• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

নিজস্ব প্রতিবেদক১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:০৪পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ড ছাত্রদের উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম।

বুধবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মনিরুল ইসলাম বলেন, নির্মম ওই হত্যাকাণ্ডের জন্য ‍বুয়েট হল প্রশাসনের গাফিলতিও রয়েছে। তারা যদি সতর্ক হতো তবে উচ্ছৃঙ্খলতা এড়ানো যেত। এ রকম হত্যাকাণ্ড ঘটতো না। আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় করা তদন্তে এসবই উঠে এসেছে বলে জানান পুলিশের এই উর্ধতন কর্মকর্তা।

তিনি জানান, বুয়েটের ওই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে সরাসরি মারপিটে অংশ নিয়েছিল ১১ জন। বাকী ১৪ জন ঘটনাস্থলে না থেকেও ভূমিকা রেখেছে। তারা হত্যায় মদদ দিয়েছে, নির্দেশনা দিয়েছে এবং পরিকল্পনা করেছে। ভিডিও ফুটেজ, প্রযুক্তিগত সহায়তা, হলের স্টাফ, নাইটগার্ড ও অন্যান্য শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া আসামীদের মধ্যে আদালতে ৮ জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। আবার অনেকে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে না চাইলেও তারা পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি ‍দিয়েছে। অর্থাৎ নিখুতভাবে এই মামলার চার্জশিট প্রস্তুত করে আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

শিবির সন্দেহে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘একক কোনো কারণে আবরার হত্যাকাণ্ড ঘটেনি। হত্যাকারীরা বুয়েটের ছাত্র হলেও এরা র‌্যাগিং করত এবং উচ্ছৃঙ্খল হয়ে উঠেছিল। ছোট খাটো বিষয়ে কেউ দ্বিমত করলে, তাদের সালাম না দিলে, সমীহ করে না চললে, অকারণে হাসি ঠাট্টা করলে তারা অন্যান্য ছাত্রদের ভীত সন্ত্রস্ত করে রাখত। নানা কারণে বহুদিন থেকে এরা উচ্ছৃঙ্খল চরম পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল। তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটে আবরার হত্যার মধ্য দিয়ে। তারা কথিত শিক্ষা দেওয়ার নাম করে একজনের ওপর অত্যাচার করে। তারা মনে করে, একজনকে শায়েস্তা করতে পারলে বাকীরা এমনিতেই সোজা হয়ে চলবে। এজন্য অনেককে মাঝেমধ্যেই মারপিট করত।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ২০১১ নম্বর কক্ষে রাত ১০টার দিকে মারপিট শুরুর পর রাত আড়াইটার দিকে ডাক্তার গিয়ে আবরারকে মৃত ঘোষণা করে। তার আগে বাইরের কেউ জানত না।

বিশ্বজিতকে প্রকাশ্যে কোপানোর পরও আসামীদের শাস্তি হয়নি, আবরারের হত্যাকারীদের ক্ষেত্রে কি আদৌ শাস্তি হবে বলে মনে করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে মনিরুল বলেন, ‘বিশ্বজিতকে প্রকাশ্যে যারা কুপিয়েছে তাদের শাস্তি বহাল আছে। যারা সরাসরি জড়িত ছিল না তারা কেউ কেউ উচ্চ আদালতে গিয়ে শাস্তি কমিয়েছে। আবরারের বেলায় আশা করছি তেমনটি হবে না। কারণ ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশও আগের চেয়ে তদন্তের দিক দিয়ে অনেক শক্তিশালী হয়েছে। নতুন নতুন প্রযুক্তিগত সহায়তা নিয়ে ঘটনা প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে।’

আবরারকে কেন ডেকে নিয়ে গিয়েছিল, তদন্তে কি জানতে পেরেছেন? এর জবাবে মনিরুল ইসলাম জানান, তারা মনে করত, আবরারের আচরণগত সমস্যা ছিল, সালাম দিতো না, সব সময় তীর্যক মন্তব্য করত, হাসি ঠাট্টা করত, তার চলনে শিবির বা হিযবুত তাহরীর করে এমন সন্দেহে আবরারকে রাত ৮টার দিকে ডেকে নিয়ে যায় হত্যাকারীদের কয়েকজন। মূলত উচ্ছৃঙ্খলতার চরম মাত্রায় পৌঁছানোর কারণেই এরকম একটি মর্মান্তিক হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে এ হত্যাকাণ্ডে বুধবার মোট ২৫ জনের নামে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এর মধ্যে ১৯ জন এজাহারের অন্তর্ভুক্ত আর অন্য ৬ জন এজাহার বহির্ভূত। ১৯ জনের মধ্যে ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে আর বাকী ৩ জন (জিসান, তানিম ও মোরশেদ) পলাতক রয়েছে। এজাহার বহির্ভূত ৬ জনের মধ্যে ৫ জন গ্রেপ্তার হয়েছে, বাকী একজন (মুজতবা রাফি) পলাতক রয়েছে। মামলায় ৩১ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আবরার হত্যাকান্ডের পর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে, হত্যার সঙ্গে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় নিয়ে আসব। সেই প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে আজ আদালতে চার্জশিট জমা দেওয়া হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ, প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সাক্ষীর সাক্ষ্য, বিভিন্ন আলামত প্রযুক্তিগত সাক্ষ্য ও অন্যান্য সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে এ চার্জশিট প্রস্তুত করা হয়েছে’। 

 

টাইমস/এমএস 

দেশে করোনায় ৩৩৩৩ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় ৩৩৩৩ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কাশিমপুর কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি নিখোঁজ

কাশিমপুর কারাগার থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি নিখোঁজ

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামী পালিয়ে গেছে। গাজীপুরে

ঈদের ছুটিতে প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ মেধাবী শিক্ষার্থীর

ঈদের ছুটিতে প্রাণ গেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ মেধাবী শিক্ষার্থীর

এবারের ঈদুল আযহার ছুটিতে ঝরে গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থীর তাজা

আইন আদালত

সিনহা হত্যা : লিয়াকত-প্রদীপসহ ৩ আসামি ৭ দিনের রিমান্ডে

সিনহা হত্যা : লিয়াকত-প্রদীপসহ ৩ আসামি ৭ দিনের রিমান্ডে

টেকনাফে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহতের ঘটনায় করা মামলায় ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ তিন আসামির সাতদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। একই সঙ্গে বাকি চার আসামিকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। পাশাপাশি পলাতক দুই আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

জাতীয়

ঘুমের মধ্যেই মারা গেলেন কবি নজরুল কলেজের ছাত্র

ঘুমের মধ্যেই মারা গেলেন কবি নজরুল কলেজের ছাত্র

আব্দুল হাকিম শাওন। পড়াশোনা করতেন কবি নজরুল সরকারি কলেজে। জীবনের পাখা মেলে ধরার আগেই না ফেরার দেশে চলে

জাতীয়

দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা তিন হাজার ৩শ ছাড়াল

দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা তিন হাজার ৩শ ছাড়াল

দেশে মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ আরও ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ হাজার ৩০৬ জনে। এছাড়া একদিনে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন আরও ২৯৭৭ জনের মধ্যে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২ লাখ ৪৯ হাজার ৬৫১ জনে।

জাতীয়

মেজর সিনহার সঙ্গে থাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা কোথায়?

মেজর সিনহার সঙ্গে থাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা কোথায়?

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা সিনহা রাশেদ খান। যা বর্তমানে দেশের আলোচিত একটি ঘটনা। ঘটনার আগে থেকেই কক্সবাজারে ডকুমেন্টারি তৈরির জন্য নিহত সিনহা রাশেদের সাথে সেখানে অবস্থান করছিলেন তিন শিক্ষার্থী।

জাতীয়

সিনহা হত্যা: লিয়াকত-প্রদীপসহ সাত আসামি কারাগারে

সিনহা হত্যা: লিয়াকত-প্রদীপসহ সাত আসামি কারাগারে

টেকনাফে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহতের ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৭ আসামিকে ১০ দিন করে রিমান্ড চেয়েছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কক্সবাজার আদালতে এই আবেদন করেছে র‌্যাব।

বিনোদন

এবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি সানাই, চাইলেন দোয়া

এবার করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি সানাই, চাইলেন দোয়া

এবার প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন আলোচিত-সমালোচিত মডেল চিত্রনায়িকা সানাই মাহবুব। শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায়