• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

উত্তর কোরিয়ার ‍‘হাস্যকর’ নির্বাচন !

উত্তর কোরিয়ার ‍‘হাস্যকর’ নির্বাচন !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক১৩ মার্চ ২০১৯, ০৯:৫৩এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ভোট মানুষের সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার। আর এই ভোট শব্দটা শোনা মাত্রই আমরা বুঝতে পারি যে, এটি এমন একটি পদ্ধতি যেখানে অনেক প্রার্থী থাকবেন এবং ভোটাররা ভোট প্রয়োগ করার মাধ্যমে তাদের পছন্দের প্রার্থী বা দলকে নির্বাচিত করবেন। কিন্তু এই ভোট যদি হয় এমন যে, এখানে একটিই দল, প্রার্থীও একজন, তাকেই ভোট দিতে হবে, ভোট না দিলেও শাস্তি । এছাড়া ‘না ভোট’ দেয়ার সুযোগ আছে তবে সেটা করলেও শাস্তি। এমন ক্ষেত্রে আমরা এটাকে কী ভোট বলতে পারি?

আমরা এটাকে ভোট বলে মেনে নিতে পারি আর নাই পারি, উত্তর কোরিয়ার জনগণকে কিন্তু এমনটাই মেনে নিতে হয়। নির্বাচন আসলে এমনই এক হাস্যকর ভোটে অংশ নিতে বাধ্য হতে হয় জনগণকে।

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ আইন পরিষদকে বলা হয় ‘সুপ্রিম পিপল’স অ্যাসেম্বলি’ (এসপিএ)। এর সদস্য সংখ্যা ৬৮৭ জন। প্রতি পাঁচ বছর পর পর এই পরিষদের সদস্যরা নির্বাচিত হন।

এসপিএ সদস্যদের নির্বাচিত করতে উত্তর কোরিয়ার নির্বাচনে প্রধানত একটি রাজনৈতিক জোট অংশগ্রহণ করে। এর নাম হল- ‘ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ফর দ্য রি-ইউনিফিকেশন অব দ্য ফাদারল্যান্ড’। এই জোটের অধীনে ওয়ার্কার্স পার্টি অব কোরিয়া, কোরিয়ান সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি, চনডুয়িস্ট চঙ্গু পার্টি ও স্বতন্ত্র সদস্যরা নির্বাচনে অংশ নেয়।

তবে মজার বিষয় হল- এখানে প্রত্যেক দল কতটি আসনে লড়বে তা আগে থেকেই নির্ধারিত থাকে। অর্থাৎ দলগুলো ইচ্ছামতো যেকোনো সংখ্যক আসনে প্রার্থী দিতে পারে না। সেখানে ওয়ার্কার্স পার্টি অব কোরিয়া ৮৭.৫ শতাংশ, কোরিয়ান সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি ৭.৪ শতাংশ, চনডুয়িস্ট চঙ্গু পার্টি ৩.২ শতাংশ এবং স্বতন্ত্র সদস্যরা ১.৯ শতাংশ আসনে নির্বাচন করে। আর কে কোন আসনে নির্বাচন করবে তাও নির্ধারিত থাকে।

আরও মজার ব্যাপার হল এখানে ভোটের সময় গোপনীয় ব্যালট পেপার থাকলেও ভোটারের তথ্যের কোনো গোপনীয়তা থাকে না। আর ব্যালট পেপারে প্রার্থী থাকেন মাত্র একজন। ভোটারকে ওই একজন প্রার্থীকেই ভোট দিতে হবে। তবে চাইলে তিনি না ভোট দিতে পারবেন। এক্ষেত্রে তিনি লাল কালি দিয়ে প্রার্থীর ছবির উপর ক্রস চিহ্ন দিবেন।

বিস্ময়কর হলেও সত্য যে, না ভোটের সুযোগ থাকলেও এজন্য শাস্তির বিধান রয়েছে। অর্থাৎ না ভোট দিলে ভোটারকে শাস্তি ভোগ করতে হবে। আবার ভোটে না আসলেও শাস্তি আছে। যারা ভোটে অনুপস্থিত থাকবে বা ভোটদান থেকে বিরত থাকবে তাদের তালিকা করা হবে এবং শাস্তি হবে। তাই ভোটাররা বাধ্য হয়েই নির্বাচনে অংশ নেয় এবং নির্বাচনে অংশ নেয়া দলটি ১০০ শতাংশ জনসমর্থন নিয়ে ক্ষমতা ভোগ করে।

এই কারণেই নির্দিষ্ট সময়ে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার জনগণকে বাধ্য হয়েই ভোটে যেতে হয়। যাকে প্রকৃতপক্ষে ভোট বলা যায় না। কিন্তু কেন? যেহেতু ভোটের প্রার্থী এবং ফলাফল সবই আগে থেকেই নির্ধারিত, তবে কেন এই হাস্যকর ও নামে মাত্র ভোটের আয়োজন করা হয়?

বিশ্লেষকদের মতে, এই নির্বাচনের মূল উদ্দেশ্যই হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার শাসকগোষ্ঠীর প্রতি জনগণের আনুগত্য নিশ্চিত করা। অর্থাৎ এর মাধ্যমে প্রতি পাঁচ বছর পর পর সুপ্রিম পিপল’স অ্যাসেম্বলির নতুন সদস্যদের নির্বাচিত করা হয়, যারা কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে।

বিশ্লেষকরা উত্তর কোরিয়ার এই হাস্যকর নির্বাচনের কঠোর সমালোচনা করেন। কারণ এটা আদৌ কোনো নির্বাচন নয়। এটা কেবল একটা লোক দেখানো একটি নির্বাচন। কারণ এখানে সব প্রার্থীই মাত্র একটি রাজনৈতিক জোট কর্তৃক নির্ধারিত হয়। ভোটারদের কোনো গোপনীয়তা নেই। না ভোট দেয়ার সুযোগ থাকলেও এটা খুব ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ নির্ধারিত প্রার্থীর বিপক্ষে ভোট দিলে এটাকে বিশ্বাসঘাতকতা ও রাজদ্রোহ অপরাধ বলে মনে করা হয়। তাই যারা এটা করে, অতিরিক্ত নজরদারির পাশাপাশি তাদেরকে ঘর-বাড়ি ও চাকরি হারাতে হয়।

মূলত এই হাস্যকর, নির্লজ্জ ও পাতানো নির্বাচনের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়া তার স্বৈরতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থাকে জোরপূর্বক বৈধ করে নেয়।

 

টাইমস/এএইচ/জিএস

পুলিশের পিটুনিতে একজনের মৃত্যুর অভিযোগ

পুলিশের পিটুনিতে একজনের মৃত্যুর অভিযোগ

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে তাসের আড্ডায় পুলিশি অভিযান চলাকালে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহত আব্দুল হাকিম (৫০) উপজেলার ঝাওয়াইল গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। স্থানীয়দের অভিযোগ পুলিশের পিটুনিতে হাকিমের মৃত্যু হয়েছে। তবে পুলিশ মারধরের কথা স্বীকার করেনি। গোপালপুর থানার ওসি হাসান আল মামুন জানান, শুক্রবার বিকেলে ঝাওয়াইল টেকটিক্যাল কলেজ মাঠে তাসের আড্ডায় পুলিশ এই অভিযান চালায়।

কংগ্রেস এবারও বিরোধী দলের মর্যাদাও হারাল

কংগ্রেস এবারও বিরোধী দলের মর্যাদাও হারাল

বিজেপির এই নিরঙ্কুশ জয়ে একদিকে যেমন নরেন্দ্র মোদি ফের ভারতের ক্ষমতায় বসতে চলেছেন, অন্যদিকে ফের সংসদে বিরোধী দলের মর্যাদা ধরে রাখতে ব্যর্থ হলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। নির্বাচনে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউপিএ পেয়েছে ৯৩টি আসন। আর অন্যান্য দল পেয়েছে ১০০টি।

ফ্রান্সে বোমা হামলায় আহত ১৩

ফ্রান্সে বোমা হামলায় আহত ১৩

ফ্রান্সের তৃতীয় বৃহত্তম শহর লিয়নের একটি ব্যস্ততম সড়কে পার্সেল বোমা হামলায় কমপক্ষে ১৩ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৮ বছরের এক শিশু রয়েছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে ভিক্টর হুগো ও রিউ সালা সড়কে এ বিস্ফোরণ ঘটে। খবর বিবিসি। খবরে বলা হয়, স্থানীয় মেয়র ডেনিস ব্রোলিকিয়ার বলেন, এ হামলা খুব বেশি প্রভাব ফেলতে পারেনি।

উক্তি প্রতিদিন

“প্রমাণের অনুপস্থিতি, অনুপস্থিতির প্রমাণ নয়”

“প্রমাণের অনুপস্থিতি, অনুপস্থিতির প্রমাণ নয়”

কার্ল এডওয়ার্ড সেগান ১৯৩৪ সালের ৯ নভেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরের ব্রুকলিনে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন বিখ্যাত মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানী, জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানী, বিজ্ঞান লেখক, গবেষক, শিক্ষক, উপস্থাপক এবং মার্কিন মহাকাশ প্রকল্পসমূহের পুরোধা ব্যক্তিত্ব। সেগান বিজ্ঞান প্রচারক ও বিজ্ঞান জনপ্রিয়কারক হিসেবে বিশেষভাবে পরিচিত। বিজ্ঞানবিষয়ক টিভি সিরিজ ‌‘কসমস: অ্য পারসোনাল ভয়েজ’ পরিচালনা ও উপস্থাপনা করে তিনি বিশ্বজোড়ে খ্যাতি লাভ করেন।

অর্থনীতি

সিলেটে তিন দিনব্যাপী ঈদ ফেস্টিভ্যাল

সিলেটে তিন দিনব্যাপী ঈদ ফেস্টিভ্যাল

সিটে নগরীতে শুরু হচ্ছে তিন দিনব্যাপী ফিজা এন্ড কোং গ্র্যান্ড সিলেট ঈদ ফেস্টিভ্যাল-২০১৯। শনিবার নগরীর খান’স প্যালেস কনভেনশন হলে এ ফেস্টিভ্যাল শুরু হবে। চলবে ২৭ মে পর্যন্ত। শপিং ফেস্ট চলবে দুপুর থেকে সেহরি পর্যন্ত এবং ফুড ফেস্ট চলবে ইফতার থেকে সেহরি পর্যন্ত। তিনদিন ব্যাপী ঈদ ফেস্টিভ্যালের আয়োজক সিলেটে সেটআপ এক্সপার্ট ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট। এতে সকলের প্রবেশ উন্মুক্ত।

জাতীয়

চট্টগ্রাম কলেজে শেখ হাসিনা ছাত্রীনিবাস উদ্বোধন

চট্টগ্রাম কলেজে শেখ হাসিনা ছাত্রীনিবাস উদ্বোধন

চট্টগ্রাম কলেজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে নির্মিত একশ আসন বিশিষ্ট ছাত্রীনিবাস উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রীনিবাস উদ্বোধন করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। এ সময় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আবুল হাসানসহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি

‘খালেদা জিয়াকে মেরা ফেলার মতো নিষ্ঠুর কাজ সরকার করবে না’

‘খালেদা জিয়াকে মেরা ফেলার মতো নিষ্ঠুর কাজ সরকার করবে না’

বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে বিনা চিকিৎসায় মেরে ফেলার মতো অমানবিক ও নিষ্ঠুর কাজ শেখ হাসিনার সরকার করবে না বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুক্রবার দুপুরে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এই কথা বলেন।

আন্তর্জাতিক

কান্নাজড়িত কণ্ঠে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন টেরিজা

কান্নাজড়িত কণ্ঠে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন টেরিজা

আগামী ৭ জুন পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে। ব্রেক্সিট অর্থাৎ ব্রিটেনের ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ত্যাগের ব্যাপারে তার নতুন পরিকল্পনা মন্ত্রিসভায় ও পার্লামেন্টে অনুমোদিত হবে না এটা স্পষ্ট হবার পরই তিনি এই পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন।

উক্তি প্রতিদিন

খ্যাতির শীর্ষে থাকলে পদবির দরকার নেই

খ্যাতির শীর্ষে থাকলে পদবির দরকার নেই

বিশিষ্ট ভারতীয় বাঙালি সাহিত্যিক, অনুবাদক, রসায়নবিদ ও অভিধান প্রণেতা রাজশেখর বসু ১৮৮০ সালের ১৬ মার্চ বর্ধমান জেলার বামুনপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পরশুরাম ছদ্মনামে ব্যঙ্গ কৌতুক রচনার জন্য স্মরণীয় হয়ে আছেন। ছদ্মনামে গল্প রচনা ছাড়াও তিনি স্বনামে কালিদাসের মেঘদূত, বাল্মীকি রামায়ণ (সারানুবাদ), কৃষ্ণদ্বৈপায়ন বেদব্যাসকৃত মহাভারত (সারানুবাদ), কৃষ্ণকলি, হনুমানের স্বপ্ন, চলন্তিকা, গড্ডলিকা ইত্যাদি গ্রন্থ রচনা করেন।