• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭

কাশি হলে যেসব খাবার খেতে মানা

কাশি হলে যেসব খাবার খেতে মানা

ফিচার ডেস্ক০২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:১৫এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শীতে সুস্থ থাকতে হলে নিজের প্রতি বাড়তি যত্ন নিতে হয়। আবহাওয়ার পরিবর্তনের ফলে শীতে জ্বর ও সর্দির পাশাপাশি কাশিও যেন আঁকড়ে ধরে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে একবার কাশি শুরু হলে যেন পিছু ছাড়তেই চায় না।

একটানা কাশি খুবই বিরক্তিকর পরিস্থিতি তৈরি করে। এছাড়া রাতে ঘুমের বিঘ্ন ঘটায় শুকনো কাশি। আর কাশি হলেই আমরা কফ সিরাপসহ অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে নিচ্ছি। তবে মাঝে মধ্যে দেখা যাচ্ছে ওষুধেও কাশি কমছে না।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কাশি হলে কিছু খাবারেও লাগাম দিতে হয়। নইলে যতই কাফ সিরাপ, মধু, আদা খান, কাশির ধমক থামবে না।

চলুন জেনে নিই, কাশি হলে যেসব খাবার খেতে মানা-

দুধ
কাশি হলে অনেকেই বলেন, গরম দুধ খেতে। গলায় আরাম হয় ঠিকই, কিন্তু একইসঙ্গে দুধ ফুসফুস ও গলায় মিউকাস প্রোডাকশন বাড়িয়ে দেয়। কাশি হলে তাই দুধ এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

ডিহাইড্রেশন
কাশি হলে গলা শুকনো একেবারেই রাখা ঠিক নয়। চিকিৎসকরা বলছেন, তরল খাবার যেমন স্যুপ খেতে পারেন।

প্রক্রিয়াজাত খাবার
কাশি চলাকালে প্রক্রিয়াজাত খাবার একেবারেই ঠিক নয়। এতে কাশি আরও বাড়বে। ব্রেড, পাস্তা, বেকড খাবার, চিপস বা সুগারি ডেসার্টে কাশি বাড়ে। এর বদলে শাকসবজি বা পুষ্টিকর খাবারে মন দিন। বিশেষ করে যেসব খাবোরে ভিটামিন-সি রয়েছে।

ভাজাভুজি
কাশি হলে অনেক সময়ই মুখে রুচি থাকে না। অনেকেই ভাজা খাবার খেয়ে রুচি ফেরানোর চেষ্টা করেন। এমনটাও ভুল, তাতে আরও কাশি বাড়ে। ফাস্ট ফুড, জ্যাঙ্ক ফুড কাশি হলে ডাক্তাররা পুরোপুরি ছাড়তে বলছেন।

টক জাতীয় ফল
সাইট্রিক অ্যাসিড রয়েছে এমন খাবার কাশি হলে খেতে নিষেধ করছেন চিকিৎসকরা। সাইট্রিক অ্যাসিড গলায় সংক্রমণ ঘটায় ও কফ বাড়িয়ে দেয়।

 

টাইমস/জিএস

বন্যার আশঙ্কা, ২৩ জেলায় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখার নির্দেশ

বন্যার আশঙ্কা, ২৩ জেলায় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখার নির্দেশ

দেশের ২৩টি জেলায় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত করতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশ

তিন পাহাড়ি কন্যার স্বপ্নজয়

তিন পাহাড়ি কন্যার স্বপ্নজয়

পাহাড়েই তাদের শৈশব কেটেছে। শৈশব পেরিয়ে কৈশোরে তাদের স্বপ্নগুলো বড়

এবার গরুর ধাক্কায় বিকল কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেন!

এবার গরুর ধাক্কায় বিকল কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেন!

নাটোরে গরুর সাথে ধাক্কা খেয়ে বিকল হয়ে গেছে কুড়িগ্রাম থেকে

জাতীয়

প্রসব ব্যথায় কাতর স্ত্রীকে অজ্ঞান করে সড়কে রেখে পালালো স্বামী!

প্রসব ব্যথায় কাতর স্ত্রীকে অজ্ঞান করে সড়কে রেখে পালালো স্বামী!

বৃহস্পতিবার সকালে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার কানুরামপুর-ত্রিশাল সড়কের মধুপুর বাজারে একটি মাদরাসার সামনে। রূপার বরাত দিয়ে স্থানীয় মগটুলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সালেহ মো. বদরুজ্জামান মামুন এসব তথ্য জানান।

জাতীয়

ডা. জাফরুল্লাহকে সংবাদমাধ্যমসহ কারও সঙ্গে কথা না বলার পরামর্শ

ডা. জাফরুল্লাহকে সংবাদমাধ্যমসহ কারও সঙ্গে কথা না বলার পরামর্শ

গলার ব্যথা এখনও ভালো না হওয়ায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে সংবাদমাধ্যমসহ কারও সঙ্গে কথা না বলার পরামর্শ দিয়েছেন তার চিকিৎসকরা।

জাতীয়

করোনা: আক্রান্ত ছাড়াল পৌনে দুই লাখ, মৃত্যু ২২০০

করোনা: আক্রান্ত ছাড়াল পৌনে দুই লাখ, মৃত্যু ২২০০

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৩ হাজার ৩৬০ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৭৫ হাজার ৪৯৪ জনে। এছাড়া একদিনে আরও ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মোট দুই হাজার ২৩৮ জন মারা গেলেন।

জাতীয়

এমপি পাপুল কুয়েতের নাগরিক নন

এমপি পাপুল কুয়েতের নাগরিক নন

অর্থ ও মানবপাচারের অভিযোগে গ্রেপ্তার এমপি শহিদ ইসলাম পাপুল কুয়েতের নাগরিকত্ব পাননি বলে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটি।

জাতীয়

মোটরসাইকেল বহরে বন্ধুসহ ঘুরতে গিয়ে প্রাণ হারাল সাব্বির

মোটরসাইকেল বহরে বন্ধুসহ ঘুরতে গিয়ে প্রাণ হারাল সাব্বির

কয়েকজন বন্ধু মিলে চারটি মোটরসাইকেলযোগে বেড়াতে যায়। সারা দিন ঘোরাঘুরি শেষে সন্ধ্যায় বাড়ি উদ্দেশে রওনা দেয় তারা। পথে বালুবাহী ড্রাম ট্রাকের সঙ্গে সাব্বির ও প্রান্তকে বহনকারী মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় বন্ধুরা আহত দুইজনকে দ্রুত হাসপাতাল নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাব্বিরকে মৃত ঘোষণা করেন।

শিল্প ও সাহিত্য

ঘরে বসে মহামারী সম্পর্কিত যেসব মুভি দেখতে পারেন

ঘরে বসে মহামারী সম্পর্কিত যেসব মুভি দেখতে পারেন

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ মহামারীর ফলে ইতিমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন বহু লোক, সংক্রমণের সংখ্যাও প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ বহু দেশে দেখা দিয়েছে দ্বিতীয় পর্যায়ের মহামারী। দীর্ঘ দিনের লকডাউন, স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকা, ব্যবসায় ধস, ক্যারিয়ার নিয়ে শঙ্কা প্রভৃতি নানা কারণে সাধারণ মানুষের দিন কাটছে আতঙ্ক আর উদ্বেগের মধ্য দিয়ে।