• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬

উইনস্টন চার্চিল: সাহিত্যে নোবেলজয়ী রাজনীতিবিদ

উইনস্টন চার্চিল: সাহিত্যে নোবেলজয়ী রাজনীতিবিদ

ফিচার ডেস্ক১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:৩৩এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

উইনস্টন চার্চিল। একজন ব্রিটিশ সেনা কর্মকর্তা, রাজনীতিবিদ, লেখক ও রাষ্ট্রনেতা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কঠিন দুঃসময়ে নাৎসি বাহিনীর বিরুদ্ধে অদম্য প্রতিরোধের জন্য তিনি সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত।

১৮৭৪ সালের ৩০ নভেম্বর অক্সফোর্ডশায়ারে ডিউক অব মার্লবরোর এক অভিজাত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন চার্চিল। লেখাপড়ায় তিনি খুব একটা ভাল ছিলেন না। তবে খেলাধুলায় তার দক্ষতা ছিল চোখে পড়ার মত। তাই তিনি লেখাপড়া শেষ করে সেনা প্রশিক্ষণে ভর্তি হন। কমিশন লাভের পর তিনি ব্রিটিশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। তিনি কিউবা এবং উত্তর-পশ্চিম ভারতে সেনা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৮৯৯ সালে তিনি সামরিক পদ থেকে পদত্যাগ করেন এবং যুদ্ধ সংবাদদাতা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এ সময় পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় বোয়ার যুদ্ধে অংশ নেন। এ যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তিনি বেশ খ্যাতি অর্জন করেন।

১৯০০ সালে ইংল্যান্ডে ফিরে তিনি ওল্ডহ্যাম থেকে কনজার্ভেটিভ পার্টির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯০৪ সালে লিবারেল পার্টিতে যোগ দেন। শ্রমিক শ্রেণির কল্যাণ ও দরিদ্রদের সহায়তা প্রদানে তার গভীর সহানুভূতি ছিল।

১৯০৮ সালে বাণিজ্য বোর্ডের সভাপতির দায়িত্ব পান। দরিদ্রদের সহায়তা দিয়ে কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে লয়েড জর্জের গণ বাজেটের সমর্থক ছিলেন। তিনি বলেছিলেন- “কিছু ভাল কাজের জন্য চেষ্টা না করলে এবং এই বিশৃঙ্খল পৃথিবীকে বসবাসযোগ্য না করলে বেঁচে থেকে কী কাজ”?

একজন উদারপন্থী হলেও সমাজতন্ত্র ও ট্রেড ইউনিয়নের বিরুদ্ধে তার অবস্থান ছিল কঠোর। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি ১৯১১ সালে নৌবিভাগের ফার্স্ট লর্ডের দায়িত্ব পান। তবে ১৯১৫ সালে তুর্কিদের বিরুদ্ধে এক অভিযান ব্যর্থ হলে এ দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ার কমিউনিস্ট বিরোধী সেনাদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতে চেষ্টা করেন তিনি।

১৯২৪ সালে তিনি কনজার্ভেটিভ সরকারের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। কিন্তু তার গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড নীতির কারণে নিম্ন প্রবৃদ্ধি, উচ্চ মুদ্রাস্ফীতি ও চরম বেকারত্ব দেখা দেয়। তিনি এটাকে একটি বড় ভুল বলে মনে করেছিলেন। ১৯৩০ সালে ইউরোপ জুড়ে জার্মান নাৎসি বাহিনীর আগ্রাসন শুরু হলে তিনি তা প্রতিরোধের নেতৃত্ব দেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে তিনি আবার ব্রিটিশ নৌবাহিনীর ফার্স্ট লর্ডের দায়িত্ব পান।

১৯৪০ সালে প্রধানমন্ত্রী চেম্বার্লিন পদত্যাগ করলে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের নেতৃত্ব দেন। তার নেতৃত্বেই নাৎসি বাহিনীর বিরুদ্ধে ইউরোপীয় মিত্র শক্তির জোট বিজয় লাভ করে। এ যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় তিনি ব্যাপক প্রশংসিত হন।
এসময় মস্কো, তেহরান, ইয়াল্টা ও নিউইয়র্কে বিভিন্ন সম্মেলনে তিনি অংশ নেন এবং ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট ও জোসেফ স্ট্যালিনের সঙ্গে আলোচনা করে জাতিসংঘ গঠনে ভূমিকা রাখেন।

১৯৪৫ সালের নির্বাচনে কনজার্ভেটিভ হেরে গেলে তিনি বিরোধী দলের নেতৃত্ব দেন। স্নায়ুযুদ্ধের সময় পূর্ব ইউরোপে সোভিয়েত রাশিয়ার প্রভাব নিয়ে তিনি সতর্ক করেন এবং সোভিয়েত আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ইউরোপকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। ১৯৫১ সালে তিনি পুনরায় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। তার শাসনামলে ব্রিটেন পারমানবিক বোমা আবিষ্কার করে। তিনি দুটি আত্মজীবনীসহ বেশ কিছু ঐতিহাসিক গ্রন্থ রচনা করেছেন। ‘দ্য সেকন্ড ওয়ার্ল্ডওয়্যার’ এবং ‘অ্যা হিস্টোরি অব ইংলিশ স্পিকিং পিপল’ গ্রন্থ দুটির জন্য তিনি বিখ্যাত। তার এই অবদানের জন্য ১৯৫৩ সালে তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।

স্বাস্থ্যের অবনতি হলে ১৯৫৫ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেন। তবে ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৬৫ সালের ২৪ জানুয়ারি এই মহান নেতা মারা যান। ফ্যাসিবাদ থেকে উদার গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে ভূমিকা রাখায় বিংশ শতাব্দীর এক বিখ্যাত চরিত্র ছিলেন উইনস্টন চার্চিল।

 


টাইমস/এএইচ/জিএস

১১ দফা দাবিতে সাকিবদের পাশে আন্তর্জাতিক সংগঠন ফিকা

১১ দফা দাবিতে সাকিবদের পাশে আন্তর্জাতিক সংগঠন ফিকা

ক্রিকেটারদের আন্তর্জাতিক সংগঠন দ্য ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনস (ফিকা)

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে: পাপন

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে: পাপন

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ

এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সুনামগঞ্জ-১ আসনের সরকার দলীয় সাংসদ মোয়াজ্জেম

মতামত

মেয়েটিকে আমরা বেঁচে থাকতে দিলাম না…

মেয়েটিকে আমরা বেঁচে থাকতে দিলাম না…

বান্দরবান থানচি উপজেলার যোসেফ পাড়ার বাসিন্দা  লিয়ানা ত্রিপুরা পপি (২৩)। চার বছর আগে উচ্চ শিক্ষার জন্য ঢাকায় চলে আসেন। পড়াশুনার পাশাপাশি গুলশানের একটি বিউটি পার্লারে চাকরি করতেন তিনি। গত শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পার্লারে যাওয়ার সময় গুলশানে একটি প্রাইভেট কারের (ঢাকা মেট্রো ঘ ১৩০৯০২) ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যান পপি।

রাজনীতি

মেননের বক্তব্যে বিব্রত নয় ১৪ দল: নাসিম

মেননের বক্তব্যে বিব্রত নয় ১৪ দল: নাসিম

গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি- ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের এমন বক্তব্যে নিয়ে ১৪ দল বিব্রত নয় বলে জানিয়েছেন এর সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম। মঙ্গলবার দুপুরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৪ দল আয়োজিত বাংলাদেশ-ভারত সমঝোতা স্মারক শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নাসিম এ কথা বলেন। তিনি বলেন, কোনও একক ব্যক্তির বক্তব্যে ১৪ দল বিব্রত হবে কেন? এটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, অসাম্প্রদায়িকতা, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ভিত্তিতে করা আদর্শিক জোট। জোটের বৈঠকে এ বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। তারপর করণীয় ঠিক করা হবে।’

জাতীয়

কুমিল্লায় ছেলের হাতে মার খেয়ে মায়ের আত্মহত্যা

কুমিল্লায় ছেলের হাতে মার খেয়ে মায়ের আত্মহত্যা

জমিজমা নিয়ে মায়ের সঙ্গে ঝামেলা চলছিল কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কড়িকান্দি ইউনিয়নের বন্দরামপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. শাকিলের(৩৭)।  এ নিয়ে পারিবারিক কলহ সৃষ্টি হয় পরিবারে। সোমবার ছেলের হাতে দুই দফা মার খান মা লতিফা বেগম (৫৭)। ক্ষোভে অভিমানে মঙ্গলবার সকালে লতিফা বেগম বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকে ছেলে শাকিল পলাতক। এ ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে শাকিল ও তার স্ত্রী জেসমিন আক্তারকে আসামি করে লতিফার স্বামী আবুল কাশেম তিতাস থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ জেসমিনকে আটক করেছে।

জাতীয়

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।  মঙ্গলবার বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) ওয়েবসাইটে ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ১৩ হাজার ৩৪৫ জন প্রার্থী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। স্কুল পর্যায়ে ১০ হাজার ৯৬৮ জন, স্কুল-২ পর্যায়ে ৭৭০ জন এবং কলেজ পর্যায়ে ১ হাজার ৬০৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষার সূচি পরবর্তী সময়ে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

জাতীয়

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার দেওড়া গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ বি এম মাহমুদুল হাসান এ রায় দেন।

বিনোদন

পুনমের সাথে সন্ধ্যা কাটাতে চাইলে...

পুনমের সাথে সন্ধ্যা কাটাতে চাইলে...

ভারতীয় মডেল পুনম পাণ্ডে। আলোচনায় থাকার জন্য মাঝে মাঝে অদ্ভুদ সব কাণ্ড ঘটিয়ে বসেন তিনি। কখনো কাপড় খুলে, আবার কখনো শরীর দেখিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবরের খোরাক হন এই মডেল। তবে পুনম ভক্তদের এমন চমক দেন, যা অন্যদের পক্ষে বলাই কঠিন। প্রায়ই ভক্তদের সামনে রীতিমতো নিজেকে উন্মোচন করে আলোচনায় থাকেন তিনি। চমক দিতে গিয়ে কখনো গায়ে একটা সুতোও থাকে না তার। নগ্নতা নিয়ে তো লজ্জা নেইই বরং পুরুষমনে সুড়সুড়ি কীভাবে দিতে হয়, তা ভালোই জানেন পুনম। এদিকে দীপাবলির আগে অনুরাগীদের আনন্দ দিতে নতুন উপহার নিয়ে হাজির হলেন পুনম পাণ্ডে। তবে এবারের উপহার সম্পূর্ণ আলাদা। এবার কোনো কাপড় খোলার ব্যাপার নেই, এমনকি নগ্ন হওয়ার বিষয়ও নেই। এবার নতুন এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছেন পুনম। এই প্রতিযোগিতা তার ‘বেটাইম স্টোরিজ’ নিয়ে।