• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

নাইজেরিয়ার লাজুক হাতিদের পাশে  একদল তরুণ

নাইজেরিয়ার লাজুক হাতিদের পাশে  একদল তরুণ

সেন্ট্রাল ডেস্ক০৮ জুলাই ২০১৯, ০৮:২১পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

মনুষ্য প্রজাতির চাপে বন্যপ্রাণীদের কোণঠাসা অবস্থা পুরো পৃথিবীব্যাপী। গাছের পাখি থেকে শুরু করে বনের হাতি কেউই স্বস্তিতে নেই এই দুই পেয়ে জীবের যন্ত্রণায়। নানামুখী সঙ্কটে প্রাণীকুলের যখন ত্রাহি অবস্থা তখন নাইজেরিয়ায় দেখা যাচ্ছে ভিন্ন একটা চিত্র। সেখানকার যুবক-যুবতীদের একটি দল দেশটির বিপন্ন-সন্ত্রস্ত হাতিদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে।

সংবাদ মাধ্যম এএফপির একটি প্রতিবেদন বলছে, নাইজেরিয়ার ওমো জঙ্গলের প্রাণ বৈচিত্র রক্ষায় দেশটির একদল যুবক-যুবতী নিজেদের জীবন উৎসর্গ করে দিয়েছে। তারা বন্যপ্রাণীদের রক্ষায় বদ্ধপরিকর।

ধারণা করা হয়, দেশটির রাজধানী লাগোস থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ওই জঙ্গলে প্রায় ১০০ হাতির বাস। এদের মধ্যে সাভানা প্রজাতির হাতির চেয়ে অপেক্ষাকৃত লাজুক একটি প্রজাতি রয়েছে। প্রকৃতি ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের জন্য নিবেদিত ওই দলটি সে সব হাতিদের জীবন ঝুঁকিমুক্ত করার কাজ করছে।

পশুপ্রাণী ও জীববিজ্ঞান গবেষক জ্যো অ্যাডুসন বলেন, সে সব মানবাধিকার কর্মীরা একটি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। তা হলো, হাতিরা মানুষকে ভয় পায়। এবং তারা পালিয়ে বেড়ায়। সে কারণে তাদের সনাক্ত করা কঠিন হয়ে পড়ে।

ফরেস্ট এলিফ্যান্ট ইনিশিয়েটিভ নামক একটি বেসরকারি সংস্থার কো-অর্ডিনেটর ইমান্যুয়েল ওলাবডি যেমনটি বলছিলেন, জঙ্গলের গাছপালা উজাড় হয়ে যাওয়ায় তাদের বাসস্থান ধংস হয়ে যাচ্ছে। যে কারণে তারা চলাফেরায় সাচ্ছন্দ্য বোধ করছে না।তারা তাদের আদি বাসস্থান থেকে অন্য কোথাও স্থানান্তরিত হচ্ছে।  

নাইজেরিয়ার ওই এলাকার বেশিরভাগ জঙ্গল জাতিসংঘ পরিবেশ বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো কর্তৃক সংরক্ষিত। তারপরও স্থানীয় গ্রামবাসীদের বাণিজ্যিক কর্মকান্ডের বলি হচ্ছে সেগুলো।এখানকার অর্থনৈতিক কাঠামো এমন যে, তাদের কর্মকাণ্ড হাতির বেঁচে থাকার জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর হলেও এ ছাড়া তাদের কাছেও বিকল্প কিছু নেই।

কৃষি শ্রমিক ক্রিস্টোফার সাদরাচের ভাষায়-আমি বেকার ছিলাম। তাই এই জঙ্গল এলাকায় থিতু হতে আসি। আমি জঙ্গলের একটি ছোটো অংশ পরিষ্কার করে সেখানে কোকোয়া গাছের চারা রোপন করি। যখন কোকোয়াগুলো বাড়তে শুরু করলো আমি সেগুলোতে নিয়মিত পানি দেয়া শুরু করি। এবং যত্ন-আত্তি করি। একসময় সেগুলো পরিপূর্ণ হলো এবং সেগুলো কেটে আমি বিক্রি করি। এখানে একমাত্র কোকোয়াই ফলে। এবং আমি সেগুলো দিয়েই আমার পরিবারকে আগলে রাখি।

এখন বন সংরক্ষণকারীদের জন্য প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো এইসব গ্রামবাসী এবং বন্যপ্রাণীকর্মীদের মধ্যে এক ধরণের ভারসাম্য রক্ষা করা। কেননা উভয় শ্রেণিই বেঁচে থাকার সংগ্রামে লিপ্ত। কেউ প্রত্যক্ষ আবার কেউ পরোক্ষ তথা জীব-জন্তুর হয়ে। এই ভারসাম্য রক্ষার যুদ্ধে তারা কতটুকু সক্ষম হন তার উপর নির্ভর করছে নাইজেরিয়ার এসব হাতিদের বেঁচে থাকা।

 

টাইমস/এমএস

 

‘প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে’

‘প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রিয়া সাহার বক্তব্য শুধু নিন্দনীয় অপরাধ নয়, সাম্প্রদায়িক শক্তির জন্য উসকানিমূলক। দেশদ্রোহী এ বক্তব্যের জন্য ব্যবস্থা নিতে হবে এবং এর প্রক্রিয়া চলছে।

১৮ বছর সাজা ভোগের পর আবার কিশোরীকে ধর্ষণ-হত্যা

১৮ বছর সাজা ভোগের পর আবার কিশোরীকে ধর্ষণ-হত্যা

দীপ্তিকে একটি ইজিবাইকের চালক ইজিবাইক থেকে নামিয়ে বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করেন। পরে লাশটি গুম করতে একটি পরিত্যক্ত পুকুরে ইট বেঁধে ডুবিয়ে রাখা হয়।

‘আমরা প্রিয়া সাহাকে অবশ্যই জিজ্ঞাসা করব'

‘আমরা প্রিয়া সাহাকে অবশ্যই জিজ্ঞাসা করব'

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের কাছে কোন উদ্দেশ্যে এবং কি কারণে করা হয়েছে, বাংলাদেশে ফিরলেই প্রিয়া সাহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

জাতীয়

প্রিয়া সাহা জঘন্য মিথ্যাচার করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রিয়া সাহা জঘন্য মিথ্যাচার করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে যে অভিযোগ করেছেন, তা একেবারেই মিথ্যা। বিশেষ মতলবে এমন উদ্ভট কথা বলেছেন তিনি। আমি এমন আচরণের নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

জাতীয়

উত্তর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী নিহত

উত্তর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী নিহত

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় একটি স্কুলে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারী গণপিটুনিতে মারা গেছেন।

জাতীয়

চট্টগ্রামে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্য গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্য গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম নগরীতে পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরীর টাইগারপাস মোড় থেকে দুইজন এবং স্টেশন রোড এলাকা থেকে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার গ্রেপ্তারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) নোবেল চাকমা।

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত

নারায়ণগঞ্জে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত এবং এক নারী গুরুতর আহত হয়েছেন।

বিনোদন

সম্মানী নিয়েও আসেননি অঙ্কিত, গেয়েছেন নোবেল-সানা

সম্মানী নিয়েও আসেননি অঙ্কিত, গেয়েছেন নোবেল-সানা

শুক্রবার সন্ধ্যায় হয়ে গেল রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে ‘সানগ্লো মিউজিক্যাল ফেস্ট- ১’ শীর্ষক কনসার্ট।

বিনোদন

বাংলাদেশ নয় ভারতেই জন্ম শাহতাজের!

বাংলাদেশ নয় ভারতেই জন্ম শাহতাজের!

তরুণ প্রজন্মের কাছে বেশ পরিচিত মুখ শাহতাজ মুনিরা হাশেম। তার প্রতি ভক্তদের আগ্রহ একটু বেশি। তাদের অনেকের ক্রাশ হয়ে আছেন এই মডেল।