• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দল, দেশ ও মানুষের কথা বলার জন্য শপথ নিয়েছি: রুমিন ফারহানা

দল, দেশ ও মানুষের কথা বলার জন্য শপথ নিয়েছি: রুমিন ফারহানা

নিজস্ব প্রতিবেদক০৯ জুন ২০১৯, ০২:২৭পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রুমিন ফারহানা একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন।

রোববার জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদ ভবনে রুমিনকে শপথবাক্য পাঠ করান।

শপথ অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও এ বি তাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

শপথ গ্রহণ শেষে রুমিন ফারহানা রীতি অনুযায়ী শপথ বইয়ে স্বাক্ষর করেন।

শপথ নেয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন রুমিন ফারহানা।

তিনি বলেন, ‘এই সংসদটি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। খুব খুশি হব, আমার সাংসদ হওয়ার মেয়াদ একদিনের বেশি না হলে। আমি চাই যেন অতিদ্রুত একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনপ্রতিনিধিত্বশীল সরকার গঠিত হয়।’

এই সংসদকে অবৈধ বলে তার সদস্য হিসেবে কেন শপথ নিলেন তা ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি খুব পরিষ্কার। এটা হচ্ছে আমাদের গণতান্ত্রিক স্পেস। কথা বলার জায়গাগুলো ক্রমশ সংকুচিত হয়ে আসছে। সেই অর্থে দেখতে পাচ্ছি সংসদ একটি ভালো অ্যাভিনিউ যেটা আমরা ব্যবহার করতে পারি; আমাদের দলের কথা, দেশের কথা ও মানুষের কথা বলার জন্য। আর সেই স্পেসটা ব্যবহার করার জন্য আমাদের এই সংসদে আসা।’

‘আমরা সংখ্যাগত দিক থেকে নিশ্চয়ই অনেক কম। তারপরও আশা করছি সংসদে যদি একজনও ন্যায্য কথা বলেন তাকে যথেষ্ট সময় ও সুযোগ দেয়া হবে। সরকারের নিজের স্বার্থেই এই সময় ও সুযোগ দেয়া উচিত।’

একাদশ সংসদের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগের ৪৩ জন, জাতীয় পার্টির চার জন, ওয়ার্কার্স পার্টির একজন এবং স্বতন্ত্র জোটের একজন রয়েছেন।

দলীয় চেয়ারপার্সন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া বিরুদ্ধে মামলার মেরিট, তার বয়স ও সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় নিলে তিনি বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী তাৎক্ষণিক জামিন লাভের যোগ্য। তাকে জামিনবঞ্চিত করে কারাগারে রাখা হয়েছে। এর পুরোটাই বেআইনি এবং তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। নিশ্চয়ই সেই বিষয়গুলি নিয়ে কথা বলব।

 

টাইমস/এসআই

 

সড়ক আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সড়ক আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নতুন সড়ক পরিবহন আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই: কাদের

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই: কাদের

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার কেন অবৈধ হবে না: হাইকোর্ট

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার কেন অবৈধ হবে না: হাইকোর্ট

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার করা কেন অবৈধ

জাতীয়

গুজবে কান দেবেন না: প্রধানমন্ত্রী

গুজবে কান দেবেন না: প্রধানমন্ত্রী

গুজবে কান না দেয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মাঝে মাঝে আমরা দেখি, অপপ্রচার চালিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়। আমি সবাইকে একটা কথা বলবো, এই অপপ্রচারে কান দেবেন না।’ বৃহস্পতিবার ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস হলে অনুষ্ঠিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধে বীরশ্রেষ্ঠ পরিবারের সদস্য এবং সশস্ত্র বাহিনীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০১৯ উপলক্ষ্যে এই সংবর্ধনার আয়োজন করেন প্রধানমন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা গণহত্যা: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

রোহিঙ্গা গণহত্যা: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। রোহিঙ্গা গণহত্যা ও মানবতাবিরোধী অপরাধে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা মামলার শুনানিতে অংশ নিতেই সেখানে যাচ্ছেন তিনি। এ মামলায় মিয়ানমারের পক্ষে আইনি লড়াইয়ের জন্য টিম গঠিত হয়েছে। সেই টিমের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন অং সান সু চি।

রাজনীতি

৭৪ সালের অস্থিরতার পদধ্বনি দেখতে পাচ্ছি: মওদুদ

৭৪ সালের অস্থিরতার পদধ্বনি দেখতে পাচ্ছি: মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেছেন, পেঁয়াজের সমস্যা নিয়ে আজকে বাংলাদেশের মানুষ ক্ষুব্ধ। একটা সরকার যে একটি সামান্য পণ্যের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পারে না সেই সরকারের মনে হয় আর ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার থাকে না। পেঁয়াজের পরে আসলো লবণ, এখন চালের দাম একদিনে পাঁচ টাকা বেড়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘১৯৭৪ সাল এখনও আমার চোখের সামনে ভাসছে। চুয়াত্তর সালের যে ঘটনা বাংলাদেশে, যে অর্থনৈতিক, সামাজিক অবস্থা বিরাজ করছিল, যে অস্থিরতা বিরাজ করছিল, আজকে সেই একই পদধ্বনি আমি দেখতে পাচ্ছি।’

জাতীয়

ছেলের চাকরি ফেরতের দাবিতে রংপুরে অনশনে মুক্তিযোদ্ধা বাবা

ছেলের চাকরি ফেরতের দাবিতে রংপুরে অনশনে মুক্তিযোদ্ধা বাবা

রংপুরে ছেলের চাকরি ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে সপরিবারে অনশন করছেন মুক্তিযোদ্ধা রঙ্গলাল মহন্ত। বৃহস্পতিবার টানা তৃতীয় দিনের মতো অনশনে অসুস্থ হয়ে পড়েন এই মুক্তিযোদ্ধা বাবা।

জাতীয়

যশোরে দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দিতে চাওয়ায় ৫ জনের কারাদণ্ড

যশোরে দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দিতে চাওয়ায় ৫ জনের কারাদণ্ড

দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দেয়ার সময় পাঁচজনকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার রাতে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় শালবরাট ও ঠাকুরকাঠি গ্রামে অভিযান চালিয়ে দুই ছাত্রীর বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়। বাঘারপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী হাকিম তানিয়া আফরোজ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

লাইফস্টাইল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

নারিকেল গাছ ‘স্বর্গীয় গাছ’ হিসেবে সবার কাছে সমাদৃত ও সুপরিচিত। এটা এমন এক বৃক্ষ যার প্রতিটি অঙ্গ জনজীবনে কোনো না কোনোভাবে কাজে আসে। এ গাছের পাতা, ফুল, ফল, কাণ্ড, শিকড়, সব কিছুই বিভিন্ন ছোট-বড় শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার হয়ে থাকে।