• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

পথিকৃৎ

একজন শিক্ষকের জন্য নোবেল বিজয়ীর মহানুভবতা

একজন শিক্ষকের জন্য নোবেল বিজয়ীর মহানুভবতা

ডক্টর আব্দুস সালাম একমাত্র পাকিস্তানি যিনি পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন। পুরস্কার পাওয়ার পর তিনি ভারতে আসেন আর তদানীন্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে অনুরোধ করেন তার প্রাক্তন শিক্ষক শ্রীঅনিলেন্দু গাঙ্গুলীর খোঁজ বার করে দিতে। শ্রীঅনিলেন্দু গাঙ্গুলী অবিভক্ত ভারতের লাহোরে সনাতন হিন্দু ধর্ম কলেজে অংকের অধ্যাপক ছিলেন। ডক্টর সালাম তার কাছে ১৯৩৪ থেকে ১৯৩৮ সাল পর্যন্ত অংক শিখেছিলেন। স্বাধীনতার পরে শ্রীগাঙ্গুলী লাহোর ছেড়ে কলকাতা

মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী: কিশোর বিপ্লবী থেকে ভারতের জাতির পিতা

মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী: কিশোর বিপ্লবী থেকে ভারতের জাতির পিতা

মহাত্মা গান্ধীর শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তার দেহভষ্ম নীল নদ, ভোলগা, টেমসসহ বিশ্বের প্রধান নদীগুলোয় ডুবানো হয়। আর কিছু অংশ সেলফ রিয়ালাইজেশন ফেলোশিপ লেক স্রাইনের মহাত্মা গান্ধী বিশ্ব শান্তি সৌধে একটি হাজার বছরের পুরনো চৈনিক পাথরের পাত্রে সংরক্ষণ করা হয়।

আলিবাবার ২০তম জন্মদিনেই পদত্যাগ করলেন জ্যাক মা

আলিবাবার ২০তম জন্মদিনেই পদত্যাগ করলেন জ্যাক মা

১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ইন্টারনেট সংস্থা আলিবাবার বর্তমান বাজার দর ৪৮০ বিলিয়ন ডলার এবং ফোর্বস ম্যাগাজিনের তথ্য অনুযায়ী জ্যাক মা চিনের সব থেকে ধনী ব্যক্তিত্ব, যার সম্পদের পরিমাণ ৩৮.৬ বিলিয়ন ডলার। চীনে তার প্রজন্মের বিশিষ্ট ইন্টারনেট উদ্যোক্তাদের মধ্যে তিনিই প্রথম, যিনি নিজের প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন।

কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার

কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার

বিভিন্ন কবি ও সাহিত্যিক তাদের লেখনীর মাধ্যমে বাংলা সাহিত্য ভাণ্ডারকে করছেন সমৃদ্ধ। যাদের কারণে আমরা পেয়েছি একটি বৃহৎ সাহিত্য ভাণ্ডার। কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার ছিলেন এমনই একজন কবি যিনি বাংলার সাহিত্য ভাণ্ডারকে তার লেখনীর মাধ্যমে সমৃদ্ধ করেছেন।

প্রতিভাবান সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হক

প্রতিভাবান সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হক

বিংশ শতাব্দীর সূচনালগ্নে যেসব বাঙালি মুসলমান মননশীল গদ্য লেখক বিশিষ্টতা অর্জন করেন, কাজী ইমদাদুল হক তার মধ্যে অন্যতম। শিক্ষা-দীক্ষায় অনগ্রসর তৎকালীন মুসলমান সমাজে তিনি এক ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিভার অধিকারী হয়ে সাহিত্য অঙ্গন আবির্ভূত হন। তিনি ছিলেন একাধারে কবি, প্রবন্ধকার, উপন্যাসিক, ছোট গল্পকার ও শিশু সাহিত্যিক।

ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের গল্প

ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বারের গল্প

বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। আমাদের সুখ, দুঃখ, অনুভূতি প্রকাশের প্রধান মাধ্যম এই বাংলা ভাষা। আজ যেমন করে আমরা বাংলা ভাষায় আমাদের মনের ভাব প্রকাশ করতে পারছি, তা হয়তো সম্ভব হতো না। যদি না বাংলার দামাল ছেলেরা তাদের বুকের তাজা রক্ত ও প্রতিবাদের মাধ্যমে পাকিস্তানি শাসকদের বিরুদ্ধে রুখে না দাঁড়াতো। বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি পেতে যে কয়জন তাদের বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছেন তাদের একজন ভাষা শহীদ আব্দুল জব্বার।