• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

উইনস্টন চার্চিল: সাহিত্যে নোবেলজয়ী রাজনীতিবিদ

উইনস্টন চার্চিল: সাহিত্যে নোবেলজয়ী রাজনীতিবিদ

ফিচার ডেস্ক১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:৩৩এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

উইনস্টন চার্চিল। একজন ব্রিটিশ সেনা কর্মকর্তা, রাজনীতিবিদ, লেখক ও রাষ্ট্রনেতা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কঠিন দুঃসময়ে নাৎসি বাহিনীর বিরুদ্ধে অদম্য প্রতিরোধের জন্য তিনি সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত।

১৮৭৪ সালের ৩০ নভেম্বর অক্সফোর্ডশায়ারে ডিউক অব মার্লবরোর এক অভিজাত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন চার্চিল। লেখাপড়ায় তিনি খুব একটা ভাল ছিলেন না। তবে খেলাধুলায় তার দক্ষতা ছিল চোখে পড়ার মত। তাই তিনি লেখাপড়া শেষ করে সেনা প্রশিক্ষণে ভর্তি হন। কমিশন লাভের পর তিনি ব্রিটিশ সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। তিনি কিউবা এবং উত্তর-পশ্চিম ভারতে সেনা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৮৯৯ সালে তিনি সামরিক পদ থেকে পদত্যাগ করেন এবং যুদ্ধ সংবাদদাতা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এ সময় পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় বোয়ার যুদ্ধে অংশ নেন। এ যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে তিনি বেশ খ্যাতি অর্জন করেন।

১৯০০ সালে ইংল্যান্ডে ফিরে তিনি ওল্ডহ্যাম থেকে কনজার্ভেটিভ পার্টির সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯০৪ সালে লিবারেল পার্টিতে যোগ দেন। শ্রমিক শ্রেণির কল্যাণ ও দরিদ্রদের সহায়তা প্রদানে তার গভীর সহানুভূতি ছিল।

১৯০৮ সালে বাণিজ্য বোর্ডের সভাপতির দায়িত্ব পান। দরিদ্রদের সহায়তা দিয়ে কল্যাণরাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে লয়েড জর্জের গণ বাজেটের সমর্থক ছিলেন। তিনি বলেছিলেন- “কিছু ভাল কাজের জন্য চেষ্টা না করলে এবং এই বিশৃঙ্খল পৃথিবীকে বসবাসযোগ্য না করলে বেঁচে থেকে কী কাজ”?

একজন উদারপন্থী হলেও সমাজতন্ত্র ও ট্রেড ইউনিয়নের বিরুদ্ধে তার অবস্থান ছিল কঠোর। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি ১৯১১ সালে নৌবিভাগের ফার্স্ট লর্ডের দায়িত্ব পান। তবে ১৯১৫ সালে তুর্কিদের বিরুদ্ধে এক অভিযান ব্যর্থ হলে এ দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর রাশিয়ার কমিউনিস্ট বিরোধী সেনাদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতে চেষ্টা করেন তিনি।

১৯২৪ সালে তিনি কনজার্ভেটিভ সরকারের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। কিন্তু তার গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড নীতির কারণে নিম্ন প্রবৃদ্ধি, উচ্চ মুদ্রাস্ফীতি ও চরম বেকারত্ব দেখা দেয়। তিনি এটাকে একটি বড় ভুল বলে মনে করেছিলেন। ১৯৩০ সালে ইউরোপ জুড়ে জার্মান নাৎসি বাহিনীর আগ্রাসন শুরু হলে তিনি তা প্রতিরোধের নেতৃত্ব দেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে তিনি আবার ব্রিটিশ নৌবাহিনীর ফার্স্ট লর্ডের দায়িত্ব পান।

১৯৪০ সালে প্রধানমন্ত্রী চেম্বার্লিন পদত্যাগ করলে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন এবং দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের নেতৃত্ব দেন। তার নেতৃত্বেই নাৎসি বাহিনীর বিরুদ্ধে ইউরোপীয় মিত্র শক্তির জোট বিজয় লাভ করে। এ যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় তিনি ব্যাপক প্রশংসিত হন।
এসময় মস্কো, তেহরান, ইয়াল্টা ও নিউইয়র্কে বিভিন্ন সম্মেলনে তিনি অংশ নেন এবং ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট ও জোসেফ স্ট্যালিনের সঙ্গে আলোচনা করে জাতিসংঘ গঠনে ভূমিকা রাখেন।

১৯৪৫ সালের নির্বাচনে কনজার্ভেটিভ হেরে গেলে তিনি বিরোধী দলের নেতৃত্ব দেন। স্নায়ুযুদ্ধের সময় পূর্ব ইউরোপে সোভিয়েত রাশিয়ার প্রভাব নিয়ে তিনি সতর্ক করেন এবং সোভিয়েত আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ইউরোপকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। ১৯৫১ সালে তিনি পুনরায় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। তার শাসনামলে ব্রিটেন পারমানবিক বোমা আবিষ্কার করে। তিনি দুটি আত্মজীবনীসহ বেশ কিছু ঐতিহাসিক গ্রন্থ রচনা করেছেন। ‘দ্য সেকন্ড ওয়ার্ল্ডওয়্যার’ এবং ‘অ্যা হিস্টোরি অব ইংলিশ স্পিকিং পিপল’ গ্রন্থ দুটির জন্য তিনি বিখ্যাত। তার এই অবদানের জন্য ১৯৫৩ সালে তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।

স্বাস্থ্যের অবনতি হলে ১৯৫৫ সালে তিনি প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেন। তবে ১৯৬৪ সাল পর্যন্ত তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৬৫ সালের ২৪ জানুয়ারি এই মহান নেতা মারা যান। ফ্যাসিবাদ থেকে উদার গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে ভূমিকা রাখায় বিংশ শতাব্দীর এক বিখ্যাত চরিত্র ছিলেন উইনস্টন চার্চিল।

 


টাইমস/এএইচ/জিএস

রিশান ফরাজী ৫ দিনের রিমান্ডে

রিশান ফরাজী ৫ দিনের রিমান্ডে

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার তিন নম্বর আসামি রাশেদুল হাসান রিশান ওরফে রিশান ফরাজীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের পুলিশ রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার এ আদেশ দেন বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মো. সিরাজুল ইসলাম গাজী।

হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী: কথার জাদুকরের যত উক্তি

হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী: কথার জাদুকরের যত উক্তি

বরেণ্য কথাশিল্পী, চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (শুক্রবার)। ২০১২ সালের এইদিনে (১৯ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

লন্ডনে গেলেন প্রধানমন্ত্রী

লন্ডনে গেলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার সকালে সরকারি সফরে লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন। শুক্রবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট লন্ডনের উদ্দেশে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

জাতীয়

চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা শোয়েব রিগানকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাতে শহরের রাহেলা খাতুন গার্লস একাডেমির পার্শ্ববর্তী রাস্তায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। রাতেই তাকে চুয়াডাঙ্গা থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়। শোয়েব শহরের মাঝেরপাড়ার আজম আলীর ছেলে।

জাতীয়

তিতাসে ১৩ দিনে ৬৮০ কর্মকর্তা-কর্মচারী বদলি

তিতাসে ১৩ দিনে ৬৮০ কর্মকর্তা-কর্মচারী বদলি

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ১৩ দিনে ৮১ প্রকৌশলীসহ ৬৮০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি করেছে। এরমধ্যে সিবিএ নেতা ও কর্মচারী ৫০৭ জন। বৃহস্পতিবারই বদলি করা হয়েছে প্রকৌশলীসহ ১১৭ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে।

জাতীয়

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এবার সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এবার সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা

দেশের পাঁচটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কৃষি সংশ্লিষ্ট দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তিতে এবার সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ বছর বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এই প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব দেবে।

উক্তি প্রতিদিন

“মরিতে না হইলে বাঁচিয়া থাকিবার কোনো মর্যাদাই থাকিত না”

“মরিতে না হইলে বাঁচিয়া থাকিবার কোনো মর্যাদাই থাকিত না”

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৭ মে ১৮৬১, বাংলা ২৫ বৈশাখ ১২৬৮ সালে ভারতের কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। একাধারে তিনি ছিলেন কবি, ঔপন্যাসিক, গীতিকার, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোট গল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা ও দার্শনিক।

জাতীয়

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মধ্যরাতে সড়কে প্রাণ গেল দু'জনের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মধ্যরাতে সড়কে প্রাণ গেল দু'জনের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু'জন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে ফুলবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড ও সদর উপজেলার সুলতানপুরের রাধিকা এলাকায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

বিনোদন

নতুন সিনেমায় জেনিফার

নতুন সিনেমায় জেনিফার

জেনিফার লোপেজ। হলিউডে গানে তার আধিপত্য। তবে এবার গানে নয় সিনেমায় সরব এই গায়িকা। এই মুহূর্তে তার হাতে আছে নতুন সিনেমা ‘ম্যারি মি’। নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে রোমান্টিক-কমেডি কাহিনিতে অভিনয় করবেন এ পপ ডিভা।