• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

প্রধানমন্ত্রীর কাছে জীবনের নিরাপত্তা চাইলেন ডাকসু ভিপি

প্রধানমন্ত্রীর কাছে জীবনের নিরাপত্তা চাইলেন ডাকসু ভিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক১৯ আগস্ট ২০১৯, ০২:১৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

গত রমজানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও বগুড়ায় দুটো ইফতার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে হামলার শিকার হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি নুরুল হক। এর আগেও একাধিক বার তিনি হামলার শিকার হয়েছেন।

সর্বশেষ ১৪ আগস্ট দুপুরে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার উলানিয়া বাজারে নুরসহ বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের বেশ কয়েকজন নেতার ওপর হামলা চালানো হয়। পরে পুলিশ গিয়ে নুরকে উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

আর এই ঘটনায় নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

সোমবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই কথা জানান তিনি।

পটুয়াখালীতে নিজের ওপর হামলার ঘটনায় দোষীদের আইনের আওতায় আনতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন ডাকসু ভিপি।

নুরুল হক অভিযোগ করেন, ‘আমি কোনো অন্যায় বা অপরাধ করিনি। শুধু অন্যায়-অনিয়মের প্রতিবাদ করার কারণেই আমি ও আমার সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বারবার ক্ষমতাসীন দলের রোষানলের শিকার হয়েছি। ক্ষমতাসীন দলের নেতা ছাড়াও সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার লোকদের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত হুমকির সম্মুখীন হচ্ছি। তারা সরকারের বিরোধিতা না করার জন্য আমাদের বারবার হুমকি দিচ্ছে। তারা এমনকি প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দিচ্ছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে তুলনা করেও বলা হয়েছে যে সরকার ইচ্ছা করে তাকে জেলে রেখেছে। আমরাও যদি সরকারের বিরুদ্ধাচরণ করি, আমাদের পরিণতিও সে রকম হতে পারে—এ রকম হীন হুমকিও তারা দিচ্ছে।’

পটুয়াখালীতে হওয়া হামলার বিষয়ে নুরুল অভিযোগ করে আরও বলেন, ‘স্থানীয় সংসদ সদস্য এস এম শাহজাদা সাজু এবং চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী গলাচিপা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন শাহের নেতৃত্বে তার ভাই নূরে আলমসহ লিটু পেয়াদা, আব্বাস পেয়াদা, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল ইসলাম রনো, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক, উলানিয়া যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাকিল, যুবলীগ নেতা ইদ্রিস, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ফরিদ আহসান কচিন ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক শরীফ আহমেদ আসিফ, ছাত্রলীগ নেতা জাহিদ তূর্যসহ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের শতাধিক নেতা-কর্মী আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে রড, স্টিলের চেইন ও চাপাতি নিয়ে আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আমিসহ ২০ থেকে ২৫ জন আহত হন, যাদের মধ্যে চার-পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর ছিল। সন্ত্রাসীরা শুধু হামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি, চিকিৎসার মতো মৌলিক সেবা থেকেও আমাদের বঞ্চিত করেছে। কোনো মিডিয়াকে ফুটেজ নেয়ার জন্য হাসপাতালে যেতে দেয়নি। কোনো রকম চিকিৎসা না দিয়ে জোর করে তারা আমাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। গলাচিপা হাসপাতালে অবস্থানকালেও তারা আমার পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও সমর্থকদের গ্রেপ্তারের হুমকি দেখিয়েছে।’

এ পর্যন্ত মোট ৮ বার ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের দ্বারা হামলার শিকার হয়েছেন—এমন অভিযোগ করে নুরুল হক বলেন, ‘একটি ঘটনাতেও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। পুলিশের নীরব ভূমিকা ছিল সন্ত্রাসীদের সহায়ক। সর্বশেষ ১৪ আগস্টের ঘটনার আগে হামলার আশঙ্কায় গলাচিপা পুলিশের সহযোগিতা চাইলেও ওসি কোনো ধরনের সহযোগিতা করেননি। এমনকি পুলিশের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীরা আমার ওপর হামলা চালায় এবং আমার স্বজন ও সমর্থকদের গ্রেপ্তারের হুমকি দেয়। এমতাবস্থায় আমি নিজের প্রাণনাশের শঙ্কা বোধ করছি। হামলাকারীদের একটিই উদ্দেশ্য। সেটি হচ্ছে আমাকে হত্যা করা এবং আমার সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মনোবল দুর্বল করে দেয়া। তাই আমি ছাত্রসমাজ তথা দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করব, আপনারা আমার তথা অন্যায়ের প্রতিবাদী মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সন্ত্রাসীদের বিচারের দাবিতে সোচ্চার হোন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে নিজের ওপর হওয়া হামলার বিচার দাবি করেন নুরুল হক। তিনি বলেন, ‘কিছুদিন আগেও আপনি বলেছেন যে সরকারের সমালোচনা করতে কোনো বাধা নেই, ভিন্নমত প্রকাশের স্বাধীনতা রয়েছে। আপনার কাছে জোরালো অনুরোধ, ভিন্নমতের মানুষের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ করে গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় রাখতে আপনার দলের নেতা-কর্মী ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে নির্দেশ দিন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দলীয় প্রভাবমুক্ত করে কার্যকর করুন। আমার সংগঠনের নেতা-কর্মীদের অযথা হয়রানি বন্ধ করুন। আমাদের ওপর যারা বারবার হামলা করছে, তাদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়ে আপনি দেশে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচারের দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন বলে আমরা আশা করছি।’

 

টাইমস/এসআই

গ্রাহক পর্যায়ে ইউনিট প্রতি ৩৬ পয়সা বাড়ল বিদ্যুতের দাম

গ্রাহক পর্যায়ে ইউনিট প্রতি ৩৬ পয়সা বাড়ল বিদ্যুতের দাম

বিদ্যুতের দাম আরেক দফা বাড়ানো হয়েছে। পাইকারি, খুচরা ও সঞ্চালন-

শপথ নিলেন ঢাকার দুই সিটির মেয়র

শপথ নিলেন ঢাকার দুই সিটির মেয়র

ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত দুই মেয়র ও

চসিক নির্বাচনে ৯ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

চসিক নির্বাচনে ৯ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৯ মেয়র

জাতীয়

বাংলাদেশ নারী ক্ষমতায়নের রোল মডেল: রংপুরে স্পিকার

বাংলাদেশ নারী ক্ষমতায়নের রোল মডেল: রংপুরে স্পিকার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারী ক্ষমতায়নের পথিকৃৎ উল্লেখ করে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বিশ্বে বাংলাদেশ আজ নারী ক্ষমতায়নের রোল মডেল। রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে তরুণ নারী সমাজ এগিয়ে আসলে অচিরেই সমৃদ্ধ সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হবে।

আন্তর্জাতিক

নির্বাচনে হেরে দিল্লিতে দাঙ্গা করছে বিজেপি

নির্বাচনে হেরে দিল্লিতে দাঙ্গা করছে বিজেপি

নির্বাচনে হেরে গিয়েই দিল্লিতে দাঙ্গা শুরু করেছে বিজেপি, শিব সেনার মুখপাত্র হিসেবে পরিচিত ‘সামানা’ পত্রিকাটির একটি সম্পাদকীয়তে এমনটি দাবি করা হয়েছে। শিব সেনা বলছে, “এটি রহস্যজনক যে বিজেপি দিল্লির বিধানসভা নির্বাচন হেরে যাওয়ার কয়েক দিন পর থেকেই দাঙ্গা শুরু হয়েছে। বিজেপি হেরেছে এবং এখন দিল্লির এই অবস্থা।”

জাতীয়

বগুড়ায় বিয়ের আসরে বরকে রেখে প্রেমিকের সঙ্গে পালালো কনে

বগুড়ায় বিয়ের আসরে বরকে রেখে প্রেমিকের সঙ্গে পালালো কনে

পারিবারিকভাবে ১০ দিন আগে মামাতো ভাই রফিকুল ইসলাম বিদ্যুতের সঙ্গে নবম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রী আতিয়া আক্তারের বিয়ে ঠিক হয়। সে অনুযায়ী বিয়ের জন্য বৃহস্পতিবার বরসহ লোকজন কনের বাড়িতে আসে। এসময় বরপক্ষের লোকজনকে আপ্যায়ন করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন কনের লোকজন। এই সুযোগে আতিয়া আক্তার কৌশলে কনে সাজে উধাও হয় প্রেমিকের সঙ্গে। পরে বর ও তার লোকজন ফিরে যান।

রাজনীতি

নাছিরকে নিয়ে ফরম জমা দিলেন রেজাউল

নাছিরকে নিয়ে ফরম জমা দিলেন রেজাউল

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনকে সঙ্গে নিয়ে নির্বাচন কমিশনে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী।

খেলাধুলা

বঙ্গমাতা গোল্ডকাপের ফাইনালে খুলনার মেয়েরা

বঙ্গমাতা গোল্ডকাপের ফাইনালে খুলনার মেয়েরা

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের অনূর্ধ্ব-১৭ (বালিকা) টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেছে খুলনা বিভাগের মেয়েরা।

স্বাস্থ্য

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই আমাদের অতিপরিচিত ও প্রিয় একটি খাবার। আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকই দই খেতে পছন্দ করেন। এটি যে কেবল স্বাদেই অসাধারণ তা কিন্তু নয়, হজমে সহায়তা করাসহ ত্বককে সুস্থ রাখতে দইয়ের ভূমিকাও অতুলনীয়। মশলাদার খাবারের পর দই খাওয়ার রীতি আমাদের সমাজে এখনো অনেক জায়গায় প্রচলিত রয়েছে। এটি কিন্তু এমনি এমনি সৃষ্টি কোনো রীতি নয়, বরং এর পেছনে রয়েছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা।