• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬

জুনিয়রদের ওপর নির্মম অত্যাচার চালাতেন অমিত সাহা

জুনিয়রদের ওপর নির্মম অত্যাচার চালাতেন অমিত সাহা

নিজস্ব প্রতিবেদক১০ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:১৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডের অন্যতম সন্দেহভাজন বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক উপসম্পাদক অমিত সাহাকে বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

অমিত সাহা গ্রেপ্তারের পর তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছেন বুয়েটের অনেক শিক্ষার্থী। উঠে আসছে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, জুনিয়রদের ওপর ব্যাপক নির্যাতন ও নিপীড়ন চালাতেন অমিত সাহা। তার মারধরের শিকার হয়েছে বহু ছাত্র।

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৬তম ব্যাচের ছাত্র অমিত সাহা বুয়েটে ভর্তির পর পর রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটিতে পদ পেতে সন্ত্রাসীদের মতো কর্মকাণ্ড শুরু করেন। নিজেকে আগ্রাসী হিসেবে পরিচিত করেন ক্যাম্পাসে। ফলও পান দ্রুত। স্বল্প সময়ে হয়ে যান বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক উপসম্পাদক। তার উশৃঙ্খলতা ও বর্বর আচরণ সম্পর্কে অনেকেই তথ্য দিয়েছেন। তবে অধিকাংশ শিক্ষার্থীই নাম প্রকাশ করতে চাননি।

১৭ ব্যাচের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, তাদের ব্যাচের অধিকাংশ শিক্ষার্থী সিনিয়রদের মধ্যে একজনকে পেছন থেকে সবচেয়ে বেশি গালমন্দ করতেন। তিনি হচ্ছেন অমিত সাহা। তাকে সব সময় আগ্রাসী ও মারমুখী দেখা যেত। তাকে কেউ দেখতে না পারলেও সামনাসামনি কেউ কিছু বলার সাহস পাননি।

আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে অমিতের সংশ্লিষ্টতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অমিত সাহার নির্যাতনের বিভিন্ন ঘটনা প্রকাশ পায়।

আবরার হত্যাকাণ্ডে অমিত সাহা যে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত, সেই অভিযোগ দুই দিন ধরেই করে আসছিলেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, আবরার ফাহাদ হলে আছেন কিনা সে বিষয়ে প্রথম খোঁজ নিয়েছিলেন অমিত। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় অমিত আবরারের এক বন্ধুকে ইংরেজি অক্ষরে 'আবরার ফাহাদ হলে আছে কিনা' মেসেজ দেন।

এর এক ঘণ্টা পর ছাত্রলীগ নেতারা আবরারকে শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে যায়। ২০১১ নম্বর কক্ষ থেকে লাঠি, চাপাতি ও স্টাম্প এনে তাকে পেটানো শুরু করে ছাত্রলীগের নেতারা।

সূত্র বলছে, ৬ অক্টোবর রাতে অমিত সাহার রুমে প্রথম দফায় মারধরের নেতৃত্ব দেন ছাত্রলীগ বুয়েট শাখার সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল। তার সঙ্গে মারধর শুরু করেন বুয়েট ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন ও উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল।

পরে যোগ দেন অনিক, জিয়ন, মনির ও মোজাহিদুলসহ অন্যরা। প্রথম দফায় মারধর চলে রাত ১১টা পর্যন্ত। এরপর রাতের খাবার খাওয়ানো হয় আবরারকে। খাওয়ানো হয় ব্যথানাশক ট্যাবলেটও। দেয়া হয় মলম। দ্বিতীয় দফা মারধর শুরুর সময় অনিক ছিলেন সবচেয়ে মারমুখী।

আবরার এ সময় বারবার বমি করছিলেন। একপর্যায়ে তাকে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় মুন্নার কক্ষে। সেখানে আবরারের শরীরের ওপর অনিক ক্রিকেট স্টাম্প ভাঙেন। পরে আরেকটি স্টাম্প দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। তৃতীয় দফার মারধর শুরু হয় মুন্নার কক্ষে। তখন মধ্যরাত।

নির্মম পিটুনিতে আবরার লুটিয়ে পড়েন। এর পর নিথর দেহ টেনেহিঁচড়ে নিচে নামানোর চেষ্টা করেন ঘাতকরা। মাঝ সিঁড়িতে যেতেই তারা বুঝতে পারেন আবরার মারা গেছেন। সিঁড়িতেই মরদেহটি রেখে তখন ওই স্থান ত্যাগ করেন তারা।

 

টাইমস/এসআই

 

সতর্ক বাংলাদেশ, চীন ফেরত যাত্রীরা পর্যবেক্ষণে

সতর্ক বাংলাদেশ, চীন ফেরত যাত্রীরা পর্যবেক্ষণে

বাংলাদেশে কেউ এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়নি। চীন থেকে আসা যাত্রীদের

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের প্রাণহানি

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের প্রাণহানি

যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোরে যশোর-মাগুরা

গোদাগাড়ীতে দেড় কোটি টাকার হেরোইনসহ একজন আটক

গোদাগাড়ীতে দেড় কোটি টাকার হেরোইনসহ একজন আটক

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে অভিযান চালিয়ে ১ কেজি ৪৭৫ গ্রাম হেরোইনসহ এক

বিনোদন

আসিফের টার্গেট ১৫০

আসিফের টার্গেট ১৫০

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। গত বছর ১০০ গান প্রকাশ করেছেন তিনি। তবে এবার তার টার্গেট ১৫০! এ বছর তিনি ১৫০ গানের মিশনে নেমেছেন। এর মধ্যে ইসলামী সংগীত গাওয়ারও পরিকল্পনা রয়েছে শিল্পীর।

যা কিছু প্রথম

১৮৯৫ সালে নিজের নামে পুরস্কার ঘোষণা দেন আলফ্রেড নোবেল

১৮৯৫ সালে নিজের নামে পুরস্কার ঘোষণা দেন আলফ্রেড নোবেল

ধ্বংসাত্মক ডিনামাইনের আবিষ্কারক আলফ্রেড নোবেল ঊনবিংশ শতাব্দীতে বিশ্বের কাছে নন্দিত হলেও অন্যদের মহান আবিষ্কারকে স্বীকৃতি প্রদানে তার অবদান বিংশ শতাব্দীতে তাকে বিখ্যাত করে তোলে। তার ইচ্ছানুসারে ‘নোবেল পুরস্কার’ প্রবর্তন করা হয়। যাকে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

কৃষি কথা

ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সঙ্গে তালমিলিয়ে দেশে পোলট্রি ও মৎস্য উৎপাদন দ্রুত বাড়লেও প্রযুক্তিগত জ্ঞানের অভাবে প্রাণিসম্পদ বিশেষ করে ছাগলের উৎপাদন আশানুরূপ বাড়েনি। অথচ ছাগল বাংলাদেশে অন্যতম গৃহপালিত পশু। যা অল্প পুঁজিতে বাড়ির আঙিনার পালন করা যায়। ছাগল পালনে গরু-মহিষের মতো উন্নতমানের খাদ্য আবাসন বা অন্যান্য বিশেষ যত্নের প্রয়োজন হয় না।

স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জলপাইয়ের পাতা

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে জলপাইয়ের পাতা

আমরা অনেকেই জানি যে, জলপাই এবং জলপাই তেল খাদ্যতালিকায় যুক্ত করলে স্বাস্থ্যের জন্য তা অনেক উপকার বয়ে আনে। উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ এবং স্বাস্থ্যকর চর্বির পাশাপাশি এগুলি ডায়েটারি ফাইবার বা খাদ্য আঁশে পরিপূর্ণ। নতুন গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে, জলপাইয়ের পাতাও স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

জাতীয়

ফেলে যাওয়া নবজাতককে দত্তক নিলেন ডিসি

ফেলে যাওয়া নবজাতককে দত্তক নিলেন ডিসি

রাস্তার পাশে ভিক্ষুকের কাছে ফেলে যাওয়া নবজাতকের ঠিকানা ছিল অজানা। পাষণ্ড মা কোন কারণে কোলের সন্তানকে ফেলে পালিয়ে গেছেন? কে এই নবজাতক, কে এই শিশুর মা? কি পরিচয় এই নবজাতকের? এমন প্রশ্নেরই উত্তর দিলেন কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. সারওয়ার মুর্শেদ। ডিসি মো. সারওয়ার মুর্শেদ ওই শিশুকে দত্তক নিয়েছেন।

বিনোদন

মাকে নিয়ে ওমরাহ হজে যাচ্ছেন অহনা

মাকে নিয়ে ওমরাহ হজে যাচ্ছেন অহনা

এবার ওমরাহ পালনে সৌদি আরব যাচ্ছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী অহনা রহমান। ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ে দেশ ছাড়বেন তিনি।