• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

একজন রোহিঙ্গাও ফিরল না মিয়ানমারে

একজন রোহিঙ্গাও ফিরল না মিয়ানমারে

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে কথা বলেন কক্সবাজারের ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম

জেলা প্রতিনিধি২২ আগস্ট ২০১৯, ০২:৫২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অনাগ্রহের কারণে দ্বিতীয় দফায় ব্যাপক প্রস্তুতি ও উদ্যোগ থাকা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত শুরু করা গেল না প্রত্যাবাসন কর্মসূচি। মিয়ানমারের রাখাইনে প্রত্যাবাসনের সহায়ক পরিবেশ না থাকায় রোহিঙ্গাদের কেউ তাদের আদি নিবাসে ফিরতে চাইছেন না।

বৃহস্পতিবার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা ছিল। এর আগে গত বছর নভেম্বর মাসে একই রকমের একটি প্রত্যাবাসনের উদ্যোগ রোহিঙ্গাদের অনাগ্রহের কারণেই ভেস্তে যায়।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে টেকনাফের নোয়াপাড়ার ২৬ নং ক্যাম্পের কাছে প্রস্তুত রাখা হয়েছিল তিনটি বাস ও দুটি ট্রাক। উদ্দেশ্য প্রত্যাবাসনে আগ্রহী রোহিঙ্গাদের এসব পরিবহনে করে ২০ কিলোমিটার দূরবর্তী বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে পৌঁছে দেয়া। তবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কোনো রোহিঙ্গা সেখানে আসেনি।

কক্সবাজারের টেকনাফের জাদিমোরা শালবাগান রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম।

তিনি বলেন, আজ প্রত্যাবাসন শুরুর জন্য রোহিঙ্গাদের সীমান্তে পৌঁছে দেয়ার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি রাখা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে কোনো রোহিঙ্গা আসেনি। রোহিঙ্গাদের দেয়া শর্ত পূরণ না হলে তাদের একজনও স্বদেশে ফিরতে চান না।

প্রত্যাবাসনের তৎপরতা শুরু হলে মিয়ানমারে নাগরিকত্ব, স্বাধীনভাবে চলার নিরাপত্তা, ফেলে আসা সম্পত্তি ফেরত ও নিরাপত্তা নজরদারির শর্ত দিয়েছিল বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা।

এ সময় চীনা প্রতিনিধি দলের দুজন সদস্য ও মিয়ানমারের প্রতিনিধিরা ছিলেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন প্রতিনিধিও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আবুল কালাম বলেন, মিয়ানমার থেকে ৩ হাজার ৫৪০ জন রোহিঙ্গার নামের তালিকা বাংলাদেশ সরকারকে দেয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২৯৫টি পরিবারের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছে। যাদের কেউই শর্তবিহীন মিয়ানমারে ফেরত যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেনি। কোনো রোহিঙ্গা নাগরিক যদি বিনা শর্তে দেশে যেতে চায়, তাহলে তাদের স্বদেশে ফেরত পাঠানো হবে। আজও তাদের সাক্ষাৎকার নেয়া হচ্ছে। এই প্রক্রিয়াটি চলমান থাকবে।

আবুল কালাম আরও বলেন, বাংলাদেশ সরকার প্রথম থেকে বলে আসছিল, কোনো রোহিঙ্গা নাগরিককে জোর করে মিয়ানমারে পাঠানো হবে না। তাই আজও তাদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ চলছে।

চীনের প্রতিনিধি ঝ্যাং তিয়ানঝু বলেন, প্রত্যাবাসন নিয়ে আলোচনায় মধ্যস্থতার দায়িত্ব তার দেশ নিয়েছে।

রোহিঙ্গারা কেন নিজ দেশে ফিরতে চায় না? কেন তারা মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষের ওপর আস্থা পায় না। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত মিয়ানমারের কূটনীতিকদের কাছে বাংলাদেশের সাংবাদিকেরা এই প্রশ্নগুলো বারবার তুলে ধরলেও তারা কোনো জবাব দেননি।

গত বছরের ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের প্রথম সময়সীমা ঠিক হয়েছিল। রোহিঙ্গারা রাজি না হওয়ায় সেবার একজনকেও রাখাইনে পাঠানো যায়নি। আজও কেউ রাখাইনে যেতে না চাওয়ায় এ নিয়ে দুই দফা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের চেষ্টা দৃশ্যত ব্যর্থ হতে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে বর্তমানে ১১ লাখের মতো রোহিঙ্গা রয়েছে। যাদের অধিকাংশই বাংলাদেশে আসে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট রাখাইনে সহিংসতা শুরু হওয়ার পর। ওই সময়ে মিয়ানমার থেকে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে চলে আসে।

 

টাইমস/এসআই

আইনের লঙ্ঘন করে শোভন-রাব্বানীকে সরিয়েছে আ. লীগ: রিজভী

আইনের লঙ্ঘন করে শোভন-রাব্বানীকে সরিয়েছে আ. লীগ: রিজভী

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদচ্যুতিকে আইনের লঙ্ঘন উল্লেখ করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও গোলাম রাব্বানীকে পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন। ছাত্রলীগ আগে আওয়ামী লীগের সহযোগী থাকলেও নতুন আরপিও বা গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের মর্যাদা দেয়া হয়েছে। আরপিও অনুযায়ী ছাত্রলীগ স্বাধীন ও স্বতন্ত্র সংগঠন। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রও সে কথাই বলে। নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া আওয়ামী লীগের সংশোধিত চূড়ান্ত গঠনতন্ত্রের ২৫ (১) ধারা অনুযায়ী ছাত্রলীগ তাদের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনমাত্র।

গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত খালি পেটে নয়

গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত খালি পেটে নয়

খালি পেটে ভুল করেও কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত নয়। কারণ, খালি পেটে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিলেই বড় কোনো ভুল হতে পারে। এমনই দাবি করছেন ব্রিটেনের ইউনিভার্সিটি অফ ডান্ডি’র গবেষকরা। যা ‘সাইকোনোমিক বুলেটিন অ্যান্ড রিভিউ’ জার্নালে প্রকাশিত হয়।

শুধু রূপে নয়, স্বাস্থ্য সুরক্ষায়ও রয়েছে অ্যালোভেরার বহুমুখী ব্যবহার

শুধু রূপে নয়, স্বাস্থ্য সুরক্ষায়ও রয়েছে অ্যালোভেরার বহুমুখী ব্যবহার

প্রাকৃতিক গুণসম্পন্ন ভেষজ উদ্ভিদ অ্যালোভেরা, বাংলায় যাকে বলে ঘৃতকুমারী। ঔষধি গুণাগুণের জন্য কণ্টকধারী সবুজ এই ছোট উদ্ভিদের বেশ কদর রয়েছে। অ্যালোভেরা একদিকে যেমন বাড়ায় বাইরের সৌন্দর্য, অন্যদিকে ভেষজ এই উদ্ভিদের রয়েছে নানা পুষ্টিগুণও।

উক্তি প্রতিদিন

“যে অন্নহীন, তাহার আবার লজ্জা কি ?”

“যে অন্নহীন, তাহার আবার লজ্জা কি ?”

বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ১৮৩৮ সালের ২৬ জুন চব্বিশ পরগণার অন্তর্গত কাঁঠালপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন বাঙালি সাহিত্যিক ও সাংবাদিক। বাংলা গদ্য ও উপন্যাসের বিকাশে তাঁর অবদানের জন্যে তিনি বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে অমর হয়ে আছেন।

জাতীয়

রাজহংসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

রাজহংসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার বিকালে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর (এইচএসআইএ)’র ভিভিআইপি টারমাকে ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এয়ারক্রাফট ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করেন।

রাজনীতি

অভিযোগ প্রমাণিত হলে জাবি ভিসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: কাদের

অভিযোগ প্রমাণিত হলে জাবি ভিসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ছাত্রলীগ নেতাদের চাঁদা দেয়ার অভিযোগ যদি সত্য প্রমাণিত হয় এবং অভিযুক্ত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) ফারজানা ইসলাম দোষী প্রমাণ হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয়

হাতিরপুলে ৫ কোটি টাকার নকল ওষুধ জব্দ,  দুই জনের কারাদণ্ড

হাতিরপুলে ৫ কোটি টাকার নকল ওষুধ জব্দ, দুই জনের কারাদণ্ড

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নামীদামি কোম্পানির ওষুধের মোড়ক ও স্টিকার নকল করে বিভিন্ন ফার্মেসিতে জাল ওষুধ বিক্রি করে আসছিল রাজধানীর হাতিরপুলের একটি প্রতিষ্ঠান। এমন অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ‘সেলভন ট্রেডিং’ নামে ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আন্তর্জাতিক

যে গ্রামের মানুষ ও পশু সকলেই দৃষ্টিহীন

যে গ্রামের মানুষ ও পশু সকলেই দৃষ্টিহীন

মেক্সিকোর ঘন অরণ্যের মধ্যে অবস্থান ছোট্ট টিলটেপেক গ্রামের। এই গ্রামে থাকেন শ’তিনেক জাপোটেক জাতির মানুষ। তবে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি যে, এই গ্রামের প্রতিটি মানুষ দৃষ্টিহীন। শুধু তাই নয়, দৃষ্টিহীন গ্রামের পোষ্যরাও! এই গ্রামে রয়েছে লাবজুয়েলা নামে একটি গাছ। এটাকে অভিশপ্ত মনে করেন গ্রামবাসীরা। তাদের বিশ্বাস, তাদের দৃষ্টিশক্তি কেড়ে নেয় ওই লাবজুয়েলা গাছই।

বিনোদন

"জ্যাম" শিডিউল ফাঁসালেন ঋতুপর্ণা

"জ্যাম" শিডিউল ফাঁসালেন ঋতুপর্ণা

টালিউডের আবেদনময়ী অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। কথা ছিল, গতকাল (সোমবার) থেকে বাংলাদেশে কাজ শুরু করবেন তিনি। কিছুদিন আগে নায়িকা চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন বাংলাদেশি ছবি ‘জ্যাম’-এ।