• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

জাপার জাতীয় সম্মেলন ৩০ নভেম্বর

জাপার জাতীয় সম্মেলন ৩০ নভেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৩৬পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

দলের চেয়ারম্যানের পদ নিয়ে রওশন এরশাদের সঙ্গে টানাপোড়েনের মধ্যে শনিবার দলের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জি এম) কাদের।তিনি বলেছেন, আগামী ৩০ নভেম্বর জাতীয় পার্টির জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম ও সংসদ সদস্যদের যৌথ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জাতীয় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে শনিবার দুপুরে জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য এয়ার আহমদ সেলিম জাতীয় পার্টিতে যোগ দেন। সেলিমের এই যোগদান উপলক্ষে আয়োজিত সভায় জি এম কাদের এসব কথা বলেন।

জি এম কাদের বলেন, ‘সম্মেলনে দলের নেতা-কর্মীরাই জাতীয় পার্টির আগামী দিনের নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। নেতা-কর্মীদের সিদ্ধান্তই আমি মেনে নেব।’

জি এম কাদের বলেন, ‘পদ-পদবি বা ব্যক্তিগত সম্পদ অর্জনের জন্য আমি রাজনীতি করি না। দেশ, দেশের মানুষ ও জাতীয় পার্টির জন্য আমাদের রাজনীতি। কোনো লোভ-লালসার জন্য আমাদের রাজনীতি নয়।’

নিজেকে জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচিত করার জন্য গত সপ্তাহে স্পিকারের কাছে চিঠি দেন জি এম কাদের। এরপরই দলটির অভ্যন্তরীণ কোন্দল প্রকাশ্য হয়ে পড়ে। তার এ সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ রওশনপন্থীরা স্পিকারকে পাল্টা চিঠি দেন। তাদের বক্তব্য, দলের পার্লামেন্টারি পার্টির কোনো বৈঠক ছাড়াই কাদের এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ দলের চেয়ারম্যান হিসেবে রওশন এরশাদের নাম ঘোষণা করেন। ওই দিনই আরেক সংবাদ সম্মেলনে কাদের নিজের চেয়ারম্যান হওয়া এবং বিরোধীদলীয় নেতা হওয়ার পেছনে যুক্তি তুলে ধরেন।

 

টাইমস/এসআই

শপথ নিলেন ঢাকার দুই সিটির মেয়র

শপথ নিলেন ঢাকার দুই সিটির মেয়র

ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত দুই মেয়র ও

নাছিরকে নিয়ে ফরম জমা দিলেন রেজাউল

নাছিরকে নিয়ে ফরম জমা দিলেন রেজাউল

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

নির্বাচনে হেরে দিল্লিতে দাঙ্গা করছে বিজেপি

নির্বাচনে হেরে দিল্লিতে দাঙ্গা করছে বিজেপি

নির্বাচনে হেরে গিয়েই দিল্লিতে দাঙ্গা শুরু করেছে বিজেপি, শিব সেনার

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে চোর চক্রের ৭ সদস্য আটক

নারায়ণগঞ্জে চোর চক্রের ৭ সদস্য আটক

নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের ৭ সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব। বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে র‍্যাব-১১ এর সহকারী পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান। এর আগে বুধবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের বাঘমারা, রূপগঞ্জের নোয়াপাড়া ও ঢাকার ডেমরায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে র‍্যাব।

জাতীয়

পুঠিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে একজনের মৃত্যু

পুঠিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে একজনের মৃত্যু

রাজশাহীর পুঠিয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তার আনুমানিক বয়স ৩০ বছর। বৃহস্পতিবার বেলপুকুর রেলক্রসিংয়ের অদূরে সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পশ্চিম রেলওয়ের ইশ্বরদী জিআরপি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

যা কিছু প্রথম

জেনে নিন, টেলিস্কোপ আবিষ্কারের ইতিহাস

জেনে নিন, টেলিস্কোপ আবিষ্কারের ইতিহাস

বহুদূরের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র বস্তুকে দেখার উপযোগী যন্ত্রকে বলা হয় টেলিস্কোপ বা দূরবীক্ষণ। নলাকৃতির এই যন্ত্রটি সাধারণত লেন্স ও দর্পণ দিয়ে তৈরি করা হয়। এ ধরণের যন্ত্রের সাহায্যে দূরের বস্তু আরও উজ্জ্বলভাবে বা অস্পষ্ট বস্তু আরও স্পষ্ট করে দেখা যায়। টেলিস্কোপের আবিষ্কার নিয়ে মূলত গ্যালিলিওকে কৃতিত্ব দেয়া হলেও টেলিস্কোপের আবিষ্কার হয়েছিল তারও বেশ কিছুদিন আগে!

জাতীয়

ফুলপুরে নিখোঁজের ৫ দিন পর শ্রীপুর থেকে উদ্ধার চার ছাত্রী

ফুলপুরে নিখোঁজের ৫ দিন পর শ্রীপুর থেকে উদ্ধার চার ছাত্রী

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলা থেকে নিখোঁজের ৫ দিন পর দুই বোনসহ চার ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে গাজীপুরের শ্রীপুরের বেতজুড়ি গ্রাম থেকে তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও ফুলপুর থানা পুলিশ।

স্বাস্থ্য

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই আমাদের অতিপরিচিত ও প্রিয় একটি খাবার। আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকই দই খেতে পছন্দ করেন। এটি যে কেবল স্বাদেই অসাধারণ তা কিন্তু নয়, হজমে সহায়তা করাসহ ত্বককে সুস্থ রাখতে দইয়ের ভূমিকাও অতুলনীয়। মশলাদার খাবারের পর দই খাওয়ার রীতি আমাদের সমাজে এখনো অনেক জায়গায় প্রচলিত রয়েছে। এটি কিন্তু এমনি এমনি সৃষ্টি কোনো রীতি নয়, বরং এর পেছনে রয়েছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা।

কৃষি কথা

আধুনিক পদ্ধতিতে শালগম চাষ

আধুনিক পদ্ধতিতে শালগম চাষ

শালগম বাংলাদেশে সুপরিচিত হলেও এর উৎপাদনের পরিমাণ খুব কম। এটি নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ুর উপযোগী ফসল। ১৫-২০ ডিগ্রি সে. তাপমাত্রায় এটি সবচেয়ে ভালো জন্মে। শালগম চাষের দু’মাসের মধ্যে পরিপক্ব হয়ে যায়। আমাদের দেশে কেবল রবি মৌসুমে শালগমের চাষ সম্ভব। কারণ, শালগমের চারা কচি থাকা অবস্থায় বৃষ্টি হলে ফসল সহজেই নষ্ট হয়ে যায়।