• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

যুবদল থেকে যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা জি কে শামীম

যুবদল থেকে যুবলীগের প্রভাবশালী নেতা জি কে শামীম

নিজস্ব প্রতিবেদক২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৪:০৮পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা জি কে শামিমকে তার সাত দেহরক্ষীসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজধানীর নিকেতনে তার ব্যবসায়িক কার্যালয় অভিযান চালিয়ে শুক্রবার দুপুরে তাদের আটক করে র‍্যাবের একটি দল। তার বিরুদ্ধে টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে। র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক তোফায়েল মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ সময় জি কে শামীমের অফিস থেকে বিপুল পরিমাণ নগদ টাকা, অস্ত্র ও মদ উদ্ধার করেছে র‍্যাব।

কে এই জি কে শামীম?

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার সন্মানদী ইউনিয়নের দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত মো. আফসার উদ্দিন মাস্টারের ছেলে শামীম। আফসার উদ্দিন মাস্টার ছিলেন হরিহরদি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

তিন ছেলের মধ্যে জি কে শামীম মেজো। বড় ছেলে গোলাম হাবিব নাসিম ঢাকায় জাতীয় পার্টির রাজনীতি করেন।

প্রাইমারি স্কুল ও হাইস্কুল পাস করার পর তাদের গ্রামে দেখা যায়নি। ঢাকার বাসাবো আর সবুজবাগ এলাকায় বড় হয়েছেন বলে তার এলাকার মানুষ জানিয়েছেন।

গ্রাম থেকে ঢাকায় আসার পর এজিবি কলোনি, হাসপাতাল জোন এবং মধ্য বাসাবোতেই পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন শামীম। ৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের মাধ্যমেই তার রজনীতি শুরু। পরবর্তী সময়ে মির্জা আব্বাসের ভাই মির্জা কালু ও মির্জা খোকনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা হয় এবং তাদের সহযোগিতায় ধীরে ধীরে গণপূর্ত ভবনের ঠিকাদারি ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নেন তিনি। ঢাকা মহানগর যুবদলের সহসম্পাদকের পদও বাগিয়ে নেন। বিএনপি আমলে গণপূর্ত ভবন ছিল তার দখলে।

রাজধানীর সবুজবাগ, বাসাবো, মতিঝিলসহ বিভিন্ন এলাকায় জি কে শামীম প্রভাবশালী ঠিকাদার হিসেবেই পরিচিত। গণপূর্ত ভবনের বেশির ভাগ ঠিকাদারি কাজই জি কে শামীম নিয়ন্ত্রণ করেন। বিএনপি-জামায়াত শাসনামলেও গণপূর্তে এই শামীমই ছিলেন ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণকারী ব্যক্তি।

বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থাকাকালে শামীম ছিলেন ঢাকা মহানগর যুবদলের সহসম্পাদক এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রভাবশালী নেতা ও সাবেক গণপূর্ত মন্ত্রী মির্জা আব্বাসের খুবই ঘনিষ্ঠ। সেই জি কে শামীম এখন যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে পরিচয় দিয়ে থাকেন।

জি কে শামীম সম্পর্কে যুবলীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইকবাল মাহমুদ বাবলু বলেন, ‘যুবলীগে জি কে শামীমের কোনো পদ নেই। সে নিজেই নিজেকে সমবায় বিষয়ক সম্পাদক বলে বেড়াতো। এ নিয়ে যুবলীগে কয়েকবার আলোচনাও হয়েছে।’

‘জিকে শামীম এক সময় যুবদলের সাবেক সহ সম্পাদক ছিল। এখন সে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বলে শুনেছি’- বলেন তিনি।

জি কে শামীমের সঙ্গে সবসময় ছায়ার মতো ছয়জন অস্ত্রধারী দেহরক্ষী। সবার হাতেই শটগান। গায়ে বিশেষ সিকিউরিটির পোশাক। তাদের একেকজনের উচ্চতা প্রায় ছয় ফুট। যাকে মাঝখানে রেখে তারা পাহারা দিচ্ছেন তিনি উচ্চতায় পাঁচ ফুটের কিছু বেশি। ছোটখাটো মানুষ হলেও জি কে শামীমের ক্ষমতার দাপট আকাশসমান। তিনি যখন চলেন তখন সঙ্গে চলে নিরাপত্তা বলয়।

গণপূর্ত মন্ত্রণালয় কিংবা যুবলীগের পার্টি অফিস, বিয়ে বাড়ি কিংবা বন্ধুর বাড়ি, যেখানেই তিনি যান, সঙ্গে  থাকে অস্ত্রধারী প্রটোকল বাহিনী। ভারী অস্ত্র নিয়ে ছয়জন নিরাপত্তারক্ষী আগে-পিছে পাহারা দিয়ে তাকে নিয়ে যান। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর অবৈধ অস্ত্রসহ গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন জি কে শামীম।

বাসাবো এলাকায় পাঁচটি বাড়ি এবং একাধিক প্লট রয়েছে শমীমের। বাসাবোর কদমতলায় ১৭ নম্বরের পাঁচতলা বাড়িটি জি কে শামীমের। এই বাড়িটি ম্যানেজার হিসেবে দেখাশোনা করেন স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. ইসমাইল হোসেন সর্দার। শামীম কয়েক বছর বাসাবোর ওই বাড়িতে বসবাস করলেও এখন থাকছেন বনানীর ওল্ড ডিওএইচএসে নিজের ফ্ল্যাটে। এবং নিজের কার্যালয় বানিয়ে বসেন নিকেতন এলাকায় একটি ভবনে। বাসাবোতে আরো রয়েছে তিনটি ভবন এবং ডেমরা ও দক্ষিণগাঁও ছাড়াও সোনারগাঁ উপজেলা, বান্দরবান ও গাজীপুরে কয়েকশ বিঘা জমি কিনেছেন তিনি।

 

টাইমস/এসআই

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানার অগ্নিকাণ্ডে একজন নিহত, দগ্ধ ৩২

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানার অগ্নিকাণ্ডে একজন নিহত, দগ্ধ ৩২

ঢাকার কেরানীগঞ্জের একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা

মানবতাবিরোধী অপরাধ: রাজশাহীর টিপু সুলতানের মৃত্যুদণ্ড

মানবতাবিরোধী অপরাধ: রাজশাহীর টিপু সুলতানের মৃত্যুদণ্ড

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় রাজশাহীর বোয়ালিয়ার আব্দুস সাত্তার ওরফে টিপু

অভিযোগ প্রমাণে ব্যর্থ  হলে শাজাহান খানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা: ইলিয়াস কাঞ্চন

অভিযোগ প্রমাণে ব্যর্থ হলে শাজাহান খানের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা: ইলিয়াস কাঞ্চন

২৪ ঘণ্টার মধ্যে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণ করতে না

আইন আদালত

কুমিল্লায় নিহত আটজনের পরিবারকে ১২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল

কুমিল্লায় নিহত আটজনের পরিবারকে ১২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল

কুমিল্লার লালমাই উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ছয়জনসহ মোট আটজন নিহত হওয়ার ঘটনায় তাদের পরিবারকে মোট ১২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ কেন দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

জাতীয়

বরিশালে চার লঞ্চ থেকে ১২শ কেজি জাটকা জব্দ

বরিশালে চার লঞ্চ থেকে ১২শ কেজি জাটকা জব্দ

বরিশালের কালাবদর নদীতে চারটি লঞ্চে অভিযান চালিয়ে ১২শ কেজি জাটকা জব্দ করেছে কোস্টগার্ড। বুধবার ভোরে অভিযান চালিয়ে জাটকাগুলো জব্দ করা হয়।

জাতীয়

খুলনায় অনশনে ৪০ পাটকল শ্রমিক অসুস্থ

খুলনায় অনশনে ৪০ পাটকল শ্রমিক অসুস্থ

মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে আমরণ অনশন করছেন খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকেরা। মঙ্গলবার বিকাল ৩টা থেকে নিজ নিজ মিল গেটে শ্রমিকরা অনশন শুরু করেন। বুধবার দ্বিতীয় দিনের মতো অনশন অব্যাহত রয়েছে।

জাতীয়

নারীর গায়ে হাত, চট্টগ্রামে বাস থেকে লাফ দিয়ে যুবকের মৃত্যু

নারীর গায়ে হাত, চট্টগ্রামে বাস থেকে লাফ দিয়ে যুবকের মৃত্যু

চট্টগ্রামের বাকালিয়ায় বাস চাপায় এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম ইসমাইল হোসেন (২৫)। বুধবার সকালে নগরীর শাহ আমানত সেতুর বাকলিয়া অংশে এ ঘটনা ঘটে।

বিনোদন

স্বামীর জন্য প্রতি রাতে যা করেন রানী

স্বামীর জন্য প্রতি রাতে যা করেন রানী

বলিউড অভিনেত্রী রানী মুখার্জি। দর্শকদের জন্য বহু সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। তাদের জন্য কখনো পর্দায় উকিল সেজেছেন আবার কখনো পুলিশ হয়েছেন, কখনো খুব রোম্যান্টিক হয়ে নায়ককে চুমুও খেয়েছেন।

বিনোদন

বাসর রাতেই স্বামীকে তালাক দিলেন তানিয়া!

বাসর রাতেই স্বামীকে তালাক দিলেন তানিয়া!

দুই পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানিয়া বৃষ্টি। সম্প্রতি বিয়ে হয়েছে তার। তবে বিয়ে করেই ডিভোর্সও হয়ে গেছে এই অভিনেত্রীর। জানা গেছে, বাসর রাতেই স্বামীকে তালাক দেন তিনি নিজেই।