• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৬

অতিরিক্ত উদ্বেগে তিন ধরনের অসুস্থতা দেখা দিতে পারে

অতিরিক্ত উদ্বেগে তিন ধরনের অসুস্থতা দেখা দিতে পারে

স্বাস্থ্য ডেস্ক২২ মার্চ ২০২০, ০৯:৩২এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজের আগে বা নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হলে নার্ভাস ও উদ্বিগ্ন হওয়া মানুষের স্বাভাবিক ঘটনা। তবে, কারো কারো ক্ষেত্রে এই উদ্বেগ তাদের জীবনযাত্রার অংশে পরিণত হয়। তারা ক্রমাগত নার্ভাস থাকেন এবং তাদের জীবনের উপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। ফলে এটি তাদের প্রাত্যহিক জীবন, সম্পর্ক ও স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে।

কখনো কখনো এই পরিস্থিতি বহু দূর যেতে পারে এবং ভুক্তভোগীরা কিছু নির্দিষ্ট ব্যাধিতে আক্রান্ত হতে পারেন। ক্রমাগত উদ্বেগ ও সন্দেহের মধ্যে বসবাস করতে থাকা লোকদের মধ্যে এই ব্যাধিগুলি দেখা যায়।

আসুন জেনে নিই, অতিরিক্ত উদ্বেগে তিন ধরনের অসুস্থতা দেখা দিতে পারে
সিলেক্টিভ মিউটিজম
সিলেক্টিভ মিউটিজম এমন একটি ব্যাধি, যেখানে আক্রান্ত ব্যক্তি বিশেষ কিছু পরিস্থিতিতে কথা বলতে ব্যর্থ হন, কিন্তু অন্যান্য ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি হয় না। উদ্বেগ থেকে সেই বিশেষ পরিস্থিতিতে আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা দেয়।

শিশুরা প্রাপ্তবয়স্কদের চেয়ে দ্রুত ও কার্যকরভাবে সিলেক্টিভ মিউটিজম কাটিয়ে উঠতে পারে। গবেষণা বলছে, যেসব প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি তাদের সিলেক্টিভ মিউটিজম কাটিয়ে উঠেছেন, তারা এখনো উদ্বেগ সম্পর্কিত অন্য কোনো ব্যাধিতে ভুগছেন। ব্যক্তির চিন্তার প্রক্রিয়া ও আচরণকে লক্ষ্য করে থেরাপির মাধ্যমে সিলেক্টিভ মিউটিজমের চিকিৎসা করা যেতে পারে।

বডি ডিসমরফিক ডিসঅর্ডার
বডি ডিসমরফিক ডিসঅর্ডারে আক্রান্ত ব্যক্তি তাদের শরীরের একটি নির্দিষ্ট দিক বা অঙ্গ সম্পর্কে অত্যন্ত সচেতন, যদিও এটি অন্যদের নজরে আসে না বা আশেপাশে অন্যদের বিরক্ত করে না। তারা যেটিকে ত্রুটি বলে মনে করেন, তা সংশোধন করতে তারা প্রচুর পরিমাণে সময় ব্যয় করেন। এই ব্যাধিজনিত ব্যক্তিরা প্রায়শই অসামাজিক হয় এবং যখনই তারা বাইরে যান তখন তাদেরকে কেমন দেখাচ্ছে তা নিয়ে অতিরিক্ত সচেতন থাকেন। চেহারা পরিবর্তন করে বা ত্রুটি থেকে মুক্তি পাওয়ার পরেও এরা স্থায়ীভাবে স্বস্তি বোধ করেন না, কারণ তারা কিছু সময় পরেই দেহের অন্য অঙ্গ সম্পর্কে সচেতন হয়ে পড়েন।

ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া
ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া একটি বিরল ব্যাধি, যার ফলে লোকেরা হঠাৎ করে তাদের দেহ থেকে চুল ছেড়ার তাগিদ অনুভব করেন। তারা মাথার ত্বক, ভ্রু, চোখের পাতা বা অন্য কোনো অঙ্গ থেকে এটি করে থাকেন। উদ্বেগ বা আতঙ্ক বোধ করলে এসব রোগী তাদের দেহ থেকে চুল ছিঁড়ে স্বস্তি পান। এটি আক্রান্ত অনেকের জন্য মানসিক চাপ মোকাবেলার একটি উপায়। চুল পড়ার অভিজ্ঞতা শুরু হলে এবং জনসমক্ষে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়লে ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া প্রভাব বিস্তার করতে শুরু করতে পারে।

এসব রোগের ক্ষেত্রে চুল ছেড়া বা নিজের উপস্থিতি সম্পর্কে সচেতন হওয়ার লক্ষণগুলি নিয়ন্ত্রণের থেকেও আরও গুরুত্বপূর্ণ কাজটি হলো- উদ্বেগের অন্তর্নিহিত সমস্যাটি মোকাবেলা করা। উদ্বেগ ও মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণ এবং চিকিৎসা করতে সক্ষম হলে এই লক্ষণগুলি হ্রাস পেতে থাকে। দীর্ঘ, স্বাস্থ্যকর ও সুখী জীবনযাপন করতে হলে আপনার শারীরিক স্বাস্থ্যের পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নেয়াও সমান গুরুত্বপূর্ণ। তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

টাইমস/এনজে/জিএস

করোনা ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর : নিউ ইয়র্ক গভর্নর

করোনা ধারণার চেয়েও ভয়ঙ্কর : নিউ ইয়র্ক গভর্নর

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কেন্দ্রস্থল নিউ ইয়র্ক। মঙ্গলবার অঙ্গরাজ্যটির গভর্নর অ্যান্ড্রু

ছুটি ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়বে: প্রধানমন্ত্রী

ছুটি ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়বে: প্রধানমন্ত্রী

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিপূর্ণভাবে ঠেকাতে সব ধরণের ছুটি (সরকারি-বেসরকারি) আরও

কোভিড-১৯ এর চিকিৎসা হবে রোগটি থেকে সেরে ওঠা ব্যক্তির রক্তে

কোভিড-১৯ এর চিকিৎসা হবে রোগটি থেকে সেরে ওঠা ব্যক্তির রক্তে

করোনাভাইরাস সংক্রমিত হবার পর যারা সুস্থ হয়ে উঠেছেন, তাদের রক্তের

উক্তি প্রতিদিন

“ক্ষুধাতুর শিশু চায় না স্বরাজ, চায় দুটো ভাত একটু নুন”

“ক্ষুধাতুর শিশু চায় না স্বরাজ, চায় দুটো ভাত একটু নুন”

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। ১৮৯৯ সালের ২৪ মে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার চুরুলিয়া গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বিদ্রোহী কবি নামে খ্যাত। ১৯৭৪ সালের ৯ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কবিকে সম্মানসূচক ডি.লিট উপাধিতে ভূষিত করে। ১৯৭৬ সালের জানুয়ারি মাসে নজরুলকে বাংলাদেশ সরকার নাগরিকত্ব প্রদান করে। একই বছরে তাকে একুশে পদকে ভূষিত করা হয়।

মতামত

করোনা কি বিশ্বজুড়ে শ্রমিক শ্রেণীকে বিদ্রোহী করে তুলবে?

করোনা কি বিশ্বজুড়ে শ্রমিক শ্রেণীকে বিদ্রোহী করে তুলবে?

করোনাভাইরাসের মহামারী ছড়িয়ে পড়ার ফলে ইতিমধ্যে গৃহবন্দী হয়ে পড়েছেন বিশ্বের মোট জনসংখ্যার প্রায় দুই পঞ্চমাংশ, বুধবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে আট লাখ। এই পরিস্থিতিতে সব থেকে বেশি ঝুঁকিতে আমাদের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি; বিশ্বের আপামর শ্রমিক শ্রেণী, খেটে খাওয়া দিনমজুর আর স্বল্প আয়ের লোকজন। দেশে দেশে কল কারখানাগুলি বন্ধ হয়ে পড়ছে, খেটে খাওয়া মানুষের আয়ের পথ রুদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। রাষ্ট্র কর্তৃক ঘোষিত গৃহবন্দীর ফলে ঘরে আটকে থাকতে হচ্ছে দিন এনে দিন খাওয়া এসব লোকের।

জাতীয়

বাড়ির মালিকদের সহানুভূতিশীল হওয়ার আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর

বাড়ির মালিকদের সহানুভূতিশীল হওয়ার আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর

করোনাভাইরাসের কারণে শ্রমিকদের বাড়িভাড়া বিবেচনা করার জন্য বাড়ির মালিকদের সহানুভূতিশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। মঙ্গলবার মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

আন্তর্জাতিক

গণহারে মাস্ক ব্যবহার বন্ধ করুন: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

গণহারে মাস্ক ব্যবহার বন্ধ করুন: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

গণহারে মাস্ক পরা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি জানিয়েছে, সবাই গণহারে মাস্ক পরার কারণে গুরুত্বপূর্ণ এই চিকিৎসা সরঞ্জামের দাম বিশ্বব্যাপী বেড়ে যেতে পারে। ফলে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যারা রোগাক্রান্ত অথবা যারা চিকিৎসা সেবা প্রদানের সঙ্গে জড়িত তারাই শুধু মাস্ক ব্যবহার করুন। অন্যদের মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা নেই।

বিনোদন

সুরে সুরে করোনা প্রতিরোধের নিয়ম শোনাবেন মমতাজ

সুরে সুরে করোনা প্রতিরোধের নিয়ম শোনাবেন মমতাজ

কণ্ঠশিল্পী ও সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম। এবার করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ডাক দিলেন তিনি। ব্র্যাকের উদ্যোগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে গানটি গেয়েছেন এই শিল্পী।