• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

ঢাবির সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলা

ঢাবির সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৭:০৬পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। গত মার্চে ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের ৩৪ জন সাবেক ও বর্তমান নেতা-কর্মীকে একটি সন্ধ্যাকালীন কোর্সে নিয়মবহির্ভূতভাবে ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়।

এ নিয়ে বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে তার কার্যালয় ঘেরাও করছিলেন একদল শিক্ষার্থী। তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলছেন, ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেনের অনুসারীরাই ‘সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে এই হামলা চালায়। তারা নারী আন্দোলনকারীদের লাঞ্ছিতও করে।

তবে সাদ্দাম এ ঘটনায় ছাত্রলীগের সম্পৃক্ততার অভিযোগ অস্বীকার করে বিষয়টিকে ‘দুইদল শিক্ষার্থীর মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা’ বলেছেন।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ‘দুর্নীতি ও জালিয়াতির বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ ব্যানারে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে টিএসসি থেকে মিছিল নিয়ে বাণিজ্য অনুষদের ডিন শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের কার্যালয় ঘেরাও করেন ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, ছাত্র ফেডারেশন, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও স্বতন্ত্র জোটের নেতা-কর্মীরা।

ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরপর ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের একটি সন্ধ্যাকালীন স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান ৩৪ নেতা-কর্মীকে নিয়মবহির্ভূতভাবে ভর্তির সুযোগ দেওয়ায় উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান ও অনুষদের ডিন শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পদত্যাগ, সেই ৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিলসহ তাদের মধ্যে ডাকসু ও হল সংসদে নির্বাচিত আট নেতার পদত্যাগ এবং রোকেয়া হলে নিয়োগ-বাণিজ্যের ঘটনায় জড়িত হল প্রাধ্যক্ষ জিনাত হুদা ও হল সংসদের ভিপি ইসরাত জাহান, জিএস সায়মা প্রমির পদত্যাগ দাবিতে ছিল শিক্ষার্থীদের এই কর্মসূচি।

একই সময়ে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ এলাকায় যান ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের (ডাকসুর এজিএস) অনুসারী একদল নেতা-কর্মী। নিয়মবহির্ভূতভাবে ভর্তি হওয়া ৩৪ জনের মধ্যে সনজিতের নামও রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুই দল মুখোমুখি হওয়ার পর এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। তারপর দুইপক্ষ হাতাহাতিতে জড়ায়।

মারামারির মধ্যে ভাষা বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আসিফ মাহমুদ চোখের নিচে আঘাত পান। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক মশিউর রহমান বলেন, ‘আমরা ডিনের কার্যালয় ঘেরাও করতে গিয়েছিলাম। সেখানে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা আমাদের ওপর হামলা করার প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল। তারা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। হামলার সঙ্গে জড়িতরা সাদ্দামের অনুসারী।’

এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম বলেন, ‘এ হামলার সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। দুইদল শিক্ষার্থীর মধ্যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার কোনো অনুসারী নাই।’

প্রক্টরিয়াল টিমের সামনে কীভাবে এরকম ঘটনা ঘটল প্রশ্ন করলে প্রক্টর গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘আমরা শিক্ষার্থীদের কাছে ছাত্রসুলভ আচরণ আশা করি। হয়ত আরো বড় ঘটনা ঘটতে পারত। কিন্তু আমাদের প্রক্টরিয়াল টিমের যারা ছিলেন, তারা বুঝিয়ে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে আনেন।’

সহকারী প্রক্টরদের সঙ্গে কথা বলে এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান প্রক্টর গোলাম রাব্বানী।

 

টাইমস/এসআই

 

 

বান্দরবানে ইউপি নির্বাচনে বিজিবির গুলিতে নিহত ২

বান্দরবানে ইউপি নির্বাচনে বিজিবির গুলিতে নিহত ২

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, ফাত্রাঝিরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়...

দ্রুত সময়ের মধ্যে আবরার হত্যার বিচার, মা-বাবাকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস

দ্রুত সময়ের মধ্যে আবরার হত্যার বিচার, মা-বাবাকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস

এর আগে বিকেলে ৫ টার দিকে গণভবনে আবরার ফাহাদের বাবা...

দিরাইয়ের শিশু হত্যা: স্বজনদের সম্পৃক্ততা পেয়েছে পুলিশ

দিরাইয়ের শিশু হত্যা: স্বজনদের সম্পৃক্ততা পেয়েছে পুলিশ

পুলিশ সুপার জানান, ‘তুহিন হত্যাকাণ্ডে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বাবা...

আন্তর্জাতিক

জেরুজালেমের গভর্নরকে তুলে নিয়ে গেছে ইসরায়েল

জেরুজালেমের গভর্নরকে তুলে নিয়ে গেছে ইসরায়েল

পবিত্রভূমি জেরুজালেমের গভর্নর আদনান গাইথকে তুলে নিয়ে গেছে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের পুলিশ বাহিনী। সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে তাকে আটকের পর তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। প্যালেস্টাইন প্রিজনার্স সোসাইটি এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছ। তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদলু এজেন্সির খবরে বলা হয়, জেরুজালেমের সিলওয়ান এলাকার নিজ বাড়ি থেকে গভর্নর আদনান গাইথকে আটক করা হয়। এসময় ইসরায়েলের পুলিশ তার বাড়ি ও আশপাশের সড়কগুলো নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। 

জাতীয়

‘শিবির’ সন্দেহেই আবরার হত্যা:মনিরুল

‘শিবির’ সন্দেহেই আবরার হত্যা:মনিরুল

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ১৯ আসামির মধ্যে চারজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আসামিদের জবানবন্দিতে বলা হয়, মূলত শিবির সন্দেহেই আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আসামিদের জবানবন্দিতে হত্যার কারণ হিসেবে এমনটাই উঠে এসেছে’

জাতীয়

দুদক প্রধানের পদত্যাগ চাইলেন সাংসদ তাপস

দুদক প্রধানের পদত্যাগ চাইলেন সাংসদ তাপস

শেখ পরিবারের সদস্য এই সংসদ সদস্য বলেন, বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনার মামলায় বাচ্চুকে আসামি করে চার্জশিট দিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনা ছিল। কিন্তু দুদক সে নির্দেশনা মানেনি। কী কারণে দুদক এ রকম কাজ করেছে, এটি জাতি জানতে চায়।

জাতীয়

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

সোমবার মেয়েটি স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল। পথে বিলাশখান এলাকায় রিফাত তার পথরোধ করে। একপর্যায়ে রিফাত ওই ছাত্রীকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। পরে গ্রামবাসী মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ভুক্তভোগী মেয়েটির মা বলেন, ‘মেয়েকে বিয়ে করার জন্য রিফাত দীর্ঘদিন থেকে উত্ত্যক্ত করছিল। মাঝে কিছুদিন মেয়ের পড়ালেখাও বন্ধ রেখেছিলাম। বিষয়টি রিফাতের পরিবারকে জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি’। 

আন্তর্জাতিক

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন এক ভারতীয়সহ তিনজন

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন এক ভারতীয়সহ তিনজন

বৈশ্বিক দারিদ্র্য লাঘবে অবদান রাখায় চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এক ভারতীয়সহ তিন অর্থনীতিবিদ। তারা হলেন- অভিজিৎ ব্যানার্জি, এস্তার ডুফলো ও মাইকেল ক্রেমার।

স্বাস্থ্য

কাজে মানসিক চাপ সামলাবেন যেভাবে

কাজে মানসিক চাপ সামলাবেন যেভাবে

শারীরিক সমস্যা নিয়ে আমরা সবাই কম বেশি সচেতন। শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য আপ্রান কত চেষ্টাই না করি। কিন্তু শরীরের পাশাপাশি মনের সুস্থতাও যে জরুরী, সে খেয়াল রাখি ক’জনে?