• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

নিখোঁজ নারী মনে করে অন্য নারীর লাশ দাফন

নিখোঁজ নারী মনে করে অন্য নারীর লাশ দাফন

নিজস্ব প্রতিবেদক১২ জুন ২০১৯, ০৬:০৮পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা হেজাতিপাড়া গ্রামের ভুট্টাখেত থেকে গত সোমবার বিকালে এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। দাহ্য পদার্থ দিয়ে ওই লাশের মুখ পোড়ানো ছিল। লাশে পচন ধরেছিল। পুলিশ ধারণা করছিল, কয়েক দিন আগে তাকে অন্য কোথাও হত্যা করে লাশ ভুট্টাখেতে ফেলে রাখা হয়।

 এদিকে গত ৩০ মে থেকে নিখোঁজ ছিলেন রাজশাহীর বাঘা উপজেলার পাঁচপাড়া গ্রামের গোলাপী বেগম। এই লাশ উদ্ধারের পর গোলাপী বেগমের পরিবারের লোকজন মনে করেন, এই লাশ নিখোঁজ গোলাপীর। তারা গোলাপীর লাশ মনে করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়িতে নিয়ে দাফন করেন।

অথচ বুধবার সকালে ‘আসল’ গোলাপী বেগম এসে হাজির হয়েছেন। পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

আসল গোলাপী বেগমের স্বামী মনির হোসেন একজন বাক প্রতিবন্ধী দিনমজুর। গোলাপী বাড়িতে তাঁতে কাপড় বোনার কাজ করেন। তাদের ছয় বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান আছে।

গোলাপী বেগমের ভাসুর মাজদার রহমান বাদী হয়ে ১ জুন বাঘা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাশ দাফনের পর গোলাপীর মামা শাকিব হোসেন বাদী হয়ে বাঘা থানায় হত্যা মামলা করেন।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে মনির হোসেনের স্ত্রী গোলাপী বেগম আড়ানী রেলস্টেশনে ট্রেন থেকে নামেন। স্থানীয় লোকজন তাকে চিনতে পেরে উপজেলার আড়ানী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে নিয়ে যান। গোলাপীকে জীবিত পাওয়া গেছে—এই খবর পেয়ে তার মামা শাকিব হোসেন, শাশুড়ি মরিয়ম বেগম, ভাশুর মাজদার রহমান, জা সাজেদা বেগম চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে গিয়ে হাজির হন। তারা গোলাপী বেগমকে শনাক্ত করেন। চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম গোলাপী বেগমসহ তাদের সবাইকে বাঘা থানায় পাঠিয়ে দেন।

গোলাপী বেগম সাংবাদিকদের জানান, ২৯ মে তিনি উপজেলার রুস্তমপুর পশুহাটে ৪২ হাজার টাকায় একটি গরু বিক্রি করেন। এ টাকা নেয়ার জন্য শ্বশুর বাড়ির লোকজন চাপ দিতে থাকে। তিনি নিরুপায় হয়ে পরের দিন বিদ্যুৎ বিল দেয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বের হয়ে রাজশাহী শহরে এক আত্মীয় বাড়িতে চলে যান।

তিনি আরো জানান, পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা তিনি। এ ছাড়া তার ৬ বছরের সন্তান মারুফ হোসেনের কথা ভেবে বুধবার সকালে রাজশাহী থেকে ট্রেনে আড়ানী রেলস্টেশনে পৌঁছান।

‘আমার ছেলে বাক্প্রতিবন্ধী হওয়ায় গোলাপী নিজের ইচ্ছামতো চলাফেরা করে। আমরা প্রতিবাদ করলে আমাদের বিভিন্ন কথা শুনিয়ে দেয়’- বলেন গোলাপী বেগমের শ্বশুর বিচ্ছাদ আলী।

বুধবার দুপুরে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন আলী জানান, চেহারা বিকৃত হওয়ার কারণে লাশ শনাক্ত করতে ভুল হয়েছিল। গোলাপী বেগম ফিরে আসার পর তারা বুঝতে পেরেছেন মৃত নারী মনির হোসেনের স্ত্রী গোলাপী নন।

চারঘাট উপজেলার মুক্তারপুর গ্রামের সুরুজ আলী নামের এক ব্যক্তি এসে বুধবার সকালে দাবি করছেন, গোলাপী বেগম হিসেবে যার লাশ দাফন করা হয়েছে, সেটি তার স্ত্রী দোলনা বেগমের লাশ। ৯ জুন বিকালে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন তিনি। মরদেহের সঙ্গে থাকা স্যান্ডেল ও জামা-কাপড় দেখে দাফন করা লাশটি তার স্ত্রীর বলে নিশ্চিত হয়েছেন তিনি।

 

টাইমস/এসআই

সড়ক আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সড়ক আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নতুন সড়ক পরিবহন আইন নিয়ে শ্রমিকদের সুপারিশ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই: কাদের

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই: কাদের

পরিবহন ধর্মঘট আর নেই উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার কেন অবৈধ হবে না: হাইকোর্ট

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার কেন অবৈধ হবে না: হাইকোর্ট

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার করা কেন অবৈধ

জাতীয়

গুজবে কান দেবেন না: প্রধানমন্ত্রী

গুজবে কান দেবেন না: প্রধানমন্ত্রী

গুজবে কান না দেয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মাঝে মাঝে আমরা দেখি, অপপ্রচার চালিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়। আমি সবাইকে একটা কথা বলবো, এই অপপ্রচারে কান দেবেন না।’ বৃহস্পতিবার ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস হলে অনুষ্ঠিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। মুক্তিযুদ্ধে বীরশ্রেষ্ঠ পরিবারের সদস্য এবং সশস্ত্র বাহিনীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০১৯ উপলক্ষ্যে এই সংবর্ধনার আয়োজন করেন প্রধানমন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক

রোহিঙ্গা গণহত্যা: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

রোহিঙ্গা গণহত্যা: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

নেদারল্যান্ডসের হেগে অবস্থিত আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। রোহিঙ্গা গণহত্যা ও মানবতাবিরোধী অপরাধে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা মামলার শুনানিতে অংশ নিতেই সেখানে যাচ্ছেন তিনি। এ মামলায় মিয়ানমারের পক্ষে আইনি লড়াইয়ের জন্য টিম গঠিত হয়েছে। সেই টিমের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন অং সান সু চি।

রাজনীতি

৭৪ সালের অস্থিরতার পদধ্বনি দেখতে পাচ্ছি: মওদুদ

৭৪ সালের অস্থিরতার পদধ্বনি দেখতে পাচ্ছি: মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেছেন, পেঁয়াজের সমস্যা নিয়ে আজকে বাংলাদেশের মানুষ ক্ষুব্ধ। একটা সরকার যে একটি সামান্য পণ্যের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পারে না সেই সরকারের মনে হয় আর ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার থাকে না। পেঁয়াজের পরে আসলো লবণ, এখন চালের দাম একদিনে পাঁচ টাকা বেড়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘১৯৭৪ সাল এখনও আমার চোখের সামনে ভাসছে। চুয়াত্তর সালের যে ঘটনা বাংলাদেশে, যে অর্থনৈতিক, সামাজিক অবস্থা বিরাজ করছিল, যে অস্থিরতা বিরাজ করছিল, আজকে সেই একই পদধ্বনি আমি দেখতে পাচ্ছি।’

জাতীয়

ছেলের চাকরি ফেরতের দাবিতে রংপুরে অনশনে মুক্তিযোদ্ধা বাবা

ছেলের চাকরি ফেরতের দাবিতে রংপুরে অনশনে মুক্তিযোদ্ধা বাবা

রংপুরে ছেলের চাকরি ফিরিয়ে দেয়ার দাবিতে সপরিবারে অনশন করছেন মুক্তিযোদ্ধা রঙ্গলাল মহন্ত। বৃহস্পতিবার টানা তৃতীয় দিনের মতো অনশনে অসুস্থ হয়ে পড়েন এই মুক্তিযোদ্ধা বাবা।

জাতীয়

যশোরে দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দিতে চাওয়ায় ৫ জনের কারাদণ্ড

যশোরে দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দিতে চাওয়ায় ৫ জনের কারাদণ্ড

দুই ছাত্রীকে বাল্যবিবাহ দেয়ার সময় পাঁচজনকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার রাতে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় শালবরাট ও ঠাকুরকাঠি গ্রামে অভিযান চালিয়ে দুই ছাত্রীর বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়। বাঘারপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী হাকিম তানিয়া আফরোজ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

লাইফস্টাইল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

নারিকেল গাছ ‘স্বর্গীয় গাছ’ হিসেবে সবার কাছে সমাদৃত ও সুপরিচিত। এটা এমন এক বৃক্ষ যার প্রতিটি অঙ্গ জনজীবনে কোনো না কোনোভাবে কাজে আসে। এ গাছের পাতা, ফুল, ফল, কাণ্ড, শিকড়, সব কিছুই বিভিন্ন ছোট-বড় শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার হয়ে থাকে।