• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বাংলাদেশের কারণেই প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি: মিয়ানমার

বাংলাদেশের কারণেই প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি: মিয়ানমার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৪:৩৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের কার্যক্রম দ্বিতীয় দফাও ব্যর্থ হওয়ার জন্য বাংলাদেশকেই দোষারোপ করেছে মিয়ানমার সরকার। শুক্রবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, রোহিঙ্গাদের যাচাই বাছাইয়ে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সঠিক কাগজপত্র দিতে না পারার কারণে প্রত্যাবাসন কার্যক্রম শুরু করা যায়নি।

অথচ প্রত্যাবাসনের তৎপরতা শুরু হলে মিয়ানমারে নাগরিকত্ব, স্বাধীনভাবে চলার নিরাপত্তা, ফেলে আসা সম্পত্তি ফেরত ও নিরাপত্তা নজরদারির শর্ত দিয়েছে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গারা।

২২ আগস্ট প্রায় সাড়ে তিন হাজার রোহিঙ্গার মিয়ানমারে ফেরার মাধ্যমে দ্বিতীয় দফায় প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রোহিঙ্গাদের অনিচ্ছা ও নানা শর্তের মুখে তা ভেস্তে যায়।

মিয়ানমারের পক্ষ থেকে ৪০০ হিন্দু রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে দিতে অনুরোধ করা হলেও বাংলাদেশ তা প্রত্যাখ্যান করে বলেও দাবি দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের।

জাতিসংঘ বলছে, বাংলাদেশ নয়, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে প্রস্তুত নয় মিয়ানমার সরকার। উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের ফেরার অনুকূলে নয়।

‘রোহিঙ্গারা যাতে ফিরতে পারে আগে সেই পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। সঠিক জীবনমান ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করলে তবেই তারা ফিরতে পারবে। রাখাইনে ফিরে যাওয়ার অধিকার রয়েছে তাদের। রোহিঙ্গারা যখন ফিরে যাবে তারা যেন স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে সে পরিবেশও গড়ে তুলতে হবে’ –বলেন জাতিসংঘের আবাসিক ও মানবিক সহায়তা বিষয়ক সমন্বয়ক কেনিউট অস্টবাই।

 

টাইমস/এসআই

 

 

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে ৫ করোনা রোগীর মৃত্যু

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে ৫ করোনা রোগীর মৃত্যু

গুলশানে ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে অগ্নিকাণ্ড হয়েছে। বুধবার রাত ৯টা

করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন শিল্পপতিরা, এপর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন শিল্পপতিরা, এপর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু

যোবায়ের মোহাম্মদ : করোনাভাইরাসে প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দীর্ঘ হচ্ছে

বিসিএসে অপেক্ষমানের আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ!

বিসিএসে অপেক্ষমানের আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ!

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দিনে দিনে বাড়ছে। এ অবস্থায় রোগীদের চিকিৎসা নিয়ে

জাতীয়

করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১৫৪১

করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১৫৪১

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৮১তম দিনে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে দাড়াল ৫৪৪ জন।

রাজনীতি

খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন -ফখরুল

খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন -ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পরপরই খালেদা জিয়াকে শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাসের জামিন দেয় আদালত।

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ মায়ের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ মায়ের মৃত্যু

ঝড়ের আঘাতে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে টিনের ঘরের ওপর পড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ গৃহবধূর মৃত্যুর হয়েছে। এ ঘটনায় বিদ্যুতায়িত হয়ে আহত হয়েছেন আরও ৫ জন।

জাতীয়

বজ্রপাত থেকে রক্ষার উপায়

বজ্রপাত থেকে রক্ষার উপায়

তীব্র গরমে স্বস্তি এনে দেয় বৃষ্টি। কিন্তু এই স্বস্তির বৃষ্টির সঙ্গে আসা বজ্রপাত বিপর্যয়ের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আমাদের দেশে মার্চ থেকে অক্টোবর পর্যন্ত বজ্রপাত হয়ে থাকে। এর মধ্যে এপ্রিল ও মে মাসে বজ্রপাত তুলনামূলকভাবে বেশি হয়। আর এই বজ্রপাতে প্রায়শই প্রাণহানির শিকার হচ্ছেন দেশের মানুষ।

যা কিছু প্রথম

তালাচাবি আবিষ্কারের ইতিহাস

তালাচাবি আবিষ্কারের ইতিহাস

যবে থেকে মানুষের কিছু জিনিসপত্র সম্বল হল, তবে থেকেই সেগুলোকে আগলে রাখার প্রবণতা এসে গেল। প্রথম প্রথম তালাচাবি বলতে শুধু দড়ি বা অন্য কিছু দিয়ে বেঁধে রাখা হতো। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সত্যিকারের তালাচাবি ব্যবহার করতে শুরু করল মানুষ। সেগুলো কাঠ বা ধাতুর তৈরি। ঠিক কে বা কোনো সভ্যতায়ে প্রথম তালাচাবি ব্যবহার হয়েছিল সেটা সঠিকভাবে জানা যায়নি।

বিনোদন

লকডাউনে কাজ নেই, নিজের প্রাণটাই দিয়ে দিলেন অভিনেত্রী!

লকডাউনে কাজ নেই, নিজের প্রাণটাই দিয়ে দিলেন অভিনেত্রী!

করোনাভাইরাসে লকডাউনের কারণে কোন কাজ নেই। একারণে হতাশায় পড়ে আত্মহত্যা করেছেন এক অভিনেত্রী।