• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

নয় মাসে ১৭ কোম্পানির মুনাফা বেড়েছে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা

নয় মাসে ১৭ কোম্পানির মুনাফা বেড়েছে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক১১ মে ২০১৯, ০৭:৩২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১৭ কোম্পানির ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে (জুলাই-মার্চ) ২ হাজার ৮৫১ কোটি টাকা কর-পরবর্তী মুনাফা করেছে।  এর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের নয়টি এবং জ্বালানি খাতের আটটি কোম্পানি রয়েছে। 
 
কোম্পানিগুলোর অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এই তথ্য পাওয়া যায়।
 
চলতি অর্থবছরের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিগুলো প্রথম তিন প্রান্তিকে মোট রাজস্ব আয় করে ২২ হাজার ৩০১ কোটি টাকা। এর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের নয় কোম্পানির রাজস্ব আয়  ৯ হাজার ৪২৭ কোটি টাকা, আর জ্বালানি খাতের ৮ কোম্পানির রাজস্ব আয় হয়েছে ১২ হাজার ৮৭৪ কোটি টাকা। 
 
২০১৭-১৮ অর্থবছরের একই সময়ে বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানিগুলো ৭ হাজার ৬৮৪ কোটি টাকা এবং জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর ১২ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করেছিল। সে হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানিগুলোর রাজস্ব আয় বেড়েছে ১ হাজার ৭৪২ কোটি টাকা বা ২২ দশমিক ৬৭ শতাংশ। আর জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর রাজস্ব আয় বেড়েছে ৮৯ কোটি টাকা বা দশমিক ৭০ শতাংশ।
 
রাজস্ব বাড়ার কারণে কর-পরবর্তী মুনাফাও বেড়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর। চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১৭ কোম্পানির কর-পরবর্তী মুনাফা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮৫১ কোটি টাকা। এর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের নয়টি কোম্পানির মুনাফা হয়েছে ১ হাজার ৮০১ কোটি টাকা, আর জ্বালানি খাতের আট কোম্পানির মুনাফা হয়েছে ১ হাজার ৪৯ কোটি টাকা। 
 
২০১৭-১৮ অর্থবছরের একই সময়ে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর মুনাফা ছিল ২ হাজার ২৩৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানিগুলো ১ হাজার ২৪০ কোটি এবং জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলো ৯৯৩ কোটি টাকা মুনাফা করেছিল। সে হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর কর-পরবর্তী মুনাফা বেড়েছে ৬১৭ কোটি টাকা বা ২৭ দশমিক ৬৫ শতাংশ। 
 
এর মধ্যে বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানিগুলোর মুনাফা বেড়েছে ৫৬১ কোটি টাকা বা ৪৫ দশমিক ২৯ শতাংশ এবং জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর মুনাফা বেড়েছে ৫৬ কোটি টাকা বা ৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ।
 
বিদ্যুৎ খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৯৩ দশমিক ৫৩ শতাংশ রাজস্ব আয় বেড়েছে সামিট পাওয়ারের। ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে ২ হাজার ৩৮৮ কোটি টাকা, ২০১৮ সালের একই সময়ে ছিল ১ হাজার ২৩৪ কোটি টাকা। 
 
সামিট করপোরেশনের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এএমডি) ফয়সাল খান  বলেন, গাজীপুরের কড্ডার দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে ৪৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যোগ হওয়ার সুবাদে চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আমাদের রাজস্ব ও মুনাফায় ভালো প্রবৃদ্ধি হয়েছে।
 
৮৬ দশমিক ৫৪ শতাংশ রাজস্ব প্রবৃদ্ধি হয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডে (ইউপিজিডিএল)। চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে ৮৪৬ কোটি টাকা, যা ২০১৮ সালের একই সময়ে ছিল ৪৫৩ কোটি টাকা।
 
প্রবৃদ্ধির বিষয়ে ইউপিজিডিএল এর প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) ইবাদত হোসেন ভূইয়া বলেন,  আমরা সব সময় ফান্ডামেন্টাল, গ্রোথ ও ডিভিডেন্ড পে আউট—এ তিনটি জিনিসকে গুরুত্ব দিয়ে থাকি, যাতে করে শেয়ারহোল্ডাররা ভালো রিটার্ন পান। আমাদের বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর মেইনটেন্যান্স এমনভাবে করে থাকি, যাতে করে এখান থেকে সর্বোচ্চটা পাওয়া যায়। পাশাপাশি দক্ষতার সঙ্গে আমরা ব্যয় নিয়ন্ত্রণ করছি। এসব কারণে আমাদের রাজস্ব ও মুনাফায় ভালো প্রবৃদ্ধি হয়েছে।
 
বিদ্যুৎ খাতের তালিকাভুক্ত আরেক কোম্পানি বারাকা পাওয়ারের রাজস্ব আয় ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে ১৬ দশমিক ১৪ শতাংশ বেড়ে ৩০০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। আর এ সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা ৯ দশমিক ১৪ শতাংশ কমে ৩৪ কোটি টাকা হয়েছে।
 
চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিক শেষে বিদ্যুৎ সঞ্চালন কোম্পানি পাওয়ার গ্রিডের রাজস্ব আয় দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৬৮ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ হাজার ১৩৬ কোটি টাকা। এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় বেড়েছে ১১ দশমিক ৬৩ শতাংশ। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফার পরিমাণ ছিল ২৬৭ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ বেশি।
 
বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি ডেসকোর রাজস্ব আয় চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮ দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ২ হাজার ৮৭৮ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ৭৮ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১১০ দশমিক ৯০ শতাংশ বেশি।
 
ডরিন পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড সিস্টেমস লিমিটেডের রাজস্ব আয় হয়েছে ৫১১ কোটি টাকা, যা এর আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৪৭৭ কোটি টাকা। সে হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় বেড়েছে ৭ দশমিক ১৯ শতাংশ। তবে রাজস্ব আয় বাড়লে আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ কমে ৬২ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
ডরিন পাওয়ারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোস্তফা মইন বলেন, চলতি হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে আমাদের বিদ্যুৎ উৎপাদন কম হওয়ার কারণে মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমে গেছে। তবে বছরের শেষ প্রান্তিকে উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি মুনাফাও বাড়বে বলে আশা করছি।
 
জিবিবি পাওয়ারের রাজস্ব আয় চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ৪১ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির মুনাফা হয়েছে ৭ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৫ কোটি টাকা। সে হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির মুনাফা বেড়েছে ৩১ দশমিক ৪৫ শতাংশ।
 
শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডের (এসপিসিএল) রাজস্ব আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ৫৩ শতাংশ বেড়ে ৫৪৪ কোটি টাকা হয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা ছিল ৫৯ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯ দশমিক ৩৮ শতাংশ কম।
 
তবে আয় ও কর-পরবর্তী মুনাফা দুটোই কমেছে খুলনা পাওয়ারের। চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৭ দশমিক ৩০ শতাংশ কমে ৬৪৬ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে কর-পরবর্তী মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ১৬ দশমিক ৫৮ শতাংশ কমে ১২২ কোটি টাকা হয়েছে।
 
এদিকে জ্বালানি খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১৮ দশমিক ৩২ শতাংশ রাজস্ব আয় বেড়েছে এমজেএলবিডির। ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে ১ হাজার ৬১৫ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১ হাজার ৩৬৫ কোটি টাকা। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৭ দশমিক ৬৬ শতাংশ কমে ১৫৭ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
মেঘনা পেট্রোলিয়ামের রাজস্ব আয় চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৯২ শতাংশ বেড়ে ১৮৭ কোটি টাকা হয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির মুনাফা আগের তুলনায় ১৮ দশমিক ৮৩ শতাংশ বেড়ে ২৩৩ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের রাজস্ব আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২ দশমিক ২৫ শতাংশ বেড়ে ৫৫ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী নিট মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ১০০ শতাংশ বেড়ে ৫২ লাখ টাকা হয়েছে।
 
জ্বালানি খাতের কোম্পানিগুলোর মধ্যে পদ্মা অয়েল, তিতাস গ্যাস, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং ও যমুনা অয়েলের রাজস্ব কমেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৭৫ দশমিক ২৩ শতাংশ রাজস্ব কমেছে ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টসের। চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির রাজস্ব আয় হয়েছে ৬ কোটি ৮২ লাখ টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের একই সময়ে তুলনায় ৯২ দশমিক ৯১ শতাংশ কমে ২ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন লিমিটেডের রাজস্ব আয় চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ১৩ শতাংশ কমে ৮১ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৭৯ দশমিক ৬৫ শতাংশ বেড়ে ৬ কোটি ৯ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে যমুনা অয়েলের রাজস্ব আয় আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ২০ শতাংশ কমে ১১৩ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ কমে ১৭৪ কোটি টাকা হয়েছে।
 
পদ্মা অয়েলের রাজস্ব আয় ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে আগের বছরের একই প্রান্তিকের তুলনায় ১ দশমিক ১১ শতাংশ কমে ১৯৪ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে কোম্পানিটির কর-পরবর্তী মুনাফা ৬ দশমিক ৪৯ শতাংশ বেড়ে ১৯৩ কোটি টাকা হয়েছে।
 
তিতাস গ্যাসের রাজস্ব আয় চলতি হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিক শেষে ১০ হাজার ৬২০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১০ হাজার ৭৬২ কোটি টাকা। সে হিসেবে এক বছরের ব্যবধানে কোম্পানিটির রাজস্ব কমেছে ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। আলোচ্য সময়ে তিতাস গ্যাসের কর-পরবর্তী মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৪ দশমিক ২৬ শতাংশ বেড়ে ২৮৪ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।
 
 
 
 
টাইমস/এএইচ/এসআই
 
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষায় ৫৫ হাজার ২৯৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এফ এম মনজুর কাদির জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮’ ৬৩ জেলার লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। সারাদেশে লিখিত পরীক্ষায় মোট ৫৫ হাজার ২৯৫ জন প্রার্থী পাস করেছেন।

দুই প্যাকেট খাবার দিয়ে অবৈধদের বাংলাদেশে পাঠানো হবে: বিজেপি নেতা

দুই প্যাকেট খাবার দিয়ে অবৈধদের বাংলাদেশে পাঠানো হবে: বিজেপি নেতা

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও জাতীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি) করা হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন বিজেপির বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। তিনি হুমকি দিয়ে বলেছেন, এনআরসিতে যারা অবৈধ চিহ্নিত হবেন, তাদেরকে হাতে দুই প্যাকেট করে খাবার ধরিয়ে দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে। শনিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন বিজেপির এই নেতা।

অন্যায়-দুর্নীতি করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না: কাদের

অন্যায়-দুর্নীতি করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশে এই প্রথম শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হলো। তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এবং বাধ্যতামূলক পদত্যাগ করানো হয়েছে। বাংলাদেশের অন্য কোন ছাত্র সংগঠনে এ ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণের নজির নেই। নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ভুলতা ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে রোববার দুপুরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক

‘ভারতের সঙ্গে প্রথাগত যুদ্ধে হারতে পারে পাকিস্তান’

‘ভারতের সঙ্গে প্রথাগত যুদ্ধে হারতে পারে পাকিস্তান’

ভারতের সঙ্গে প্রথাগত যুদ্ধে পাকিস্তান হারতে পারে উল্লেখ করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমি নিশ্চিত, যখন পারমাণবিক শক্তিধর দুটি দেশের মধ্য যুদ্ধ শুরু হয়, তখন সেটা অবশ্যই পারমাণবিক যুদ্ধের দিকে গড়াবে। ঈশ্বর না করুক, যদি এমন কোনো যুদ্ধ হয়, আর আমরা হেরে যাই তাহলে আমরা শেষ পর্যন্ত লড়াই করব। রোববার আল জাজিরাকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে ইমরান খান এসব কথা বলেন।

জাতীয়

জনগণের আস্থা অর্জনে পুলিশ নিয়োগে স্বচ্ছতা গুরুত্বপূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী

জনগণের আস্থা অর্জনে পুলিশ নিয়োগে স্বচ্ছতা গুরুত্বপূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জনগণের আস্থা-বিশ্বাস অর্জন করার জন্য পুলিশ সদস্য নিয়োগে স্বচ্ছতা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এবার পুলিশ সদস্য নিয়োগ নিয়ে কোনভাবেই কোন লোক দুর্নীতি ও ঘুষ দেয়ার কথা বলতে পারেনি। আগামীতে এ পদক্ষেপে এগিয়ে যেতে হবে।

জাতীয়

নোয়াখালীতে পুলিশের দুই কর্মকর্তা প্রত্যাহার

নোয়াখালীতে পুলিশের দুই কর্মকর্তা প্রত্যাহার

নোয়াখালী পুলিশের বিশেষ শাখার দুই এএসআইকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার পর এবার দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তিন রোহিঙ্গার পাসপোর্ট করার ঘটনায় শনিবার রাতে জেলা বিশেষ শাখার (ডিএসবি) দুই এএসআই আবুল কালাম ও নুরুল হুদাকে জেলা পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন।

জাতীয়

ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়া

ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়া

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফওজিয়া রেজওয়ান ভিকারুননিসা ন্যূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। রোববার জারি করা এক প্রজ্ঞাপনের এই নিয়োগের বিষয়টি প্রকাশ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। ফওজিয়া এর আগে রাজধানীর সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ছিলেন।

রাজনীতি

সোমবার ছাত্রলীগের দায়িত্ব নেবেন জয়-লেখক

সোমবার ছাত্রলীগের দায়িত্ব নেবেন জয়-লেখক

ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত দুই শীর্ষ নেতা আনুষ্ঠানিকভাবে সোমবার দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এদিন তারা ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান ছাত্রলীগের নতুন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ছাত্রলীগের আরও অনেক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

বিনোদন

আরও চার শিল্পী পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

আরও চার শিল্পী পেলেন প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

এবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও চার শিল্পীকে ২০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন। শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে অসুস্থ এই শিল্পীদের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন তিনি।