• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬

‘শুধু বিজ্ঞান নয়, সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগ দিতে হবে’

‘শুধু বিজ্ঞান নয়, সব বিভাগের শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগ দিতে হবে’

সেন্ট্রাল ডেস্ক১৬ এপ্রিল ২০১৯, ০৬:৩৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শুধু বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের বদলে অন্য সব বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের নার্স নিয়োগে প্রয়োজনীয় আইন ও বিধি সংশোধনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি অস্ত্রোপচার পরবর্তী রোগীদের পরিচর্চার জন্য নার্সদের বিশেষ প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ-২০১৯ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, 'নার্সিংটা একসময় আমাদের চাকরির ক্ষেত্রে খুব নিম্ন পর্যায়ে ছিল। আমি তাকে উচ্চ পর্যায়ে তুলে দিই। একসময় ডিপ্লোমা নার্সিং ছিল। কেবলমাত্র ডিপ্লোমা নার্সিং ট্রেনিং করা হত।'

যেকোনো বিষয়ে পড়াশোনা করে নার্সিংয়ে আসার ব্যবস্থা করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

'আমাদের একটা সমস্যা রয়েছে… কেউ যদি নার্সিংয়ে আসতে চায় তাকে সায়েন্সের স্টুডেন্ট হতে হবে। ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে আমি নির্দেশ দিয়েছি, এরকম কোনো বাধ্যবাধকতা থাকা উচিত না। বরং নার্সিং পড়ার সময় সায়েন্সের যে সাবজেক্টটা যতটুকু প্রয়োজন সেটা নার্সিং শিক্ষার যে কারিকুলাম সেখানে সংযুক্ত করে দিতে হবে এবং যে কোনো সাবজেক্টে পড়ুক না কেন নার্সিংয়ে সবাই আসতে পারবে, সেই ব্যবস্থাটা নিতে হবে।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ভেষজ, আয়ুর্বেদিক, ইউনানী এবং হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা উপেক্ষা করতে পারি না এবং মানুষের চিকিৎসার সুবিধার জন্য এগুলোর উন্নয়নের জন্য আরো গুরুত্ব দিতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বর্তমানে মান সম্পন্ন ওষুধ উৎপাদনে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে এবং বিদেশে এর চাহিদা তৈরি হয়েছে পাশাপাশি চিরায়ত ওষুধেরও ব্যাপক গুরুত্ব রয়েছে।

বিশ্বব্যাপী ভেষজ (হার্বাল) চিকিৎসার চাহিদা ব্যাপক উল্লেখ করে তিনি চিরায়ত চিকিৎসার উন্নয়নে নিবিড় গবেষণার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রধানমন্ত্রী তৃণমূল পর্যায়ে জরুরী স্বাস্থ্যসেবা সহজতর করতে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে সরকারি অর্থে কেনা অ্যাম্বুলেন্স ও জিপ বিতরণ করেন।

তিনি জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে তার সরকারের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, স্বাস্থ্য খাতের সামগ্রিক উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, সকল মানুষকে স্বাস্থ্যসেবার আওতায় আনার অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে দেশব্যাপী কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমান প্রায় ১৪ হাজার ক্লিনিক মা ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে এবং এখান থেকে ৩০টি মারাত্মক রোগের ওষুধ বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে।

তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন যে, ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে ক্লিনিকগুলো প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় পরবর্তী বিএনপি-জামায়াত শাসনামলে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী এই বুনিয়াদী প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়।

তিনি বলেন, প্রসবকালীন সময়ের জন্য দক্ষ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। সরকার আইসিটি ব্যবহার করে ‘স্বাস্থ্য বার্তা’ নামে কল সেন্টারের মাধ্যমে টেলি মেডিসিন সেবা চালু করেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব উদ্যোগ হচ্ছে মূলতঃ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রবর্তিত স্বাস্থ্যসেবারই অংশ। এ প্রসঙ্গে তিনি স্বাধীনতা পরবর্তী সরকারের আমলে স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে ইউনিয়ন পর্যায়ে ১০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণের কথা স্মরণ করেন।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব স্বাগত বক্তৃতা দেন। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)-এর প্রতিনিধিগণ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে, বঙ্গবন্ধু সংবিধানে স্বাস্থ্যকে পাঁচটি মৌলিক চাহিদার একটি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেন।

তিনি বলেন, এই সাংবিধানিক নীতির অনুসরণে আওয়ামী লীগ সরকার মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ এবং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে জনগণের মান সম্পন্ন চিকিৎসা সুবিধা প্রদান এবং চিকিৎসক ও নার্সদের মতো দক্ষ জনশক্তি তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, তার সরকার ঢাকায় প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করে।

তিনি বলেন, তার পরবর্তীতে সরকার দেশের ৮টি বিভাগের প্রতিটি মেডিকেল কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। বর্তমানে চট্টগ্রাম, সিলেট ও রাজশাহীতে তিনটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের কারণে দেশের গড় আয়ু ৬৬ দশমিক ৮ বছর থেকে বেড়ে ৭২ বছর ছাড়িয়েছে এবং মাতৃমৃত্যুর হার ৩ দশমিক ৪৮ থেকে কমে ১ দশমিক ৭২ (প্রতি হাজারে) এবং শিশু মৃত্যুর হার প্রতি ১০০০ এ ৪১ থেকে কমে ২৪-এ দাঁড়িয়েছে ।

আওয়ামী লীগ সরকার সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার সরকার বর্তমানে প্রতিবন্ধীদের জন্য আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে। তিনি বলেন, আগামী বাজেট থেকে অটিস্টিকসহ সব ধরণের প্রতিবন্ধীকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। শেখ হাসিনা এ সময় অটিস্টিকদের কল্যাণে তাঁর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেনের অবদানের কথা স্মরণ করেন।

প্রধানমন্ত্রী হৃদরোগ, স্ট্রোক, ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, কিডনি রোগের ব্যাপক বিস্তার ঘটায় এইসব রোগ সম্পর্কে সতর্ক থাকার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এই রোগগুলো প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহনই উত্তম। তিনি এ সময় এইসব রোগের ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, এগুলো প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি সেরা সমাধানগুলোর একটি। তিনি পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, রোগ নিরাময়ের চেয়ে প্রতিরোধ করা ভালো।

 

 

টাইমস/এসআই

কারাবন্দীদের নাস্তায় যুক্ত হলো মুখরোচক খাবার

কারাবন্দীদের নাস্তায় যুক্ত হলো মুখরোচক খাবার

কারাগার প্রতিষ্ঠার পর সেই ব্রিটিশ আমল থেকে একই মেন্যুতে সকালের নাস্তা খেয়ে আসছেন বাংলাদেশের কারাবন্দীরা। অবশেষে সেই ব্রিটিশ আমল থেকে কারাবন্দীদের জন্য বরাদ্দ সকালের নাস্তার মেন্যু পরিবর্তন হল। রোববার (১৬ জুন) থেকে তাদের মেন্যুতে যুক্ত হচ্ছে মুখরোচক কিছু খাবার। কারাগার সূত্রে জানা যায়, কারাগার প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত সকালের নাস্তায় একটি মেন্যু ছিল।

২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক বসালো ভারত   

২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক বসালো ভারত  

আপেল, অ্যালমন্ডসহ ২৮ টি মার্কিন পণ্যের ওপর শুল্ক বসানোর ঘোষণা দিয়েছে ভারত। ভারতের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য সুবিধা তুলে নেওয়ায় পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নিলো দিল্লি। রোববার থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। নতুন এই শুল্ক হার সর্বোচ্চ ৭০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর হতে পারে। খবর বিবিসির।

তুচ্ছ ঘটনায় মা-কে হত্যা করল ছেলে

তুচ্ছ ঘটনায় মা-কে হত্যা করল ছেলে

ঘটনা গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার জুম্মারবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর বগারভিটা গ্রামের। শনিবার রাত আটটার দিকে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মা তাহেরা বেগমের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ান ছেলে কালাম শেখ। একপর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে কালাম তার মায়ের পাঁজরে ছুরিকাঘাত করেন। তাহেরা বেগমকে সোনাতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান।

জাতীয়

কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল দু'জনের

কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল দু'জনের

কুষ্টিয়ায় পৃথক স্থানে ট্রাকের নিচে চাপায় দুই সাইকেলের আরোহী নিহত হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কে ভেড়ামারার বারোমাইল মতিয়া ফিলিং স্টেশন ও কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ সড়কের ভাদালিয়া এলাকায় দুর্ঘটনা দুটি ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক

কিশোর মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড থেকে সরে এলো সৌদি সরকার

কিশোর মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড থেকে সরে এলো সৌদি সরকার

সৌদি আরবে ১৩ বছর বয়সে আটক মুর্তজা কুরেইরিসকে দেয়া মৃত্যুদণ্ড দেশটির সরকার বাতিল করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির এক কর্মকর্তা। শনিবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান ওই কর্মকর্তা। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বিবৃতি দেয়া হয়নি।

জাতীয়

কুমিল্লায় সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

কুমিল্লায় সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

কুমিল্লায় সদর দক্ষিণ উপজেলার সীমান্তবর্তী মথুরাপুর এলাকায় শনিবার রাত আড়াইটার দিকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি)’র সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত হয়েছেন।

উক্তি প্রতিদিন

“দুঃখের সময় প্রকৃত  বন্ধু ভালোবাসা প্রদর্শন করে”

“দুঃখের সময় প্রকৃত বন্ধু ভালোবাসা প্রদর্শন করে”

প্রাচীন গ্রিক কবি ও নাট্যকার ইউরিপিডিস (খ্রিস্টপূর্ব ৪৮০-৪০৬)। বিখ্যাত গ্রিক ট্র্যাজেডির তিন রচয়িতার মধ্যে তিনি একজন। ইউরিপিডিসের জন্ম এথেন্সের একটি দ্বীপ অঞ্চলে। অল্প বয়স থেকেই তিনি কবিতা ও নাটক লেখা শুরু করেন। ইউরিপিডিসের নাটকে উঠে আসে সমকালীন রাজনীতির উত্থান-পতন ও নতুন জীবনদর্শনের বিষয়।

জাতীয়

টেকনাফে র‌্যাবের গুলিতে তিনজন নিহত

টেকনাফে র‌্যাবের গুলিতে তিনজন নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে‌’ তিন মাদক কারবারি নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং-বাহারছড়া সড়কের পাহাড়ি ঢালা নামক এলাকায় কথিত এই বন্দুকযুদ্ধ হয়।

পথিকৃৎ

আবুল মনসুর আহমদের সংক্ষিপ্ত জীবনী

আবুল মনসুর আহমদের সংক্ষিপ্ত জীবনী

বাংলাদেশের একজন বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব আবুল মনসুর আহমদ। বাঙালির উন্নতি এবং সকল ধরনের ধর্মীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে যে সকল সমাজ সংস্কারক এগিয়ে এসেছিলেন তার মধ্যে অন্যতম ছিলেন আবুল মনসুর আহমদ। আবুল মনসুর আহমদ বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টাদের মধ্যে অন্যতম। তিনি ছিলেন একাধারে রাজনীতিবিদ, আইনজ্ঞ ও সাংবাদিক এবং বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্রূপাত্মক রচয়িতা।