• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

'লকডাউনে' যাচ্ছে সূর্য, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের শঙ্কা

'লকডাউনে' যাচ্ছে সূর্য, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের শঙ্কা

ফিচার ডেস্ক১৮ মে ২০২০, ১০:০৭এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

মহামারি করোনা ভাইরাসের মধ্যেই আরও এক দুঃসংবাদ দিলেন যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানীরা। সূর্যের কার্যকারিতা হ্রাস পাওয়ায় পৃথিবী ধ্বংস বা কেয়ামতের দিন ঘনিয়ে আসার আশঙ্কা করছেন তারা।

সূর্যের উপরিভাগের কার্যকারিতা হ্রাস হওয়ার অবস্থাকে জোতির্বিজ্ঞানীরা সূর্যের ‘লকডাউন’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। সূর্যের এমন অবস্থার ফলে পৃথিবীতে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন তারা। তারা বলছেন, সূর্য লকডাউনে চলে যাওয়ায় পৃথিবীতে ঠাণ্ডা আবহাওয়া, ভূমিকম্প ও দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে।

এতে বরফযুগের সৃষ্টিরও আশঙ্কা করছেন তারা। বর্তমানে ‘সোলার মিনিমাম’ পর্যায়ে সূর্য অবস্থান করায় পৃথিবীতে তার কার্যকারিতা নাটকীয়ভাবে হ্রাস পেয়েছে। খবর দ্য ডেইলি মেইল

নাসার গডডার স্পেস ফ্লাইট সেন্টারের ডিন পেসনেল বলেছেন, ১১ বছর পরপর সূর্যের কালো দাগ ফিকে হয়ে যায়। এই ফিকে হয়ে যাওয়াকে ‘সোলার মিনিমাম’ বলা হয়। এটি সূর্যের কালো দাগ আবর্তের একটি অংশ। তিনি বলেন, সূর্য এখন সোলার মিনিমাম পর্যায়ের দিকে যাচ্ছে। ২০১৪ সালে তুলনামূলকভাবে সবচেয়ে বেশি কালো দাগ গণনা করা হয়। বর্তমানে এর সংখ্যা অনেক কম।

বিশেষজ্ঞদের বিশ্বাস, আমাদের সূর্য সবচেয়ে খারাপ অবস্থার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে। আগে কখনও সূর্যের এমন অবস্থা দেখা যায়নি। সূর্যপৃষ্ঠের কালো দাগ (সৌরকলঙ্ক) কখনও মিলিয়ে যেতে দেখা যায়নি।

বিশ্বখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী ড. টনি ফিলিপ বলেন, ‘সোলার মিনিমাম’ নিম্নগামী। সূর্যের কালো দাগ গণনায় দেখা গেছে, গত শতাব্দীতে সূর্যের চম্বুকক্ষেত্র দুর্বল হয়ে পড়ে। এ কারণে সৌরজগতে অতিরিক্ত মহাজাগতিক রশ্মি প্রবেশ করছে।

এ রশ্মি নভোচারী ও মেরুদেশীয় অঞ্চলে বিমান ভ্রমণকারীদের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। অতিরিক্ত রশ্মি পৃথিবীর উপরিভাগে ইলেকট্রো-ক্যামেস্ট্রিতে প্রভাব ফেলে এবং বজ্রপাত সৃষ্টিতে সহায়তা করে।

নাসার বিজ্ঞানীদের ভয়, ‘সোলার মিনিমাম’ আবার ডাল্টন মিনিমামের পুনরাবৃত্তিও হতে পারে। ১৭৯০ ও ১৮৩০ সালের মধ্যে ডাল্টন মিনিমাম ঘটেছিল। এ সময় পৃথিবীতে মারাত্মক ঠাণ্ডা, শস্য উৎপাদনে বিপর্যয়, দুর্ভিক্ষ ও শক্তিশালী অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটেছিল। ২০ বছরে তাপমাত্রা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস কমেছিল। এতে সারা বিশ্বে খাদ্য উৎপাদন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

১৮১৫ সালের ১০ এপ্রিল ইন্দোনেশিয়ার মাউন্ট টামবোরায় দ্বিতীয় বৃহৎ অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে। এতে ৭১ হাজার মানুষ মারা যায়। ডাল্টন মিনিমামের কারণে ১৮১৬ সালে তথাকথিত গ্রীষ্মবিহীন বছর (ইয়ার উইদাউট এ সামার) এসেছিল। একে এইটিন হান্ডেড অ্যান্ড ফ্রোজেন টু ডেথ বলেও ডাকা হয়। এ বছর সূর্য প্রায় কালো দাগ শূন্য। এ সময়ে শূন্যের (ব্ল্যাঙ্ক) পরিমাণ ৭৬ শতাংশ কম। এ সময়ে গত বছর ছিল ৭৭ শতাংশ।

 

টাইমস/জিএস

বান্ধবীকে হয়রানির প্রতিবাদ, রিফাত স্টাইলে ছাত্র খুন (ভিডিও)

বান্ধবীকে হয়রানির প্রতিবাদ, রিফাত স্টাইলে ছাত্র খুন (ভিডিও)

বরগুনায় আবারও রিফাত স্টাইলে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। বান্ধবীকে

করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১১৬৬

করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১১৬৬

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৮০তম দিনে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে আরও

ভারতের বিরুদ্ধে নেপালের যুদ্ধের হুঙ্কার!

ভারতের বিরুদ্ধে নেপালের যুদ্ধের হুঙ্কার!

ক’দিন আগেই ভারত তাদের বলে দাবি করা বিতর্কিত ভূখণ্ড কালাপানি

স্বাস্থ্য

রক্তের টি-সেল বাড়িয়ে কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসার সম্ভাবনা

রক্তের টি-সেল বাড়িয়ে কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসার সম্ভাবনা

কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় একটি কার্যকরী ভ্যাকসিন ঠিক কখন পাওয়া যাবে সেটি এখনও পরিষ্কার নয়। বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ভাইরাস প্রতিরোধে ভ্যাকসিন ও প্রতিষেধক আবিষ্কারের চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের গবেষণায় কখনো আলো দেখা গেলেও তা পরে আর প্রজ্বল হয়নি। এবার ব্রিটেনের একদল বিজ্ঞানী করোনাভাইরাসে সংক্রমিত গুরুতর রোগীদের চিকিৎসায় নতুন একটি পথের সন্ধান পেয়েছেন। তারা ভাবছেন, শরীরের টি-সেল বাড়িয়ে গুরুতর কোভিড-১৯ রোগীকে সারিয়ে তোলা যেতে পারে।

বিনোদন

গায়ক নোবেল ঢাকায়, বাড়িতে করোনায় আক্রান্ত বাবা

গায়ক নোবেল ঢাকায়, বাড়িতে করোনায় আক্রান্ত বাবা

জনপ্রিয় গায়ক নোবেলম্যান খ্যাত মাঈনুল আহসান নোবেলের বাবা মোজাফফর হোসেন নান্নু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সপ্তাহ খানেক আগে

আন্তর্জাতিক

দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণের আশঙ্কা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি

দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণের আশঙ্কা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কমে যাওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ লকডাউন শিথিল অথবা সামাজিক দুরত্ব নীতি তুলে নিয়েছে। এসব দেশে দ্বিতীয় বারের মত করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হতে পারে বলে নতুন করে সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

স্বাস্থ্য

দাঁতের যত্নে ডেন্টাল ফ্লস

দাঁতের যত্নে ডেন্টাল ফ্লস

দুইবেলা দাঁত ব্রাশ করার উপদেশ পায়নি এমন মানুষ খুঁজে যাওয়া সম্ভব না। তারপরও অনেকেই সেটুকু করেন না। চিকিৎসাবিজ্ঞানের তথ্যানুসারে স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়, দুইবেলা দাঁত ব্রাশ করার মাধ্যমে ‘ক্যাভিটি’ আর মুখের দুর্গন্ধ দূর হওয়ার পাশাপাশি আরও অনেক রোগের ঝুঁকি নিয়ন্ত্রণে থাকে।

জাতীয়

জমি লিখে নিয়ে মাকে রাস্তায় ফেলে রাখল ছেলেরা

জমি লিখে নিয়ে মাকে রাস্তায় ফেলে রাখল ছেলেরা

বৃদ্ধ মা’কে রাস্তায় ফেলে যাওয়ায় তিন ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত তিনজন হলেন- আবদুর রাজ্জাক, মোয়াজ্জেম হোসেন ও মোজাম্মেল হক। ঈদের দিন সকালে তারা তাদের মাকে রাস্তায় ফেলে যান।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বুয়েটে ভর্তিতে ফার্স্ট হওয়া সেই অনিক ডাক পেলেন গুগলে

বুয়েটে ভর্তিতে ফার্স্ট হওয়া সেই অনিক ডাক পেলেন গুগলে

চট্টগ্রামের ছেলে অনিক সরকার ২০১৪ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই সেরা ছাত্র অনিক সরকার এবার ডাক পেলেন গুগলে