• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

'ডিম বালকের' মহানুভবতা

'ডিম বালকের' মহানুভবতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক১৯ মার্চ ২০১৯, ০৭:১২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিংয়ের মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্যের জেরে তার মাথায় ডিম ভেঙে বিশ্বজুড়ে হিরো বনে গেছেন দেশটির ১৭ বছর বয়সী কিশোর উইল কনোলি। বিশ্বজুড়ে সবাই ভালোবেসে তার নাম দিয়েছে ‘ডিম বালক’।

শনিবার অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেজার সংবাদ সম্মেলনে কথা বলার সময় তার মাথায় ডিম ভাঙেন উইল। সঙ্গে সঙ্গে ফ্রেজার এই কিশোরের গালে দুই বার থাপ্পড় মারেন। এরপরই ফ্রেজারের কয়েকজন সমর্থক ওই কিশোরকে ধরে মেঝেতে শুয়ে ফেলেন এবং তার মাথা চেপে ধরেন।

এই ঘটনার পরেও সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং এবং তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছেন না উইল কনোলি। উপরন্তু ‘মানি ফর এগবয়’ নামের একটি তহবিলে জমা পড়া ৫০ হাজার ডলারের সবটাই নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে হতাহতদের পরিবারকে দিতে চান তিনি।

উইল এর আইনজীবী পিটার গর্ডন মঙ্গলবার মেলবোর্নে সাংবাদিকদের বলেন, 'সাহসী' উইল কনোলিকে 'ডিম বালক'-কে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ডেকেছিল। মঙ্গলবার বিকালে পুলিশ উইলকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দিয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে করা তদন্তও স্থগিত রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার সিনেটরের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কিনা প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, উইল কনোলি সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং এবং তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেবেন না। তাকে দেয়া সমস্ত টাকা ক্রাইস্টচার্চে হতাহত পরিবারের কাছে যাবে।

কিন্তু পুলিশ উইলের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দায়ের করবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ধরনের কোনো ইঙ্গিত তিনি এখনো পাননি। তবে পুলিশ চাইলেই তা করতেই পারে।

পুলিশ উইলের সঙ্গে অসাধারণ ব্যবহার করছে বলেও জানান তিনি।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় এক বর্ণবাদী শ্বেতাঙ্গ সন্ত্রাসীর হামলায় প্রাণ হারান ৫০ জন মুসলমান। যাদের মধ্যে পাঁচজন বাংলাদেশিও রয়েছে। কিন্তু হামলাকারীর সমালোচনার বদলে, গোটা ঘটনার জন্য মুসলিম অভিবাসী ও শরণার্থীদেরই দায়ী করেন অষ্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং। তার এই মন্তব্যের পর বিশ্বজুড়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়।

পরদিন মেলবোর্নে এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলার সময় অ্যানিংয়ের মাথায় ডিম ভেঙে তার মন্তব্যের প্রতিবাদ জানান হ্যাম্পটনের কিশোর উইল কনোলি। এই ঘটনার পরেই সে রীতিমতো হিরো বনে যায়।

অপরদিকে, অস্ট্রেলিয়ান গ্রিনস পার্টি জানিয়েছে, তারা নির্বাচন পর্যন্ত সংসদ থেকে সিনেটর অ্যানিংকে স্থগিত করার চেষ্টা করবে।  

গ্রিনসের নেতা রিচার্ড ডি নাটালে বলেন, এই ঘটনার পর আর সিনেটরকে ভোটারদের সামনে যাওয়ার অনুমতি দেয়া উচিত নয়।

 

টাইমস/এএস/এসআই

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে ৫ করোনা রোগীর মৃত্যু

ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনে ৫ করোনা রোগীর মৃত্যু

গুলশানে ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে অগ্নিকাণ্ড হয়েছে। বুধবার রাত ৯টা

করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন শিল্পপতিরা, এপর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু

করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন শিল্পপতিরা, এপর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু

যোবায়ের মোহাম্মদ : করোনাভাইরাসে প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দীর্ঘ হচ্ছে

বিসিএসে অপেক্ষমানের আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ!

বিসিএসে অপেক্ষমানের আরও ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ!

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দিনে দিনে বাড়ছে। এ অবস্থায় রোগীদের চিকিৎসা নিয়ে

জাতীয়

করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১৫৪১

করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১৫৪১

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৮১তম দিনে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে দাড়াল ৫৪৪ জন।

রাজনীতি

খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন -ফখরুল

খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন -ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এখনও হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পরপরই খালেদা জিয়াকে শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাসের জামিন দেয় আদালত।

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ মায়ের মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ মায়ের মৃত্যু

ঝড়ের আঘাতে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে টিনের ঘরের ওপর পড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই সন্তানসহ গৃহবধূর মৃত্যুর হয়েছে। এ ঘটনায় বিদ্যুতায়িত হয়ে আহত হয়েছেন আরও ৫ জন।

জাতীয়

বজ্রপাত থেকে রক্ষার উপায়

বজ্রপাত থেকে রক্ষার উপায়

তীব্র গরমে স্বস্তি এনে দেয় বৃষ্টি। কিন্তু এই স্বস্তির বৃষ্টির সঙ্গে আসা বজ্রপাত বিপর্যয়ের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আমাদের দেশে মার্চ থেকে অক্টোবর পর্যন্ত বজ্রপাত হয়ে থাকে। এর মধ্যে এপ্রিল ও মে মাসে বজ্রপাত তুলনামূলকভাবে বেশি হয়। আর এই বজ্রপাতে প্রায়শই প্রাণহানির শিকার হচ্ছেন দেশের মানুষ।

যা কিছু প্রথম

তালাচাবি আবিষ্কারের ইতিহাস

তালাচাবি আবিষ্কারের ইতিহাস

যবে থেকে মানুষের কিছু জিনিসপত্র সম্বল হল, তবে থেকেই সেগুলোকে আগলে রাখার প্রবণতা এসে গেল। প্রথম প্রথম তালাচাবি বলতে শুধু দড়ি বা অন্য কিছু দিয়ে বেঁধে রাখা হতো। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সত্যিকারের তালাচাবি ব্যবহার করতে শুরু করল মানুষ। সেগুলো কাঠ বা ধাতুর তৈরি। ঠিক কে বা কোনো সভ্যতায়ে প্রথম তালাচাবি ব্যবহার হয়েছিল সেটা সঠিকভাবে জানা যায়নি।

বিনোদন

লকডাউনে কাজ নেই, নিজের প্রাণটাই দিয়ে দিলেন অভিনেত্রী!

লকডাউনে কাজ নেই, নিজের প্রাণটাই দিয়ে দিলেন অভিনেত্রী!

করোনাভাইরাসে লকডাউনের কারণে কোন কাজ নেই। একারণে হতাশায় পড়ে আত্মহত্যা করেছেন এক অভিনেত্রী।