• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ১৬ জুন ২০১৯, ২ আষাঢ় ১৪২৬

জাহালমের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করার নির্দেশ

জাহালমের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করার নির্দেশ

সেন্ট্রাল ডেস্ক১৭ এপ্রিল ২০১৯, ০৫:০৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ভুল আসামি হিসেবে বিনা দোষে জাহালমের তিন বছর জেল খাটার পেছনে কারা জড়িত, তা দেখা হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলেরও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বাসস জানায়, বিচারপতি নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কামরুল কাদের সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এ মন্তব্য করে। পরে এ মামলার ফাইল না আসায় শুনানির জন্য আগামী ২ মে পরবর্তী দিন ঠিক করে দিয়েছেন আদালত।

আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান, জাহালমের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী অমিত দাস গুপ্ত, আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। জাহালমও নিজেও আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

গত ১০ এপ্রিল জাহালমের বিষয়ে জানতে তাকে আদালতে আজ উপস্থিত হতে বলা হয়েছিল।

বুধবার এ মামলার শুনানি শুরু হলে দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান সময় চেয়ে আবেদন করেন।

মামলার নথি আসেনি দেখে আদালত বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা ছিল আজ ফাইল আসবে এবং আমরা শুনানি করতে পারব। কিন্তু ফাইল আসেনি।'

এ সময় আদালত দুদকের আইনজীবীকে দুই সপ্তাহের মধ্যে মামলার সংশ্লিষ্ট সব নথি দাখিলের নির্দেশ দেন। কোনো অপরাধ না করেও জাহালমের জেল খাটার পেছনে কারা জড়িত, সেই তদন্ত রিপোর্টও দাখিলের নির্দেশ দিয়ে আগামী ২ মে শুনানির পরবর্তী দিন ঠিক করে দেন আদালত।

এর আগে টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুরের ডুমুরিয়া গ্রামের জাহালমকে মামলায় ভুল আসামি করে অভিযোগপত্র দাখিলের যাবতীয় নথি তলব করে গত ৬ মার্চ আদেশ দেন হাইকোর্ট। ভুল আসামি হয়ে ৩ বছর কারাগারে থাকা পাটকল শ্রমিক নিরীহ জাহালম সব মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়ে হাইকোর্টের মুক্তির নির্দেশের পরপরই গত ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে মুক্তি পেয়ে নিজ গ্রামে ফিরেছেন।

সোনালী ব্যাংকের প্রায় সাড়ে ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগে আবু সালেকের বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা হয়। এর মধ্যে ২৬টিতে জাহালমকে আসামি আবু সালেক হিসেবে চিহ্নিত করে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় দুদক।

চিঠি পাওয়ার পর দুদক কার্যালয়ে হাজির হয়ে পাঁচ বছর আগে জাহালম বলেছিলেন, তিনি সালেক নন। কিন্তু নিরীহ পাটকল শ্রমিক জাহালমের কথা সেদিন দুদকের কেউ বিশ্বাস করেনি।

২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি দুদকের এসব মামলায় জাহালম গ্রেপ্তার হন। তিনি জেল খাটছেন, আদালতে হাজিরা দিয়ে চলেছেন। গত ৩০ জানুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিকে ‘স্যার, আমি জাহালম, সালেক না’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদনটি ওইদিন এ হাইকোর্ট বেঞ্চের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অমিত দাশ গুপ্ত। শুনানি নিয়ে আদালত জাহালমের আটকাদেশ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে স্বতঃপ্রণোদিত রুল জারি করে।

একই সঙ্গে নিরীহ জাহালমের গ্রেপ্তারের ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে দুদক চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি, মামলার বাদী দুদক কর্মকর্তা, স্বরাষ্ট্রসচিবের প্রতিনিধি ও আইনসচিবের প্রতিনিধিকে ৩ ফেব্রুয়ারি সশরীরে আদালতে হাজির থাকার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এরই প্রেক্ষিতে ওইদিন সংশ্লিষ্টরা আদালতে হাজির হন।

 

 

টাইমস/এসআই

কারাবন্দীদের নাস্তায় যুক্ত হলো মুখরোচক খাবার

কারাবন্দীদের নাস্তায় যুক্ত হলো মুখরোচক খাবার

কারাগার প্রতিষ্ঠার পর সেই ব্রিটিশ আমল থেকে একই মেন্যুতে সকালের নাস্তা খেয়ে আসছেন বাংলাদেশের কারাবন্দীরা। অবশেষে সেই ব্রিটিশ আমল থেকে কারাবন্দীদের জন্য বরাদ্দ সকালের নাস্তার মেন্যু পরিবর্তন হল। রোববার (১৬ জুন) থেকে তাদের মেন্যুতে যুক্ত হচ্ছে মুখরোচক কিছু খাবার। কারাগার সূত্রে জানা যায়, কারাগার প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত সকালের নাস্তায় একটি মেন্যু ছিল।

২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক বসালো ভারত   

২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক বসালো ভারত  

আপেল, অ্যালমন্ডসহ ২৮ টি মার্কিন পণ্যের ওপর শুল্ক বসানোর ঘোষণা দিয়েছে ভারত। ভারতের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য সুবিধা তুলে নেওয়ায় পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নিলো দিল্লি। রোববার থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। নতুন এই শুল্ক হার সর্বোচ্চ ৭০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর হতে পারে। খবর বিবিসির।

তুচ্ছ ঘটনায় মা-কে হত্যা করল ছেলে

তুচ্ছ ঘটনায় মা-কে হত্যা করল ছেলে

ঘটনা গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার জুম্মারবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর বগারভিটা গ্রামের। শনিবার রাত আটটার দিকে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মা তাহেরা বেগমের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ান ছেলে কালাম শেখ। একপর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে কালাম তার মায়ের পাঁজরে ছুরিকাঘাত করেন। তাহেরা বেগমকে সোনাতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান।

জাতীয়

কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল দু'জনের

কুষ্টিয়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল দু'জনের

কুষ্টিয়ায় পৃথক স্থানে ট্রাকের নিচে চাপায় দুই সাইকেলের আরোহী নিহত হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কে ভেড়ামারার বারোমাইল মতিয়া ফিলিং স্টেশন ও কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ সড়কের ভাদালিয়া এলাকায় দুর্ঘটনা দুটি ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক

কিশোর মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড থেকে সরে এল সৌদি

কিশোর মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড থেকে সরে এল সৌদি

সৌদি আরবে ১৩ বছর বয়সে আটক মুর্তজা কুরেইরিসকে দেয়া মৃত্যুদণ্ড দেশটির সরকার বাতিল করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির এক কর্মকর্তা। শনিবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান ওই কর্মকর্তা। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বিবৃতি দেয়া হয়নি।

জাতীয়

কুমিল্লায় সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

কুমিল্লায় সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

কুমিল্লায় সদর দক্ষিণ উপজেলার সীমান্তবর্তী মথুরাপুর এলাকায় শনিবার রাত আড়াইটার দিকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি)’র সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত হয়েছেন।

উক্তি প্রতিদিন

“দুঃখের সময় প্রকৃত  বন্ধু ভালোবাসা প্রদর্শন করে”

“দুঃখের সময় প্রকৃত বন্ধু ভালোবাসা প্রদর্শন করে”

প্রাচীন গ্রিক কবি ও নাট্যকার ইউরিপিডিস (খ্রিস্টপূর্ব ৪৮০-৪০৬)। বিখ্যাত গ্রিক ট্র্যাজেডির তিন রচয়িতার মধ্যে তিনি একজন। ইউরিপিডিসের জন্ম এথেন্সের একটি দ্বীপ অঞ্চলে। অল্প বয়স থেকেই তিনি কবিতা ও নাটক লেখা শুরু করেন। ইউরিপিডিসের নাটকে উঠে আসে সমকালীন রাজনীতির উত্থান-পতন ও নতুন জীবনদর্শনের বিষয়।

জাতীয়

টেকনাফে র‌্যাবের গুলিতে তিনজন নিহত

টেকনাফে র‌্যাবের গুলিতে তিনজন নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে‌’ তিন মাদক কারবারি নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং-বাহারছড়া সড়কের পাহাড়ি ঢালা নামক এলাকায় কথিত এই বন্দুকযুদ্ধ হয়।

পথিকৃৎ

আবুল মনসুর আহমদের সংক্ষিপ্ত জীবনী

আবুল মনসুর আহমদের সংক্ষিপ্ত জীবনী

বাংলাদেশের একজন বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব আবুল মনসুর আহমদ। বাঙালির উন্নতি এবং সকল ধরনের ধর্মীয় গোঁড়ামির বিরুদ্ধে যে সকল সমাজ সংস্কারক এগিয়ে এসেছিলেন তার মধ্যে অন্যতম ছিলেন আবুল মনসুর আহমদ। আবুল মনসুর আহমদ বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টাদের মধ্যে অন্যতম। তিনি ছিলেন একাধারে রাজনীতিবিদ, আইনজ্ঞ ও সাংবাদিক এবং বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্রূপাত্মক রচয়িতা।