• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬

বিল ক্লিনটনের গল্প

বিল ক্লিনটনের গল্প

ফিচার ডেস্ক১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০৮:৪৩এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

উইলিয়াম জেফারসন ক্লিনটন। ১৯৭৭-৭৯ মেয়াদে আরকানসাসের অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন। ১৯৭৯-৮১ ও ১৯৮৩-৯২ মেয়াদে ছিলেন আরকানসাস অঙ্গরাজ্যের গভর্নর। এরপর ১৯৯৩-২০০১ পর্যন্ত দুই মেয়াদে তিনি ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪২তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

বিল ক্লিনটন ১৯৪৬ সালের ১৯ আগস্ট আরকানসাসের হোপ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, জন্মের পূর্বেই এক সড়ক দুর্ঘটনায় তার বাবা মারা যান। এরপর তার মা আবার বিয়ে করেন। সেই সৎ বাবার কাছেই তিনি বড় হয়েছেন। এখান থেকেই তিনি বিল ক্লিনটন নামে পরিচিত হন।

প্রথম দিকে তিনি জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক বিষয়ে স্নাতক করেন। পরে চলে যান ইংল্যান্ডে। সেখানে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি কলেজে কিছু দিন পড়েছেন। এরপর আইন বিষয় নিয়ে পড়তে চলে আসেন আমেরিকার ইয়েল ল’ স্কুলে। আর এখানেই তিনি হিলারি রডহ্যাম এর সঙ্গে পরিচিত হন। ১৯৭৫ সালে তারা বিয়ে করেন।

শৈশবে তার স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হবেন। কিন্তু ওয়াশিংটনে যুবদের এক অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট কেনেডির সঙ্গে দেখা হবার পর তিনি রাজনীতিতে আসার মনস্থির করেন। তবে লেখাপড়া শেষে আরকানসাস বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু।

১৯৭৪ সালে তিনি কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে হেরে যান। তবে ঠিক দুই বছর পরই তিনি আরকানসাসের অ্যাটর্নি জেনারেল নিযুক্ত হন।

১৯৭৮ সালে তিনি আরকানসাসের গভর্নর নির্বাচিত হন। এক মেয়াদ পর পরবর্তী নির্বাচনে হেরে যান। তবে দুই বছর পর ১৯৮৩ সালে আবারও গভর্নর নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালে তিনি ডেমোক্রেট দল থেকে প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন করেন। এসময় ক্লিনটনের জয় নিয়ে কেউই আশা করেননি। কারণ তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন রিপাবলিকান প্রার্থী জর্জ বুশ সিনিয়র। তবে এ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী রস পেরুট অংশ নিলে ক্লিনটনের ভাগ্য খুলে যায় এবং তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

প্রেসিডেন্সির শুরুতেই হোঁচট খান ক্লিনটন। কারণ এসময় মধ্যবর্তী নির্বাচনে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষ দুটিরই নিয়ন্ত্রণ চলে যায় রিপাবলিকানদের হাতে। তবে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে রিপাবলিকানদের সমঝোতার মাধ্যমে রাষ্ট্র পরিচালনা করতেন তিনি। ফলস্বরূপ ১৯৯৬ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত হন ক্লিনটন।

১৯৯৮ সালে যৌন হয়রানির অভিযোগে তাকে অভিসংশিত করার প্রস্তাব করে প্রতিনিধি পরিষদ। তবে সিনেট অনুমোদন না দেয়ায় সে যাত্রা বেঁচে যান ক্লিনটন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্লিনটনের সবচেয়ে বড় সফলতা হচ্ছে আমেরিকার নাজুক অর্থনীতির পুনরুদ্ধার। তিনি আমেরিকায় মুক্তবাণিজ্য অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নাফটা চুক্তি স্বাক্ষর করেন। তার নেতৃত্বে কিছু দিনের মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের ভঙ্গুর অর্থনীতি আবারও চাঙ্গা হয়ে ওঠে। তার সময়ে আমেরিকায় বেকারত্বের হার ছিল তখনকার সময়ে কয়েক দশকে সর্বনিম্ন।

বিদেশনীতির ক্ষেত্রেও ক্লিনটনের ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। তার মধ্যস্থতায় ১৯৯৩ সালে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যে ঐতিহাসিক ‘অসলো শান্তি চুক্তি’ স্বাক্ষরিত হয়, যা ফিলিস্তিন সংকট নিরসনে ভূমিকা রাখে। এছাড়া ঐতিহাসিক ‘ডেটন চুক্তি’র মাধ্যমে বসনিয়া সংকট নিরসন ও সার্বিয়া কর্তৃক কসভোর আলবেনিয়দের জাতিগত নিধন বন্ধেও তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

২০০১ সালে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে অবসর নেন ক্লিনটন। এরপর নিজের প্রতিষ্ঠিত ক্লিনটন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে বিভিন্ন মানব কল্যাণ মূলক কাজে তিনি জড়িয়ে পড়েন। তার প্রচেষ্টায় ক্লিনটন ফাউন্ডেশন জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় গবেষণা খাতে বিনিয়োগ করে। ২০১০ সালের ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর হাইতির পুনর্গঠনে এগিয়ে আসে ক্লিনটন ফাউন্ডেশন।

তার লেখা প্রথম বই ‘বিটউইন হোপ অ্যান্ড হিস্টোরি’ ১৯৯৬ সালে প্রকাশিত হয়। অবসরের পর তিনি আবারো লেখালেখি শুরু করেন। ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয় তার আত্মজীবনী ‘মাই লাইফ’, যা ছিল সর্বাধিক বিক্রিত আত্মজীবনী সমূহের একটি।

সর্বশেষ ২০১৮ সালে প্রকাশিত হয় জেমস পেটারসনের সঙ্গে লেখা তার বহুল আলোচিত বই ‘দ্য প্রেসিডেন্ট ইস মিসিং’। বর্তমানে লেখালেখি আর স্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের নির্বাচনী কাজে সহযোগিতা করার কাজেই ব্যস্ত রয়েছেন আমেরিকার অন্যতম সফল প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন।

 

ভেঙে ফেলা ‘জাহাজবাড়ি’ স্থাপনায় নতুন নকশা অনুমোদন না দিতে রাজউককে সরকারের চিঠি   

ভেঙে ফেলা ‘জাহাজবাড়ি’ স্থাপনায় নতুন নকশা অনুমোদন না দিতে রাজউককে সরকারের চিঠি  

হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে ভেঙে ফেলা পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী জাহাজবাড়ি স্থাপনায় নতুন নকশা অনুমোদন না দিতে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (রাজউক) চিঠি দিয়েছে সরকার। গত ১০ এপ্রিল রাজউক চেয়ারম্যান বরাবর চিঠিটি পাঠায় বাংলাদেশ ওয়াক্ফ প্রশাসন। ওই চিঠির একটি কপি বাংলাদেশ টাইমসের হাতে এসেছে।  

আমরা গণতন্ত্রের শোকযাত্রায় সামিল হতে চাই না: মাহবুব তালুকদার

আমরা গণতন্ত্রের শোকযাত্রায় সামিল হতে চাই না: মাহবুব তালুকদার

উপজেলা নির্বাচনে ভোটারদের নির্বাচন বিমুখতা নিয়ে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

এমন নির্বাচন গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক: সংসদে মেনন

এমন নির্বাচন গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক: সংসদে মেনন

জাতীয় সংসদে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে জনগণ আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে। উপজেলা নির্বাচনেই তার প্রমাণ পাওয়া যায়। মসজিদে মসজিদে ঘোষণা দিয়েও ভোটারদের আনা যায় না। এটা নির্বাচনের জন্য শুধু নয়, গণতন্ত্রের জন্যও বিপজ্জনক।

জাতীয়

ঢাকায় অবৈধ রিকশা-অটোরিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত

ঢাকায় অবৈধ রিকশা-অটোরিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত

রাজধানী ঢাকায় চলাচলরত ছোট ছোট অবৈধ যানবাহন রিকশা, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে এসব যানবাহন চিহ্নিত করে তা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হবে। বুধবার নগর ভবন দক্ষিণের সভাকক্ষে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) বোর্ড সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

জাতীয়

দিনাজপুরে নদী থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার

দিনাজপুরে নদী থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার

নিখোঁজ হওয়ার প্রায় ১৬ ঘণ্টা পর দিনাজপুরের মোহনপুর এলাকায় আত্রাই নদী থেকে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের ছাত্র তাসফিক হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

জাতীয়

ময়মনসিংহে নিখোঁজ তিন বোন উদ্ধার, আটক ৬

ময়মনসিংহে নিখোঁজ তিন বোন উদ্ধার, আটক ৬

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলায় নিখোঁজের পাঁচ দিন পর তিন জমজ বোন পপি, সোমা ও চম্পাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার পপিকে এবং বুধবার ভোরে সোমা ও চম্পাকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন এ তথ্য জানান।

জাতীয়

৬ কারখানা সিলগালা, ১০ জনকে দুই বছরের কারাদণ্ড

৬ কারখানা সিলগালা, ১০ জনকে দুই বছরের কারাদণ্ড

রাজধানীর হাজারীবাগে ট্যানারির বিষাক্ত বর্জ্য দিয়ে মুরগি ও মাছের খাবার তৈরির অপরাধে মৎস্য ও পোলট্রির খাদ্য তৈরির ছয়টি কারখানা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া ১০ জনকে দুই বছর করে কারাদণ্ড ও ২৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আইন আদালত

জাবির সাবেক ছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসির রায়

জাবির সাবেক ছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসির রায়

কিশোরগঞ্জে পূর্বশক্রুতার জেরে প্রায় ১৪ বছর আগে জাহাঙ্গীরনগর  বিশ্ববিদ্যালয় সাবেক এক ছাত্রকে হত্যার দায়ে তিনজনের ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত। এছাড়া এ মামলায় আরও সাতজনকে যাবজ্জীবন দিয়েছে একই আদালত।

বিনোদন

শক্ত মনের ভেতরে অন্য এক ভাইজান

শক্ত মনের ভেতরে অন্য এক ভাইজান

বলিউড তারকা সালমান খান। তার মন সম্পর্কে হয়ত সকলেই জানেন। রেগে গেলে নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন এই তারকা। তার পরিবারকে নিয়ে কেউ কটাক্ষ করলে, সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তিকে নিজের কঠিন রূপ দেখিয়ে ছাড়েন এই অভিনেতা। বলিউডের বড় থেকে ছোট কাউরে যেন এই ব্যাপারে বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেন না বলিউড ভাইজান।