• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭

আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা কঠিন: খন্দকার মাহবুব

আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা কঠিন: খন্দকার মাহবুব

নিজস্ব প্রতিবেদক০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৬:৩৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা কঠিন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

একমাত্র রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমেই সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে মুক্ত করা সম্ভব বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের আয়োজনে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এক প্রতিবাদ সভায় খন্দকার মাহবুব এসব মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আইনের সাধারণ প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা কঠিন হবে। কারণ বর্তমান সরকার সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে। তাই খালেদা জিয়াকে আইনি প্রক্রিয়ায় বের করতে পারব বলে আমি আগেও বিশ্বাস করতাম না, এখনও বিশ্বাস করছি না।

বিএনপির এ নেতা বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার একমাত্র উপায় রাজপথ উত্তপ্ত করা। যতদিন পর্যন্ত রাজপথ উত্তপ্ত না হবে, ততদিন পর্যন্ত খালেদা জিয়াকে আইনি প্রক্রিয়ায় জেল থেকে বের করা যাবে না। এটি আমার দৃঢ় বিশ্বাস।

তিনি আর বলেন, আজকে সময় এসেছে, জাতি উপলব্ধি করেছে- খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে আমরা নির্বাচন করেছি, সে নির্বাচন করা কতটা সঠিক হয়েছে আমাদের নেতারা একদিন সে জবাব দেবেন এবং ইতিহাসও সে কথা বলবে।

‘তবে এখনও বিশ্বাস করি- খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে তার মুক্তির ব্যবস্থা না করে আমরা নির্বাচনে গেছি গণতন্ত্রকামী মানুষের ওপর ভরসা করে। এটি কতটা সঠিক ছিল সেটি হয়তো ইতিহাস একদিন বিচার করবে।’

খন্দকার মাহবুব দাবি করেন, কোনো রাজনৈতিক মামলার কারণে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করা হয়নি। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে। তাই আইনের প্রক্রিয়া যতই আমরা বলি না কেন, সরকারের সদিচ্ছা ছাড়া তাকে মুক্ত করা যাবে না।

দল ও জোটের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট এবং বিএনপি নেতাদের প্রতি অনুরোধ করব- আপনারা একটি মাত্র ইস্যুতে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করুন, সেটি হলো- খালেদা জিয়ার মুক্তি।

 

টাইমস/এক্স

চালের দাম নির্ধারণ করে দিল সরকার

চালের দাম নির্ধারণ করে দিল সরকার

ভালো মানের ৫০ কেজি ওজনের এক বস্তা মিনিকেট চালের দাম

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ, চুল দাড়ি কেটে লম্পটের ছদ্মবেশ!

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ, চুল দাড়ি কেটে লম্পটের ছদ্মবেশ!

তারেকুল ইসলাম ওরফে তারেক আহমদ। কয়েকদিন আগেও তার বড় বড়

কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যু

কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যু

কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল-আহমেদ আল-সাবাহ মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি

অর্থনীতি

প্রথম চালানে মিয়ানমার থেকে এলো ৫৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

প্রথম চালানে মিয়ানমার থেকে এলো ৫৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

মিয়ানমার থেকে আমদানি করা দুই কনটেইনারে ৫৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ চট্টগ্রাম বন্দরে এসে পৌঁছেছে। ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষণার পর বিকল্প বাজার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজের প্রথম চালানটি এটি।

জাতীয়

করোনায় আরও ২৬ জনের প্রাণহানি, শনাক্ত ১৪৮৮

করোনায় আরও ২৬ জনের প্রাণহানি, শনাক্ত ১৪৮৮

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল পাঁচ হাজার ২১৯ জনে। এই সময়ে নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ৪৮৮ জন। ফলে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল তিন লাখ ৬২ হাজার ৪৩ জনে।

জাতীয়

যশোরে দিন-দুপুরে বোমা ফাটিয়ে ‘১৭ লাখ টাকা’ ছিনতাই

যশোরে দিন-দুপুরে বোমা ফাটিয়ে ‘১৭ লাখ টাকা’ ছিনতাই

যশোর থানার একশ গজের মধ্যে দিনে-দুপুরে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ও ছুরি মেরে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১৭ লাখ টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার দুপুরে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার পাশে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের (ইউসিবি) সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুইজন আহত হয়েছেন।

জাতীয়

টিকটক মডেল বানানোর ফাঁদে সিরিয়াল ধর্ষণ, ৪ ছাত্রীর সর্বনাশ!

টিকটক মডেল বানানোর ফাঁদে সিরিয়াল ধর্ষণ, ৪ ছাত্রীর সর্বনাশ!

টিকটকের কথিত মডেল দেওয়ান রসুল হৃদয়। তিনি মডেল বানানোর ফাঁদে ফেলে ছাত্রীদের সিরিয়াল ধর্ষণের ঘটনার জন্ম দিয়েছেন। একে একে তিনি ৪ ছাত্রীর

আইন আদালত

মাস্ক কেলেঙ্কারি: পাঁচ দিনের রিমান্ডে জেএমআই চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক

মাস্ক কেলেঙ্কারি: পাঁচ দিনের রিমান্ডে জেএমআই চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক

নকল এন ৯৫ মাস্ক ও নিম্নমানের চিকিৎসা সরঞ্জাম কেনার অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় গ্রেপ্তার জেএমআই’র চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাকের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মতামত

গার্লফ্রেন্ডের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ৩৮ বছর ধরে অপেক্ষা!

গার্লফ্রেন্ডের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ৩৮ বছর ধরে অপেক্ষা!

ছবির লোকটাকে দেখে প্রথমেই কী ধারণা আসছে আপনার মনে? রাস্তা থেকে ধরে ছবি তুলছি মনে হয়? নাকি প্রান্তিক শ্রেণির কর্মজীবী মনে হয়?