• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

স্টেনক্যাম্পের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গল্প

স্টেনক্যাম্পের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গল্প

ফিচার ডেস্ক৩১ অক্টোবর ২০১৮, ০১:৫০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

দক্ষিণ আফ্রিকার সফল অ্যাথলেটদের একজন রিকেনেট স্টেনক্যাম্প। ছয় বছর বয়স থেকেই তিনি একজন ক্রীড়াবিদ হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন এবং এক সময় নিজেকে একজন দৌড়বিদ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন।

মাত্র ২২ বছর বয়সেই তিনি ট্র্যাকে ও মাঠে আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি লাভ করেন এবং নিঃসন্দেহে তার ক্যারিয়ার একটি বড় অর্জনের দিকে অগ্রসর হচ্ছিল। তার এই যাত্রা চিরকাল অব্যাহত থাকবে বলেই তিনি কল্পনা করেছিলেন।

কিন্তু ২০১৬ সালে ডাক্তার যখন তার পায়ের গোড়ালিতে অতিরিক্ত অস্থি আবিষ্কার করল, তখন মনে হলো তার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে। তিনি যতই দৌড়াচ্ছিলেন গোড়ালির ব্যাথা ততটাই তীব্র হচ্ছিল। এক পর্যায়ে অতিরিক্ত অস্থি সরাতে ডাক্তার তাকে সার্জারি করতে বললেন। সার্জারির কারণে দুই বছর তাকে বিছানায় থাকতে হয়েছিল। এই বেদনাদায়ক মুহূর্তগুলো তাকে চরম হতাশার মধ্যে ফেলে দিয়েছিল।

স্টেনক্যাম্প বলেন, আমার মনে হচ্ছিল যে আমি যেন পুরো পৃথিবী থেকে আড়াল ও বিস্মৃত হয়ে গেছি। এই প্রতিকূলতা থাকা সত্ত্বেও স্টেনক্যাম্প আবারো দৌড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন। এমন কি, এ জন্য যদি তাকে নতুন করে হাঁটা শিখতে হয় তাও তিনি শিখবেন।

স্টেনক্যাম্প নিজেকে আত্মবিশ্বাস দিয়ে বলতেন, তুমি একদিন সেরে ওঠবে, তুমি আবারো দৌড়াবে। তিনি বিশ্বাস করতেন, চ্যালেঞ্জ কখনো কারো অগ্রযাত্রায় বাধা হয় না, বরং এটি তাকে বাধা মোকাবেলা করতে তৈরি করে।

একটি কঠোর এবং বিরামহীন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার পরে ২০১৭ সালে তিনি আবার খেলাধুলায় ফিরে আসেন এবং তিনি আগের চেয়ে আরও ভাল ছিলেন। এমনকি যখন তার প্রতিদ্বন্দ্বীরা কঠোর অনুশীলনে ব্যাস্ত, তখনও তিনি বিশ্রামে থাকতে বাধ্য ছিলেন। কিন্তু কোনো কিছুই তার সাফল্যের পথে বাধা হতে পারেনি? কারণ স্টেনক্যাম্প জানতেন যে, তিনি চ্যাম্পিয়ন হতে চান।

অবশেষে তিনি রেকর্ড ভেঙে ফিরলেন যা গত কয়েক দশকেও ক্রীড়াবিশ্ব দেখেনি। ১৯৯৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মহিলাদের ১০০ মিটার দৌড়ে সবচেয়ে কম সময় নিয়ে রেকর্ড গড়েন স্টেনক্যাম্প। এর কয়েক সপ্তাহ পর তিনি ১২.৮১ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে নিজের রেকর্ড ভেঙে ফেলেন।

তার এই বিস্ময়কর প্রত্যাবর্তন সম্পর্কে তিনি বলেন, আপনার ভাগ্য থেকে কিছুই আপনাকে ফেরাতে পারে না।

সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড, কমেছে শনাক্ত

সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড, কমেছে শনাক্ত

দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ৫ হাজার ৩৪৩ জন নতুন করোনা

অরাজকতা করলে কঠোর ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী

অরাজকতা করলে কঠোর ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, কেউ অরাজকতা করলে, জনগণের জানমালের ক্ষতি

সোমবার বন্ধ হচ্ছে বইমেলা

সোমবার বন্ধ হচ্ছে বইমেলা

আগামী সোমবার (১২ এপ্রিল) অমর একুশে গ্রন্থমেলা শেষ হচ্ছে। সংস্কৃতি

আন্তর্জাতিক

মিয়ানমারে এক রাতে সেনাদের গুলিতে নিহত ৬০

মিয়ানমারে এক রাতে সেনাদের গুলিতে নিহত ৬০

জান্তা বিরোধী বিক্ষোভ দমাতে আরও কঠোর অবস্থান নিয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত সামরিক বাহিনীর অভিযানে দেশটিতে কমপক্ষে ৬০ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন।

জাতীয়

টাঙ্গাইলে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক খাদে, যোগাযোগ বন্ধ

টাঙ্গাইলে ব্রিজ ভেঙে ট্রাক খাদে, যোগাযোগ বন্ধ

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ব্রিজ ভেঙে খাদে পড়ে গেছে বালুভর্তি একটি ট্রাক। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাত ৯টার দিকে নাগরপুর দরগ্রাম ভায়া ছনকা বাজার সড়কের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন ব্রিজটি ভেঙে যায়। এতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সড়কসহ পাশের মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর, সাটুরিয়া ও ঢাকাগামী সড়কে সরাসরি যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

জাতীয়

গাইবান্ধায় আ'লীগ নেতার বাড়িতে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ

গাইবান্ধায় আ'লীগ নেতার বাড়িতে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ

গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মাসুদ রানার বাসা থেকে এক ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে গাইবান্ধা শহরের খানকা শরীফ সংলগ্ন নারায়ণপুর এলাকা থেকে এই লাশ উদ্ধার করা হয়।

জাতীয়

নোয়াখালীতে শিশুকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৩

নোয়াখালীতে শিশুকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৩

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় এক শিশুকে (১২) ধর্ষণ ও ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জাতীয়

কাশিমপুর কারাগারে হাজতির মৃত্যু

কাশিমপুর কারাগারে হাজতির মৃত্যু

মাদক মামলায় গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা এক হাজতির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে কারাগার থেকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

উক্তি প্রতিদিন

“কৃতজ্ঞ কুকুর অকৃতজ্ঞ মানুষের চেয়ে শ্রেয়”

“কৃতজ্ঞ কুকুর অকৃতজ্ঞ মানুষের চেয়ে শ্রেয়”

আবু মুহাম্মদ মুসলিহ আল দীন বিন আবদাল্লাহ শিরাজি বা শেখ সাদি ছিলেন মধ্যযুগের গুরুত্বপূর্ণ ফার্সি কবিদের অন্যতম। ফারসিভাষী দেশের বাইরেও তিনি সমান সমাদৃত।