সিনহাসহ ১১ জনের মামলার রায় দ্বিতীয়বার পেছাল

চার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার রায় আবার পিছিয়েছে। পরবর্তী তারিখ রাখা হয়েছে ৯ নভেম্বর। 

আদালত থেকে বলা হয়েছে, রায় প্রস্তুত না হওয়ায় নতুন তারিখ রাখা হয়েছে। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪-এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে বৃহস্পতিবার আলোচিত এই মামলার রায় ঘোষণার কথা ছিল।

এর আগে গত ৫ অক্টোবর রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক অসুস্থ থাকায় রায় ঘোষণার তারিখ পিছিয়ে পরবর্তী তারিখ ২১ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) নির্ধারণ করা হয়। 

এস কে সিনহা ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন : ফারমার্স ব্যাংকের (বর্তমান পদ্মা ব্যাংক) সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান, একই এলাকার বাসিন্দা নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা, রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায়।

মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মো. জিয়াউদ্দিন আহমেদ তদন্তের সময় মারা যাওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ মামলার পলাতক আসামিরা হলেন, এস কে সিনহা, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী।

ফারমার্স ব্যাংক থেকে চার কোটি টাকা ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর ও আত্মসাৎ করার অভিযোগে ২০১৯ সালের ১০ জুলাই দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে কমিশনের জেলা সমন্বিত কার্যালয় ঢাকা-১ এ এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

একই বছরের ডিসেম্বরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদক পরিচালক বেনজীর আহমেদ চার্জশিট দেন। ২০২০ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ চার্জশিট গ্রহণ করেন। ২০২০ সালের ১৩ আগস্ট আদালত অভিযোগ গঠন করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামিরা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখা থেকে ‘অস্বাভাবিক দ্রুততার’ সঙ্গে চার কোটি টাকা ভুয়া ঋণ তৈরি করে তা একইদিনে পে-অর্ডারের মাধ্যমে আসামি এস কে সিনহার ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তর করেন। পরে এস কে সিনহা নগদ, চেক ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে অন্য অ্যাকাউন্টে টাকা সরিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করেন, যা দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

Share this news on:

সর্বশেষ

img
কক্সবাজারে হাতি মৃত্যুর ঘটনায় বনবিভাগের উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন Nov 27, 2021
img
প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের নারীরা Nov 27, 2021
img
হতাশাময় একটা দিন শেষ করলো বাংলাদেশ Nov 27, 2021
img
দুই দিনের আলটিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়ল শিক্ষার্থীরা Nov 27, 2021
ঢাকা কক্সবাজার রেল লাইনের পথে ইসলামাবাদ স্টেশন থেকে সরাসরি Nov 27, 2021
হাফ ভাড়া : পরিবহন মালিকদের সঙ্গে বিআরটিএ'র দ্বিতীয় দিনেও নিষ্ফল বৈঠক Nov 27, 2021
img
'দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন ভ্যারিয়েন্ট খুবই এগ্রেসিভ, যোগাযোগ স্থগিত করা হবে' : স্বাস্থ্যমন্ত্রী Nov 27, 2021
ঢাকা থেকে সরাসরি রেললাইনে কক্সবাজার, দেখুন রেলপথ Nov 27, 2021
img
৩৩০ রানে থামলো বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস Nov 27, 2021
সংবাদকর্মী আহসানকবিরের মৃত্যুর ঘটনায় সিটি কর্পোরেশন ময়লাবাহী ট্রাক চালক গ্রেপ্তারে ব্রিফিং Nov 27, 2021