• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রাম বন্দরে কনটেইনার জট

ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রাম বন্দরে কনটেইনার জট

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম০৬ জুন ২০১৯, ০১:৪৪পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রাম বন্দরে বিপুল পরিমাণ কনটেইনার জমে জট সৃষ্টি হয়েছে। এতে বন্দরের কার্যক্রমে অচলাবস্থা তৈরির অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। মূলত জাহাজ থেকে খালাস হওয়া কন্টেইনারগুলোই জট তৈরি করেছে।

বিশেষ ব্যবস্থায় ঈদের ছুটিতেও বন্দরের সব বিভাগে কাজ চলেছে। কনটেইনার ডেলিভারির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শ্রমিকরাও কাজ করছেন। শুধু ঈদের দিন বুধবার ১২ ঘণ্টা ডেলিভারি কার্যক্রম বন্ধ ছিল বলে বন্দর সূত্রে জানা গেছে। তবে আমদানিকারকদের এজেন্টরা এ সময়ে ডেলিভারি নিতে আগ্রহী না হওয়ায় এ জট দেখা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিল্প প্রতিষ্ঠানে এখন ছুটি চলছে। ঈদের আগে ৩ দিন ও পরে ৩ দিন মহাসড়কে পণ্যবাহী যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আছে। তাই পুরো সপ্তাহে পণ্য ডেলিভারি কমে যাচ্ছে। এতে কনটেইনারের জট সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে বহির্নোঙরে পণ্য খালাসের অপেক্ষায় আছে ৪০টির বেশি জাহাজ। জেটিতেও আছে কয়েকটি জাহাজ। জট সৃষ্টি হচ্ছে বেসরকারি ১৯টি ডিপোতেও। রপ্তানি পণ্য নিয়ে অপেক্ষায় আছে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান ও লরি।

চট্টগ্রাম বন্দরের ইয়ার্ডগুলোতে কনটেইনার ধারণক্ষমতা ৪৯ হাজার টিইইউস। স্বাভাবিক অবস্থায় ইয়ার্ডে ৩০-৩৫ হাজার টিইইউস কনটেইনার থাকে।

বন্দরের তথ্য অনুযায়ী, স্বাভাবিকভাবে প্রতিদিন গড়ে পণ্যভর্তি পাঁচ হাজার আমদানি-রফতানির কনটেইনার ডেলিভারি হয়ে থাকে। শনিবার (১ জুন) ৩ হাজার ৬১৬ টিইইউস কনটেইনার ডেলিভারি হয়। রোববার (২ জুন) থেকে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) পর্যন্ত এ সংখ্যা নেমে এসেছে অর্ধেকেরও কম।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মো. ওমর ফারুক জানান, কনটেইনার জট কমাতে সিএন্ডএফ এজেন্টসহ সংশ্লিষ্টদের ঈদের ছুটিতে এবং এর পরে পণ্য ডেলিভারি নিতে বলা হয়েছে। বন্দর কর্তৃপক্ষ সবসময় ডেলিভারি দিতে প্রস্তুত। কিন্তু ছুটিতে সিএন্ডএফ এজেন্টরা পণ্য নিতে অনাগ্রহী হওয়ায় বন্দরের ওপর চাপ পড়ে।

 

টাইমস/এইচইউ

‘আমি সবার কাছে করজোড়ে ক্ষমা চাচ্ছি’: রাঙ্গা

‘আমি সবার কাছে করজোড়ে ক্ষমা চাচ্ছি’: রাঙ্গা

বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, আমি সবার কাছে

ঠাকুরগাঁওয়ে ভুয়া প্রকল্পে চাল আত্মসাত, দুদকের হাতে ধরা ৬ কর্মকর্তা

ঠাকুরগাঁওয়ে ভুয়া প্রকল্পে চাল আত্মসাত, দুদকের হাতে ধরা ৬ কর্মকর্তা

আটককৃতরা পরস্পর যোগসাজশ ও জালিয়াতিমূলকভাবে কাগজপত্র তৈরি করে অসৎ উদ্দেশে

দুই হাজারে টেবিল কিনে ২৫ হাজার টাকার বিল নেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

দুই হাজারে টেবিল কিনে ২৫ হাজার টাকার বিল নেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

এ বিষয়ে ডা. খায়রুল ইসলাম বলেন, আমি কর্মস্থলে একেবারেই নতুন,

জাতীয়

আবরার হত্যাকাণ্ড: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, চার্জশীট ‘নির্ভুল’

আবরার হত্যাকাণ্ড: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, চার্জশীট ‘নির্ভুল’

আবরার হত্যা মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেফতার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‌'পলাতকদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা চলছে। আমাদের কাছে তথ্য থাকলে তাদের ধরে ফেলতাম। তবে বাইরে বের হওয়ার কোন সুযোগ নেই। ঘরের কোথাও আশ্রয়ে প্রশ্রয়ে হয়তো আছে, আমরা ধরে ফেলব'।

রাজনীতি

জামিন পেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান খালেদা জিয়া

জামিন পেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে চান খালেদা জিয়া

শরীরে অসম্ভব ব্যথা অনুভব করছে। উঠে দাঁড়াতে পারছে না, সোজা হয়ে বসতে পারছে না এই অবস্থা তার। সে নিজে তুলে খেতে পারছেন না, নিজে চলাফেরা করতে পারছেন না। তিনি বলেন, চিকিৎসকরা নিয়মিত আসছেন। কিন্তু তার চিকিৎসার কোনো উন্নতি হয়নি। তার শরীরের অবস্থার আরো অবনতি হয়েছে। আমরা তার শারিরীক অবস্থা নিয়ে শঙ্কিত। তার উন্নত চিকিৎসা দরকার।

জাতীয়

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

তিনি জানান, বুয়েটের ওই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে সরাসরি মারপিটে অংশ নিয়েছিল ১১ জন। বাকী ১৪ জন ঘটনাস্থলে না থেকেও ভূমিকা রেখেছে। তারা হত্যায় মদদ দিয়েছে, নির্দেশনা দিয়েছে এবং পরিকল্পনা করেছে। ভিডিও ফুটেজ, প্রযুক্তিগত সহায়তা, হলের স্টাফ, নাইটগার্ড ও অন্যান্য শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞাসাবাদে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

আইন আদালত

আবরার হত্যার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

আবরার হত্যার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী বলেন, যে কারণেই এই হত্যাকাণ্ড ঘটানো হোক না কেন এটা হত্যাকাণ্ড। এরকম হত্যাকাণ্ড ঘটানো উচিত নয়। সমাজ এটাকে মেনে নেবে না, আমরা এটাকে মেনে নেবো না। এটার উচিত বিচার হতে হবে, শুধু উচিত বিচার এ কারণে না যে একটা হত্যাকাণ্ড হয়ে গেছে। এটার মতো আর কোনোদিন যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেটা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে।

আইন আদালত

বিপুল সম্পদের মালিক উপজেলা আ.লীগ নেতা, দুদকে অভিযোগ

বিপুল সম্পদের মালিক উপজেলা আ.লীগ নেতা, দুদকে অভিযোগ

তিনি অবৈধ পথে উপার্জিত টাকায় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বাঁধনপাড়া এলাকায় বহুতল বিশিষ্ট ভবনের মালিক হয়েছেন। যার বাজার মূল্য ৮ কোটি টাকা। অমল কর কানাডাতেও বাড়ি ক্রয় করেছেন। তিনি তার অবৈধ অর্থ কানাডাতে পাচার করেছেন। তার স্ত্রী ও সন্তান বর্তমানে কানাডাতে বসবাস করছেন। গেল অক্টোবর মাসে অমল কর কানাডায় তার পরিবারের সঙ্গে ছিলেন।

বিনোদন

চুমুর বিষয়ে অনড় তামান্না ভাটিয়া!

চুমুর বিষয়ে অনড় তামান্না ভাটিয়া!

নায়িকা তামান্না ভাটিয়া। ২০০৫ সালে ‘চাঁদ সা রোশন চেহরা’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক হয়। ওই ছবির পর ১৪ বছর কেটে গেছে। এখনো অনস্ক্রিনে কাউকে চুম্বন দৃশ্যে দেখা যায়নি এই অভিনেত্রীকে।