস্তারিত রয়েছে। গ্রেফতার ও আটক অবস্থায় এ সংক্রান্ত আইন অনুযায়ী আপনার অধিকার ও পুলিশের কর্তব্য নির্ধারিত হয়। কিন্তু সে আইন আমাদের দেশে কতটুকু মানা হচ্ছে?

কেনো ব্যক্তি কখন অপরাধী?
আইন অনুযায়ী আদালতে একজন ব্যক্তি অপরাধী সাব্যস্ত না হওয়া পর্যন্ত তিনি নির্দোষ। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাউকে গ্রেপ্তারের পর তাকে অপরাধী হিসেবে উপস্থাপন করে। গ্রেপ্তারকৃতের শরীরে ‘আমি জঙ্গি’, ‘চোর’, ‘মাদক ব্যবসায়ী’, ‘ইয়াবা কারবারি’, ‘ধর্ষক’-এমন পরিচয় ঝুলিয়ে সংবাদ সম্মেলন করতে দেখা যায়। গণমাধ্যমেও তাদের সেই ছবি, পরিচয় প্রকাশ ও প্রচার করা হয়।

আদালতের আগে গণমাধ্যমে
২০১২ সালের ১১ ডিসেম্বর হাইকোর্ট গ্রেপ্তার বা সন্দেহভাজন হিসেবে আটক হওয়া কোনো ব্যক্তিকে গণমাধ্যমের সামনে হাজির না করার নির্দেশ দেয়। বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে মিন্নিকে দেয়া জামিন সংক্রান্ত রায়ে বলা হয়েছে, অপরাধের তদন্ত চলার সময় গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের আদালতে হাজির করার আগেই গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন করা হচ্ছে, যা মানবাধিকারের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে অমর্যাদাকর এবং অ-অনুমোদনযোগ্য।

মিডিয়া ট্রায়াল
বিচারের আগেই কোনো ব্যক্তিকে গণমাধ্যমে অপরাধী হিসেবে উপস্থাপনের প্রবণতা মিডিয়া ট্রায়াল নামে পরিচিত। সম্প্রতি এমন মিডিয়া ট্রায়ালের ঘটনা বাড়ছে। যাচাই, বাছাই ছাড়া আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তথ্যের ভিত্তিতে কাউকে অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত করা হচ্ছে। অভিযানে গ্রেপ্তারকৃতদের নিয়ে সংবাদ পরিবেশনে এমন প্রবণতা বেশি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আইন এবং সাংবাদিকতায় বস্তুনিষ্ঠতার নীতিমালাও অনুসরণ করা হচ্ছে না।

হাতকড়া ও রশির ব্যবহার
পুলিশের অপরাধ তদন্ত নির্দেশিকায় বলা হয়েছে গ্রেপ্তারকৃত আসামি বা বিচারাধীন বন্দিকে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পাঠানোর সময় পলায়ন বন্ধের জন্য যা প্রয়োজন তার চেয়ে বেশি কঠোর ব্যবস্থা নেয় উচিত নয়। হাতকড়া ও দড়ির ব্যবহার প্রায় ক্ষেত্রেই অপ্রয়োজনীয় ও অমর্যাদাকর। অথচ নিখোঁজের ৫৪ দিন পর মে মাসে সাংবাদিক কাজলকে হাতকড়া পরিহিত অবস্থায় আদালতে হাজির করা হয়। সেই ছবি সমালোচনার জন্ম দেয়।

শিশুদের সঙ্গে আচরণ
শিশু আইনের ৪৪ ধারা অনুযায়ী, শিশুকে কোনোমতেই হাতকড়া বা কোমরে দড়ি বা রশি লাগানো যাবে না। কিন্তু বিভিন্ন সময়ে এর ব্যত্যয় ঘটায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ২০১৯ সালের আগস্টে চট্টগ্রামে দুই শিশুকে হাতকড়া পরিয়ে হাজির করা হয়। ঢাকার আদালতে এমন একাধিক ঘটনার খবর বেরিয়েছে গণমাধ্যমে।

শিশুর ছবি
শিশু আইন ২০১৩-এর ৮১ ধারায় কোনো মামলায় বা অপরাধ সংক্রান্ত ঘটনায় কোনো শিশুর ছবি বা পরিচয় প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। বলা হয়েছে, বিচারাধীন কোনো মামলায় কার্যক্রম নিয়ে সংবাদ পরিবেশনে কোনো শিশুর স্বার্থের পরিপন্থী কোনো প্রতিবেদন, ছবি বা তথ্য প্রকাশ করা যাবে না, যার দ্বারা শিশুটিকে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে শনাক্ত করা যায়। কিন্তু আদালতে শিশুদের হাজিরার শনাক্তযোগ্য ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে।

যেন পরিচয় প্রকাশ না পায়
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১৪ (১) ধারায় সংবাদমাধ্যমে নির্যাতিতা নারী ও শিশুর পরিচয় প্রকাশের ব্যাপারে বাধা-নিষেধ রয়েছে। বলা হয়েছে, এ ধরনের অপরাধের শিকার নারী, শিশুর সংবাদ এমনভাবে প্রকাশ করতে হবে যাতে তাদের পরিচয় প্রকাশ না পায়। তবে এ ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম ঘটছে। ধর্ষণ কিংবা নির্যাতনের শিকার নারী ও শিশুর ছবি, পরিচয় প্রকাশ করার ঘটনা ঘটেছে অনেক।

রিমান্ড মানে কি নির্যাতন?
কোনো মামলায় গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের প্রয়োজনে পুলিশ আদালতের অনুমতিসাপেক্ষে হেফাজতে নিতে পারে। কিন্তু শারীরিক বা মানসিক নির্যাতন করার এখতিয়ার নেই। এক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্টের ১৫ দফা নির্দেশনাও রয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে রিমান্ড আর নির্যাতন অনেকটা সমার্থক শব্দে পরিণত হয়েছে। অনেক সময়ই রিমান্ডে নিয়ে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায়ের অভিযোগ শোনা যায়। পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুর ঘটনাও আছে।

 

টাইমস/জিএস

দেশবরেণ্য সুরকার আলাউদ্দিন আলী আর নেই

দেশবরেণ্য সুরকার আলাউদ্দিন আলী আর নেই

দেশবরেণ্য সুরকার ও গীতিকার আলাউদ্দিন আলী মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি

ফেইসবুকে স্ট্যাটাসের পর দুই বন্ধুর একসঙ্গে চিরবিদায়

ফেইসবুকে স্ট্যাটাসের পর দুই বন্ধুর একসঙ্গে চিরবিদায়

আল মোহাইমিন সিয়াম ও সাজিউর রহমান সাজিদ বাল্যবন্ধু। সিয়ামের পড়াশোনা

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল ক্রিকেটার নাঈমের

মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল ক্রিকেটার নাঈমের

এবার মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছেন ক্রিকেটার এমদাদ হোসেন নাঈম। শনিবার

জাতীয়

হাসপাতালে অভিযান নয়, অনুসন্ধান হয়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হাসপাতালে অভিযান নয়, অনুসন্ধান হয়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হাসপাতালে ‘অভিযান’ শব্দটি নিয়ে আপত্তি তুলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, হাসপাতালে অভিযান হয় না, অভিযান হয় চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকায়। হাসপাতালে অনিয়ম অনুসন্ধান (ইনকোয়ারি) করা হয়।

জাতীয়

বালু তুলতে গিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের ক্ষতি, বিঘ্নিত ইন্টারনেটে সেবা

বালু তুলতে গিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের ক্ষতি, বিঘ্নিত ইন্টারনেটে সেবা

পটুয়াখালীতে বালু তুলতে গিয়ে দেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল লাইন মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় দেশজুড়ে ইন্টারনেট সেবা বিঘ্নিত হচ্ছে। গ্রাহকেরা ইন্টারনেটের ধীরগতির সমস্যায় পড়ছেন। রোববার দুপুরে বালু তোলার সময় এক্সকাভেটর ব্যবহার করতে গিয়ে সাবমেরিন তারের (এসইএ-এমই-ডব্লিউই-৫) পাওয়ার সাপ্লাই ও অপটিক্যাল ফাইবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আন্তর্জাতিক

ক্রিকেটার শামির স্ত্রীকে ধর্ষণ ও খুনের হুমকি

ক্রিকেটার শামির স্ত্রীকে ধর্ষণ ও খুনের হুমকি

ভারতের অয্যোধ্যায় বিতর্কিত স্থানে রামমন্দির স্থাপন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের পেসার মোহাম্মদ শামির স্ত্রী হাসিন জাহান। এই স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফরম ইনস্টাগ্রামে ধর্ষণ ও খুনের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন হাসিন জাহান।

খেলাধুলা

এবার করোনায় আক্রান্ত ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন

এবার করোনায় আক্রান্ত ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন

এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেল। অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটারের বাবাও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রোববার বাঁহাতি এই স্পিনার নিজেই গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জাতীয়

দেশে করোনায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন হাজার ৩৯৯ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও দুই হাজার ৪৮৭ জনের। এতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা হল দুই লাখ ৫৭ হাজার ৬০০ জন।

স্বাস্থ্য

পুষ্টির ভান্ডার বাতাবি লেবু

পুষ্টির ভান্ডার বাতাবি লেবু

প্রচুর ভিটামিন সি, বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন বি, ফলিক অ্যাসিড, পটাশিয়ামসহ শরীরের প্রয়োজনীয় সব পুষ্টি উপাদান আছে এতে। তাই রোগ প্রতিরোধে, রোগ নিরাময়ে, এবং শরীরের ঘাটতি পূরণে জাম্বুরা খুবই কার্যকর একটি ফল। যকৃত, দাঁত ও মাড়ি সুরক্ষাতেও বাতাবি লেবু অতুলনীয়।