• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

অকুতোভয় বীর সৈনিক শহীদ সার্জেন্ট জ‎হুরুল হক  

অকুতোভয় বীর সৈনিক শহীদ সার্জেন্ট জ‎হুরুল হক   

ফিচার ডেস্ক০১ মে ২০১৯, ০২:৪১পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

রাজা-মহারাজাদের শাসনামল থেকে শুরু করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা লাভের পূর্ব পর্যন্ত অসংখ্য বীর সেনানি শাসকগোষ্ঠির বিরুদ্ধে অন্যায়ের প্রতিবাদে আন্দোলন সংগ্রাম করে গেছেন। তাদের মধ্যে কেউ সফল হয়েছেন, কেউবা বিসর্জন দিয়েছেন নিজের প্রাণটাই। তেমনি একজন ব্যক্তিত্ব শহীদ সার্জেন্ট জ‎হুরুল হক।

বাংলাদেশকে পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক শাসন থেকে মুক্ত করে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অদম্য আকাঙ্ক্ষা ও দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ সাহসী সৈনিক সার্জেন্ট জহুরুল হক। যেসব বীর বাঙ্গালির মহান আত্মত্যাগের ফলে ঊনসত্তরের গণআন্দোলন তীব্র আকার ধারণ করে এবং যা শেষ পর্যন্ত মহান মুক্তিযুদ্ধের রূপ নেয় তাদের অন্যতম একজন সার্জেন্ট জ‎হু‎রুল হক। তিনি আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অন্যতম আসামী ও শহীদ ব্যক্তিত্ব।

এই মহান ব্যক্তি ১৯৩৫ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি নোয়াখালী জেলার সোনাপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৫৩ সালে নোয়াখালী জিলা স্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাস করেন। ১৯৫৬ সালে জগন্নাথ কলেজের (বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়) ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ইন্টারমেডিয়েড পাশ করেন এবং ওই বছরই পাকিস্তান বিমান বাহিনীতে যোগদান করেন। কর্মক্ষেত্রে তার কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি খুব দ্রুত 'সার্জেন্ট' পদে পদোন্নতি লাভ করেন।

আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামিদের মধ্যে সার্জেন্ট জহুরুল হক ছিলেন ১৭তম। ১৯৬৭ সালের ডিসেম্বর মাসে তাকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। পরবর্তীকালে আরও কয়েকজন আসামিসহ তাকে ঢাকা (কুর্মিটোলা) ক্যান্টনমেন্টে স্থানান্তরিত করা হয়। এই একই অভিযোগে ১৯৬৮ সালের ১৭ জানুয়ারি শেখ মুজিবুর রহমানকেও গ্রেপ্তার করা হয়। ৩৫ জনকে আসামী করে সরকার পক্ষ মামলা দায়ের করে।

পাকিস্তান সরকারের দায়ের করা এ মামলাকে জনসাধারণ পূর্ব পাকিস্তানের স্বাধিকার আন্দোলনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মামলারূপে বিবেচনা করে। তারা আন্দোলন সঙ্ঘবদ্ধ করেন এবং অবিলম্বে এ মামলা রদ করে কয়েদীদের মুক্তি দাবি করেন। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৯৬৯ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি এ মামলার বিচারের শেষ তারিখ নির্ধারিত হয়। কিন্তু ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের প্রেক্ষিতে সরকার এ তারিখ পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়।

১৯৬৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ক্যান্টমেন্টে সৈনিকদের খাবারের উচ্ছিষ্ট সংগ্রহের জন্য বাঙালি শিশুরা ভিড় করে।এতে অবাঙালি সৈনিকেরা কয়েকজন অভুক্ত শিশুকে ধরে এনে বন্দীশিবিরের সামনে অমানবিকভাবে প্রহার শুরু করে। কয়েকজনবন্দী এ ঘটনায় প্রতিবাদ জানালে হাবিলদার 'মনজুরশাহ' বন্দীদের নিজ নিজ কামরায় ফিরে যেতে আদেশ করেন। জহুরুল হক সে আদেশ উপেক্ষা করে মনজুর শাহের সঙ্গে তর্ক-বিতর্কে লিপ্ত হয়ে পড়েন। এতে মনজুরশাহ প্রচণ্ডভাবে রাগান্বিত হয়ে রাইফেলের বেয়োনেট লাগিয়ে তার দিকে ধেয়ে আসেন। কিন্তু জহুরুল হক পাশ কাটিয়ে আক্রমণকারীর হাত থেকে রাইফেল ছিনিয়ে নেন এবং বিজয়ী বীরের মতো কামরার দরজায় গিয়ে তাকে রাইফেল ফেরত দেন।

পরদিন ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোরবেলা জহুরুল হক ঘর থেকে বের হলে মনজুর শাহ তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে।ও ই গুলিটি তার পেটে বিদ্ধ হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাকে কম্বাইন্ড মিলিটারি হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত ১০ টার দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ জনতা সরকারি অতিথি ভবন ও অন্যান্য সরকারি অট্টালিকায় অগ্নি সংযোগ করে। গণ-আন্দোলনের চাপে ১৯৬৯ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি সরকার আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা রদ করতে বাধ্য হয়। ব্যাপক গণ-বিক্ষোভের মুখে ২৫ মার্চ, ১৯৬৯ তারিখে আইয়ুব খান সরকারের পতন ঘটে।

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য এই মহান ব্যক্তিত্ব ২০১৮ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার পান। বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের আবাসিক হল ‘ইকবাল হল’ এর নাম পরিবর্তন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হলটির নামকরণ করেন 'শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল'।

এছাড়া তার স্মৃতি রক্ষার্থে চট্টগ্রামে অবস্থিত বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটির নামকরণ করা হয় বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটি জহুরুল হক।

সার্জেন্ট জহুরুল হকের সহকর্মীরা তাকে একজন অনমনীয় ও সৎ সৈনিক হিসেবে জানতেন। তারা অনেক সময় তাঁকে ‘মার্শাল’ বলে সম্বোধন করতেন। জহুরুল হক একজন ভালো চিত্রশিল্পী ও খেলোয়াড় ছিলেন। তিনি কাঠের শিল্পকর্মেও পারদর্শী ছিলেন। তার কিছু চিত্রকর্ম বাংলাদেশ জাতীয় যাদুঘরে সংরক্ষিত আছে।

সার্জেন্ট জহুরুল হক স্বাধীনচেতা ও দেশপ্রেমিক সৈনিক ছিলেন। তার শহীদ স্মৃতি পূর্ব বাংলায় বাঙালি জাতীয়তাবাদী আন্দোলনকে শাণিত করে তোলার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এ গণ-আন্দোলনের পথ ধরেই পরবর্তীকালে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। জহুরুল হক 'বাঙালি জাতির সূর্য সন্তান' হিসেবে আখ্যায়িত হয়ে থাকবেন চিরকাল।

 

টাইমস/এসআর/এইচইউ

করোনা থাকলে খুলবে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, দীর্ঘ হচ্ছে ছুটি

করোনা থাকলে খুলবে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, দীর্ঘ হচ্ছে ছুটি

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ধীরে ধীরে বাড়ছে। বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের

চীনা সেনাদের যুদ্ধের প্রস্তুতির নির্দেশ, প্রস্তুত ভারতও

চীনা সেনাদের যুদ্ধের প্রস্তুতির নির্দেশ, প্রস্তুত ভারতও

সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের প্রস্তুতির নির্দেশ দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। লাদাখ

বান্ধবীকে হয়রানির প্রতিবাদ, রিফাত স্টাইলে ছাত্র খুন (ভিডিও)

বান্ধবীকে হয়রানির প্রতিবাদ, রিফাত স্টাইলে ছাত্র খুন (ভিডিও)

বরগুনায় আবারও রিফাত স্টাইলে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। বান্ধবীকে

জাতীয়

করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১১৬৬

করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্য, আক্রান্ত ১১৬৬

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৮০তম দিনে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে আরও ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে দাড়াল ৫২২ জন

আন্তর্জাতিক

ভারতের বিরুদ্ধে নেপালের যুদ্ধের হুঙ্কার!

ভারতের বিরুদ্ধে নেপালের যুদ্ধের হুঙ্কার!

ক’দিন আগেই ভারত তাদের বলে দাবি করা বিতর্কিত ভূখণ্ড কালাপানি আর লিপুলেখকে নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নেপাল সরকার। শুধ তাই নয়, পারমাণবিক শক্তিধর ভারতকে যুদ্ধের হুঙ্কার দিয়েছে আয়তনে অতি ক্ষুদ্র দেশ নেপাল। যুদ্ধের হুঙ্কার নেপালের যদিও সেনাবাহিনী একটা আছে বটে; তবে তা ঢাল নেই তলোয়ার নেই নিধিরাম সর্দারের মতো।

স্বাস্থ্য

রক্তের টি-সেল বাড়িয়ে কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসার সম্ভাবনা

রক্তের টি-সেল বাড়িয়ে কোভিড-১৯ রোগী চিকিৎসার সম্ভাবনা

কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় একটি কার্যকরী ভ্যাকসিন ঠিক কখন পাওয়া যাবে সেটি এখনও পরিষ্কার নয়। বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই ভাইরাস প্রতিরোধে ভ্যাকসিন ও প্রতিষেধক আবিষ্কারের চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের গবেষণায় কখনো আলো দেখা গেলেও তা পরে আর প্রজ্বল হয়নি। এবার ব্রিটেনের একদল বিজ্ঞানী করোনাভাইরাসে সংক্রমিত গুরুতর রোগীদের চিকিৎসায় নতুন একটি পথের সন্ধান পেয়েছেন। তারা ভাবছেন, শরীরের টি-সেল বাড়িয়ে গুরুতর কোভিড-১৯ রোগীকে সারিয়ে তোলা যেতে পারে।

বিনোদন

গায়ক নোবেল ঢাকায়, বাড়িতে করোনায় আক্রান্ত বাবা

গায়ক নোবেল ঢাকায়, বাড়িতে করোনায় আক্রান্ত বাবা

জনপ্রিয় গায়ক নোবেলম্যান খ্যাত মাঈনুল আহসান নোবেলের বাবা মোজাফফর হোসেন নান্নু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সপ্তাহ খানেক আগে

আন্তর্জাতিক

দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণের আশঙ্কা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি

দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণের আশঙ্কা, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কমে যাওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ লকডাউন শিথিল অথবা সামাজিক দুরত্ব নীতি তুলে নিয়েছে। এসব দেশে দ্বিতীয় বারের মত করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হতে পারে বলে নতুন করে সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

বুয়েটে ভর্তিতে ফার্স্ট হওয়া সেই অনিক ডাক পেলেন গুগলে

বুয়েটে ভর্তিতে ফার্স্ট হওয়া সেই অনিক ডাক পেলেন গুগলে

চট্টগ্রামের ছেলে অনিক সরকার ২০১৪ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই সেরা ছাত্র অনিক সরকার এবার ডাক পেলেন গুগলে