• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

এক বছরে স্থলবন্দরের আয় বেড়েছে ৪২ শতাংশ

এক বছরে স্থলবন্দরের আয় বেড়েছে ৪২ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমের মাধ্যমে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে দেশের স্থলবন্দরগুলো ২১১ কোটি টাকা আয় করেছে। যা ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আয়ের তুলনায় ৬২ কোটি ৭৭ লাখ টাকা বেশি। সেই হিসেবে এক বছরে স্থলবন্দরগুলোর আয় বেড়েছে প্রায় ৪২ শতাংশ।

বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, বিগত অর্থবছরে স্থলবন্দর থেকে যত আয় হয়েছে তার ৮২ শতাংশই এসেছে বেনাপোল, বুড়িমারী, ভোমরা ও তামাবিল স্থলবন্দর থেকে।

বরাবরের মতো গত অর্থবছরে সবচেয়ে বেশি মাশুল আদায় হয়েছে বেনাপোল স্থলবন্দরে। এই স্থলবন্দরের আয় ছিল ৮২ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। বুড়িমারী ৫৭ কোটি ২৯ লাখ, ভোমরা ১৮ কোটি ৭৩ লাখ ও তামাবিল ১৫ কোটি ২৬ লাখ টাকা আয় করেছে।

অন্যান্য স্থলবন্দরের মধ্যে সোনামসজিদ স্থলবন্দর ৩ কোটি ৪০ লাখ , হিলি ৬ কোটি ৯১ লাখ, টেকনাফ ৩ কোটি ৬৮ লাখ, বাংলাবান্ধা ৩ কোটি ১৫ লাখ, আখাউড়া ১৯ লাখ, সোনাহাট ৩ কোটি ৭২ লাখ, নাঁকুগাও ৬৮ লাখ ও বিবিরবাজার ২ লাখ টাকা। এছাড়া এ সময়ে প্রধান কার্যালয়ের আয় ছিল ১৫ কোটি ৪৯ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী বৃহস্পতিবার বলেন, গত কয়েকবছরে স্থলবন্দরগুলোর অবকাঠামো উন্নয়ন ও সেবা সম্প্রসারণ করা হয়েছে। এর পাশাপাশি বেড়েছে নতুন চালু হওয়া বন্দরগুলোর সক্ষমতা। পাশাপাশি দেশের অর্থনীতি ধারাবাহিকভাবে শক্তিশালী হওয়ায় ভারতের সঙ্গে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যও বেড়েছে। মূলত এসব কারণে স্থলবন্দরগুলোর আয় বাড়ছে।

তিনি জানান, বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে আরো দু’টি নতুন স্থলবন্দরের অবকাঠামো উন্নয়ন এবং ভোমরা ও বেনাপোল স্থলবন্দর সম্প্রসারণের কাজ চলছে। এসব কাজ শেষ হলে স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি আরো বাড়বে।

চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরে স্থলবন্দর থেকে ১৭৯ কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে বলে তিনি জানান।

বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের মধ্যে মোটরযান চুক্তির (বিবিআইএন এমভিএ) আওতায় অদূর ভবিষ্যতে স্থল পথে প্রতিবেশী দেশসমূহের সাথে বাণিজ্য বৃদ্ধির পাশাপাশি সরকারি রাজস্বের পরিমাণও বহুলাংশে বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করেন তপন চক্রবর্তী।

দেশে বর্তমানে ২৩টি স্থলবন্দর আছে। এর মধ্যে ১২টি স্থলবন্দর কার্যকর আছে। বাকিগুলো এখনো শুল্কস্টেশনের মতো চলে। স্থলবন্দর দিয়ে প্রায় ৯৮ ভাগ পণ্যই আমদানি-রপ্তানি হয় ভারতের সঙ্গে। মিয়ানমারের সঙ্গে হয় ২ শতাংশের মত।

সূত্র: বাসস

 

টাইমস/এএইচ/এসআই

চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসীদের নির্মূল করা হবে: ওবায়দুল কাদের

চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসীদের নির্মূল করা হবে: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ আর দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুধু ঢাকায় নয়; পর্যায়ক্রমে সারাদেশেই চলবে। এই অভিযানের মাধ্যমে টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীদের নির্মূল করা হবে। যত বড় মাস্তান, যত বড় নেতা, আর যত বড় প্রভাবশালীই হোক না কেন, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। শনিবার বিকালে স্থানীয় পর্যটন গলফ মাঠে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

ধূমপান কীভাবে ছাড়বেন

ধূমপান কীভাবে ছাড়বেন

সবাই জানেন, ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। সিগারেটের প্যাকেটের গায়েও বেশ বড় বড় করে লেখা থাকে ‘ধূমপান ফুসফুস ক্যানসারের কারণ’। তারপরও ধূমপায়ীরা এই সিগারেটের নেশাটা ছাড়তে পারেন না। ধূমপান ছাড়তে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ব্যক্তিও ‘আজকেই শেষ’, ‘এটাই শেষ’ বলতে বলতে সিগারেট খেতেই থাকেন।

নিদ্রাহীনতা দূর করার উপায়

নিদ্রাহীনতা দূর করার উপায়

বিভিন্ন সমস্যার কারণে মানুষের ঘুম কম হতে পারে। আবার কখনো কখনো মাঝরাতে ঘুম ভেঙ্গেও যায়। কখনো অনেকক্ষণ ঘুমের উদ্দেশ্যে বিছানায় শুয়ে থাকলেও ঘুম আসে না। এসব সমস্যা যদি দু-একদিনের জন্য হয়, তাহলে এটাকে নিদ্রাহীনতা ধরা হয় না।

উক্তি প্রতিদিন

“মানুষের গোপন  দুঃখের খবর জগৎ পায় না”

“মানুষের গোপন দুঃখের খবর জগৎ পায় না”

আমেরিকার কবি ও অধ্যাপক হেনরি ওয়ার্ডসওয়ার্থ লংফেলো। ১৮০৭ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি আমেরিকার পোর্টল্যান্ডের মেইনে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন তাঁর সময়ের বিখ্যাত কবি। তিনিই প্রথম আমেরিকান হিসেবে ইটালিয়ান কবি দান্তের মহাকাব্য ‘ডিভাইন কমেডি’র ভাষানুবাদ করেন।

লাইফস্টাইল

জেনে নিন, কী কারণে চুল পড়ছে?

জেনে নিন, কী কারণে চুল পড়ছে?

মানুষের সৌন্দর্যের অলংকার হলো তার চুল। তাই চুল ঝরে পড়তে থাকলে যে কেউ দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। চুল পড়া, চুল উঠে যাওয়া বা চুল পাতলা হয়ে যাওয়া নিয়ে যেন চিন্তার অন্ত নেই। ছেলেমেয়ে সবাই এর শিকার।

ইতিহাস

কাশ্মীর যেভাবে ভারত-পাকিস্তানের অংশ হলো

কাশ্মীর যেভাবে ভারত-পাকিস্তানের অংশ হলো

১৯৪৭ সাল থেকে শুরু হয়ে এখন পর্যন্ত মুসলিম অধ্যুষিত কাশ্মীর অঞ্চল নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বিরোধ চলছে। হিমালয়ের পার্বত্য অঞ্চলে অবস্থিত ৮৬,০০০ বর্গ মাইলের এই এলাকাটি এক সময় স্বাধীন রাজ্য হিসেবে বিবেচিত হতো। বর্তমানে অঞ্চলটি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বিভক্ত আর উভয়েই কাশ্মীরকে নিজেদের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ বলে দাবি করছে।

জাতীয়

যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের ১০ দিনের রিমান্ড

যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের ১০ দিনের রিমান্ড

আলোচিত যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের বিরুদ্ধে তিনটি মামলার মধ্যে দুটি মামলার ইতোমধ্যে শুনানি সম্পন্ন হয়েছে। মামলার বিচারক ছিলেন মহানগর হাকিম মাহমুদা আখতার। তিনি শুনানি শেষে শামীমকে অস্ত্র মামলায় ৫ দিন এবং মাদক মামলায় ৫ দিনসহ মোট ১০ দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একই আদালত জি কে শামীমের ৭ দেহরক্ষীর প্রত্যেককে অস্ত্র মামলায় ৪ দিনের রিমান্ড দেন।

রাজনীতি

কৃষক লীগ নেতা শফিকুল ১০ দিনের রিমান্ডে

কৃষক লীগ নেতা শফিকুল ১০ দিনের রিমান্ডে

জুয়ার আখড়া বন্ধে র‌্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি ও কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শফিকুল ইসলাম ফিরোজের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে দায়ের দুটি মামলায় ৫ দিন করে মোট ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। র‌্যাবের করা দুই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার বিকালে ফিরোজকে ঢাকার আদালতে পাঠায় ধানমন্ডি থানা পুলিশ। অস্ত্র আইনের মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নুরউদ্দিন এবং মাদক মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আশিকুর রহমান আসামি ফিরোজকে ১০ দিন করে ২০ দিন হেফাজতে চেয়ে আবেদন করেন।

জাতীয়

প্রথা ভেঙে বিয়ে: কনে বিয়ে করতে এল বরের বাড়িতে

প্রথা ভেঙে বিয়ে: কনে বিয়ে করতে এল বরের বাড়িতে

বর তার আত্মীয়-স্বজন নিয়ে কনের বাড়িতে গিয়ে বিয়ের কার্য সম্পাদন করে এটা বাংলাদেশে প্রচলিত নিয়ম। তবে এই প্রথা ভাঙলেন চুয়াডাঙ্গার খাদিজা আক্তার খুশি। কনে তার আত্মীয়-স্বজন নিয়ে শনিবার হাজির হন মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভার চৌগাছা গ্রামে বরে বাড়িতে। কনে খাদিজা চুয়াডাঙ্গার হাজরাহাটি গ্রামের কামরুজ্জামানের মেয়ে। কুষ্টিয়া ইসলামিয়া কলেজে অনার্স পড়ছেন খাদিজা আর বর গাংনীর চৌগাছার কমরেড আব্দুল মাবুদের ছেলে তরিকুল ইসলাম জয় একজন ব্যবসায়ী।