• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

দেশের সবচেয়ে বড় দীঘি রামসাগর

দেশের সবচেয়ে বড় দীঘি রামসাগর

ফিচার ডেস্ক১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০৫:৩৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

রামসাগর নামটি শুনলে মনে হতে পারে বিশাল কোনো সাগর কিংবা মহাসাগর হয়তো। কিন্তু না, রামসাগর কোনো সাগর বা মহাসাগর নয়। এটি দিনাজপুর জেলায় অবস্থিত দেশের সবচেয়ে বড় দীঘি।

দীঘিটি জেলা শহর থেকে সাত কিলোমিটার দক্ষিণে তাজপুর গ্রামে অবস্থিত। বিশাল এই দীঘির আয়তন চার লাখ ৩৭ হাজার ৪৯২ বর্গমিটার। এর প্রতিটি পাড়ের উচ্চতা প্রায় সাড়ে ১৩ মিটার। এছাড়া এটি দৈর্ঘে এক হাজার ৩১ মিটার ও প্রস্থে ৩৬৪ মিটার। দীঘিটির গভীরতা নয় মিটারের মতো।

দিনাজপুরের তৎকালীন রাজা রামনাথ ১৭৫০ থেকে ১৭৫৫ সালের মধ্যে দীঘিটি খনন করেন। তার নামানুসারেই দীঘির নাম রামসাগর।

প্রচলিত আছে, প্রায় দেড় লাখ শ্রমিক মাত্র ১৫ দিনে এই বিশাল দীঘিটি খনন করেছিল। সে সময়ে দীঘিটি খনন করতে খরচ হয়েছিল ৩০ হাজার টাকা।

দীঘিটি নিয়ে বেশ কয়েকটি লোককথা রয়েছে। সবচেয়ে বেশি প্রচলিত মত হলো, ১৯৫০ সালের খরায় এই অঞ্চলে পানিসহ ব্যাপক খাদ্যাভাব দেখা দেয়। সে সময় রাজা রামনাথ স্বপ্নে আদেশ পেয়ে মাত্র ১৫ দিনে একটি দীঘি খনন করেন। কিন্তু দীঘি খনন হলেও সেটাতে পানি উঠছিল না। আবার একদিন রাজা স্বপ্নে আদেশ পান যে, তার একমাত্র সন্তানকে এই দীঘিতে বলি দিলে তবেই পানি উঠবে। সেই আদেশ মতো রাজা তার একমাত্র ছেলেকে পুকুরে ছেড়ে দেন। রাজপুত্র দীঘিতে নামতেই দীঘিটি পানিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেল। আর রাজপুত্র পানিতেই বিলীন হলে গেলেন!

১৯৬০ সালে দীঘিটির দায়িত্ব পায় বনবিভাগ। ১৯৯৫ সালে এটিকে একটি পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হয়। ২০০১ সালে দীঘিটিকে জাতীয় উদ্যান ঘোষণা করে সরকার।

দীঘিটির চারপাশে রয়েছে বৃক্ষরাজি। প্রত্যেক পাড়ে রয়েছে দর্শনার্থীদের বসার সুব্যবস্থা। এখানে রয়েছে ছোট একটি চিড়িয়াখানা। রয়েছে একটি শিশুপার্কও। ব্যক্তি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে একটি পাঠাগার। তাছাড়া পিকনিক করার জন্য রয়েছে সাতটি আলাদা স্থান।

প্রতিদিনই অসংখ্য দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে এখানে। এখানকার প্রাকৃতিক ও মনোরম দৃশ্য মন কেড়ে নেয় পর্যটকদের।

যেভাবে যাবেন: ঢাকা থেকে বাসে যেতে হবে দিনাজপুর। এজন্য নাবিল পরিবহন, হানিফ এন্টারপ্রাইজ, শ্যামলী পরিবহন, এস আর ট্রাভেলস, কেয়া পরিবহনসহ বেশ কিছু বাস সার্ভিস রয়েছে। শ্রেণিভেদে ভাড়া লাগবে পাঁচশ টাকা থেকে এক হাজার টাকা। এরপর অটোরিকশায় সহজেই যাওয়া যাবে রামসাগর।

এছাড়া ট্রেনেও যেতে পারেন। ঢাকা থেকে দ্রুতযান এক্সপ্রেস ও একতা এক্সপ্রেস নামে দুটি আন্তঃনগর ট্রেন রয়েছে।

থাকার ব্যবস্থা: থাকার জন্য দিনাজপুরে রয়েছে বিভিন্ন মানের আবাসিক হোটেল। এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হচ্ছে পর্যটন মোটেল, হোটেল ডায়মন্ড, হোটেল নবীন, হোটেল আল রশিদ প্রভৃতি। ভাড়া পড়বে শ্রেণিভেদে পাঁচশ থেকে দুই হাজার টাকা।

খাবার ব্যবস্থা: খাবারের জন্যও রয়েছে ভালোমানের হোটেল ও রেস্টুরেন্ট।

 

সিলেটে ৫৬ সাংবাদিকের একযোগে জিডি

সিলেটে ৫৬ সাংবাদিকের একযোগে জিডি

সাংবাদিকরা বলেন, উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও ১৯ সেপ্টেম্বর সাদা পোশাকে সিনিয়র সাংবাদিক বুলবুলকে তুলে নিয়ে সিলেট জেলা পুলিশ ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে। সেই সঙ্গে দুই ঘণ্টা পুলিশের লুকোচুরি খেলা আমাদের উদ্বিগ্ন করেছে। তাই, আমরা আমাদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত।

গণপূর্তের ৮০ ভাগ টেন্ডারে জি কে শামীমের থাবা  

গণপূর্তের ৮০ ভাগ টেন্ডারে জি কে শামীমের থাবা  

`দামি উপঢৌকন,স্বর্ণালঙ্কার এমনকী অবস্থা বুঝে সুন্দরী মডেলদের ব্যবহার করতেন শামীম। মোটা অঙ্কের টাকায় ভাড়া করা এসব মডেলদের দিয়ে ম্যানেজ করা হতো সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে। এভাবে তিনি গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের মেগা প্রকল্পগুলোর ৮০ ভাগ টেন্ডারে কোনো না কোনোভাবে ভাগ বসান'।

মোহামেডানসহ রাজধানীর চার ক্লাবে পুলিশের অভিযান

মোহামেডানসহ রাজধানীর চার ক্লাবে পুলিশের অভিযান

র‍্যাবের পর জুয়া-ক্যাসিনো বন্ধে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ, দিলকুশা স্পোর্টিং ক্লাব, ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবে একযোগে চারটি ক্লাবে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে ক্লাবগুলোতে এই অভিযান শুরু করে পুলিশ। পুলিশ উপকমিশনার আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘এসব ক্লাবে অবৈধভাবে জুয়া, ক্যাসিনো চলতো এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এই অভিযান চালানো হচ্ছে।

জাতীয়

গোপালগঞ্জের ভিসির বিরুদ্ধে ঢাকায় বিক্ষোভ

গোপালগঞ্জের ভিসির বিরুদ্ধে ঢাকায় বিক্ষোভ

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য খোন্দকার নাসির উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বিক্ষোভ হয়েছে। ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে উপাচার্য নাসিরের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর শনিবার সন্ত্রাসীদের হামলায় অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। উপাচার্য বহিরাগতদের দিয়ে এই হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

জাতীয়

প্রথা ভেঙে বিয়ে: খাদিজার বাড়িতে ‘বরভাতের’ আয়োজন

প্রথা ভেঙে বিয়ে: খাদিজার বাড়িতে ‘বরভাতের’ আয়োজন

প্রথা ভেঙে বিয়ে করে সোশ্যাল মিডিয়া ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে এখন আলোচনায় খাদিজা ও তরিকুল দম্পতি। শনিবার প্রচলিত নিয়ম ভেঙে কনে খাদিজা  আক্তার খুশি মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভার চৌগাছা গ্রামের তরিকুল ইসলামকে  বিয়ে করে নিজের বাড়িতে ফেরেন। রোববার খাদিজার বাড়িতে আয়োজন করা হয়েছে ‘বরভাত’। ‘বরভাতের’ এ অনুষ্ঠান হয়েছে খাদিজা আক্তারের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা সদরের হাজরাহাটি গ্রামে।

খেলাধুলা

ইনজুরিতে রশিদ খান, ফাইনালে খেলা নিয়ে শঙ্কা

ইনজুরিতে রশিদ খান, ফাইনালে খেলা নিয়ে শঙ্কা

এ বিষয়ে আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের ম্যানেজার নাজিম জার আব্দুল রহিম জাই বলেন, ইনজুরির পরও রশিদ মাঠে নেমে ভালো বল করেছে।ফাইনাল হতে আরও দুদিন বাকি। দেখি কী হয়।আমরা আশা করছি এর মধ্যেই তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন। রশিদ আমাদের দলের মূল খেলোয়াড়, আমাদের অধিনায়ক।আমরা তাকে আগামীকাল এবং তার পরের দিন পর্যন্ত পর্যবেক্ষণে রাখব।

জাতীয়

লেগুনায় ওঠার সময় মায়ের কোল থেকে পড়ে মারা গেল শিশু

লেগুনায় ওঠার সময় মায়ের কোল থেকে পড়ে মারা গেল শিশু

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর ভাঙ্গা প্রেস এলাকায় মর্মান্তিক এক ঘটনা ঘটেছে। রোববার সকালে লেগুনায় ওঠার সময় মায়ের কোল থেকে পড়ে আট মাস বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শিশুটির নাম খাদিজা। তার মায়ের নাম পারভিন সুলতানা। বাবার নাম রবিউল হাসান। পারভিন ঢাকার ডেমরার কোনাপাড়া এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকেন। তারা মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ফুলতলা গ্রামের বাসিন্দা।

বিনোদন

‘শাকিবের সাথে কাজের বিষয়টা গোপন থাকুক’

‘শাকিবের সাথে কাজের বিষয়টা গোপন থাকুক’

বলিউড তারকা নার্গিস ফাখরি। তিনি শুধু বলিউড নন, হলিউড তারকাও। তবে এবার তাকে দেখা যাবে ঢালিউডে। বাংলা চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের নায়িকা হয়ে ঢালিউড সিনেমায় হাজির হবেন তিনি।

রাজনীতি

যাদের ধরা হচ্ছে তারা কেউ চুনোপুঁটি নয়: তথ্যমন্ত্রী

যাদের ধরা হচ্ছে তারা কেউ চুনোপুঁটি নয়: তথ্যমন্ত্রী

রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাবে অভিযান চালিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে যাদের ধরছে, তাদের  সম্পর্কে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, যাদের ধরা হচ্ছে কোনোটাই কেঁচো নয়, কোনোটাই চুনোপুঁটি নয়। রোববার তথ্য মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।