একীভূত হচ্ছে সংকটে থাকা দুর্বল ব্যাংকগুলো

আগামী মার্চে একীভূত হতে পারে সংকটে থাকা দুর্বল ব্যাংকগুলো। ব্যাংকার্স মিটিং শেষে এই তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মেজবাউল হক। আর ব্যাংক নির্বাহীরা বলেন, এই খাতে সুশাসন ফেরানোর সংস্কারের বিকল্প নেই।

ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণ পাহাড়ের চূড়ায়। সুশাসনের অভাবও দীর্ঘদিনের। প্রতিনিয়তই দুর্বল হয়ে পড়ছে কয়েকটি বাণিজ্যিক ব্যাংক। তারল্য সংকটসহ ব্যাংকগুলোতে রয়েছে বৈদেশিক মুদ্রার সংকট। এই পরিস্থিতিতে টাকা ছেপে কয়েককটি ব্যাংককে নিয়মিত তারল্য সহায়তা করে আসছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এমন পরিস্থিতিতে নতুন বছরের প্রথম ব্যাংর্কাস সভার আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সভায় ব্যাংক খাতের সুশাসন ফেরাতে বিস্তর আলোচনা হয়েছে। দাবি উঠেছে এই খাতের সংস্কার নিয়েও।

অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ লিমিটেডের (এবিবি) সাবেক প্রেসিডেন্ট সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, ব্যাংকিং খাতে সংস্কার খুবই জরুরি। সুশাসন ফেরাতেই তা দরকার। আমরা সেই লক্ষ্যেই এগিয়ে যাচ্ছি। একটা সংস্কার আসছে। এটা সবাইকে মানতে হবে।

ব্র্যাক ব্যাংকের এমডি ও সিইও সেলিম আর এফ হোসেন বলেন, কোনও ক্ষেত্রে নতুন ঋণ দেয়া বন্ধ হয়ে যেতে পারে। নতুন শাখা খোলা বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এমনকি নতুন ডিপোজিট নেয়া বন্ধ হয়ে যেতে পারে। নগদ লভ্যাংশ দেয়ার ওপর সীমা আরোপ করা হতে পারে।

পরে কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানায়, সংকটে থাকা দুর্বল ব্যাংকগুলোর নিয়ে উদ্যোগের কথা। আসন্ন মার্চ থেকেই হতে পারে একীভূত করার উদ্যোগ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, ব্যাংকিং খাতে সুশাসনের ওপর জোর দেয়া হয়েছে। আমরা দুর্বল ব্যাংকগুলোকে একীভূত করার চিন্তা করছি। অবশ্য সেটা আইনি প্রক্রিয়ায়। কেন্দ্রীয় ব্যাংক তা বাস্তবায়ন করবে। বর্তমান নির্বাচিত সরকারের ইশতেহার ছিল, নির্বাচনের পর আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা। আমরা সেই লক্ষ্যেই কাজ শুরু করবো।

ডলারের মূল্যের স্থিতিশীলতা ফেরাতে মার্চ থেকে ক্রলিং পেগ পদ্ধতি চালু হবেও জানায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

Share this news on:

সর্বশেষ

img
বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল কত টাকা পাবে, জানালো বিসিবি Feb 29, 2024
img
এলপি গ্যাসের নতুন দাম নির্ধারণ রোববার Feb 29, 2024
img
প্রতি ৯৯০ জনের বিপরীতে সরকারি হাসপাতালে বেড একটি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী Feb 29, 2024
img
ফের বাড়ল বিদ্যুতের দাম Feb 29, 2024
img
মা-বাবা হচ্ছেন রণবীর-দীপিকা, জানালেন সন্তান আগমনের দিনক্ষণ Feb 29, 2024
img
সাজার মেয়াদ শেষ হওয়া ১৫৭ বিদেশিকে ফেরত পাঠাতে হাইকোর্টের নির্দেশ Feb 29, 2024
img
১ কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ক্রয়ের অনুমোদন Feb 29, 2024
img
জনগণের জানমাল রক্ষায় পুলিশকে আরও সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর Feb 29, 2024
img
গাজার হাসপাতালে পানিশূন্যতা ও অপুষ্টিতে ৬ শিশুর মৃত্যু, অন্যদের অবস্থা আশঙ্কাজনক Feb 29, 2024
img
বসন্তে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যেসব খাবার Feb 29, 2024