• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

প্রেমিকের সামনে ছাত্রীকে ধর্ষণ, অপমানে আত্মহত্যা

প্রেমিকের সামনে ছাত্রীকে ধর্ষণ, অপমানে আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক২৮ জুন ২০২০, ১২:১৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

প্রেমিকের সামনে বখাটেদের হাতে ধর্ষণের শিকার এক ছাত্রী লজ্জায় অপমানে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। ধর্ষণের পর প্রেমিক বিয়ে করতে অস্বীকার করায় অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। এই ঘটনায় মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থানায় প্রেমিকসহ বখাটেদের নামে মামলা হয়েছে। পুলিশ প্রেমিক অয়ন আলীকে গ্রেপ্তার করেছে। পলাতক রয়েছে রতন, তন্ময়সহ চার বখাটে।

জানা গেছে, দৌলতপুর পাঁচকলিয়া গ্রামে কাজী আরিফুর ইসলামের মেয়ে আফরোজা আক্তার বৃহস্পতিবার দুপুরে তার অনয়ের সঙ্গে মোটরসাইকেলে বেড়াতে যায়। ঘড়িয়াল এলাকায় স্থানীয় উদীয়মান যুব সংঘ ক্লাবের রতন, তন্ময়সহ কয়েকজন বখাটে মোটরসাইকেল থামিয়ে আফরোজা ও অয়নকে ক্লাব ঘরে সন্ধ্যা পর্যন্ত আটকে রেখে ধর্ষণ করে। রাতে আফরোজাকে তার চাচা কাজী নাজিমুদ্দিনের বাড়িতে রেখে আসে তারা। শুক্রবার সকালে স্থানীয় কয়েকজন মাতবরকে সঙ্গে নিয়ে অয়নসহ বখাটেরা ওই বাড়িতে আসে। সেখানে বাবা আরিফুল ইসলাম তার মেয়েকে বিয়ের জন্য অয়নকে চাপ দেয়। অয়ন রাজি না হয়ে চলে যায়। এরপর শুক্রবার দুপুরের দিকে আফরোজা ফুফু রুবিয়ার ঘরে গিয়ে আত্মহত্যা করে। সন্ধ্যায় দৌলতপুর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে গ্রেফতারের পর অয়ন স্থানীয় সাংবাদিকদের সামনে দাবি করে, উদীয়মান ক্লাবের ছেলেরা আফরোজাকে মারধর করে ও ভয় দেখিয়ে তার সামনেই ধর্ষণ করে। এ কারণে সে বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হয়নি।

দৌলতপুর থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। অয়ন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রতন ও তন্ময়ের বিরুদ্ধে আফরোজা ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছে। তার অভিযোগ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

টাইমস/জেকে

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে আক্রান্ত ছাড়াল দেড় লাখ

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে আক্রান্ত ছাড়াল দেড় লাখ

দেশে প্রতিদিনই বেড়ে চলছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। দেশে

‘হীনমন্যতায় প্রতি রাতেই কেঁদেছি, অবশেষে পররাষ্ট্র ক্যাডার’

‘হীনমন্যতায় প্রতি রাতেই কেঁদেছি, অবশেষে পররাষ্ট্র ক্যাডার’

আমি সফল কেউ নই। অন্তত এখনো নই। তাই সফলতার গাঁথা

৩৭তম বিসিএসে শিক্ষা, এবার প্রশাসন ক্যাডার ঢাবি ছাত্রের

৩৭তম বিসিএসে শিক্ষা, এবার প্রশাসন ক্যাডার ঢাবি ছাত্রের

হুছাইন মুহাম্মদ। ৩৮ তম বিসিএসে প্রশাসন ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। মেধাক্রম

জাতীয়

করোনা উপসর্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপকের মৃত্যু

করোনা উপসর্গে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপকের মৃত্যু

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) অবসরপ্রাপ্ত ইমেরিটাস অধ্যাপক ডা. ফকরুল ইসলামের (৮৬) মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

চাকরি

৩৮তম বিসিএসে পুলিশ ক্যাডারে ১৭তম বুয়েটের সনদ বড়ুয়া

৩৮তম বিসিএসে পুলিশ ক্যাডারে ১৭তম বুয়েটের সনদ বড়ুয়া

চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল থেকে এসএসসি পাস করার পর ভর্তি হন চট্টগ্রাম কলজে। সেখানেও কৃতিত্বের সঙ্গে এইচএসসি পাস করেন তিনি।

স্বাস্থ্য

এবার করোনায় হলি ফ্যামিলি মেডিকেল চিকিৎসকের মৃত্যু

এবার করোনায় হলি ফ্যামিলি মেডিকেল চিকিৎসকের মৃত্যু

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি হলেন হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের

চাকরি

সংসার সামলে প্রথম বিসিএসেই এএসপি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী!

সংসার সামলে প্রথম বিসিএসেই এএসপি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী!

নুসরাত ইয়াছমিন তিসা। পড়াশোনা করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে। দ্বিতীয় বর্ষেই তাকে বিয়ে দিয়ে দেয়া হয়।

চাকরি

শাবিতে পড়াশোনা, একসঙ্গে বিসিএস ক্যাডার হওয়ার গল্প দুই বোনের

শাবিতে পড়াশোনা, একসঙ্গে বিসিএস ক্যাডার হওয়ার গল্প দুই বোনের

ফাতেমাতুজ জুহরা চাঁদনী ও সাদিয়া আফরিন তারিন পড়াশোনা করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। ৩৮তম বিসিএসে তারা দুই বোনই

স্বাস্থ্য

স্ট্রেস আমাদের দেহের প্রতিরোধ ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিতে পারে

স্ট্রেস আমাদের দেহের প্রতিরোধ ব্যবস্থা ধ্বংস করে দিতে পারে

স্ট্রেস মানব জীবনের অঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্যারিয়ার বা কাজের চাপ থেকে শুরু করে ব্যক্তিগত-সামাজিক ইস্যু, হালের মহামারীসহ একাধিক কারণে স্ট্রেস বা মানসিক চাপ সৃষ্টি হতে পারে। স্ট্রেস বা মানসিক চাপ নানাভাবে আমাদের দেহের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। তবে, অনেকে স্ট্রেসের নেতিবাচক প্রভাব সম্পর্কে সচেতন নয়, ফলে সময়মতো প্রতিকার বা চিকিৎসা গ্রহণ করেন না।