• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬

ওসিকে বাঁচাতে ফেনীর এসপির চিঠি

ওসিকে বাঁচাতে ফেনীর এসপির চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১২:৫৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠানো এক চিঠিতে ফেনী জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) জাহাঙ্গীর আলম মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানের পরিবারকে দোষারোপ করেছেন। এসপির অভিযোগ, নুসরাতকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় মামলা করতে পরিবার ‘কালক্ষেপণ’ করেছে।

এর আগে সোনাগাজী থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনও নুসরাত পরিবারকে দোষারোপ করেছিল।

নুসরাতের পরিবার বলছে, ওসিকে রক্ষায় এমন চিঠি দেয়া হয়েছে। পুড়িয়ে মারার ঘটনাকে প্রথম থেকেই পুলিশ ভিন্ন খাতে নেওয়ার চেষ্টা করছে। এমনকি মামলার এজাহার নিয়েও পুলিশ কূটচাল চেলেছে।

এদিকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় পুলিশের দায়দায়িত্ব খতিয়ে দেখতে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে পুলিশ সদর দপ্তর।

বুধবার এই কমিটির প্রথম বৈঠক হওয়ার কথা। তবে কমিটি কবে প্রতিবেদন জমা দেবে, সে তারিখ এখনো ঠিক হয়নি।

কমিটির প্রধান ও পুলিশ সদর দপ্তরের উপমহাপরিদর্শক (মিডিয়া) রুহুল আমিন বলেন, পুলিশের যা যা করার কথা ছিল, সেটা ঠিকমতো করেছে কি না, সেটা দেখাই কমিটির উদ্দেশ্য। ফেনীর এসপির অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, সেটা খতিয়ে দেখা হবে। পুলিশ ও নুসরাতের পরিবার দুই পক্ষের সঙ্গেই কথা বলবে কমিটি।

পুলিশ সদর দপ্তরের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, নুসরাতের গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনা নিয়ে ফেনীর এসপি জাহাঙ্গীর আলম ১১ এপ্রিল একটি প্রতিবেদন দেন। প্রতিবেদনটি পুলিশ সদর দপ্তর, বিশেষ শাখা ও চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজির দপ্তরে পাঠানো হয়।

পুলিশ সুপারের চিঠিতে বলা হয়েছে, ঘটনার দিন নুসরাত মাদ্রাসায় যান। এরপর তার বসার স্থানে ফাইলপত্র রেখে সাইক্লোন শেল্টারের ছাদের ওপরে বাথরুমের কাছে যান। কিছুক্ষণ পর গায়ে আগুন লাগা অবস্থায় সিঁড়ি দিয়ে চিৎকার করতে করতে নেমে আসেন। তখন কেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য ও মাদ্রাসার কর্মচারীরা আগুন নিভিয়ে ফেলেন। ঘটনার পর পুলিশের পক্ষ থেকে পরিবারকে বারবার অনুরোধ করা হলেও তারা মামলা করতে কালক্ষেপণ করে। পুলিশ নুসরাতের চাচাকে বাদী করে মামলা করতে গেলে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান আপত্তি জানান। তিনি দু’বার এজাহার বদল করেন।

নুসরাতের পরিবারের সদস্যরা জানান, ঘটনাটি এমনভাবে বলা হয়েছে যাতে মনে হচ্ছে, নুসরাত নিজের ইচ্ছাতেই ভবনের ওপরে যান। অথচ তাকে পরিকল্পনা করে ডেকে নেয়া হয়। এরপর হাত–পা বেঁধে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কোনো কথাই উল্লেখ করা হয়নি।

মূলত ওসিকে রক্ষায় এসপি চিঠি দিয়েছেন উল্লেখ করে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান বলেন, ২৭ মার্চ মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করার পর থেকে ওসি বলে আসছেন, শ্লীলতাহানির অভিযোগ সাজানো। এমনকি ৬ এপ্রিল তার বোনকে হত্যাচেষ্টার ঘণ্টা দেড়েক আগেও মাদ্রাসার ইংরেজির প্রভাষক আফছারউদ্দীন মামলা তুলে নিতে চাপ দেন। হত্যাচেষ্টার ৩০ ঘণ্টা পর ওসি একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলকে বলেছেন, এটা হত্যাচেষ্টা না আত্মহত্যার চেষ্টা, তা তদন্ত করে দেখতে হবে। সর্বশেষ ৮ এপ্রিল তিনি যে মামলা সাজিয়ে পাঠিয়েছেন, সেখানেও পুলিশ তথ্য গোপনের চেষ্টা করেছে। পরিবারের দাবির মুখে শেষ পর্যন্ত মামলার এজাহার বদলানো হয়েছে।

মাহমুদুল হাসান বলেন, ৬ এপ্রিল রাতে সোনাগাজীর পুলিশ ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন নুসরাতের সাক্ষাৎকার নিয়ে পরিবারকে পড়ে শোনান। কিন্তু এজাহারে দেখা যায় ঘটনাস্থল লেখা হয়েছে ভুলভাবে। মেয়েটিকে হাত-পা বেঁধে আগুন লাগিয়ে দেয়ার প্রসঙ্গ আসেনি। কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ আসামির নামও বাদ দেয়া হয়।

এসব অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে এসপি এস এম জাহাঙ্গীর আলম কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

সোনাগাজীর সাবেক ওসির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি গোলাম ফারুক বলেন, দায়িত্বশীল চেয়ারে থেকে এমনটি করার সুযোগ নেই।

সোনাগাজীর ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাতকে ৬ এপ্রিল হাত–পা বেঁধে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। চার দিন জীবনের সঙ্গে লড়ে ১০ এপ্রিল রাতে তিনি ঢাকা মেডিকেলে মারা যান। এ ঘটনায় করা মামলায় ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত আসামি আছেন সাতজন। এজাহারভুক্ত এক আসামি এখনো পলাতক। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) মামলাটি তদন্ত করছে।

 

 

টাইমস/এসআই

আবরার হত্যাকাণ্ড: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, চার্জশীট ‘নির্ভুল’

আবরার হত্যাকাণ্ড: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, চার্জশীট ‘নির্ভুল’

আবরার হত্যা মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেফতার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‌'পলাতকদের

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

‘আবরার হত্যাকাণ্ড: উচ্ছৃঙ্খলতার চরম বহি:প্রকাশ’

তিনি জানান, বুয়েটের ওই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে সরাসরি মারপিটে

তিন সিগন্যালের একটিও টের পায়নি তূর্ণা-নিশীথার চালক

তিন সিগন্যালের একটিও টের পায়নি তূর্ণা-নিশীথার চালক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনার সময় তূর্ণা নিশীথার চালকরা ঘুলে ছিলেন

বিনোদন

শুভ জন্মদিন নন্দিত লেখক-কিংবদন্তী নির্মাতা

শুভ জন্মদিন নন্দিত লেখক-কিংবদন্তী নির্মাতা

বাংলা সাহিত্যের নন্দিত লেখক ও কিংবদন্তী নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ (বুধবার)। তিনি একাধারে বাংলা সাহিত্য, নাটক, চলচ্চিত্র ও গান রচনা করে পাঠক ও দর্শকের কাছে ছিলেন সমানভাবে সমাদৃত। তবে তিনি আজ নেই। আমাদের জন্য রেখে গেছেন তার সৃষ্টি সম্ভার।

জাতীয়

জালিয়াতি করে উত্তীর্ণ, শাবিতে ভর্তি হতে এসে আটক ৫

জালিয়াতি করে উত্তীর্ণ, শাবিতে ভর্তি হতে এসে আটক ৫

জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে এসে পাঁচ শিক্ষার্থী আটক হয়েছেন। আর জালিয়াতিতে সহযোগিতা করার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে।

জাতীয়

বুড়িচংয়ে ইলিশ মাছ বোঝাই ট্রাক খাদে, দুইজনের প্রাণহানি

বুড়িচংয়ে ইলিশ মাছ বোঝাই ট্রাক খাদে, দুইজনের প্রাণহানি

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ইলিশ মাছ বোঝাই মিনি ট্রাক খাদে পড়ে দুইজন নিহত হয়েছে। বুধবার ভোরে উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কোরপাই এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ময়নামতি হাইওয়ে থানার এসআই সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অর্থনীতি

চট্টগ্রাম অঞ্চলে সেরা করদাতার সম্মাননা পেলেন ৩৮ জন

চট্টগ্রাম অঞ্চলে সেরা করদাতার সম্মাননা পেলেন ৩৮ জন

চট্টগ্রাম অঞ্চলে বিভিন্ন পর্যায়ে সেরা করদাতা হিসেবে ৩৮ জনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। বুধবার নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে আয়কর বিভাগ চট্টগ্রাম আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই সম্মাননা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

বিনোদন

কথার জাদুকরের বিখ্যাত যত উক্তি

কথার জাদুকরের বিখ্যাত যত উক্তি

বরেণ্য কথাশিল্পী, চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ (বুধবার)। ১৯৪৮ সালের আজকের এই দিনে নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে জন্ম হয় এই লেখকের।

স্বাস্থ্য

স্বাদে টক তেঁতুলের চোখ ধাঁধানো পুষ্টিগুণ

স্বাদে টক তেঁতুলের চোখ ধাঁধানো পুষ্টিগুণ

তেঁতুলের নাম শুনতেই জিভে পানি এসে যায়। Fabaceae পরিবারের অন্তর্ভুক্ত টক জাতীয় এই ফলটির বৈজ্ঞানিক নাম Tamarindus indica। তেঁতুল পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। যদিও গ্রামাঞ্চলের কেউ কেউ মনে করেন, তেঁতুল খেলে রক্ত পানি হয়ে যায়; সে সঙ্গে বুদ্ধিও কমে। এজন্য বাচ্চাদের তেঁতুল খেতে বারণ করা হয়