• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

বাজেটে ধনীদের সুবিধা দেবে, গরিব-মধ্যবিত্তদের নয়: সিপিডি

বাজেটে ধনীদের সুবিধা দেবে, গরিব-মধ্যবিত্তদের নয়: সিপিডি

নিজস্ব প্রতিবেদক১৪ জুন ২০১৯, ০৩:৩৮পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার একদিন পর এক সংবাদ সম্মেলনে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ বলেছে, দেশের মধ্যবিত্ত বা নিম্নবিত্তের মানুষ নয়, যারা অর্থনৈতিক অপশাসনের সুবিধাভোগী, নতুন অর্থবছরের বাজেট তাদেরই সুবিধা দেবে। নতুন বাজেটে কৃষককে ধানের লোকসান বাবদ প্রণোদনা দেয়া হয়নি। সাধারণ মানুষের করমুক্ত আয়সীমাও বাড়ানো হয়নি। কিন্তু সম্পদের সারচার্জের সীমায় ছাড় দেয়া হয়েছে। ধনীরা ফ্ল্যাট কিনতেও কর ছাড় পেয়েছে। পোশাক রপ্তানিকারকেরাও নগদ ভর্তুকি পেয়েছেন।

শুক্রবার বাজেট পর্যালোচনা তুলে ধরতে রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে সংস্থাটি এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সিপিডির বিশেষ ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য বলেছেন, অর্থমন্ত্রী এবার অনেক লক্ষ্যের ক্ষেত্রেই বাস্তবমুখী হয়েছেন। ফলে আগের দু-একটি বছরের তুলনায় রাজস্ব, বিনিয়োগ লক্ষ্যমাত্রা কম। তিনি কর বর্হিভূত আয় বাড়ানোর উদ্যোগ, মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) অনুপাতে উন্নয়ন ব্যয় ৭ শতাংশ রাখা, শত শত নতুন প্রকল্প না নেয়াসহ কয়েকটি ক্ষেত্রে অর্থমন্ত্রীকে সাধুবাদ জানান। পুঁজিবাজারে নেয়া পদক্ষেপ নিয়েও প্রশ্ন নেই বলে উল্লেখ করেন। তবে এও বলেন, সুশাসন ছাড়া পুঁজিবাজারের পরিস্থিতির উন্নতি হবে না। ভ্যাট আইনে জরুরি সেবা ও পণ্যে ছাড় দেয়ার বিষয়টিও ঠিকই আছে বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেছেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে গরিব মানুষের জীবনমানের উন্নয়নে কাজ করার যে প্রতিশ্রুতি ছিল, তার প্রতিফলন তিনি এ বাজেটে দেখছেন না। বাংলাদেশকে সমৃদ্ধ আগামীতে পৌঁছে দেওয়ার যে অঙ্গীকার নির্বাচনী ইশতেহারে ছিল, তা পূরণের স্পষ্ট কোনো রূপরেখা বা কর্মসূচি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের প্রথম বাজেটে রাখা হয়নি।

বাজেটে বেশি সুফল কারা পাবে? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা স্বচ্ছ যে বাজেট উচ্চ আয়ের মানুষকে অনেক বেশি সুযোগ দিচ্ছে। অল্প আয়ের মানুষের জন্য প্রান্তিকভাবে এক ধরনের একটা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে বাংলাদেশের মধ্যবিত্ত, বিশেষ করে বিকাশমান মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত এটা থেকে খুব বেশি উপকৃত হবেন না।’

শিক্ষা-স্বাস্থ্যে ব্যয় মোট জিডিপি অনুপাতে বৃদ্ধি না পাওয়ার বিশ্লেষণ তুলে ধরে তিনি বলেন, যারা ব্যাংকক সিঙ্গাপুরে গিয়ে শিক্ষা নিতে পারে না ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে পারে না, তাদের জন্য আপনি কী ব্যবস্থা নিচ্ছেন? গণপরিবহন সংকটে যারা তাদের জন্য কী গণপরিবহন তৈরি হচ্ছে কি না, তাদের শিশুরা কি সেরকম মানে উচ্চ শিক্ষা পাচ্ছে কি না, এটিই বড় বিষয়।

দেবপ্রিয় বলেন, ‘উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে যাওয়া নির্ভর করছে বাংলাদেশের মধ্যবিত্তের জন্য আমরা কি করতে পারব, তার ওপর। বিকাশমান মধ্যবিত্তই হলো চালিকাশক্তি। চিন্তা, চেতনা, উপার্জন, বুদ্ধিমত্তা, সবক্ষেত্রে এটি হলো চালিকা শক্তি। সেই চালিকা শক্তিকে যদি বাদ দেয়া হয়, তাহলে তা ইশতেহারের চেতনার সম্পূর্ণ পরিপন্থী।’

‘সমৃদ্ধ আগামীর’ প্রত্যাশা সামনে রেখে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের সামনে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

দেবপ্রিয় বলেন, যে সমাজে বৈষম্য বৃদ্ধি পায়, সে সমাজ আজ হোক কাল হোক টেকে না, আগাতে পারে না। যেভাবে বাংলাদেশে বৈষম্য বাড়ছে, তাতে ৭, ৮, ৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি টেকানো কষ্টকর হবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা এসেছে বৈষম্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে।

করদাতার সংখ্যা এক কোটিতে উন্নীত করা ও তিন কোটি কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যের বিষয়ে দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, ‘আপনারা বলছেন যে, করদাতার সংখ্যা ১ কোটি হবে, বলা হয়েছে শিগগিরই হবে। শিগগিরই কবে? কালকে? ৩ বছর পর? পাঁচ বছর পর? কবে। কর্মসূচি দেওয়া হলে তার বিশ্বাসযোগ্যতা লাগে। আপনি যখন বলেন আমি এটা দিয়ে এই অর্জন করতে চাচ্ছি, এই অর্জন করার জন্য এই কৌশল নিয়েছি। এই কৌশলকে কার্যকর করার জন্য এই পদক্ষেপ নিয়েছি। অর্থ দিচ্ছি প্রতিষ্ঠান দিচ্ছি। ইত্যাদি। এটা যতক্ষণ না বলা হয় ততক্ষণ পর্যন্ত আমি অর্থনীতিবিদ হিসেবে আশ্বস্ত হই না। সাধারণ নাগরিক খুশি হতে পারে।’

অনুষ্ঠানে সিপিডির গবেষণা পরিচালক খোন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম, সংলাপ পরিচালক আনিসাতুল ফাতেমা ইউসুফ, জ্যেষ্ঠ গবেষণা ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খানসহ গবেষকেরা উপস্থিত ছিলেন।

 

টাইমস/এসআই

একাদশ নির্বাচনে কামাল হোসেন গোপনে আ.লীগের পক্ষে কাজ করেছেন: নাসিম

একাদশ নির্বাচনে কামাল হোসেন গোপনে আ.লীগের পক্ষে কাজ করেছেন: নাসিম

একাদশ নির্বাচনে গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন গোপনে আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। ভোটে আওয়ামী লীগের বিজয়কে ড. কামাল হোসেনের উপহার বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে রাজি করাতে চীনকে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান   

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে রাজি করাতে চীনকে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান  

বাংলাদেশে থাকা ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা নাগরিককে নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে রাজি করাতে চীনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে চীনা রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং জু সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ আহ্বান জানান।

মিল্কভিটা, আড়ংসহ সব কোম্পানির দুধেই ক্ষতিকর এন্টিবায়োটিক!   

মিল্কভিটা, আড়ংসহ সব কোম্পানির দুধেই ক্ষতিকর এন্টিবায়োটিক!  

মিল্কভিটা, আড়ংসহ বাজারে প্রচলিত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সাতটি প্যাকেটজাত (পাস্তুরিত) দুধের নমুণা পরীক্ষা করে সেগুলোতে মানুষের চিকিৎসায় ব্যবহৃত শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিকের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। সেসঙ্গে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ঘি, ফলের জুস, মরিচ ও হলুদের গুঁড়া, পাম অয়েল, সরিষার তেল ও সয়াবিন তেলের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে; যার অধিকাংশকই মানহীন।

জাতীয়

২০-২২ জুলাইয়ের মধ্যে এইচএসসির ফল প্রকাশ

২০-২২ জুলাইয়ের মধ্যে এইচএসসির ফল প্রকাশ

জুলাই মাসের ২০, ২১ বা ২২ উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হতে পারে। এই তিন দিনের যেকোনো এক দিন ফল প্রকাশের অনুমোদন চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে শিক্ষা বোর্ডগুলো।

জাতীয়

এফআরের মালিক,  রূপায়ন চেয়ারম্যানসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

এফআরের মালিক,  রূপায়ন চেয়ারম্যানসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকার বনানীর এফআর টাওয়ার নির্মাণে অনিয়ম ও জালিয়াতির অভিযোগ এনে ভবন মালিক, নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং রাজউকের সাবেক দুই চেয়ারম্যানসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

জাতীয়

নয় মাসে রাসেলকে ৪৫ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ আদালতের

নয় মাসে রাসেলকে ৪৫ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ আদালতের

বাস চাপায় পা হারানো প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারকে প্রতি মাসে পাঁচ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণের বাকি ৪৫ লাখ টাকা পরিশোধ করতে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বিনোদন

অভিনয়-গানে নতুন এক জয়া

অভিনয়-গানে নতুন এক জয়া

দুই বাংলায় বেশ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান। সৌন্দর্য ও অভিনয়গুণে এরই মধ্যে কলকাতায়ও সমানভাবে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। এবার সে জনপ্রিয়তাকে আরো পাকাপোক্ত করতে ভিন্ন আঙ্গিকে পাওয়া গেছে তাকে।

জাতীয়

স্কুলে বসে নেশা, বাধা দেয়ায় শিক্ষককে মারধর

স্কুলে বসে নেশা, বাধা দেয়ায় শিক্ষককে মারধর

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে নেশা করতে বাধা দেয়ায় আইয়ুব আলী (২৮) নামে এক শিক্ষককে জনসমক্ষে মারধরের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষার্থী ও তার স্বজনদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার রঘুনিলী মঙ্গলবাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আইয়ুব আলী ওই বিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক। আর অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর নাম ছাব্বির হোসেন। সে একই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র এবং উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের বিপাচান গ্রামের আবুল কালামের ছেলে।

বিনোদন

আমেরিকা থেকে ফিরে আবার অভিনয়ে ব্যস্ত হচ্ছেন তমালিকা

আমেরিকা থেকে ফিরে আবার অভিনয়ে ব্যস্ত হচ্ছেন তমালিকা

টিভি পর্দার একসময়কার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তমালিকা কর্মকার। বহুদিন ধরে দেশে ছিলেন না তিনি। নিজের জীবনের খানিকটা পরিবর্তন আনতে বছর খানেক আগে আমেরিকায় পাড়ি জমান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী। শোনা গিয়েছিল, আর সেখান থেকে দেশে ফিরে আসবেন না তিনি।