• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

কি হচ্ছে তাবলিগে?

কি হচ্ছে তাবলিগে?

খলিলুর রহমান স্টালিন, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৭:৩৪পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

তাবলিগ জামাতের মধ্যে সৃষ্ট দ্বন্দ্ব দিন দিন বেড়েই চলছে। কবে এর সমাধান হবে এমন কোনো তথ্যও মিলছে না কারো কাছে। তাই সারা দেশের তাবলিগ সদস্যদের মধ্যে ভয়, আতঙ্ক ও হতাশা দেখা দিয়েছে। তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বের সমাধান নিয়ে হাজারো প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে।

কি হচ্ছে তাবলিগ জামাতে?

এই প্রশ্ন তাবলিগের প্রায় ৯০ ভাগ ভক্ত, সমর্থক ও সদস্যদের। মঙ্গলবার তাবলিগ ভক্ত, সমর্থক ও সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

জুবায়ের আহমেদ নামের এক তাবলিগ সদস্য জানান, তাবলিগ একটি দীনি প্রতিষ্ঠানের নাম। যেখানে এক মাত্র কাজ আল্লাহকে ভয় করে সহী তরিকায় ইসলামের দাওয়াতী কাজ করা। সেখানে কোনো ধরনের নেতৃত্ব বা পদ পদবীর লোভ থাকার কথা নয়। কিন্তু সম্প্রতি তাবলিগ জামাত দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। প্রথমে নিজেদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব। এক পর্যায়ে ওই দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

পরবর্তীতে বিষয়টি আংশিক সমাধান হলেও বর্তমানে ফের দু’পক্ষ দ্বন্দ্বে লিপ্ত হয়েছে। তাই সাধারণ সদস্যদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে। আবার কারো কারো মনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তবে এর সমাধান কিভাবে, কবে হবে তা নিয়ে কেউ কিছু বলছে না বলে জানান জুবায়ের আহমেদ।

আব্দুর রহমান নামের আরেক সদস্য ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তাবলিগের মধ্যে এমন দ্বন্দ্ব দেখা দিবে তা কখনো ভাবি নাই। তবে যা হচ্ছে তা অবশ্যই দুঃখজনক। এ সংকট নিরসের উপায় কবে, কিভাবে হবে সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমি অনেক মুরব্বিদের কাছে দ্বন্দ্বের সমাধান সম্পর্কে জানতে চাই। কিন্তু কেউই ওই প্রশ্নের উত্তর দিতে চান না।

মুরব্বিদের মধ্যে যে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছে সেটার সমাধান কী হবে এমন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে প্রায়ই কাকরাইল জামে মসজিদ যান পুরান ঢাকার ইব্রাহিম আলী নামের এক তাবলিগ সদস্য। তিনি জানান, তাবলিগের সবাই হতাশ। কেউ এর সমাধান জানেন না। আল্লাহ এর ভালো সমাধান জানেন।

তবে ভক্তদের এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে বাংলাদেশ টাইমসের এই প্রতিবেদকও ব্যর্থ হয়েছেন। উভয় পক্ষের মুরব্বিরা সামাধানের পথ না খুঁজে একে অপরের উপর দোষারূপে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

মঙ্গলবারও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় একে অপরের বিরুদ্ধে মিছিল-সমাবেশে করতে দেখা গেছে।

তাবলিগ সূত্রে জানা গেছে, আমির নির্ধারণকে কেন্দ্র করে দুটি পক্ষে বিভক্ত হয়ে পড়ে তাবলিগ জামাত। আর ওই দ্বন্দ্বের মূলে রয়েছেন মোহাম্মদ সা'দ কান্দালভি। এক পক্ষ তাকে সারা বিশ্বের আমীর নির্বাচিত করেছেন। অপর পক্ষ তার নেতৃত্ব মানতে নারাজ। এই দ্বন্দ্বের রেশ কাটতে না কাটতেই ২০১৭ সালে টঙ্গিতে বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয়ে যায়। ওই সময় মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দালভি টঙ্গি ইজতেমায় অংশ নিতে ঢাকায় আসেন।

কিন্তু অপর পক্ষের বাধায় তিনি টঙ্গিতে না গিয়ে ভারতে ফেরত যেতে বাধ্য হয়েছিলেন। পরবর্তীতে প্রায় কয়েক মাস প্রকাশ্যে ওই দ্বন্দ্ব দেখা না গেলেও এবার ইজতেমার প্রস্তুতি নেয়াকে কন্দ্রে করে উভয় পক্ষের মধ্যে প্রকাশ্যে দ্বন্দ্ব দেখা দেয়।

সর্বশেষ ১ ডিসেম্বর তাবলিগের মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভী ও মাওলানা জোবায়ের আহমেদ সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ সংঘর্ষে ইসমাইল মন্ডল (৭০) নামের একজন নিহত হন। তার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের মিলকিপাড়া গ্রামে। এছাড়াও আহত হয়েছেন উভয় পক্ষের শতাধিক মানুষ।

পরবর্তীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান মিয়া কামলা উভয় পক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং নির্বাচনের আগে টঙ্গি ময়দানে কেউ সমাবেশ করতে পারবেন না বলে ঘোষণা দেন। এ ঘোষণার পর পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হয়। তবে জোবায়ের পক্ষের লোকজন সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন। এছাড়া সোমবার প্রথমবারের মত সাদ অনুসারীরা সংবাদ সম্মেলন করে তাদের বক্তব্য উপস্থাপর করেন।  

সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষ একে অপরের বিপক্ষে মামলাও দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাদ অনুসারী বাংলাদেশের আমীর মাওলানা আশরাফ আলী বলেন, আমরা বিষয়টি সমাধানের পক্ষে। কিন্তু তারা বিষয়টি সমাধান না করে উল্টো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিতে লিপ্ত রয়েছে।

অভিযোগ অস্বীকার করে মাওলানা জোবায়ের আহমেদ পক্ষের দায়িত্বশীল এক নেতা বাংলাদেশ টাইমসকে বলেন, আমরা বিষয়টি সমাধান করতে চাই। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সমাধান হচ্ছে না।

 

টাইমস/কেআর/টিএইচ

ভালুকায় ট্রাকের পেছনে পিকআপের ধাক্কা, চালকসহ নিহত ২

ভালুকায় ট্রাকের পেছনে পিকআপের ধাক্কা, চালকসহ নিহত ২

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় বালুবোঝাই ট্রাকের পেছনে মুরগিবাহী ট্রাকের ধাক্কায় পিকআপের

বগুড়ায় প্রকাশ্যে স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়ায় প্রকাশ্যে স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের এক কর্মীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

মুজিববর্ষ: ভোলায় ২৫২৩ গৃহহীন পরিবার পেল নতুন ঘর

মুজিববর্ষ: ভোলায় ২৫২৩ গৃহহীন পরিবার পেল নতুন ঘর

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে ঘোষিত মুজিববর্ষ

জাতীয়

মিরসরাইয়ে দুই কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে একজন নিহত

মিরসরাইয়ে দুই কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে একজন নিহত

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে দুই কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার ঠাকুরদিঘী এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়। নিহতের নাম মো. ইসমাইল (২৩)। সে কাভার্ডভ্যান চালকের হেলপার ছিল।

লাইফস্টাইল

টেবিলে রাখা সবুজ উদ্ভিদ কমাবে কর্মক্ষেত্রের চাপ

টেবিলে রাখা সবুজ উদ্ভিদ কমাবে কর্মক্ষেত্রের চাপ

অফিসের নিয়মিত কাজ কি আপনাকে উদ্বিগ্ন কিংবা হতাশ করে তোলে? কাজের সময়সীমা এবং কর্তৃপক্ষের ডাকা সভাগুলি কি আপনার হৃৎস্পন্দন বাড়িয়ে দেয়? আশ্চর্যের বিষয় হল, আপনার ডেস্কের ডানদিকে পাত্রে রাখা একটি উদ্ভিদ আপনার দৈনন্দিন দুর্ভোগের প্রতিকার করতে কিছুটা হলেও সহায়তা করতে পারে।

জাতীয়

সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশির অবস্থা সংকটাপন্ন

সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশির অবস্থা সংকটাপন্ন

সিঙ্গাপুরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক বাংলাদেশির অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন।

স্বাস্থ্য

হজম ক্ষমতা বাড়ায় গরম মশলা

হজম ক্ষমতা বাড়ায় গরম মশলা

গরম মশলা আমাদের অতি পরিচিত। মাংস রান্না থেকে শুরু করে বিভিন্ন রান্নায় এর বাহারি ব্যবহার রয়েছে। গরম মশলা খাবারের স্বাদ বাড়ায়, সে কথা সবার জানা। তবে, এর স্বাস্থ্যকর অনেক গুনের কথাই আমরা হয়তো জানি না। আবার অনেকে ভেবে থাকেন এই মশলা আমাদের পেটের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বাস্তবতা হলো- গরম মশলায় থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হজমজনিত সমস্যা নিরাময়ের পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

আন্তর্জাতিক

ভারতে ভালো ব্যবহার পায়নি ট্রাম্প!

ভারতে ভালো ব্যবহার পায়নি ট্রাম্প!

মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার ভারতকে নিয়েও সমালোচনা করতে ছাড়েননি তিনি। জানিয়েছেন, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ভালো পাইলেও ভারত থেকে খুব একটা ভালো ব্যবহার পাননি তিনি।

বিনোদন

শাকিব সুদর্শন, তবে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে হিরো আলম!

শাকিব সুদর্শন, তবে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে হিরো আলম!

শাকিব সুদর্শন তবে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে হিরো আলম! অবাক হচ্ছেন? হওয়ার কিছুই নেই। এটা আমার কথা না, এমন মন্তব্য করেছেন পরিচালক এ আর মুকুল নেত্রবাদী।