• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে ৫ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণের সুপারিশ সিপিডির

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষককে ৫ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণের সুপারিশ সিপিডির

নিজস্ব প্রতিবেদক১১ জুন ২০১৯, ০৪:৪৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

অধিক ফলন হওয়ার পরও ধানের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে যে সকল কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের ৫ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার সুপারিশ করেছে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের অর্থনৈতিক পর্যালোচনা তুলে ধরতে গিয়ে সিপিডি এই সুপারিশ করে।

সংস্থাটির হিসাব মতে, কৃষকদের অনুদান দিতে সরকারের মোট ব্যয় হবে ৯ হাজার ১০০ কোটি টাকা। অনুদানের টাকা ১ কোটি ৮০ লাখ কৃষকের ব্যাংক হিসাবে পৌঁছে দেওয়া যাবে বলে মনে করে সংস্থাটি।

সংস্থাটির ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, রপ্তানি খাত ৫ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দাবি করছে। এটা দিলে সরকারের বাড়তি ১৫ হাজার কোটি টাকার মতো ব্যয় হবে। ফলে রপ্তানি খাতে মোট ভর্তুকি দাঁড়াবে ২০ হাজার কোটি টাকার মতো।

‘আমি কৃষককে ৯ হাজার কোটি টাকা দিতে কোনো সমস্যা দেখি না। এটা দিলে তা যুক্তিযুক্ত ও সাম্যবাদী আচরণ হবে।’ বলেন দেবপ্রিয়।

ধানের দাম নিয়ে কৃষকের সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে দাবি করে দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, এ বছর ধানের দাম নিয়ে কৃষকের সঙ্গে অন্যায় করা হয়েছে। সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এ রকম অর্থনৈতিক অব্যবস্থাপনার প্রকট চিত্র অন্য খাতে দেখা যায়নি। তাই কৃষক ভর্তুকি দাবি করতেই পারে।

সিপিডির অর্থনৈতিক পর্যালোচনা তুলে ধরে সংস্থাটির জ্যেষ্ঠ গবেষণা ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান বলেন, হঠাৎ কৃষি খাতে মজুরিও বেড়ে গেছে। এটা সামাল দিতে কৃষিতে যান্ত্রিকীকরণ বাড়াতে হবে। পাশাপাশি উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে উৎপাদন ব্যয় কমিয়ে আনতে হবে।

এ সময় সিপিডির গবেষণা পরিচালক খোন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম, সংলাপ পরিচালক আনিসাতুল ফাতেমা ইউসুফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

টাইমস/এএইচ/এইচইউ

সিগন্যালে ত্রুটির কারণে সিরাজগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনা হতে পারে: রেল সচিব

সিগন্যালে ত্রুটির কারণে সিরাজগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনা হতে পারে: রেল সচিব

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব

১০টা খুন করলেও আমার এমন সাজা হত না: ওসি মোয়াজ্জেম

১০টা খুন করলেও আমার এমন সাজা হত না: ওসি মোয়াজ্জেম

ফেনীর সোনাগাজীর থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন বৃহস্পতিবার আদালতে বলেছেন,

উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেসের ৭ বগি লাইনচ্যুত, আগুন

উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেসের ৭ বগি লাইনচ্যুত, আগুন

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন ও সাত বগি লাইনচ্যুত

উক্তি প্রতিদিন

“কেউ বা মরে কথা বলে, কেউ  বা মরে না বলে।” 

“কেউ বা মরে কথা বলে, কেউ বা মরে না বলে।” 

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৮৬১ সালের ৭ মে ভারতের কলকাতার জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। একাধারে তিনি ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।

আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা নিপীড়নে এবার সুচির বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা

রোহিঙ্গা নিপীড়নে এবার সুচির বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা

সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের জাতিগত নিধনের অভিযোগে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর (কার্যত সরকার প্রধান) অং সান সুচি ও দেশটির সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার এই মামলা দায়ের করে রোহিঙ্গা ও লাতিন আমেরিকান কিছু মানবাধিকার সংগঠন। রোহিঙ্গা নিধনের অভিযোগে এই প্রথম সুচির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হলো।

জাতীয়

ইট দিয়ে কলেজছাত্রীর ৫ দাঁত ভেঙে দিল বখাটে তরুণ

ইট দিয়ে কলেজছাত্রীর ৫ দাঁত ভেঙে দিল বখাটে তরুণ

শরীয়তপুর সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে কলেজছাত্রী খাদিজা আক্তারের ওপর হামলা চালিয়ে (১৯) পাঁচটি দাঁত ভেঙে দিয়েছে এক বখাটে তরুণ। বুধবার বিকালে এই ঘটনা ঘটে। আহত ছাত্রীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। খাদিজা ওই কলেজের স্নাতক শ্রেণির দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। তিনি সদর উপজেলার চর কোয়ারপুর গ্রামের আবুল কালাম ঢালীর মেয়ে। আর অভিযুক্ত আজমির উল্লাহ (১৮) একই কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। তিনি শরীয়তপুর পৌরসভার তুলাসার গ্রামের শাহ আলম খানের ছেলে।

জাতীয়

যুদ্ধাপরাধীদের নামে থাকা পাঁচ কলেজের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত   

যুদ্ধাপরাধীদের নামে থাকা পাঁচ কলেজের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত  

যুদ্ধাপরাধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকার কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত পাঁচটি কলেজের নাম পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।

জাতীয়

ক্ষুদ্র ঋণে কেউ কেউ যশ-নাম কামালেও জনগণ সুফল পায়নি: প্রধানমন্ত্রী

ক্ষুদ্র ঋণে কেউ কেউ যশ-নাম কামালেও জনগণ সুফল পায়নি: প্রধানমন্ত্রী

দারিদ্র্য বিমোচনের ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ঋণ ব্যর্থ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এক সময় আমরা দেখেছি ক্ষুদ্র ঋণ নিয়ে (কর্মসূচি) কেউ কেউ খুব বাহবা নেওয়ার চেষ্টা করেছেন। এক সময় আমরাও এটাকে সমর্থন দিয়েছিলাম, ভেবেছিলাম যে এর মাধ্যমে বুঝি মানুষ দরিদ্র্যসীমার ওপরে উঠতে পারবে। কিন্তু যখন আমরা বিষয়টা আরো গভীরভাবে দেখলাম, তাতে দেখলাম, আসলে এর মাধ্যমে দারিদ্র ঠিক বিমোচন হয় না। দারিদ্র লালন-পালন হয়। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) ‘উন্নয়ন মেলা ২০১৯’শীর্ষক এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বিনোদন

ফের ক্যামেরার সামনে দাঁড়াচ্ছেন বুবলী

ফের ক্যামেরার সামনে দাঁড়াচ্ছেন বুবলী

চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। বহুদিন ধরে কাজ নেই তার। একধরণের অবসর সময় কাটিয়েছেন তিনি। সবশেষ ঈদুল আজহায় দর্শকপ্রিয় নির্মাতা জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিতে অভিনয় করেন এই নায়িকা।