• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬

আবরার হত্যা প্রসঙ্গে যা বললেন ব্যারিস্টার সুমন

তানভীর রায়হান ও নাবিল জাহাঙ্গীর১০ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের সঙ্গে কথা হয়েছে বাংলাদেশ টাইমস প্রতিবেদকদের।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পলাশীতে নেয়া সেই সাক্ষাৎকার পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো-

বাংলাদেশ টাইমস: সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে চুক্তি হলো, সেটা নিয়ে আবরার হত্যার ঘটনা ঘটল। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি?

ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন: আমি আশ্চর্য হলাম যে, বিবিসি বাংলায় বাংলাদেশ-ভারতে যে চুক্তি নিয়ে কথা বলল, পরবর্তীতে দেখা গেল এই চুক্তির ব্যাপারেই তারা সংশোধনী দিয়েছেন যে আমরা যা বলেছি তা ঠিক বলি নাই। এখানে অনেক সংশোধনী আছে। একটা চুক্তির ব্যাপারে না জেনেই কেউ যদি মন্তব্য করেন। এটার প্রকৃত তথ্য না দিয়েই বিবিসির মতো একটি সংবাদ মাধ্যম যখন সংশোধনী দিয়েছে, ঠিক তার আগেই আবরার এই বিষয়ে স্ট্যাটাস দেয়।

আবরার কিন্তু দেখে যেতে পারে নাই, সংশোধনীতে কি আসছে? একটা জিনিস আমি পুরোপুরি না জেনে যেমন ধরেন যে জিনিস আমি বুঝি না। বাংলাদেশে কিছু লোক আছে, সরকারি দল যখন বাজেট দেয়, তখন বাজেট না দেখেই ওরা বলে যে গণবিরোধী বাজেট। আর সরকারের দলও না পড়ে, মিছিল দিয়ে দেয় যে এটা গণমুখী বাজেট। আমরা ঠিক এ রকমই পড়েছি, যে ধরেন বাজেট বা চুক্তি বাদই দেন- একটা ছেলে যদি কোনো মতের সঙ্গে একমত না হয় তাই বলে কি আপনি তাকে পিটিয়ে মেরে ফেলবেন?

বাংলাদেশ টাইমস: যে আন্দোলন চলছে তার সাথে কি আপনি একমত?

ব্যারিস্টার সুমন: আজকে যেসব সংস্থাগুলো আছেন। তাদের কাজ তো এটাই। যে একটা অপরাধ হওয়ার সাথে সাথে এটা উনারা নিয়ন্ত্রণ করবেন। শাস্তির মুখোমুখি করবেন। ন্যায় বিচারের মুখোমুখি করবেন। আমি মনে করি আন্দোলনে উনারা যে দাবি করেছেন তা লজিক্যাল। তারা চেয়েছেন যে ভিসি স্যার আসবেন। তারা কথা বলবেন, আমি জানি না এই দাবিগুলো তারা বাড়াবেন কি না। উনারা বাড়ালে বিষয়টি আরো ডিফিক্যাল্ট হয়ে যেতে পারে।

আর আমার মনে হয় যারা এই আন্দোলন করছেন তারা কনক্রিট দাবির মধ্যে থাকবেন। আর তারা কি চান তা প্রশাসনের সাথে বসে আমার মনে হয় সেটেল করবেন এটাই তো কাজ। আর একদিনের মধ্যে আপনি তো বুয়েট দিয়ে সারা বাংলাদেশ চেঞ্জ করে ফেলতে পারবেন না। বুয়েটে যারা আবরারকে হত্যা করেছে এরা তো তারই সহপাঠী। আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে বুয়েটে তো আমি চান্সই পাইনি। আমার পরীক্ষা দেয়ার ক্যাপাসিটি ছিল না আমার মতো ব্যারিস্টারের।

এখানে পড়ে কারা? সবই তো ভালো ভালো শিক্ষার্থীরা। এরা যদি এত অমানবিক হয়। আমি তো মনে করি এই ছেলেগুলো যদি ইঞ্জিনিয়ার হয় তবে তো এরা দেশ নষ্ট কেরে ফেলত। আপনি দেখেন যে আমাদের বালিশের মামলায় কয়েকজন ইঞ্জিনিয়ারকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। আমি তো মনে করি এদেরই প্রেতাত্মা এরা। তারা ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার পরে দেশে লুটপাট চালাতো। দেখেন আপনি এর মানে কি? দেশে ইঞ্জিনিয়ার পাচ্ছি, ডাক্তার পাচ্ছি, ব্যারিস্টার পাচ্ছি, কিন্তু মানুষ পাচ্ছি না। নৈতিক মানুষ আমরা পাচ্ছি না। এদেরকে সাজা দিবেন সবই ঠিক আছে। কিন্তু নৈতিক মানুষগুলো যাবে কোথায়?

যাদেরকে দিয়ে আপনি বাংলাদেশ বাঁচাবেন। আপনি ডাক্তারদের কাছে যাবেন সেখানেও আকাম ওকাম হয়েছে। আপনি ইঞ্জিনিয়ারদের কাছে যান আমি ব্যারিস্টার, আমিও তো বাইরে নেই। সিস্টেমটা চেঞ্জ করা আসলে জরুরি। এটা ওপর থেকে আসতে হবে আসলে নৈতিক মানুষ দরকার। নৈতিক নেতা দরকার। তাতে দেখবেন কি, আস্তে আস্তে সব জায়গায় আপনি চেঞ্জ আনতে পারবেন। আমি ব্যারিস্টার সুমন এসে এখানে লাইভ করলাম ধরেন। লাইভ করে হয়তো বা বিচার তো যা হবার তা হচ্ছেই। এর মানে কি সব নির্যাতন বন্ধ হয়ে যাবে। আমি মনে করি বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় যেখানে ছাত্র-ছাত্রীর হল রয়েছে যাতে কিভাবে নির্যাতন বন্ধ করা যায়, যেভাবে নৈতিক নেতা তৈরি করা যায়। ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করে দিলেই তো ভালো হয়।

বাংলাদেশ টাইমস: ছাত্ররাজনীতি বন্ধ করার বিষয়ে আপনার মতামত কি?

ব্যারিস্টার সুমন: ছাত্ররাজনীতি বন্ধ করলে তো আপনি ভালো মানের নেতা পাবেন না পরে। ছাত্র সংসদ থাকবে। ছাত্র রাজনীতি হবে আদর্শের ভিত্তিতে। লেজুড়বৃত্তির ভিত্তিতে তো না। আপনি যে আদর্শ ধারণ করেন। আমি তো যে আদর্শ ধারণ করি, তা তো কোনো আদর্শই মারার কথা বলে না। এভাবে আপনি কি কাউকে পিটিয়ে মারবেন? যেকোনো আদর্শই বলেন, খারাপ আদর্শকেই বলেন, সেখানেও তো আমি শুনি নাই যে আমার মতের সাথে মিল নাই হতে পারে। তাই বলে কি আপনি মানুষ পিটিয়ে মারবেন। আরএসএসকে তো আমরা ওই জন্যই দেখতে পারি না। আমার কথা হচ্ছে যে নৈতিক মানুষ দরকার। মানবিক মানুষ দরকার। নিরাপদ মানুষ দরকার।

 বাংলাদেশ টাইমস: আপনাকে ধন্যবাদ।

 ব্যারিস্টার সুমন: ধন্যবাদ।

 

টাইমস/এসআই

গৌরীপুরে বাসচাপায় মা-ছেলেসহ চারজন নিহত

গৌরীপুরে বাসচাপায় মা-ছেলেসহ চারজন নিহত

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে যাত্রীবাহী বাসচাপায় মা-ছেলেসহ অটোরিকশার চার যাত্রী নিহত হয়েছেন।

চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩২

চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩২

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। সব

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের প্রাণহানি

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের প্রাণহানি

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোরে যশোর-মাগুরা

জাতীয়

বেগমগঞ্জে দর্জির দোকানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

বেগমগঞ্জে দর্জির দোকানে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে তৃতীয় শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আবুল খায়েরকে (৪৫) আটক করে পুলিশ।

জাতীয়

কলমাকান্দায় আটক ভারতীয় ৬০ গরু ২৮ লাখ টাকায় বিক্রি

কলমাকান্দায় আটক ভারতীয় ৬০ গরু ২৮ লাখ টাকায় বিক্রি

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় আটক করা ৬০টি ভারতীয় গরু প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রি করা হয়েছে। নিলামে গরুগুলোর মূল্য হয় ২৭ লাখ ৯৪ হাজার ৫০০ টাকা।

বিনোদন

আসিফের টার্গেট ১৫০

আসিফের টার্গেট ১৫০

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। গত বছর ১০০ গান প্রকাশ করেছেন তিনি। তবে এবার তার টার্গেট ১৫০! এ বছর তিনি ১৫০ গানের মিশনে নেমেছেন। এর মধ্যে ইসলামী সংগীত গাওয়ারও পরিকল্পনা রয়েছে শিল্পীর।

যা কিছু প্রথম

১৮৯৫ সালে নিজের নামে পুরস্কার ঘোষণা দেন আলফ্রেড নোবেল

১৮৯৫ সালে নিজের নামে পুরস্কার ঘোষণা দেন আলফ্রেড নোবেল

ধ্বংসাত্মক ডিনামাইনের আবিষ্কারক আলফ্রেড নোবেল ঊনবিংশ শতাব্দীতে বিশ্বের কাছে নন্দিত হলেও অন্যদের মহান আবিষ্কারকে স্বীকৃতি প্রদানে তার অবদান বিংশ শতাব্দীতে তাকে বিখ্যাত করে তোলে। তার ইচ্ছানুসারে ‘নোবেল পুরস্কার’ প্রবর্তন করা হয়। যাকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

কৃষি কথা

ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সঙ্গে তালমিলিয়ে দেশে পোলট্রি ও মৎস্য উৎপাদন দ্রুত বাড়লেও প্রযুক্তিগত জ্ঞানের অভাবে প্রাণিসম্পদ বিশেষ করে ছাগলের উৎপাদন আশানুরূপ বাড়েনি। অথচ ছাগল বাংলাদেশে অন্যতম গৃহপালিত পশু। যা অল্প পুঁজিতে বাড়ির আঙিনার পালন করা যায়। ছাগল পালনে গরু-মহিষের মতো উন্নতমানের খাদ্য আবাসন বা অন্যান্য বিশেষ যত্নের প্রয়োজন হয় না।

স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জলপাইয়ের পাতা

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জলপাইয়ের পাতা

আমরা অনেকেই জানি যে, জলপাই এবং জলপাই তেল খাদ্যতালিকায় যুক্ত করলে স্বাস্থ্যের জন্য তা অনেক উপকার বয়ে আনে। উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ এবং স্বাস্থ্যকর চর্বির পাশাপাশি এগুলি ডায়েটারি ফাইবার বা খাদ্য আঁশে পরিপূর্ণ। নতুন গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে, জলপাইয়ের পাতাও স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।