• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬

‘শুধু বিজ্ঞান নয়, সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগ দিতে হবে’

‘শুধু বিজ্ঞান নয়, সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগ দিতে হবে’

সেন্ট্রাল ডেস্ক১৬ এপ্রিল ২০১৯, ০৬:৩৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শুধু বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের বদলে অন্য সব বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগে প্রয়োজনীয় আইন ও বিধি সংশোধনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি অস্ত্রোপচার পরবর্তী রোগীদের পরিচর্চার জন্য নার্সদের বিশেষ প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ-২০১৯ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'নার্সিংটা একসময় আমাদের চাকরির ক্ষেত্রে খুব নিম্ন পর্যায়ে ছিল। আমি তাকে উচ্চ পর্যায়ে তুলে দিই। একসময় ডিপ্লোমা নার্সিং ছিল। কেবলমাত্র ডিপ্লোমা নার্সিং ট্রেনিং করা হত।'

যেকোনো বিষয়ে পড়াশোনা করে নার্সিংয়ে আসার ব্যবস্থা করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

'আমাদের একটা সমস্যা রয়েছে… কেউ যদি নার্সিংয়ে আসতে চায় তাকে সায়েন্সের স্টুডেন্ট হতে হবে। ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে আমি নির্দেশ দিয়েছি, এরকম কোনো বাধ্যবাধকতা থাকা উচিত না। বরং নার্সিং পড়ার সময় সায়েন্সের যে সাবজেক্টটা যতটুকু প্রয়োজন সেটা নার্সিং শিক্ষার যে কারিকুলাম সেখানে সংযুক্ত করে দিতে হবে এবং যে কোনো সাবজেক্টে পড়ুক না কেন নার্সিংয়ে সবাই আসতে পারবে, সেই ব্যবস্থাটা নিতে হবে।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ভেষজ, আয়ুর্বেদিক, ইউনানী এবং হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা উপেক্ষা করতে পারি না এবং মানুষের চিকিৎসার সুবিধার জন্য এগুলোর উন্নয়নের জন্য আরো গুরুত্ব দিতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে মান সম্পন্ন ওষুধ উৎপাদনে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে এবং বিদেশে এর চাহিদা তৈরি হয়েছে পাশাপাশি চিরায়ত ওষুধেরও ব্যাপক গুরুত্ব রয়েছে।

বিশ্বব্যাপী ভেষজ (হার্বাল) চিকিৎসার চাহিদা ব্যাপক উল্লেখ করে তিনি চিরায়ত চিকিৎসার উন্নয়নে নিবিড় গবেষণার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রধানমন্ত্রী তৃণমূল পর্যায়ে জরুরী স্বাস্থ্যসেবা সহজতর করতে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে সরকারি অর্থে কেনা অ্যাম্বুলেন্স ও জিপ বিতরণ করেন।

তিনি জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে তার সরকারের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, স্বাস্থ্য খাতের সামগ্রিক উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, সকল মানুষকে স্বাস্থ্যসেবার আওতায় আনার অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে দেশব্যাপী কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমান প্রায় ১৪ হাজার ক্লিনিক মা ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে এবং এখান থেকে ৩০টি মারাত্মক রোগের ওষুধ বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে।

তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন যে, ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ক্লিনিকগুলো প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় পরবর্তী বিএনপি-জামায়াত শাসনামলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী এই বুনিয়াদী প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়।

তিনি বলেন, প্রসবকালীন সময়ের জন্য দক্ষ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। সরকার আইসিটি ব্যবহার করে ‘স্বাস্থ্য বার্তা’ নামে কল সেন্টারের মাধ্যমে টেলি মেডিসিন সেবা চালু করেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব উদ্যোগ হচ্ছে মূলতঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রবর্তিত স্বাস্থ্যসেবারই অংশ। এ প্রসঙ্গে তিনি স্বাধীনতা পরবর্তী সরকারের আমলে স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে ইউনিয়ন পর্যায়ে ১০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণের কথা স্মরণ করেন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব স্বাগত বক্তৃতা দেন। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)-এর প্রতিনিধিগণ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে, বঙ্গবন্ধু সংবিধানে স্বাস্থ্যকে পাঁচটি মৌলিক চাহিদার একটি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেন।

তিনি বলেন, এই সাংবিধানিক নীতির অনুসরণে আওয়ামী লীগ সরকার মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ এবং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জনগণের মান সম্পন্ন চিকিৎসা সুবিধা প্রদান এবং চিকিৎসক ও নার্সদের মতো দক্ষ জনশক্তি তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকার ঢাকায় প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করে।

তিনি বলেন, তার পরবর্তীতে সরকার দেশের ৮টি বিভাগের প্রতিটি মেডিকেল কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। বর্তমানে চট্টগ্রাম, সিলেট ও রাজশাহীতে তিনটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের কারণে দেশের গড় আয়ু ৬৬ দশমিক ৮ বছর থেকে বেড়ে ৭২ বছর ছাড়িয়েছে এবং মাতৃমৃত্যুর হার ৩ দশমিক ৪৮ থেকে কমে ১ দশমিক ৭২ (প্রতি হাজারে) এবং শিশু মৃত্যুর হার প্রতি ১০০০ এ ৪১ থেকে কমে ২৪-এ দাঁড়িয়েছে ।

আওয়ামী লীগ সরকার সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার সরকার বর্তমানে প্রতিবন্ধীদের জন্য আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে। তিনি বলেন, আগামী বাজেট থেকে অটিস্টিকসহ সব ধরণের প্রতিবন্ধীকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। শেখ হাসিনা এ সময় অটিস্টিকদের কল্যাণে তাঁর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেনের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী হৃদরোগ, স্ট্রোক, ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, কিডনি রোগের ব্যাপক বিস্তার ঘটায় এইসব রোগ সম্পর্কে সতর্ক থাকার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এই রোগগুলো প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহনই উত্তম। তিনি এ সময় এইসব রোগের ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, এগুলো প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি সেরা সমাধানগুলোর একটি। তিনি পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, রোগ নিরাময়ের চেয়ে প্রতিরোধ করা ভালো।

 

 

টাইমস/এসআই

শ্রীলঙ্কায় গির্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলা, নিহত দেড় শতাধিক

শ্রীলঙ্কায় গির্জা ও হোটেলে সিরিজ বোমা হামলা, নিহত দেড় শতাধিক

শ্রীলঙ্কায় খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডের প্রার্থনার সময় রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে অনন্ত তিনটি গির্জা ও তিনটি অভিজাত হোটেলে সিরিজ বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। রোববার সকালের এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৬ জনে। তাদের মধ্যে ৩৫ জন বিদেশি রয়েছে। এছাড়া চার শতাধিক আহত হয়েছেন বলে হাসপাতাল ও পুলিশের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

শ্রীলঙ্কায় নুতন করে আরও একটি হোটেলে বিস্ফোরণ, দুইজন নিহত   

শ্রীলঙ্কায় নুতন করে আরও একটি হোটেলে বিস্ফোরণ, দুইজন নিহত  

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোতে নতুন করে আরেকটি হোটেলে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। রোববারের এ বিস্ফোরণে দুইজন নিহত হয়েছেন। পুলিশের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের পর থেকে দুই বাংলাদেশি নিখোঁজ

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের পর থেকে দুই বাংলাদেশি নিখোঁজ

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে দুই বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। নিখোঁজ দুই বাংলাদেশির মধ্যে একজন প্রাপ্তবয়স্ক, অন্যজন শিশু। চার সদস্যর পরিবারটি শ্রীলঙ্কার বেড়াতে গিয়েছিল বলে জানান তিনি।

জাতীয়

প্রখ্যাত সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ আর নেই

প্রখ্যাত সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ আর নেই

দেশের প্রখ্যাত সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ আর নেই। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর। রোববার ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুর খবর ব্যাংককে বাবার সঙ্গে অবস্থানরত তার বড় মেয়ে ডা. মেঘলা গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন।

জাতীয়

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলার ঘটনায় প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলার ঘটনায় প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোতে গীর্জা ও হোটেলে ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও শোক জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পৃথক বার্তায় তারা এ হামলার নিন্দা জানিয়েছেন।

জাতীয়

শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশিরা নিরাপদে আছেন: বাংলাদেশ হাইকমিশন   

শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশিরা নিরাপদে আছেন: বাংলাদেশ হাইকমিশন  

শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় বাংলাদেশিরা নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার রিয়াজ হামিদুল্লাহ। তিনি জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে এখন পর্যন্ত কোনও বাংলাদেশি হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশের মিশন সেখানে থাকা বাংলাদেশি পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। মিশনে একটি হটলাইন খোলা হয়েছে যাতে করে যে কেউ যোগাযোগ করতে পারে।

জাতীয়

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফের মেরিন ড্রাইভে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মহিউদ্দিন (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রোববার ভোর ৪টার দিকে মেরিন ড্রাইভ সড়কের জব্বার মুন্সির হ্যাচারীর পাশে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ রবিউল ইসলাম ঘটনাটি নিশ্চিত করছেন।

ভ্রমণ

চট্টগ্রামের খেজুরতলা বীচ

চট্টগ্রামের খেজুরতলা বীচ

অজস্র আকর্ষণীয় পর্যটন নিদর্শনে ভরপুর পাহাড় কন্যা চট্টগ্রাম। পাহাড়, সাগর, আঁকাবাঁকা পাহাড়ি সড়ক, বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য, ঝাউবন, ঝুলন্ত সেতু, সমুদ্রবন্দর- কি নেই এখানে। চট্টগ্রামের অন্যতম আকর্ষণ হল এর অনিন্দ্য সুন্দর সমুদ্র সৈকতগুলো। এখানে যে কয়টি সুন্দর সৈকত আছে তার মধ্যে সৌন্দর্যের দিক থেকে খেজুরতলা বীচ অনেকটা এগিয়ে।

বিনোদন

পেশাদার খুনি থেকে ‘প্রেমিক’ সজল

পেশাদার খুনি থেকে ‘প্রেমিক’ সজল

আব্দুন নূর সজল। বাংলা নাটকের বেশ চ্যালেঞ্জিং চরিত্রের একজন তারকা। গেলো দুই বছর ধরে বেছে বেছে চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। এর আগে, বেশী সময় তাকে রোম্যান্টিক চরিত্রে পাওয়া গেলেও এখন গল্প বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বেশ মনোযোগী হয়েছেন এই অভিনেতা।