• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

থাপ্পড় দিয়ে শিক্ষার্থীর কানের পর্দা ফাটলেন প্রধান শিক্ষক

থাপ্পড় দিয়ে শিক্ষার্থীর কানের পর্দা ফাটলেন প্রধান শিক্ষক

জেলা প্রতিনিধি২০ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:৩৬পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ফরিদপুরের নগরকান্দায় শিক্ষার্থীকে থাপ্পড় দিয়ে কানের পর্দা ফাটিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়ের ‍প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় বুধবার প্রধান শিক্ষকের অপসারণসহ শিক্ষার্থী নির্যাতনের বিচারের দাবিতে ঝাড়ু মিছিল করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এর আগে সোমবার উপজেলার চর যশোরদী হাজী আবদুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম জাকির হোসেন। তিনি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

আর ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নাম আজিম শেখ। সে ওই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তাকে প্রথমে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় এবং পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হস্তান্তর করা হয়।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, সোমবার প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন বিদ্যালয় চলাকালীন নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আজিম শেখকে থাপ্পড় মেরে কানের পর্দা ফাঁটিয়ে ফেলে এবং শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। সে ইতোপূর্বেও একাধিক শিক্ষার্থীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে। এছাড়া তার মুখের ভাষা অত্যন্ত অশালীন এবং শিক্ষার্থীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে।

শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, বিদ্যালয়ে সুশিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হলে ওই প্রধান শিক্ষককে অপসারণ করতে হবে। সেই সাথে শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের ঘটনায় তাকে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছে শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়ে সুশিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে, প্রধান শিক্ষকের অপসারণসহ শিক্ষার্থী নির্যাতনের বিচারের দাবিতে বুধবার সকালে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঝাড়ু মিছিল করে।

এ ব্যাপারে নিজের ভুল স্বীকার করে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন বলেন, আমার ভুল হয়েছে। বিষয়টি মিটমাটের চেষ্টা করছি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) আহসান মাহমুদ রাসেল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

 

টাইমস/এইচইউ

রূপপুর বালিশকাণ্ড: মাসুদুল আলমসহ ১৩ প্রকৌশলী গ্রেপ্তার

রূপপুর বালিশকাণ্ড: মাসুদুল আলমসহ ১৩ প্রকৌশলী গ্রেপ্তার

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বালিশ ও আসবাবপত্র কেনাকাটায় দুর্নীতির

‘এক কেজি পেঁয়াজের বিমান ভাড়া ১৫০ টাকা’

‘এক কেজি পেঁয়াজের বিমান ভাড়া ১৫০ টাকা’

জরুরি ভিত্তিতে ঘাটতি মেটাতে বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানি করতে গিয়ে

কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩

ঢাকার কেরানীগঞ্জের একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে

জাতীয়

খুলনায় আমরণ অনশনে অসুস্থ শতাধিক পাটকল শ্রমিক

খুলনায় আমরণ অনশনে অসুস্থ শতাধিক পাটকল শ্রমিক

মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের আমরণ অনশনে থাকা শতাধিক শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

জাতীয়

ঈশ্বরগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৩ মামলার আসামি নিহত

ঈশ্বরগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৩ মামলার আসামি নিহত

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার রাজিবপুর ইউনিয়নের সারহাইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আন্তর্জাতিক

নাইজারে জঙ্গি হামলায় ৭১ সেনার প্রাণহানি   

নাইজারে জঙ্গি হামলায় ৭১ সেনার প্রাণহানি  

নাইজারের একটি সামরিক ক্যাম্পে জঙ্গি হামলায় ৭১ সেনা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনন্ত ১২ সেনা। বুধবার রাজধানী নিয়ামে থেকে ২০০ কিলোমিটার উত্তরে নাইজার নদীর তীরের ইনতাস শহরে এ ঘটনা ঘটে।

জাতীয়

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের লাশ

মাগুরায় একই ওড়নায় বেয়াই-বেয়াইনের লাশ

মাগুরায় একই ওড়নার দুইপ্রান্তে ঝুলন্ত অবস্থায় এক গৃহবধূ ও এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে সদর উপজেলার বাটাজোড় গ্রাম থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করছে পুলিশ।

স্বাস্থ্য

চোখের শুষ্কতা ও প্রতিকার

চোখের শুষ্কতা ও প্রতিকার

চোখ শুকিয়ে যাওয়া একটি সাধারণ সমস্যা, যা শীতকালে বহু লোকের হয়ে থাকে। এটি প্রায়শই বাইরের বাতাসের পরিস্থিতি এবং বাড়ির অভ্যন্তরে হিটারের ব্যবহারের ফলে হয়। তাপমাত্রা হ্রাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাতাস শীতল ও শুষ্ক হয়ে যায়। বাষ্পীভবনের কারণে ত্বকের মতো চোখও শুষ্ক হয়ে যায়।

স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের বীজ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জামের বীজ

জাম এমন একটি ফল, যা বাংলাদেশে খুবই পরিচিত। আপনি একটু লক্ষ্য করলেই হয়ত আপনার বাড়ির আঙ্গিনা বা পাড়াতে জাম গাছ পেয়ে যাবেন। জামের মৌসুমে পথে ঘাটে, বাজারে, ট্রেন-বাসে বিক্রি হয় অত্যন্ত জনপ্রিয় জাম মাখা। জাম ফল শুধু খেতেই সুস্বাদু তাই নয়, বরং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্যও এটি সমান পরিচিত।