• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭

নিজ গ্রামে শায়িত হবেন সোনালী কাবিনের কবি

নিজ গ্রামে শায়িত হবেন সোনালী কাবিনের কবি

কবি আল মাহমুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৭:৩৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদকে রোববার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কবির বড় ছেলে শরিফ আহমেদ।

তিনি জানান, রোববার বাদ যোহর তৃতীয় জানাজা শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার মোড়াইল গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

কবির জন্য দোয়া চেয়ে তার আরেক ছেলে মীর মোহাম্মদ মনির বলেন, বাবা নিজের অজান্তে কোনো ভুল করে থাকলে সবাই ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আপনারা দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন তাকে জান্নাত নসিব করেন।

এর আগে শনিবার দুপুর ১২টার দিকে কবির মরদেহ নেয়া হয় জাতীয় প্রেস ক্লাব প্রাঙ্গণে। সেখানে কবি, সাহিত্যিকসহ সর্বস্তরের মানুষ কবির প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রেস ক্লাবে কবির প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বাদ জোহর বায়তুল মোকাররমের উত্তর ফটকে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাত ১১টা ৫ মিনিটে রাজধানীর ধানমন্ডির ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সোনালী কাবিন-এর এই কবি।

৯ ফেব্রুয়ারি রাতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন কবি আল মাহমুদ। তাকে ধানমণ্ডির ইবনে সিনা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। তিনি অধ্যাপক ডা. মো. আবদুল হাইয়ের তত্ত্বাবধানে ছিলেন। অবস্থা আরও গুরুতর হলে শুক্রবার তাকে ‘লাইফ সাপোর্ট’ দেয়া হয়। পরে রাত ১১টা ৫ মিনিটে তিনি মারা যান।

কবি আল মাহমুদের পুরো নাম মীর আবদুস শুকুর আল মাহমুদ। ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার মোড়াইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মীর আবদুর রব ও মাতার নাম রওশন আরা মীর। তার দাদা আবদুল ওহাব মোল্লা হবিগঞ্জ জেলায় জমিদার ছিলেন।

আল মাহমুদ শুধু আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি নন, তিনি একাধারে ছিলেন ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, ছোটগল্প লেখক, শিশুসাহিত্যিক এবং সাংবাদিক।

সাহিত্যে অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয় সম্মান একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার, শিশু একাডেমি (অগ্রণী ব্যাংক) পুরস্কার, ফররুখ স্মৃতি পুরস্কার, জীবনানন্দ দাশ স্মৃতি পুরস্কারসহ বিভিন্ন সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন এই কবি। লোক লোকান্তর (১৯৬৩), কালের কলস (১৯৬৬), সোনালী কাবিন (১৯৬৬) ইত্যাদি আল মাহমুদের উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ।

 

টাইমস/এমএএইচ/জেডটি

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়াল

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়াল

দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

‘হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন’ করোনায় মৃত্যুঝুঁকি বাড়ায় -বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

‘হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন’ করোনায় মৃত্যুঝুঁকি বাড়ায় -বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

করোনার চিকিৎসায় মালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইনের ব্যবহার বন্ধ করার পরামর্শ দিয়েছে

ডায়না অ্যাওয়ার্ড জয়ী বিশ্বের ১০০ তরুণের ৬ জনই বাংলাদেশি

ডায়না অ্যাওয়ার্ড জয়ী বিশ্বের ১০০ তরুণের ৬ জনই বাংলাদেশি

ডায়ানা অ্যাওয়ার্ড জয় করেছেন বাংলাদেশের ৬ তরুণ-তরুণী। বিশ্বের ১০০ তরুণকে

জাতীয়

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই, আরও ২৯ জনের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছেই, আরও ২৯ জনের মৃত্যু

দেশে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাড়াল ১ হাজার ৯৯৭ জন।

জাতীয়

বিয়ের দাবিতে জবি ছাত্রের বাড়িতে জর্ডান প্রবাসীর অনশন!

বিয়ের দাবিতে জবি ছাত্রের বাড়িতে জর্ডান প্রবাসীর অনশন!

এবার বিয়ের দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের বাড়িতে অনশন করছেন জর্ডান প্রবাসী তরুণী। এঘটনার পর থেকে পালিয়ে গেছে ওই ছাত্র।

জাতীয়

এবার করোনায় বগুড়া কৃষি অধিদপ্তরের উপপরিচালকের মৃত্যু

এবার করোনায় বগুড়া কৃষি অধিদপ্তরের উপপরিচালকের মৃত্যু

বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবুল কাসেম আজাদ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আবুল কাসেম আজাদের বাড়ি সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলায়।

জাতীয়

ফরিদপুরে নামাজে যাওয়ার পথে যুবককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

ফরিদপুরে নামাজে যাওয়ার পথে যুবককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

ফরিদপুর শহরে এবার নামাজে যাওয়ার পথে এক যুবককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ওই ঘটনায় স্থানীয়রা দুজনকে

চাকরি

কাতারে সংসার সামলে বিসিএস ক্যাডার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী!

কাতারে সংসার সামলে বিসিএস ক্যাডার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী!

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজে পড়াশোনা করেন রহিমা সুলতানা। অনার্স দ্বিতীয় বর্ষেই তাকে বিয়ে দিয়ে দেয়া হয়।

স্বাস্থ্য

মাস্কে অস্বস্তি এড়ানোর কৌশল

মাস্কে অস্বস্তি এড়ানোর কৌশল

বিশ্বের বহু দেশেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকানোর একটি জনপ্রিয় ব্যবস্থা হচ্ছে মাস্ক ব্যবহার। বিশেষ করে চীনে, যেখান থেকে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা, সেখানেও মানুষ বায়ুর দূষণের হাত থেকে বাঁচতে হরহামেশা নাক আর মুখ ঢাকা মুখোশ পরে ঘুরে বেড়ায়। কিন্তু, অনেকক্ষণ ধরে মাস্ক ব্যবহার করলে কিংবা একাধিক মাস্ক একসঙ্গে একটির ওপর আরেকটি রেখে ব্যবহার করলে অক্সিজেনের ঘাটতি হতে পারে।