• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

বাড়ল দ্রুত বিচার আইনের মেয়াদ

বাড়ল দ্রুত বিচার আইনের মেয়াদ

সেন্ট্রাল ডেস্ক১০ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৯এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা ও অধিকতর উন্নতির জন্য বিদ্যমান আইনের মেয়াদ আরও ৫ বছর বৃদ্ধির বিধান করে আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) (সংশোধন) বিল-২০১৯ পাস করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ-বিএনপির পালাপাল্টির মধ্যে বহুল আলোচিত এই বিল মঙ্গলবার সংসদে পাস হয়। বিলে বিদ্যমান আইনের ধারা-১ এর উপধারা (২) এ উল্লেখিত ‘সতরো বৎসর’ শব্দগুলোর পরিবর্তে ‘বাইশ বৎসর’ শব্দগুলি প্রতিস্থাপন করা হয়েছে।

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম, বেগম রওশন আরা মান্নান, বিএনপির হারনুর রশীদ, মোশাররফ হোসেন, রুমিন ফারহানা ও গণফোরামের মোকাব্বির খান বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

২০০২ সালে যখন দ্রুত বিচার আইন প্রথম সংসদে পাস হয়, সে সময় এ আইনের মেয়াদ ছিল দুই বছর। পরে ছয় বারে আইনটির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে মোট ১৫ বছর। সর্বশেষ ২০১৪ সালে এর মেয়াদ ৫ বছর বাড়ানো হয়, যা গত ৯ এপ্রিল শেষ হয়েছে। বিলটি পাস হওয়ায় এখন আইনটি ২০২৪ সাল পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

বিএনপির শাসনামলে প্রথমে আইনটি প্রণয়নের সময় যাদের বিরোধিতা ছিল, সেই আওয়ামী লীগই আইনটির মেয়াদ আরও বাড়িয়েছে। অন্যদিকে বিএনপি এবার আইনটি পাসের সময় আপত্তি জানিয়েছে।

বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশীদ বলেন, বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ–সংবলিত বিবৃতিতে যেসব অপরাধ দমনের কথা বলা হয়েছে, সেসব কাজের সঙ্গে সরকারি দলের লোকজন জড়িত। কিন্তু চাঁদাবাজি, ছিনতাইয়ের মতো এসব অপরাধে এই আইন সরকারি দলের কোনো সদস্যের বিরুদ্ধে প্রয়োগ হয়েছে, তার প্রমাণ নেই। এই আইনে শুধু বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মিথ্যা, ভুয়া মামলা দেয়া হয়েছে।

বিএনপির সংরক্ষিত আসনের সাংসদ রুমিন ফারহানা বলেন, সরকার এই আইনটিতে মজা পেয়ে ২০১৪ সালে একবার বাড়িয়েছে। এখন আবার বাড়াচ্ছে। সরকার আইনটিকে স্থায়ী না করে যতদিন তারা ক্ষমতায় থাকবে ততদিনের জন্য এর মেয়াদ বাড়াচ্ছে। ক্ষমতায় থেকে তারা বিরোধী দলকে হয়রানি করার উদ্দেশ্যেই তারা এটা করছে।

গণফোরামের মোকাব্বির খান বলেন, ২০০২ সালে এই আইনটি যখন প্রথমে পাস হয় তখন বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বিরোধী দলে ছিল। তারা আইনটিকে কালো আইন আখ্যায়িত করে এর বিরোধিতা করে বলেছিল, এটি আওয়ামী লীগ নিধনের আইন। কিন্তু এখন তাদের দেখছি ভিন্ন সুর।

বিএনপির অভিযোগের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইনটি ২০০২ সালে প্রণীত হয়েছিল এবং ওই সময় আমাদের (আওয়ামী লীগ) নামে শত শত মামলা করেছিল। তাদের নেতাকর্মীরা আমাদের বাড়িঘর লুট করেছিল। সেই সময় তাদের নামে এ আইনে কোনো মামলা হয়নি। উনারা কথাগুলো মনে করিয়ে দিয়েছেন বলেই আজ এটা আমি বললাম।

যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্তাব নাকচ করে তিনি বলেন, কেবল সময় বাড়ানোর জন্যই এই আইনটির সংশোধনী আনা হয়েছে। এর মধ্যে কোন পরিবর্তন আনা হয়নি। এজন্য জনমত যাচাইয়ের নোটিশ যুক্তিসংগত নয়।

জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম বলেন, আওয়ামী-বিএনপি দুইপক্ষই এই কালো আইনকে স্পর্শ করেছেন। তার একটা প্রমাণ এই সংসদে দিয়ে গেলেন।

উল্লেখ্য, আইনটি প্রণয়নের উদ্দেশ্যে বলা হয়েছিল, চাঁদাবাজি, যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি, যানবাহনের ক্ষতি সাধন, স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিনষ্ট, ছিনতাই, দস্যুতা, ত্রাস ও সন্ত্রাস সৃষ্টি, অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি, দরপত্র কেনায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি, ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ বিভিন্ন অপরাধ দ্রুততার সঙ্গে বিচারের জন্য এ আইন।

এ আইনে দোষী প্রমাণিত হলে দুই থেকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড হতে পারে। প্রতি জেলায় গঠিত এক বা একাধিক দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে এ আইনের মামলার বিচার চলে।

দ্রুত বিচার আইনে ১২০ দিনের মধ্যে বিচারকাজ নিষ্পত্তি করার বিধান আছে। এই সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা না গেলে আরও ৬০ দিন সময় পাওয়া যায়।

 

টাইমস/জিএস

‘প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে’

‘প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রিয়া সাহার বক্তব্য শুধু নিন্দনীয় অপরাধ নয়, সাম্প্রদায়িক শক্তির জন্য উসকানিমূলক। দেশদ্রোহী এ বক্তব্যের জন্য ব্যবস্থা নিতে হবে এবং এর প্রক্রিয়া চলছে।

১৮ বছর সাজা ভোগের পর আবার কিশোরীকে ধর্ষণ-হত্যা

১৮ বছর সাজা ভোগের পর আবার কিশোরীকে ধর্ষণ-হত্যা

দীপ্তিকে একটি ইজিবাইকের চালক ইজিবাইক থেকে নামিয়ে বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করেন। পরে লাশটি গুম করতে একটি পরিত্যক্ত পুকুরে ইট বেঁধে ডুবিয়ে রাখা হয়।

‘আমরা প্রিয়া সাহাকে অবশ্যই জিজ্ঞাসা করব'

‘আমরা প্রিয়া সাহাকে অবশ্যই জিজ্ঞাসা করব'

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের কাছে কোন উদ্দেশ্যে এবং কি কারণে করা হয়েছে, বাংলাদেশে ফিরলেই প্রিয়া সাহাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

জাতীয়

প্রিয়া সাহা জঘন্য মিথ্যাচার করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রিয়া সাহা জঘন্য মিথ্যাচার করেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে যে অভিযোগ করেছেন, তা একেবারেই মিথ্যা। বিশেষ মতলবে এমন উদ্ভট কথা বলেছেন তিনি। আমি এমন আচরণের নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

জাতীয়

উত্তর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী নিহত

উত্তর বাড্ডায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে নারী নিহত

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় একটি স্কুলে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারী গণপিটুনিতে মারা গেছেন।

জাতীয়

চট্টগ্রামে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্য গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্য গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম নগরীতে পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে অজ্ঞান পার্টির চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরীর টাইগারপাস মোড় থেকে দুইজন এবং স্টেশন রোড এলাকা থেকে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার গ্রেপ্তারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানান চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) নোবেল চাকমা।

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত

নারায়ণগঞ্জে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে যুবক নিহত, নারী আহত

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত এবং এক নারী গুরুতর আহত হয়েছেন।

বিনোদন

সম্মানী নিয়েও আসেননি অঙ্কিত, গেয়েছেন নোবেল-সানা

সম্মানী নিয়েও আসেননি অঙ্কিত, গেয়েছেন নোবেল-সানা

শুক্রবার সন্ধ্যায় হয়ে গেল রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে ‘সানগ্লো মিউজিক্যাল ফেস্ট- ১’ শীর্ষক কনসার্ট।

বিনোদন

বাংলাদেশ নয় ভারতেই জন্ম শাহতাজের!

বাংলাদেশ নয় ভারতেই জন্ম শাহতাজের!

তরুণ প্রজন্মের কাছে বেশ পরিচিত মুখ শাহতাজ মুনিরা হাশেম। তার প্রতি ভক্তদের আগ্রহ একটু বেশি। তাদের অনেকের ক্রাশ হয়ে আছেন এই মডেল।