• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭

ইফতারে খেজুর খান, সবল থাকুন

ইফতারে খেজুর খান, সবল থাকুন

ফিচার ডেস্ক০৭ মে ২০১৯, ০৪:৫২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শুরু হলো মহিমান্বিত মাস রমজান। মুসলিম বিশ্বে পুরো মাসটিতে পবিত্র আবহ বিরাজ করে। এ মাসে মানুষের দৈনন্দিন রুটিনে যেমন পরিবর্তন আসে তেমনি পরিবর্তন আসে প্রতিদিনের খাবার মেন্যুতে। সারাদিন রোজার শেষে ইফতারকে ঘিরেই থাকে সবচেয়ে বড় আয়োজন। ইফতারে কী থাকবে কী থাকবে না এ নিয়ে সবাই বেশ সচেতন থাকেন। তবে আর যাই রাখুন, না রাখুন একটি আইটেম রাখেন সবাই, আর তা হলো খেজুর। কিন্তু কেন খেজুরের এই সমাদর? কী আছে মরুর ফল খেজুরে? আসুন জেনে নেওয়া যাক-

খেজুরের পুষ্টি গুন:

খেজুর পরিচিত একটি সুস্বাদু ফল। যা ফ্রুকটোজ এবং গ্লাইসেমিক সমৃদ্ধ। এটি রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়ায়।খেজুর ফলকে চিনির বিকল্প হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। খেজুরের পুষ্টি উপাদান সম্পর্কে বলা হয় চারটি বা ৩০ গ্রাম পরিমাণ খেজুরে আছে ৯০ ক্যালোরি, এক গ্রাম প্রোটিন, ১৩ মি.লি. গ্রাম ক্যালসিয়াম, ২.৮ গ্রাম ফাইবার এবং আরও অন্যান্য পুষ্টি উপাদান।খেজুর শক্তির একটি ভালো উৎস। তাই খেজুর খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শরীরের ক্লান্তিভাব দূর হয়। আছে প্রচুর ভিটামিন বি। যা ভিটামিন বিসিক্স মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক।

 

ইফতারে কেন খেজুর রাখবেন?

হৃদরোগের ঝুকি কমায়: খেজুরে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।এছাড়া হৃৎপিণ্ডের সবচেয়ে নিরাপদ ওষুধ খেজুর।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে: নিয়মিত খেজুর খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। খেজুরে এমন সব পুষ্টিগুণ রয়েছে যা খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে। এর ফাইবার হজম শক্তি বাড়ানোর পাশাপাশি পাকস্থলিকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ: পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ও প্রাকৃতিক আঁশে পূর্ণ খেজুর ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। তাই যারা নিয়মিত খেজুর খান, তাদের বেলায় ক্যান্সারের ঝুঁকিটাও অনেক কম থাকে।

উচ্চ রক্তচাপ: খেজুরে থাকা আয়রন ও ফাইবার কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।প্রচুর পটাসিয়াম পাওয়া যায় খেজুর থেকে। এটি উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে। এছাড়া মাত্র কয়েকটি খেজুর ক্ষুধার তীব্রতা কমিয়ে দেয় এবং পাকস্থলীকে কম খাবার গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে। অল্পতেই শরীরের প্রয়োজনীয় শর্করার ঘাটতি পূরণ করে।

 

স্মৃতিশক্তি বাড়ায়: মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়ায় খেজুর। বিশেষ করে বয়স্কদের জন্য খেজুর খুবই উপকারী। এটি স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। গ্লুকোজের পাশাপাশি প্রাকৃতিক চিনি পাওয়া যায় খেজুর থেকে যা এনার্জি বাড়ায়। খেজুরে থাকা ভিটামিন সি ও ডি ত্বক ভালো রাখে। এছাড়া খেজুর দৃষ্টিশক্তি বাড়িয়ে রাতকানা প্রতিরোধেও সহায়ক।

মায়ের বুকের দুধ:

খেজুর বুকের দুধ খাওয়ানো মায়েদের জন্য সমৃদ্ধ এক খাবার, যা মায়ের দুধের পুষ্টিগুণ আরও বাড়িয়ে দেয় এবং শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।এছাড়া ক্যালসিয়াম হাড় গঠনে সহায়ক। আর খেজুরে আছে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম, যা হাড়কে মজবুত করে।

সংক্রমণ রোধ: যকৃতের সংক্রমণে খেজুর উপকারী। এ ছাড়া গলাব্যথা এবং বিভিন্ন ধরনের জ্বর, সর্দি ও ঠাণ্ডায় বেশ কাজ দেয়। এছাড়া অন্ত্রের কৃমি ও ক্ষতিকারক পরজীবী প্রতিরোধে খেজুর বেশ সহায়ক। অন্ত্রে উপকারী ব্যাকটেরিয়া তৈরি করে।

শিশুদের রোগবালাই: খেজুর শিশুদের মাড়ি শক্ত করতে সাহায্য করে এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে ডায়রিয়াও প্রতিরোধ করে। তাই শুধু রমজান মাসে কেন, বছরজুড়েই খাদ্য তালিকায় রাখা যায় খেজুর।

শরীরের তাপ বজায় রাখে: খেজুরে বিপুল পরিমাণে ফাইবার, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন এবং ম্যাগনেশিয়াম থাকার কারণে এটি শরীর গরম রাখতে খুব সাহায্য করে।  

ঠাণ্ডা কমায়: ঠাণ্ডায় খুব হাঁচি-কাশি হচ্ছে- চিন্তা নেই। এখনই ২-৩ টে খেজুর, কিছুটা মরিচ আর ১-২ টা এলাচ নিয়ে গরম পানিতে দিয়ে সিদ্ধ করে নিন। ঘুমাতে যাওয়ার আগে ওই পানি খেয়ে নিন। ঘুম থেকে উঠে দেখবেন ঠান্ডা কমে গেছে।  

অ্যাজমা সারায়: শীতে যে রোগগুলো খুব মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে তার মধ্যে অন্যতম হল হাঁপানি বা অ্যাজমা। প্রতিদিন সকাল-বিকাল নিয়ম করে ১-২ টা খেজুর খান। দেখবেন শীতকালে আর হাঁপানি হচ্ছে না আপনার। 

শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে: খেজুরে যেহেতু অনেক পরিমাণে প্রাকৃতিক মিষ্টি থাকে, তাই এই ফলটি খেলে নিমিষে শরীরের শক্তি বেড়ে যায়। 

আর্থারাইটিস কমায়: শীতে যারা আর্থ্রারাইটিসের সমস্যায় খুব ভোগেন তারা আজ থেকেই খেজুর খাওয়া শুরু করুন। এতে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ থাকার কারণে আর্থ্রারাইটিসের ব্যথা কমাতে এটা দারুন কাজে দেয়।

 

টাইমস/এমএস

 

 

 

 

হাজতে ডা. সাবরিনার নির্ঘুম এক রাত

হাজতে ডা. সাবরিনার নির্ঘুম এক রাত

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট ডেলিভারির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন জেকেজি

সিজিপিএ ২.৭৬ নিয়েও যেভাবে গুগলের স্বপ্নজয় চুয়েট ছাত্রের

সিজিপিএ ২.৭৬ নিয়েও যেভাবে গুগলের স্বপ্নজয় চুয়েট ছাত্রের

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) পড়াশোনা করেছেন আক্কাস উদ্দীন

মাত্র ১৫ ঘন্টার ব্যবধানে বাকৃবির আরেক ছাত্রের মৃত্যু

মাত্র ১৫ ঘন্টার ব্যবধানে বাকৃবির আরেক ছাত্রের মৃত্যু

মাত্র ১৫ ঘন্টার ব্যবধানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) আরেক ছাত্রের

জাতীয়

‘দামী স্কুলের টিউশন ফি কমাতে সরকারের কিছু করার নেই’

‘দামী স্কুলের টিউশন ফি কমাতে সরকারের কিছু করার নেই’

বেসরকারি স্কুলগুলো টিউশন ফি কমানো নিয়ে অভিভাবকদের দাবি বিষয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন,‘অভিভাবকরা জেনে বুঝে বাচ্চাদের দামী স্কুলে পাঠিয়েছে। এখানে আইনগতভাবে সরকারের কিছু করার নেই। আমরা বলবো, স্কুল কর্তৃপক্ষ যেন অভিভাবকদের কথা আমলে নেন।’

খেলাধুলা

করোনাক্রান্ত অমিতাভ-অভিষেকের জন্য দোয়া চাইলেন আফ্রিদি

করোনাক্রান্ত অমিতাভ-অভিষেকের জন্য দোয়া চাইলেন আফ্রিদি

করোনা আক্রান্ত অমিতাভ-অভিষেকের জন্য দোয়া চাইলেন আফ্রিদি পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি। বলিউড শাহেনশাহের পরিবারে করোনার হানা পড়েছে খবর জানার পর রোববার দোয়া চেয়ে টুইট করেন আফ্রিদি।

চাকরি

এবার গুগলে চাকরি পেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহরিয়ার

এবার গুগলে চাকরি পেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহরিয়ার

এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শাহেদ শাহরিয়ার শীর্ষ সার্চ ইঞ্জিন গুগলে চাকরি পেয়েছেন। তিনি ঢাবি থেকে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং

জাতীয়

নায়িকা হতে চেয়েছিলেন ডা. সাবরিনা, প্রস্তাবও পেয়েছিলেন!

নায়িকা হতে চেয়েছিলেন ডা. সাবরিনা, প্রস্তাবও পেয়েছিলেন!

আলোচিত চিকিৎসক ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরী সিনেমার নায়িকা হতে চেয়েছিলেন। সিনেমার প্রস্তাবও পেয়েছিলে। এজন্য চুপিচুপি রিহার্সেলেও

জাতীয়

গোপন বিয়ে, শিক্ষক-ছাত্রীকে ধর্ষণ: সেই ম্যাজিস্ট্রেট ওএসডি!

গোপন বিয়ে, শিক্ষক-ছাত্রীকে ধর্ষণ: সেই ম্যাজিস্ট্রেট ওএসডি!

জেলা প্রশাসক জানান, অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত চলছে। নাদির হোসেন শামীমের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য

জুস পানে দূর করুন মাইগ্রেনের অসহ্য যন্ত্রণা

জুস পানে দূর করুন মাইগ্রেনের অসহ্য যন্ত্রণা

মাইগ্রেনের মাথাব্যথা একবার শুরু হলে সহজে যেতেই চায় না। যন্ত্রণার তীব্রতা অনুযায়ী এর স্থায়িত্ব ২/৩ দিন পর্যন্ত হতে পারে। এর ভয়াবহ মাথাব্যথার সাথে যারা পরিচিত, তারাই জানেন এটি কি ধরণের যন্ত্রণাদায়ক। সাধারণ পেইনকিলারে এই মাইগ্রেনের মাথাব্যথা দূর করা সম্ভব হয়ে উঠে না। এই মাইগ্রেনের ব্যথা দূর করার রয়েছে দারুণ কিছু উপায়। সাধারণ ২ টি জুস পানের ফলে নিমেষে দূর হয়ে যাবে মাইগ্রেনের মারাত্মক মাথাব্যথা।