• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৯ কার্তিক ১৪২৭
ঝিনাইদহের ডাকবাংলা-কালীগঞ্জ সড়ক নির্মাণে অনিয়ম

সপ্তাহ না যেতেই সড়কের পিচকার্পেটিং মানুষের হাতে হাতে

সপ্তাহ না যেতেই সড়কের পিচকার্পেটিং মানুষের হাতে হাতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝিনাইদহ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৩০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলাবাজার-কালীগঞ্জ উপজেলার নীমতলা বাজার সড়কের পিচকার্পেটিং দুদিন না যেতেই উঠে যাচ্ছে। এরই মধ্যে সড়কের বিভিন্ন অংশ ফেটে চৌচির হয়ে গেছে। এঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে অনেকেই পিচকার্পেটিং হাত দিয়ে তুলে ফেলেছেন। এদিকে স্থানীয়দের থাকাতে ও অনিয়ম ধাপা চাপা দিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার।

ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপদ বিভাগের একটি সুত্র জানায়, ২৩ কিলোমিটার দীর্ঘ এ গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির মজবুতিকরণসহ ডিবিএস ওয়ারিংকোর্স করণের জন্য ২০ কোটি ৫৪ লাখ টাকার টেন্ডার আহবান করা হয়। খুলনার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মোজাহার এন্টারপ্রাইজ সর্বনিন্ম দরদাতা হিসেবে কাজটি পায়। ওই প্রতিষ্ঠানের অনুকুলে গত বছরের ২৮ নভেম্বর কার্যাদেশ প্রদান করা হয়। সে মোতাবেক চলতি বছরের ২৭ মে সড়কটির নির্মাণ কাজ শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু নানা অজুহাতে যথাসময়ে কাজটি শেষ করা হয়নি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এ সড়কের টেন্ডার খুলনার মোজাহার এন্টারপ্রাইজ পেলেও মোটা টাকার বিনিময়ে কাজটি কিনে নিয়েছেন ঝিনাইদহের স্থানীয় ঠিকাদার মেসার্স মিজানুর রহমান মাসুম। অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় ও রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে নিয়ম অনুযায়ী সড়কটির মজবুতিকরণ কাজ শেষ না করেই পিচকার্পেটিং করা হয়েছে। এছাড়া বৃষ্টির কারণে তড়িঘড়ি করে নামকাওয়াস্তে বিটুমিন দিয়ে রাস্তাটির কার্পেটিং করা হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। যে কারণে এক সপ্তাহ না যেতেই সড়কের পিচকার্পেটিং উঠে যেতে শুরু করেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, এলাকার বিক্ষুব্ধ লোকজন সড়ক থেকে পিচকার্পেটিং হাত দিয়েই তুলে ফেলছেন। অনেকেই সড়কে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। এসব অনিয়মের প্রতিবাদে এরই মধ্যে স্থানীয়রা ওই সড়কের পিচকার্পেটিংয়ের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।

ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপদ বিভাগের সূত্রটি জানায়, এরই মধ্যে ওই সড়কের কাজ বাবদ কয়েক কোটি টাকা উত্তোলন করে নিয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি।

এব্যাপারে ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপদ বিভাগ ঝিনাইদহের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মকুল জ্যোতি বসু বলেন, কাজটির তদারকিতে কোনো ঘাটতি হয়নি। সড়কটির প্রকৃত ঠিকাদার খুলনার মোজাহার এন্টারপ্রাইজ। তবে কাজটি করছেন স্থানীয় ঠিকাদার মেসার্স মিজানুর রহমান মাসুম। মজবুতিকরণের কাজ শেষে সড়কটিতে এখন পিচ কার্পেটিংয়ের কাজ চলছে। বৃষ্টির কারনে সড়কের কার্পেটিং করা ৩ কিলোমিটার পিচ উঠে গেছে। সে গুলো পুনঃরায় মেরামত করা হবে বলে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান থেকে জানানো হয়েছে। আমরা সম্পূর্ণ কাজ সঠিক ভাবে বুঝে নেবো।

এ ব্যাপারে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স মিজানুর রহমান মাসুমের মালিক মিজানুর রহমান মাসুম বলেন, মজবুতিকরণে কাজে কোনো অনিয়ম করা হয়নি। ওই কাজের জন্য আট কোটি টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। পিচকার্পেটিং বা ওয়ারিংকোর্স করার সময় হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হওয়ায় তিন কিলোমিটার সড়কে সমস্যা হয়ে গেছে। এখনো বৃষ্টি হচ্ছে প্রতিদিন। আবহাওয়া ভালো হয়ে গেলে পিচকার্পেটিং উঠে যাওয়া তিন কিলোমিটার সড়কে আবার কাজ করা হবে।

এদিকে গত মঙ্গলবার বিকালে দুদকের যশোর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নাজমুস সাদাতের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সড়কটির বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করেছেন।

এ সময় দুদকের যশোর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নাজমুস সাদাত বলেন, দেখেই বোঝা যাচ্ছে সড়কটিতে নিম্নমানের কাজ হয়েছে। সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

একটি সূত্র জানিয়েছে, দীর্ঘ দিন ধরে সড়ক বিভাগের খুলনা জোন নিয়ন্ত্রণ করে আসছে বেশ কয়েকটি ঠিকাদার সিন্ডিকেট। খুলনার মোজাহার এন্টার প্রাইজ লিমিটেড (জেভি) তাদের মধ্যে অন্যতম। ঝিনাইদহ সড়ক বিভাগের অধিকাংশ কাজ এই প্রতিষ্ঠানটিই করে আসছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে একের পর এক অনিয়ম, নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার, কাজ না করেই বিল উত্তোলনসহ একাধিক অভিযোগ আসলেও তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি সড়ক বিভাগ।

নানা কৌশলে মোজাহার এন্টারপ্রাইজ ও ঠিকাদারী সিন্ডিকেটের অন্যান্যরা কাজ করে যাচ্ছেন। যে কারণে খুলনা অঞ্চলের বিভিন্ন ধরণের সড়ক সংস্কার, নির্মাণ ও সংরক্ষণে প্রতিবছর খরচ বাড়ছে। তবে খরচ বাড়লেও তার কার্যকর সুফল থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সাধারণ মানুষ।

 

টাইমস/এফএ/এসএন

‘সত্য কথা বললে বুকে গুলি করব, পিঠ দিয়ে বের হবে’

‘সত্য কথা বললে বুকে গুলি করব, পিঠ দিয়ে বের হবে’

সিলেটে ফাঁড়িতে নির্মমভাবে নির্যাতন করে রায়হান হত্যার বর্ণনা দিয়েছেন দুই

ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই

ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই

প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া

বাড়িওয়ালার স্ত্রীর ঘুষিতে প্রাণ গেল ভাড়াটিয়া যুবকের!

বাড়িওয়ালার স্ত্রীর ঘুষিতে প্রাণ গেল ভাড়াটিয়া যুবকের!

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে বাড়িওয়ালার স্ত্রীর প্রাণ হারিয়েছেন ফায়েজ আহমেদ নামে এক

জাতীয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আরও বাড়ছে, ২৯ অক্টোবর সিদ্ধান্ত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আরও বাড়ছে, ২৯ অক্টোবর সিদ্ধান্ত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ানো হচ্ছে। মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

‘লিটল আইনস্টাইন’ বাংলাদেশি সুবর্ণকে নিউইয়র্কে সর্বোচ্চ সম্মাননা

‘লিটল আইনস্টাইন’ বাংলাদেশি সুবর্ণকে নিউইয়র্কে সর্বোচ্চ সম্মাননা

বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী (সাড়ে ৮ বছর) অধ্যাপক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সুবর্ণ আইজ্যাক বারী। তাকে বলা হয় ‘লিটল আইনস্টাইন’। এই বয়সেই তিনি

জাতীয়

‘আল্লাহ হাফেজ’ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, ঢাবির সেই শিক্ষককে নোটিশ!

‘আল্লাহ হাফেজ’ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, ঢাবির সেই শিক্ষককে নোটিশ!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান একটি টেলিভিশনের টকশোতে বলেছিলেন ‘আসসালামু আলাইকুম’, ‘আল্লাহ হাফেজ’ বলা

জাতীয়

স্কুল-কলেজে টিউশন ফি’র কিছু অংশ মওকুফ হতে পারে

স্কুল-কলেজে টিউশন ফি’র কিছু অংশ মওকুফ হতে পারে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আর্থিক সংকটে থাকা অভিভাবকদের সন্তানদের টিউশন ফি’র কিছু অংশ ছাড় দেয়ার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। চলতি মাসে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হবে বলে জানা গেছে।

আন্তর্জাতিক

মার্কিন ভোটারদের তথ্য ইরান-রাশিয়ার হাতে : ইমেইলে হুমকি

মার্কিন ভোটারদের তথ্য ইরান-রাশিয়ার হাতে : ইমেইলে হুমকি

মার্কিন মুলুকের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আর মাত্র ১০ দিন বাকি। যুক্তরাষ্ট্র দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন। করোনার কারণে সরাসরি প্রচারণার চেয়ে এবার ভার্চুয়াল মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা বেশি হচ্ছে। চলছে নানা সমীকরণ।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ভূয়া ছবি শনাক্তের নতুন প্রযুক্তি

ভূয়া ছবি শনাক্তের নতুন প্রযুক্তি

ছবি আসল নাকি নকল, তা খালি চোখে ধরা সহজ নয়। এর ফলে অনেকেই সামাজিক মর্যাদাহানীর শিকার হন। আবার ভূয়া ছবির ওপর ভিত্তি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে নানা ধরণের ভূয়া সংবাদ।